৫০০ কলেজে থ্রিজি ইন্টারনেট মেলা ১৬ নভেম্বর শুরু

তানজিল আহমেদ জনি, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : তরুণদের মধ্যে ইন্টারনেট সচেতনতা বাড়াতে ও জ্ঞানভিত্তিক সমাজ গড়তে দেশজুড়ে যৌথভাবে ইন্টারনেট মেলার আয়োজন করছে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় এবং বেসরকারি মোবাইল ফোন অপারেটর রবি। প্রায় এক মাসব্যাপি এই মেলা আগামী ১৬ নভেম্বর থেকে শুরু হবে। সহযোগি হিসেবে রয়েছে তথ্য মন্ত্রণালয় এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়।

শনিবার রাজধানীর এক হোটেলে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ মেলার আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেওয়া হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তফা ফারুক মোহাম্মদ।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের সচিব নজরুল ইসলাম খান, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব আইয়ুবুর রহমান খান, তথ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব মর্তুজা আহমেদ, রবি’র চিফ ফিন্যান্সিয়াল অফিসার মাহতাবউদ্দিন আহমেদ ও রবি’র চিফ মার্কেটিং অফিসার প্রদীপ শ্রীবাস্তব।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী মোস্তফা ফারুক মোহাম্মদ বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীদের ইন্টারনেট প্রযুক্তির সাথে সম্পৃক্ত করা জরুরী। এই লক্ষ্যে কাজ করছে সরকার। রবি এর আগে ইন্টারনেট মেলার আয়োজন করে। এক্ষেত্রে শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতায় স্কুলগুলো ইন্টারনেট মেলা আয়োজিত হয়। এবার সরকারি-বেসরকারি যৌথ উদ্যোগে এই মেলার আয়োজন করা হচ্ছে। মেলায় প্রতিটি কলেজে সেরা অংশগ্রহণকারীকে একটি ট্যাবলেট পুরস্কার হিসেবে দেওয়া হবে।

Robi_Internet_fair_Tech Shohor

অনুষ্ঠানে রবির জিএম শোভন চক্রবর্তী ইন্টারনেট মেলার বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন। তিনি জানান, দেশের তরুণ প্রজন্মের মাঝে ইন্টারনেট তথা তথ্যপ্রযুক্তি সম্পর্কে সচেতনতা গড়ে তুলতে এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। রবি ৩.৫জি ইন্টারনেট মেলা শিক্ষার্থীদের মাঝে ইন্টারনেট সম্পর্কে ধারণা প্রদান এবং তা সহজলভ্য করে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি শিক্ষা বিস্তারে সহায়ক হবে বলে প্রত্যাশা করা হচ্ছে। এ মেলা ইন্টারনেটকে জ্ঞানার্জনের একটি হাতিয়ার হিসাবে পরিচিত করা ও তরুণদের মাঝে ইন্টারনেটের মাধ্যমে শেখার সংস্কৃতি গড়ে তুলবে।

মেলায় ৫০০টি কলেজ প্রাঙ্গনে আয়োজিত মেলায় দর্শনার্থীদের ইন্টারনেট অভিজ্ঞতা অর্জনের জন্য এক্সপেরিয়েন্স বুথ থাকবে। এছাড়া বিনামুল্যে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য একটি হেলথ ক্যাম্পও থাকবে। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের একটি কর্নার থাকবে যেখানে মন্ত্রণালয়টির নেওয়া বিভিন্ন পদক্ষেপ তুলে ধরা হবে। মেলায় স্থাপিত ‘টিচার্স প্যারেন্টস অ্যাডভোকেসি’ বুথে শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের রবি’র বিভিন্ন পণ্য ও সেবা সম্পর্কে ধারণা দেওয়া হবে।

নির্ধারিত কয়েকটি মেলায় প্রথম আলো জবস-এর উদ্যোগে এইচআর কন্সালটেন্সি বুথ থাকবে যেখানে আগ্রহী শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে সিভি সংগ্রহ ও কিভাবে চাকরির জন্য আবেদন করতে হয় সে সম্পর্কে ধারণা দেওয়া হবে।

রবি’র চিফ মার্কেট অফিসার (সিএমও) প্রদীপ শ্রীবাস্তব বলেন, পুরো বিশ্ব এখন একটি গ্রামে পরিণত হয়েছে এবং ইন্টারনেটের মাধ্যমে এখন যেকোনো তথ্যই সহজলভ্য। সম্প্রতি ৩.৫জি সেবার উদ্বোধন করে নেটওয়ার্ক বিস্তারের কাজ করে যাচ্ছে রবি। দেশের তরুণদের মাঝে ইন্টারনেট জনপ্রিয় করতে ৩.৫জি ইন্টারনেট মেলা অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে বলে প্রত্যাশা রবি’র।

Related posts

*

*

Top