Maintance

ইন্টারনেটের দাম বেধে দেবে সরকার

প্রকাশঃ ৩:০১ অপরাহ্ন, আগস্ট ১০, ২০১৫ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ৫:৫৮ অপরাহ্ন, আগস্ট ১৪, ২০১৫

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর :  গ্রাহক পর্যায়ে ইন্টারনেটের দাম সর্বোচ্চ এবং সর্বনিম্ন করে বেধে দেয়ার পরিকল্পনা করছে সরকার।

সোমবার রাজধানীর হোটেল ওয়েস্টিনে ‘বাংলাদেশ ইন্টারনেট উইক’ আয়োজন উপলক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এ কথা জানান।

৫ থেকে ১১ সেপ্টেম্বর হতে যাওয়া এই ইন্টারনেট উৎসব আয়োজন করছে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস), তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগ ও গ্রামীণফোন।

সংবাদ সম্মেলনে ইন্টারনেটের দাম কমানোর বিষয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, সরকার ইন্টারনেট ব্যান্ডউইথের দাম পর্যায়ক্রমে কমিয়ে নিয়ে আসছে। এখন ইন্টারনেট ব্যান্ডউইথের দাম ৬২৫ টাকা ঠিক করা হয়েছে।

11828661_10153138430112169_4277905885706727859_n

পলক বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সবার কাছে সাশ্রয়ী মূল্যে ইন্টারনেট পৌঁছে দিতে নির্দেশ দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর এ নির্দেশ বাস্তবায়নে সংশ্লিষ্ট সবাই কাজ করছে।

খুব শীঘ্রই ইন্টারনেট সেবা প্রদানের প্রক্রিয়ার সাথে যুক্ত সরকারি-বেসরকারি সব স্টেক হোল্ডারদের নিয়ে বৈঠকের আয়োজন করা হচ্ছে বলে প্রতিমন্ত্রী তাঁর বক্তব্যে উল্লেখ করেন।

পলক জানান, সাশ্রয়ী দামে সবার কাছে ইন্টারনেট পৌঁছাতে করণীয় সকল উপায় নিয়ে বৈঠকে আলোচনা হবে। এবারে মোবাইলের কলরেটের মতো ইন্টারনেট দামের ক্ষেত্রেও সর্বোচ্চ ও সর্বনিম্ন সীমা বেধে দেওয়ার কথা ভাবা হচ্ছে।

সংবাদ সম্মেলনে অারও উপস্থিত ছিলেন, বেসিস সভাপতি শামীম আহসান, ইন্টারনেট উইক-২০১৫ এর আহবায়ক রাসেল টি আহমেদ, গ্রামীণফোনের প্রধান বিপণন কর্মকর্তা ইয়াসির আজমানসহ আয়োজক সংগঠন ও প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তারা।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি ডিজিটাল বাংলাদেশ টাস্কফোর্সের দ্বিতীয় সভায় দেশের সাধারণ মানুষের জন্য কম দামে মানসম্মত ইন্টারনেটের ব্যবস্থা করতে নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

দীর্ঘদিন থেকে দেশের সব শ্রেণী ও পেশার মানুষ ইন্টারনেট ও ব্রডব্যান্ডের দাম সামর্থ্যের মধ্যে রাখার দাবি জানিয়ে আসছেন। সরকারের বিভিন্ন নীতি নির্ধারণী পর্যায় থেকেও এ বিষয়ে বলা হয়েছে। এত কিছুর পরও গ্রাহকরা তুলনামূলক সাশ্রয়ী মূল্যে ইন্টারনেট পাচ্ছেন না।

চলতি বছরের মে মাসে প্রধানমন্ত্রীর পুত্র ও তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় টেলিযোগাযোগ বিভাগের এক বৈঠকে ব্যান্ডউইথের মূল্য কমাতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশনা দিয়েছেন।

এর আগে তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকও দাম কমানোর জন্য নানা ভাবে উদ্যোগ নিয়েছেন।

আর সম্প্রতি ব্যান্ডউইথ সরবরাহের দায়িত্বপ্রাপ্ত সরকারি প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ সাবমেরিন ক্যাবল কোম্পানি (বিএসসিসিএল) পাইকারি পর্যায়ে ব্যাপক হারে দাম কমিয়েছে।

আর তা চলতি বছরের সেপ্টেম্বরেই কার্যকর হচ্ছে ব্যান্ডউইথের নতুন দাম। নতুন দামে প্রতি এমবিপিএস ব্যান্ডউইথের দাম থাকছে ৬২৫ টাকা ।

তবে কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালকের হাতে আরও ১০ শতাংশ ছাড় দেওয়ার সুযোগ রাখা হয়েছে। সে হিসেবে প্রতি এমবিপিএসের মূল্য পড়বে ৫৬২ টাকা ৫০ পয়সা।

তবে ছাড়ের এ সুযোগ শুধু অনেক বেশি বান্ডেলের ব্যান্ডউইথের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে।

আল-আমীন দেওয়ান

আরও পড়ুন: 

*

*