ইনোসেন্স অব মুসলিমস ইউটিউব থেকে সরাতে গুগলকে নির্দেশ

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ইসলাম ধর্ম নিয়ে সমালোচিত চলচ্চিত্র ‘ইনোসেন্স অব মুসলিমস’ ইউটিউব থেকে সরিয়ে ফেলতে গুগলকে নির্দেশ দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের একটি আদালত।

যুক্তরাষ্ট্রের সান ফ্রান্সিসকোর সার্কিট কোট অব আপিলের তিন সদস্যের বেঞ্চ বুধবার এ আদেশ দেন। গুগলের আপিল নাকচ করে আদালত এ চলচ্চিত্রের সব ধরনের ভিডিও ইউটিউব থেকে সরিয়ে নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে।

ইসলামের নবী হযরত মুহাম্মদকে (সা.) কটাক্ষ করে নির্মিত বিতর্কিত এ চলচ্চিত্র ‘ইনোসেন্স অব মুসলিমস’-এর ভিডিও ক্লিপ ২০১২ সালে গুগলের মালিকানাধীন ইউটিউবে প্রচারের পর মুসলিম বিশ্বজুড়ে ভয়ঙ্কর দাঙ্গা ছড়িয়ে পড়ে।

google remove_techshohor

লিবিয়ার বেনগাজিতে মার্কিন কনস্যুলেটে ভয়াবহ হামলার ঘটনাও ঘটে। ওই হামলায় লিবিয়ায় নিযুক্ত আমেরিকার রাষ্ট্রদূতসহ চার মার্কিন নাগরিক নিহত হন।

বাংলাদেশেও এ ভিডিও প্রদর্শন ঠেকাতে ২০১২ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর ইউটিউব বন্ধ করে দেয় সরকার।

সে সময় ভিডিওটি ইউটিউব থেকে সরিয়ে ফেলতে গুগলের প্রতি আহ্বান জানানো হলেও গুগল তা প্রত্যাখ্যান করে।

এর কারণ হিসেবে টেক জায়ান্টটি জানায়, সিনেমাটির কপিরাইট স্বত্ত্ব একমাত্র এর প্রযোজকের এবং কেবল তিনিই পারেন সিনেমাটি ইউটিউব থেকে সরিয়ে ফেলতে।

পরে ওই চলচ্চিত্রের অভিনেত্রী সিনডি লী গার্সিয়া ভিডিওটি ইউটিউব থেকে অপসারণ করতে গুগলের বিরুদ্ধে মামলা করেন। তিনি আবেদনে অভিযোগ করেন, ‘তার অভিনীত চলচ্চিত্রটির কিছু অংশ ইসলামের বিরুদ্ধ ব্যবহার করা হচ্ছে এ ব্যাপারে তিনি জানতেন না। পরে তিনি বিষয়টি জানতে পারেন। তার দাবি চলচ্চিত্রটির স্ক্রিপ্টে মুসলমান সম্প্রদায় বা তাদের নবীর কোনো তথ্য ছিল না।

আদালতে আপিলে গুগল জানিয়েছিল, ভিডিওটি সরিয়া ফেলা যুক্তরাষ্ট্রের সংবিধান অনুযায়ী মত প্রকাশের স্বাধীনতার পরিপন্থী।

ইনোসেন্স অব মুসলিমস চলচ্চিত্রের পরিচালক স্যাম বাসিল। চলচ্চিত্রে অভিনিত শিল্পীদের অভিযোগ, ইসলাম ধর্মকে অবমাননাকারী সংলাপগুলো তাদের আসল সংলাপ নয়। এগুলো পরে সংযোজন করা হয়েছে।

– ম্যাশেবল অবলম্বনে তুসিন আহমেদ

Related posts

*

*

Top