বেআইনি ট্রান্সমিশন ব্যবসায় নামায় গ্রামীণফোনকে নোটিশ

অনন্য ইসলাম, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : আইন এবং বিধি অনুসারে মোবাইল ফোন অপারেটরগুলোর ট্রান্সমিশন ব্যবসা করার ক্ষেত্রে বিধি নিষেধ থাকলেও দেশের শীর্ষ মোবাইল ফোন অপারেটর গ্রামীণফোন এ ব্যবসায় নেমে পড়েছে। টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি এ বিষয়ে প্রতিষ্ঠানটিকে নোটিশ দিয়েছে।

বিটিআরসি ২০১১  সালের ডিসেম্বর থেকে কোনো মোবাইল ফোন অপরেটর ট্রান্সমিশন ব্যবসা করতে পারবে না বিধান করে। তবে গ্রামীণফোন এ নির্দেশ অমান্য করে দীর্ঘদিন থেকে এ ব্যবসা চালিয়ে আসছে বলে সংস্থাটির অনুসন্ধানে ধরা পড়ে।

GP-BTRC-TechShohor

সাম্প্রতিক সময়ে বিষয়টি সম্পর্কে অবগত হয়ে বিটিআরসি ২৮ নভেম্বর ব্যাখ্যা চেয়ে গ্রামীণফোনকে সাত দিনের সময় দিয়ে চিঠি দিয়েছে।

বিটিআরসির ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড অপারেশন বিভাগের সহকারি পরিচালক শারমিন সুলতানা স্বাক্ষরিত চিঠিতে বলা হয়েছে, ‘সম্প্রতি লক্ষ্য করা যাচ্ছে গ্রামীণফোন অন্যান্য টেলিকম অপারেটরের সাথে লং হোল এ বিভিন্ন রাউটে বিটিআরসির পূর্বানুমোদন ব্যতিত ট্রান্সমিশন অ্যাগ্রিমেন্ট করছে।’

এতে আরও বলা হয়েছে, কেবল এনটিটিএন ছাড়া অন্য কোনো অপারেটরের ট্রান্সমিশন লিজ দেওয়ার কোনো সুযোগ নেই।

এ বিষয়ের বিস্তারিত ব্যাখ্যা চেয়ে বিটিআরসি গ্রামীণফোনকে সাত কার্যদিবস সময় বেধে দিয়েছে।

গ্রামীণফোনের কোনো কর্মকর্তা এ বিষয়ে মন্তব্য করতে রাজি হননি।

বর্তমানে গ্রামীণফোনের সারা দেশে ২ হাজার ৭০৬ কিলোমিটার অপটিক্যাল ফাইবার নেটওয়ার্ক রয়েছে। এককভাবে যা তৃতীয় সর্বোচ্চ। বিটিআরসির বার্ষিক প্রতিবেদন অনুসারে বাংলালিংকের ফাইবার আছে ৩ হাজার কিলোমিটার।

Related posts

*

*

Top