দক্ষিণ কোরিয়ায় ফাইভ জি নিয়ে গবেষণা শুরু

অনন্য ইসলাম, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : বিশ্বের মাত্র কয়েকটা দেশে তৃতীয় প্রজন্মের (থ্রিজি) মোবাইল প্রযুক্তির ব্যবহার হচ্ছে। অবশ্য বেশিরভাগ জায়গায় এটি সফল হয়নি। চতুর্থ প্রজন্মের (ফোর জি) ব্যবহার এখনও হাতে গোনা। এর মধ্যে পঞ্চম প্রজন্মের (ফাইভ জি) প্রযুক্তি নিয়ে গবেষণা শুরু করে দিয়েছে দক্ষিণ কোরিয়া।

সম্প্রতি ফিনিশ কোম্পানি নকিয়ার সঙ্গে এ বিষয়ে একটি সমঝোতা স্মারক সই করেছে দক্ষিণ কোরিয়ার অপারেটর এসকে টেলিকম। বাংলাদেশেও টেলিযোগাযোগের নানা বিষয় নিয়ে এসকে টেলিকম কাজ করছে। তবে সেসব কাজ মূলত সরকারের কোম্পানি বিটিসিএলের সঙ্গে।

5g internet speed-TechShohor

প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, নকিয়া এবং এসকে টেলিকমের স্বাক্ষরিত চুক্তি অনুসারে ২০২০ সালের মধ্যে ফাইভ জি নিয়ে আসতে চায় তারা। তবে এর বাজারজাতকরণে আরও খানিকটা সময় লাগবে বলে জানিয়েছেন এসকে টেলিকমের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হা সুং মিন।

এর আগে চীনা কোম্পানি হুওয়াই গত বছর পঞ্চম প্রজন্মের এ প্রযুক্তি উদ্ভাবনের গবেষণায় ৬০ কোটি ডলার বিনিয়োগের ঘোষণা দেয়। বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় নেটওয়ার্ক সামগ্রী প্রস্তুতকারক কোম্পানিটি ২০২০ সালের মধ্যে ফাইভ জি উদ্ভাবনের সম্ভাবনার কথা বলছে।

২০২০ সালের মধ্যে কোম্পানিটি ডেটা স্থানান্তরে পঞ্চম প্রজন্মের প্রযুক্তি ব্যবহার শুরুর আশা করছে। ফাইভ জি নেটওয়ার্ক ব্যবহার করে প্রতি সেকেন্ডে ১০ গিগাবাইট গতিতে ডেটা স্থানান্তর করা সম্ভব হবে বলে মনে করছে কোম্পানিটির গবেষকরা।

বর্তমানে বিশ্বের মাত্র কয়েকটি দেশে চতুর্থ প্রজন্মের জিএসএম মোবাইল প্রযুক্তি রয়েছে। আবার কোথাও কোথাও এলটিইকেও চতুর্থ প্রজন্মেও মোবাইল প্রযুক্তি বলা হচ্ছে।

বাংলাদেশে থ্রিজির প্রচলন শুরু হয়ে গেছে এবং এইটিইর জন্য অপেক্ষা করছেন গ্রাহকরা।

– টেলিকম পেপার অবলম্বনে

Related posts

*

*

Top