Maintance

এমএফএসে আয় ভাগাভাগিতে মোবাইল অপারেটরদের দাবি পূরণ

প্রকাশঃ ২:৪১ পূর্বাহ্ন, এপ্রিল ১৭, ২০১৮ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ১২:৪১ অপরাহ্ন, এপ্রিল ১৭, ২০১৮

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসের (এমএফএস) আয় ভাগাভাগিতে মোবাইল ফোন অপারেটরগুলোর দীর্ঘদিনের দাবি পূরণ হয়েছে।

মোবাইল ফোন অপারেটরগুলো এই সেবায় আয় ভাগাভাগির কাঠামো পরিবর্তনের দাবি করে আসছিলেন ৩ বছর ধরে।

সোমবার গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর তথ্যপ্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের সঙ্গে এই সেবার সঙ্গে যুক্ত সব পক্ষকে নিয়ে অনুষ্ঠিত এক বৈঠকে এর সুরাহা করা হয়েছে।

যেখানে বলা হয়েছে, এখন থেকে অপারেটরদের কাছ থেকে সংযোগ নেওয়ার জন্যে এমএফএস কোম্পানি যেমন বিকাশ বা রকেটের মতো কোম্পানিগুলোকে মোবাইল ফোন অপারেটরদের একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ দিতে হবে।

অর্থ আদায়ের এ প্রক্রিয়াটি দুই ভাবে হবে। ৯০ সেকেন্ডের মধ্যে একটি আর্থিক লেনদেন সম্পন্ন হলে এ জন্য সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান থেকে মোবাইল ফোন অপারেটররা ৮৫ পয়সা পাবে। আর্থিক লেনদেন বাদে অন্য কাজের জন্য প্রতিবার এমএফএস সেবা ব্যবহারে ৪০ পয়সা দিতে হবে-এমন সিদ্ধান্তের কথাই জানিয়েছেন বৈঠকে উপস্থিত কর্মকর্তারা।

Bangladesh Bank-Mobile-TechShohor

বৈঠকে বাংলাদেশ ব্যাংক, বাংলাদেশ টেলিযোগযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি), এমএফএস অপারেটর, মোবাইল অপারেটর প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

Symphony 2018

বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বিটিআরসি এমএফএস সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান ও মোবাইল অপারেটরদের জন্য শিগগির একটি নির্দেশনা জারি করবে। এরপরই এমএফএস সেবার অবকাঠামো ব্যবহারে নতুন এ খরচ পদ্ধতি চালু হবে।

তবে এর ফলে গ্রাহক পর্যায়ে যাতে খরচ না বাড়ে তার ওপর জোর দিয়েছেন জয়।

নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী গ্রাহকের খরচ বাড়বে কিনা তা এখনই নিশ্চিত করে বলতে পারছেন না এমএফএস অপারেটররা। অন্যদিকে মোবাইল ফোন অপারেটররা বলছে, এই পরিবর্তনের ফলে সেবা ব্যবহারকারীদের খরচ বাড়বে না।

এর আগে এমএফএস প্রোভাইডাররা এখাতে তাদের আয়ের সাত শতাংশ মোবাইল ফোন অপারেটদেরকে দিতো। আর মোবাইল অপারেটররা বলছিল, আয় ভাগাভাগির এই হারে যথেষ্ট অস্বচ্ছাতা আছে। 

বর্তমানে প্রতি ১০০ টাকা লেনদেনে গ্রাহকের কাছে ১ টাকা ৮৫ পয়সা নেওয়া হয়। এর ৭৭ শতাংশ এজেন্ট, ৭ শতাংশ মোবাইল ফোন অপারেটর আর বাকি ১৬ শতাংশ এমএফএস সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানগুলো পায়। তবে বেশিরভাগ এজেন্ট গ্রাহকের কাছে প্রতি ১০০ টাকায় ২ টাকা আদায় করে।

সর্বশেষ ফেব্রুয়ারি মাসের হিসাব অনুসারে এমএফএস সার্ভিস পেতে নিবন্ধিত গ্রাহক সংখ্যা ৫ কোটি ৯৬ লাখ। তবে এর মধ্যে কার্যকর গ্রাহক আছে ২ কোটি ৮ লাখ। বর্তমানে দেশের ১৮টি ব্যাংক এ সেবা দেয়।

আল-আমীন দেওয়ান

*

*

Related posts/