অনলাইন থেকে আড়াল হতে চাইলে

তুসিন আহমেদ, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ব্যক্তিগত কারণে অনেক সময় অনলাইনে নিজের উপস্থিতি আড়ালের প্রয়োজন হতে পারে। আবার কিছু ওয়েবসাইট থেকে নিজের ব্যক্তিগত তথ্য সম্পূর্ণ মুছে ফেলার দরকারও হতে পারে। তবে অনলাইনে কোনো তথ্য একবার প্রকাশতি হলে তা মুছে ফেলা কিছুটা কষ্ঠসাধ্য।

এরপরও কিছু উপায় রয়েছে যেগুলো ব্যবহার করে নিজেকে ইন্টারনেট থেকে সড়িয়ে রাখা সম্ভব। তেমন কয়েকটি উপায় নিয়ে টিউটোরিয়ালভিত্তিক এ প্রতিবেদন।

ফেইসবুক
সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে অনেক কিছু পোস্ট করেছেন। কিন্তু একটি সময় মনে হলো সেগুলো মুছে ফেলা দরকার। তখন প্রতিটি স্ট্যাটাস, ছবিসহ যাবতীয় পোস্ট একটি একটি করে ডিলেট করতে হয়। যদিও এটি অনেক সময় সাপেক্ষ ব্যাপার। এ ক্ষেত্রে একটি সহজ সমাধান হতে পারে ফেইসবুক একাউন্টটি সম্পূর্ণ মুছে ফেলা।

Delete-FaceBook-Account_techshohor

ফেইসবুক আইডি মুছে ফেলতে  হলে এ লিঙ্কে যেতে হবে। এরপর “ডিলিট করতে চাই”  বাটনে ক্লিক করতে হবে। এরপর পাসওয়ার্ড দিতে হবে। কোড চাইলে সেগুলো লিখে দিতে হবে। তাহলে মুছে যাবে ফেইসবুক একাউন্টটি।

পরবর্তী কয়েক সপ্তাহ ফেইসবুক লগইন করা যাবে না। তবে পরে যদি আবার ফিরতে চান এ সামাজিক মাধ্যমে তাহলে আগের আইডি ও পাসওয়ার্ড দিয়ে লগইন করলে তা ফিরে পাওয়া যাবে।

লিংকডইন
আপনার যদি লিংকডউন একাউন্ট থাকে তাহলে ইন্টারনেট থেকে নিজেকে মুছে ফেলতে এ মাধ্যমের আইডিটিও রিমুভ করতে হবে। এ জন্য প্রথমে লিংকডইনে লগইন হতে হবে। এরপর Account & amp; Settings থেকে Privacy & amp; Settings এ গিয়ে নিচের দিকে Account Section এর ডান দিকে Close your Account এ ক্লিক করতে হবে।

এখন লিংকডইন জানতে চাইবে কোন কারণে একাউন্টটি ডিলিট করা হচ্ছে।

how-to-delete-linkedin-account.WidePlayer_techshohor

এরপর জানিয়ে তা সাবমিট করা হলে একাউন্টটি মুছে যাবে। ফেইসবুকের মতো এ একাউন্টটিও ফিরিয়ে আনা যাবে আগের আইডি ও পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে।

গুগল
গুগলের জিমেইল আইডিটি এখন শুধু ই-মেইল আদান-প্রদানের জন্য ব্যবহার হয় না। এটির বহুবিধ ব্যবহার রয়েছে। এটির সাহায্যে গুগল প্লাস,ইউটিউব, পিকাসা, প্লেস্টোরে যুক্ত হওয়া যায়। অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোনের সাথেও যুক্ত করা যায় জিমেইল আইডি।

আপনি যদি জিমেইল আইডি ডিলেট করেন তাহলে অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোনের জন্য কোনো পেইড অ্যাপস কেনা থাকলে সেটি আর ফিরে পাওয়া যাবে না। নতুন করে অ্যাপটি ডাউনলোড করতে হলে পুরনায় কিনতে হবে।

delete_google_plus_account_techshohor

জিমেইলের এতসব সুবিধার পরও যদি একাউন্টটি ডিলেট করতে চাইলে প্রথমে এ লিংকে যেতে হবে।এখান থেকে Data Tools পেইজে যেতে হবে। এরপর Account management বিভাগ থেকে গুগল প্লাস প্রোফাইলটি ডিলেট করে দিতে হবে। চাইলে পছন্দমত সার্ভিসটিও মুছে ফেলা যেতে পারে।

টুইটার
মাইক্রোব্লগিংয়ের জন্য টুইটার এখন বেশ জনপ্রিয়। তবে চাইলে পুরনো টুইট ও ছবি একটি একটি করে মুছে ফেলা যাবে। এ জন্য টুইটার একাউন্টে লগইন করে যেসব পুরনো টুইট মুছতে চান তা খুঁজে বের করতে হবে। প্রতিটি টুইটের পাশে রয়েছে ‘Delete’ অপশন। এতে ক্লিক করলেই তা মুছে যাবে। মোবাইল এবং ডেক্সটপ উভয় সংস্করণের জন্য রয়েছে অপশনটি ।

how-to-delete-twitter-account_techshohor

প্রতিটি টুইট এক এক করে মুছতে অনেক সময় প্রয়োজন। তাই একাউন্টটি সরাসরি মুছে ফেলতে প্রথমে এ লিংকে (www.twitter.com/settings/account) যেতে হবে। এরপর লগইন করতে হবে। সেখান থেকে ‘Deactivate my Account’ এ ক্লিক করলে একাউন্টটি মুছে যাবে। পরের ৩০ দিন টুইটারে লগইন করা যাবে না।

যদি আগের আইডি ও পাসওয়ার্ড দিয়ে আবার লগইন করলে একাউন্টটি ফিরে পাওয়া যাবে।

জাস্টডিলিট.মি
এটি একটি ওয়েবসাইট। এটি ব্যবহার করে ইন্টারনেট থেকে নিজের ব্যক্তিগত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের নেটওয়ার্ক পেইজের লিংক বা ইউআরএল মুছে ফেলা যাবে। ইন্টারনেট থেকে বাস্তবে নিজেকে মুছে ফেলা খুবই কঠিন কাজ। এ জন্য প্রথমে আপনাকে সিদ্ধান্ত নিতে হবে আপনি কোন তথ্যগুলো মুছে ফেলতে চান।

জাস্টডিলিটডটমি ওয়েবসাইটটির মাধ্যমে অন্যান্য অনলাইন ডেটাবেসের সব তথ্যও মুছে ফেলা সম্ভব।

JustDelete.me_techshohor

যুক্তরাজ্যভিত্তিক ডেভেলপার রব লুইস বলেন, এ সাইটটের মাধ্যমে বিভিন্ন পেইজের ইউআরএল বা লিংক পেইজ ডিলিট করার আগে অন্তত একবার ভেবে নেবেন। কেননা তা ফিরে পাওয়া দুষ্কর। এটির মাধ্যমে ফেইসবুক, ফোরস্কয়ার, ড্রপবক্স এবং ফিডি থেকে তথ্য মুছে ফেলা যাবে।

জাস্টডিলিটডটমি সাইটটি ব্যবহার করে তথ্য ডিলিট করতে ‘সহজ’ এবং ‘কঠিন’ দুটি উপায় রয়েছে। যেমন অ্যামাজনডটকম এবং নিউ ইয়র্ক টাইমসের ওয়েবসাইটের তথ্য ডিলিট করা কঠিন। এদিকে মুভি ডিরেক্টরি আইএমডিবিডটকম এবং পেপালের ক্ষেত্রে নিজের অ্যাকাউন্টের তথ্য মুছে ফেলা সহজ।

একাউন্টকিলার.কম
এটিও একটি ওয়েবসাইট। যেখানে সাজানোভাবে তুলে ধরা হয়েছে কিভাবে নিজের একাউন্ট এবং প্রোফাইল ইন্টারনেট জগত থেকে মুছে ফেলা যায়। এটি সম্পূর্ণ ফ্রি সার্ভিস দেয়। এটি ব্যবহার করতে হলে একাউন্ট খোলারও প্রয়োজন হয় না।

যা মুছে ফেলা সম্ভব নয়
নিজেকে অনলাইন জগত থেকে মুছে ফেলার অনেকগুলো পদ্ধতি থাকলেও কিছু বিষয় চাইলেও মুছে ফেলা সম্ভব নয়। ধরুণ, আপনি কোনো ওয়েবসাইট কিংবা ব্লগে মন্তব্য করলেন। সেখানে যদি ডিলেট অপশন না থাকে, তাহলে মন্তব্যটি মুছে ফেলতে পারবেন না। ওই সাইটের এডমিনকে অনুরোধ করেই শুধু সেটি করা সম্ভব।

*

*

Top