ল্যাপটপের ব্যাটারি সাশ্রয়ের উপায়

তুসিন আহমেদ, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ল্যাপটপের জনপ্রিয়তার প্রধান বিষয় এটির মোবোলিটি। এ কারণে ব্যাটারির দিকটি সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। বেশি সময় ধরে বিদ্যুৎ সংযোগ থেকে দূরে থাকলেও যাতে কাজ চালানো সম্ভব হয় সেদিকে মনোযোগ থাকে সবার। এ জন্য দীর্ঘ ব্যাটারি লাইফের ল্যাপটপের চাহিদা বেশি।

তবে একটা সময় সব ধরণের ল্যাপটপের ব্যাটারির আয়ুকাল ধীরে ধীরে কমতে থাকে। এ ক্ষেত্রে কিছু টিপস মেনে চললে ব্যাটারির আয়ুকাল বাড়িয়ে তোলা যায়।

এ রকম কিছু কৌশল নিয়ে টিউটোরিয়ালভিত্তিক এ প্রতিবেদন।

laptop-battery-life_techshohor

স্মার্টফোনের মতো ল্যাপটপের ডিসপ্লে অতিরিক্ত চার্জ ব্যয় করে। এতে ব্যাটারির আয়ু দ্রুত কমে। তাই ল্যাপটপের উজ্জ্বলতা যতটা সম্ভব কমিয়ে রাখুন। এ ছাড়া কিবোর্ডের ব্যাকলাইট বন্ধ করে রাখুন।

ইউএসবির মাধ্যমে ল্যাপটপে যুক্ত করা কোনো ডিভাইস যেমন পেনড্রাইভ, এক্সটার্নাল ড্রাইভার, ইউএসবি ক্যাবল, ইউএসবি রাউটার ইত্যাদি লাগিয়ে রাখলে চার্জ দ্রুত শেষ হয়। কাজ শেষ হলে এ ডিভাইসগুলো সড়িয়ে ফেলুন।

ল্যাপটপ অতিরিক্ত গরম হলে এর ভেতরের পাখা দ্রুত ঘুরতে থাকে- যা ব্যাটারি থেকে অতিরিক্ত চার্জ ব্যবহার করে। তাই অতিরিক্ত গরম হওয়া ঠেকাতে ল্যাপটপ কুলার ব্যবহার করার পরামর্শ বিশেষজ্ঞদের।

ল্যাপটপ স্ট্যান্ডবাই মোডে না রেখে হাইবারনেট মোডে রাখুন। এতে কিছুটা হলেও তা চার্জ সাশ্রয় করবে।

উইন্ডোজনির্ভর ল্যাপটপগুলোতে পাওয়ার প্ল্যান সেটিংস বিল্ট ইন থাকে। এ পাওয়ার প্ল্যান থেকে অতিরিক্ত চার্জ গ্রহণ করে এমন বিষয়গুলো বন্ধ করে রাখতে পারেন।

ব্যাটারির আয়ু-সম্পর্কিত তথ্য জানতে ব্যাটারি কেয়ার নামের অ্যাপ্লিকেশন (অ্যাপ) ব্যবহার করতে পারেন। অ্যাপটি ব্যাটারির চার্জ চক্র, সিপিইউ ব্যবহার, তাপ সংক্রান্ত নানা তথ্য জানিয়ে দেবে আপনাকে।

অ্যাপের তথ্য অনুযায়ী পরবর্তী পদক্ষেপ নিতে পারবেন আপনি। এতে দূরের কোনো ভ্রমণে কিংবা গুরুত্বপূর্ণ কাজের সময় বেকায়দায় পড়তে হবে না।

Related posts

*

*

Top