ছয় মাসে এক কোটি মোবাইল হ্যান্ডসেট আমদানি

অনন্য ইসলাম, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : দেশে মোবাইল হ্যান্ডসেট আমদানির পরিমাণ বাড়ছে। প্রতি বছর আগের চেয়ে অনেক বেশি হ্যান্ডসেট আমদানি হচ্ছে। চলতি বছরের প্রথম ছয় মাসে বৈধভাবে প্রায় এক কোটি হ্যান্ডসেট আমদানি হয়েছে। টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি) দিচ্ছে এ হিসাব। এর বাইরে অবৈধভাবেও প্রচুর মোবাইল ফোন সেট দেশে আসছে বলে জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা।

বিটিআরসির ১৬১তম কমিশন বৈঠকে মোবাইল হ্যান্ডসেট বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়। এতে গত কয়েক বছরে হ্যান্ডসেট আমদানির তথ্য তুলে ধরেন সংস্থার স্পেকট্রাম বিভাগের কর্মকর্তারা।

mobile-phones_techshohor

সর্বশেষ হিসাবে দেখা যায়, চলতি বছরের প্রথম অর্ধে (জুন পর্যন্ত) দেশে বৈধভাবে আমদানি করা হ্যান্ডসেটের পরিমাণ ৯৮ লাখ ৩৯ হাজারের বেশি। গত বছরের তুলনায় বৃদ্ধির হার ২৯ শতাংশের বেশি। ২০১২ সালে বছর জুড়ে আমদানি করা হয়েছিল ১ কোটি ৩০ লাখ ৬৮ হাজারের বেশি হ্যান্ডসেট।

হ্যান্ডসেট আমদানিকারকরা বলছেন, মূলত দেশে টেলিযোগাযোগ খাতের বিস্তারের সঙ্গে হ্যান্ডসেট আমদানির পরিমাণ বাড়ছে। যদিও দেশে তৈরি হচ্ছে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের হ্যান্ডসেট। সেগুলোর বিক্রিও অনেক বেশি।

বর্তমানে দেশে ১১ কোটি ১৭ লাখ অ্যাক্টিভ মোবাইল সিম রয়েছে। এর মধ্যে অনেকের হাতে একাধিক সিম থাকায় মোট হ্যান্ডসেট কিছুটা কম। তবে সেই সংখ্যাও ছয় কোটির মতো হতে পারে বলে ধারণা করছেন মোবাইল ফোন ইম্পোটার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আলীম।

আলীম বলেন, একজন গ্রাহক সাধারণ একটি হ্যান্ডসেট দুই বছর ব্যবহার করেন। লোএন্ডের হলে ব্যবহার কিছুটা বাড়ে। তবে সব মিলে দেশের হ্যান্ডসেট বাজার অনেক বড় বলেও মনে করেন তিনি।

এর আগে ২০০৯ সালে ৯ লাখ ৭০ হাজার হ্যান্ডসেট বৈধভাবে আমদানি করা হয়েছে বলে বিটিআরসির হিসাবে উল্লেখ আছে। ২০১০ আমদানি করা হ্যান্ডসেটের সংখ্যা ৪৭ লাখ ৭১ হাজার। আর ২০১১ আমাদনি করা হয় ৯৮ লাখ ২৩ হাজার হ্যান্ডসেট।

এর বাইরে বর্তমানে বাংলাদেশেও বিভিন্ন ব্র্যান্ডের হ্যান্ডসেট সংযোজিত হচ্ছে।

হ্যান্ডসেট আমদানি

বছর              সংখ্যা

২০০৯           ৯,৭০,৮৪৮

২০১০           ৪৭,৭১,৮১৮

২০১১            ৯৮,২৩,৯৩০

২০১২           ১,৩০,৬৮,০৭২

২০১৩ (জুন)   ৯৮,৩৯,০০২

Related posts

*

*

Top