Maintance

তারানার সংবাদ সম্মেলন স্থগিত

প্রকাশঃ ৮:৫১ অপরাহ্ন, জানুয়ারি ১, ২০১৮ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ১:০১ অপরাহ্ন, জানুয়ারি ২, ২০১৮

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সাফল্য ও অর্জন জানাতে প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিমের মঙ্গলবারের সংবাদ সম্মেলন স্থগিত করা হয়েছে ।

সরকারের বর্ষপূর্তি উপলক্ষে মঙ্গলবার সাড়ে ১১টায় সচিবালয়ে বিভাগের সভাকক্ষে এই সংবাদ সম্মেলন আয়োজন করা হয়েছিল। এতে অংশগ্রহণে সাংবাদিকদের আমন্ত্রণপত্র পাঠানো হয় রোববার।

সোমবার সন্ধ্যায় অনিবার্য কারণ উল্লেখ করে সংবাদ সম্মেলন স্থগিত করার কথা জানান টেলিযোগাযোগ বিভাগের জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. এনায়েত হোসেন ।

tarana-halim-new-TechShohor
ফাইল ছবি

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, হঠাৎ করে সংবাদ সম্মেলন স্থগিতের কারণ মন্ত্রিসভায় রদবদল। সোমবার বিকালে এজন্য বঙ্গভবনে ডাক পেয়েছেন তথ্যপ্রযুক্তিবিদ মোস্তাফা জব্বারসহ কয়েকজন। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বঙ্গভবনে তাঁদের শপথ অনুষ্ঠান হবে।

এরমধ্যে মোস্তাফা জব্বারকে টেকনোক্র্যাট মন্ত্রী করা হতে পারে বলে গুঞ্জন রয়েছে। তিনি ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পেতে পারেন বলে আলোচনা রয়েছে। মন্ত্রণালয়টি এখন সরাসরি প্রধানমন্ত্রীর হাতে রয়েছে। মন্ত্রণালয়টিতে এখন ডাক ও টেলিযোগাযোগ এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগে প্রতিমন্ত্রী হিসেবে রয়েছেন যথাক্রমে তারানা হালিম এবং জুনাইদ আহমেদ পলক।

এর আগে ২০১৫ সালের আগস্টে  দোয়েল ল্যাপটপ প্রকল্পসহ দেশীয় ডিজিটাল ডিভাইস তৈরির উদ্যোগের ব্যর্থতা কাটাতে তথ্যপ্রযুক্তিবিদ মোস্তাফা জব্বারকে টেলিফোন শিল্প সংস্থার (টেসিস) দায়িত্ব দেয়ার নির্দেশনা দেয়া হয়েছিল। যদিও শেষ পর্যন্ত নানা কারণে তা হয়নি।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থাপন করতে বিভাগের সাফল্য ও অর্জনের একটি খসড়া তালিকা তৈরি করেছিল টেলিযোগাযোগ বিভাগ। তালিকাটি তুলে ধরা হলো :

মোবাইল গ্রাহক সংখ্যা ১৪ কোটি ৭১ লাখ, ইন্টারনেট গ্রাহক সংখ্যা ৭ কোটি ৭২ লাখ, টেলিডেনসিটি ৮৬.৬ শতাংশ , ইন্টারনেট ডেনসিটি ৪৭.৬২ শতাংশ হওয়া।

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের নির্মাণ কাজ ১০০ ভাগ সম্পন্ন, বঙ্গবন্ধু স্যটেলাইটের গাজীপুর গ্রাউন্ড স্টেশনের কাজ প্রায় সম্পন্ন, বাংলাদেশের ২য় সাবমেরিন ক্যাবলে সংযুক্তি,  ২য় সাবমেরিন ক্যাবলের কুয়াকাটাস্থ ল্যান্ডিং স্টেশন উদ্বোধন, কলড্রপে মোবাইল অপারেটরের (একের অধিক) কল ফেরত (প্রথম বারের মত)।

টেলিকম নীতিমালা মন্ত্রিসভায় অনুমোদন, মোবাইল নম্বর ঠিক রেখে অপারেটর পরিবর্তন, এমএনপির সাইডলাইন পরিবর্তন ও লাইসেন্স প্রদান, ডাকবিভাগের ২৩টি পয়েন্টে ই-কমার্স চালু, এজেন্ট ব্যাংকিং (পাইলট প্রজেক্ট চালু), গণহত্যার ঐতিহাসিক দলিল (ষ্ট্যাম্প, অ্যালবাম প্রকাশ)।

ডাক-টাকার সফটওয়্যার উদ্বোধন, টেলিটকের কাস্টমার কেয়ার ৭৪ থেকে ৯৭টি হওয়া,  টেলিটকের রিটেইলার সংখ্যা ৩৬ হাজার থেকে ৫৬ হাজার হওয়া।

এডিবি বাস্তবায়নে পরপর দু’বছর ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের ১ম স্থান অর্জন, ডাক বিভাগের উইটসা, অ্যাসোসিও ও ই-এশিয়া পুরস্কার পাওয়া।

দেশের প্রথম স্মার্টফোন কারখানার যাত্রা ও উৎপাদন, টেশিসের ২৭ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ প্রবৃদ্ধি অর্জন, ডাক বিভাগের লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে অধিক সর্বোচ্চ প্রবৃদ্ধি, খুলনা ক্যাবল শিল্পের সর্বোচ্চ নেট মুনাফা অর্জন, ফোরজি ফেব্রুয়ারিতে চালু করতে নীতিমালা অনুমোদন ও কার্যক্রম শুরু।

নতুন বছরে স্যাটেলাইট জগতে প্রবেশ করবে বাংলাদেশ, পাবে এমএনপি, মোবাইল ব্যবহারে বিশ্বে বাংলাদেশ ১০ম, বিশ্বে বাংলাদেশ ৮ম বৃহৎ টেলিকম মার্কেট।

আল-আমীন দেওয়ান 

*

*

Related posts/