Maintance

দেশে মোবাইল ফোন গ্রাহক এখন ১১ কোটি

প্রকাশঃ ১২:৪৭ অপরাহ্ন, নভেম্বর ৭, ২০১৩ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ১২:৪৭ অপরাহ্ন, নভেম্বর ৭, ২০১৩

অনন্য ইসলাম, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : মোবাইল ফোন ব্যবহাকারীদের বিচারে বাংলাদেশ শীর্ষ তালিকায় উঠে এসেছে। সেপ্টেম্বর শেষে দেশের অ্যাক্টিভ মোবাইল গ্রাহকের সংখ্যা এগার কোটি পেরিয়ে গেছে। আগস্টের শেষে এ সংখ্যা ছিল সাড়ে ১০ কোটি। সোমবার এ হিসাব প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন-বিটিআরসি।

সর্বশেষ হিসাবে সেপ্টেম্বরের শেষে দেশের মোট অ্যাক্টিভ মোবাইল সিমের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১১ কোটি ৬ লাখ ৫০ হাজার।

এর আগে ২০০৭ সালের জুলাইয়ে বাংলাদেশ তিন কোটি গ্রাহকের ল্যান্ডমার্ক টপকে যায়। চার কোটি গ্রাহক ছাড়িয়েছে ২০০৮ সালের মার্চে। ২০০৯ সালের সেপ্টেম্বরে গ্রাহক হয় ৫ কোটি। পরের বছর জুলাই মাসে এক লাফে তা বেড়ে দাঁড়ায় ৬ কোটি। গ্রাহক ৭ কোটি হয়েছে ২০০৮ সালের জানুয়ারিতে। একই বছরের সেপ্টম্বরে গ্রাহক হয় ৮ কোটি। গত বছরের এপ্রিলে গ্রাহক হয় নয় কোটি আর ঠিক এক বছর পরে দশ কোটি গ্রাহকের ম্যাজিক ফিগার পার হয়। আর মাত্র ৫ মাসের ব্যবধানে এলো এগারো কোটির ল্যান্ডমার্ক।

Mobile user girl _ Tech Shohor

একটু অন্যভাবে বিশ্লেষণ করলে দেখা যাবে, বিশ্বের একমাত্র দেশ চীনের গ্রাহক সংখ্যা ১০০ কোটির বেশি (১০৪ কোটি ৬০ লাখ)। ভারতের গ্রাহক ৮৬ কোটি ১৬ লাখ। এর বাইরে শীর্ষ মোবাইল গ্রাহকের দেশ যুক্তরাষ্ট্র (২৩ কোটি ৭৫ লাখ), ব্রাজিল (২৬ কোটি ৫০ লাখ), ইন্দোনেশিয়া (২৩ কোটি ৬৮ লাখ), পাকিস্তান (১২ কোটি ২০ লাখ), জাপান (১২ কোটি ১০ লাখ), ফিলিপাইন (১০ কোটি ৬০ লাখ) এবং নাইজেরিয়া (১০ কোটি ১০ লাখ)।

সেপ্টেম্বর শেষে শীর্ষ মোবাইল ফোন অপারেটর গ্রামীনফোনের গ্রাহক ৪ কোটি ৬০ লাখ, বাংলালিংকের ২ কোটি ৮১ লাখ, রবি দাঁড়িয়েছে ২ কোটি ৪৮ লাখ,  এয়ারটেলের ৮০ লাখ ৩৩ হাজার, টেলিটক ২৩ লাখ ৪০ হাজার এবং সিটিসেলের ১৩ লাখ ৩০ হাজার।

টাইম লাইন

ল্যান্ডমার্ক

টাইম লাইন

প্রতি কোটি পেরোনোর সময়

৩ কোটি

জুলাই ২০০৭

………

৪ কোটি

এপ্রিল ২০০৮

৯ মাস

৫ কোটি

সেপ্টেম্বর ২০০৯

৭ মাস

৬ কোটি

জুলাই ২০১০

১১ মাস

৭ কোটি

জানুয়ারি ২০১১

৬ মাস

৮ কোটি

সেপ্টেম্বর ২০১১

৮ মাস

৯ কোটি

এপ্রিল ২০১২

৭ মাস

১০ কোটি

এপ্রিল ২০১৩

১২ মাস

১১ কোটি

সেপ্টেম্বর ২০১৩

৫ মাস

*

*