Maintance

অ্যান্ড্রয়েডের বছর সেরা অ্যাপস

প্রকাশঃ ২:২২ অপরাহ্ন, জানুয়ারি ৪, ২০১৪ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ২:২২ অপরাহ্ন, জানুয়ারি ৪, ২০১৪

হাসান যোবায়ের, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : স্মার্টফোনের বৈচিত্র্যপূর্ণ ব্যবহারের সুযোগ নিয়ে অ্যাপসের বিস্তার লাভ করেছে বিশ্বজুড়ে। বিদায়ী বছরজুড়ে বিচিত্র সব অ্যাপস নিয়ে মাতমাতিও ছিল চোখে পড়ার মতো। শুধু ব্যবহারকারী নয়, অ্যাপস নিয়ে টেক জায়ান্ট কোম্পানিগুলোও উঠে পড়ে লেগেছিল। সম্ভাবনাময় এ বাজার দখলে গুগল হাজির হয়েছিল অ্যান্ড্রয়েড নিয়ে আর অ্যাপল তো আগে থেকেই ছিল আইওএস নিয়ে। তবে গত বছর অ্যান্ড্রয়েড বাজারে মাত করে রেখেছিল বিভিন্ন ধরনের অ্যাপস নিয়ে।

অ্যান্ড্রয়েডের কিটক্যাট অপারেটিং সিস্টেম চালুর পর তা এক বিলিয়ন ব্যবহারকারী পেয়ে যায়। এ বদৌলতে অ্যাপস ডাউনলোডের সংখ্যা দাঁড়ায় ৫০ বিলিয়ন। এ কারণে ২০১৩ শুধু অ্যান্ড্রয়েডের বছর নয়, তাদের অ্যাপসের জনপ্রিয়তার দারুণ এক বছর হিসাবে চিহ্নিত করেছেন প্রযুক্তি বিশ্লেষকরা।

বছরজুড়ে গুগলপ্লেতে সত্যিকার অর্থে কিছু অসাধারণ অ্যাপস উন্মুক্ত করা হয়েছে। এর সঙ্গে আগের বছরের পুরনো অ্যাপসতো ছিল। নতুন ও পুরাতন মিলিয়ে জনপ্রিয়তা ও ডাউনলোডকে বিবেচনার পাশাপাশি কাজের দিক বিবেচনায় নিয়ে প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট ম্যাশেবল সেরা ১০ অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপসের তালিকা তৈরি করেছে। এ তালিকার অ্যাপসগুলোর সংক্ষিপ্ত পরিচয় নিয়ে এ প্রতিবেদন।

Duolingo

ডুয়োলিঙ্গো
ভাষা শিক্ষার জন্য এখন অনেক বেশি জনপ্রিয় এ অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ। হতে পারে সেটা ইংলিশ, স্প্যানিশ, ফ্রেঞ্চ, জার্মান, ইতালিয়ান বা পুর্তগিজ। খুব চমৎকার সব লেসনে ধাপে ধাপে এটি ব্যবহার করে ভাষা শেখা যাবে। শিক্ষা করা যাবে। অবশ্যই ফ্রি অ্যাপ এটি।

পকেট ক্যাস্ট
এ অ্যাপ অডিও গান শোনা, ডাউনলোড এবং লিস্ট কাস্টোমাইজ করতে সাহায্য  করে। এমনকি প্লেব্যাক স্পিডও নিয়ন্ত্রণ করা যায় এটি দিয়ে। তবে এটি কিনতে হবে ৩.৯৯ ডলার দিয়ে।

এভারনোট
অ্যাপটি অনেক বেশি জনপ্রিয়। এটা দিয়ে আপনি নোট, ফটো, রিমাইন্ডার, অডিও রেকর্ড এবং সব কিছুতে ট্যাগ যুক্ত করতে পারবেন। এটি দিয়ে সার্চ করার সুবিধা রয়েছে। এটির কাজের পরিসর অনেক ব্যাপক। তাই শুরুতে কিছুটা সময় লাগবে সবগুলো ফিচার বুঝতে।

Pixlr

পিক্সলার এক্সপ্রেস

অনেক শক্তিশালী একটি ফটো এডিটর এটি। এটা দিয়ে কালার কারেকশন, ব্লার ইমেজ তৈরি এমনকি লেয়ার ইমেজও তৈরি করা যায়। একটির উপরে আরেকটি ব্যবহার করে, জায়গা অল্প দখল করে এ অ্যাপ। পুরোপুরি ফ্রি এটি।

নোভা লাঞ্চার

Symphony 2018

এ লাঞ্চার অ্যাপটি বেশ জনপ্রিয়তা পেয়েছে। পুরোপুরি কাস্টোমাইজেবল লাঞ্চারটি আপনার অনেক কাজকে সহজ করবে। এটিও ফ্রি ব্যবহার করা যাবে।

ডাবলটুয়িস্ট

কম্পিউটার বা ম্যাক এবং অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসের মধ্যে মিউজিকগুলো সিঙ্ক করার জন্য এটা হতে পারে সেরা অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ। অনেক শক্তিশালী মিডিয়া প্লেয়ার রয়েছে, একই সাথে অনেকগুলো অডিও ফাইল করা যায়, ভিডিও দেখা, রেডিও স্ট্রিম এবং পডকাস্ট শোনা যায়।

Reddit

এটা আরেকটি জনপ্রিয় অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ। পুরোপুরি ফ্রি।

Feedly

ফিডলি

গুগল রিডারের বিকল্প হতে পারে এ অ্যাপ। এটা ইমেজকে ফোকাস করে তৈরি করা। RSS Feed এর কাজ এ অ্যাপ দিয়ে করা যাবে অনায়াসে। এ ছাড়া অন্যান্য  অনেক অ্যাপের সাথেও এটি ব্যবহার করা যাবে।

স্লিপবট

ঘুমের অভ্যাস পরিবর্তন বা মনিটরিং করতে চাইলে এ অ্যাপ হতে পারে আদর্শ। এটি আপনার মুভমেন্ট ট্র্যাক করবে, নয়েস লেভেল দেখবে এবং আপনার প্রয়োজন অনু্যায়ী সকালে এলার্ম দেবে। পুরোপুরি ফ্রি অ্যাপ এটি।

এরিও

আপনার পছন্দের টেলিভিশন শো দেখতে পারবেন এ অ্যান্ড্রয়েড অ্যাস দিয়ে। তবে বাংলাদেশের চ্যানেলগুলো হয়তো হবে না। ২০ ঘন্টা পর্যন্ত টেলিভিশনের শো ক্লাউডে সেভ করতে পারবেন।

*

*

Related posts/