গাড়ির পার্টসের দরদাম

গাড়ি নষ্ট হলে মেরামতের জন্য যেতে হয় কারিগরের কাছে। বেরসিক কারিগর গাড়ি পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর হাতে ধরিয়ে দেন যন্ত্রাংশের এক লম্বা ফর্দ। সঠিক দাম না জানা থাকলে পকেটের বারোটা! তাই রাজধানীর মোটর পার্টসের বাজার ঘুরে বেশ কিছু প্রয়োজনীয় যন্ত্রাংশের সাম্প্রতিক দরদাম জানাচ্ছেন তানজিল আহমেদ জনি

 ব্রেক শু
এটি ব্রেক সিস্টেমের অংশ। গাড়ির পেছনের চাকার জন্য ব্যবহূত হয়। বাজারে টয়োটার এক্স করোলা, জি করোলা, এফ প্রিমিও, অ্যালিয়ন মডেলের এক সেট ব্রেক শুয়ের দাম ৮০০ টাকা থেকে শুরু। আর মিত্সুবিশি, হোন্ডা, নিশান ও হুন্দাই গাড়ির বিভিন্ন মডেলভেদে এক সেট ব্রেক শুয়ের দাম ২২০০ টাকা থেকে শুরু। এ ছাড়া মডেলভেদে কিয়ার ব্রেক শুর দাম ১৬০০ টাকা থেকে শুরু।

রেক প্যাড
এটিও ব্রেক সিস্টেমের অংশ, গাড়ির সামনের চাকায় ব্যবহূত হয়। টয়োটার এক্স করোলা, জি করোলা, এফ প্রিমিও মডেলের ব্রেক প্যাডের দাম ৬০০ টাকা থেকে শুরু। নোয়া ১৮০০ সিসি গাড়ির এক সেট ব্রেক প্যাডের দাম ৮০০ টাকা থেকে শুরু। অন্যদিকে মিত্সুবিশির বিভিন্ন মডেলভেদে এক সেট ব্রেক প্যাডের দাম ২০০০ টাকা থেকে শুরু এবং হোন্ডা, নিশান ও হুন্দাই গাড়ির বিভিন্ন মডেলভেদে এক সেট ব্রেক প্যাডের দাম ৪০০০ টাকা থেকে শুরু। এ ছাড়া বিভিন্ন মডেলভেদে কিয়া গাড়ির ব্রেক প্যাডের দাম ১৬০০ টাকা থেকে শুরু।

এয়ার ফল্টিার
গাড়ির ইঞ্জিনে বিশুদ্ধ বাতাস সরবরাহ করতে এয়ার ফল্টিার ব্যবহার করা হয়। টয়োটার এক্স করোলা, জি করোলা, এফ প্রিমিওসহ বিভিন্ন মডেলভেদে এয়ার ফল্টিারের দাম ২৫০ টাকা থেকে শুরু। মিত্সুবিশির এয়ার ফল্টিারের দাম ৬০০ টাকা থেকে শুরু। অন্যদিকে হোন্ডা, নিশান ও হুন্দাই গাড়ির বিভিন্ন মডেলভেদে এর দাম ১৫০ টাকা থেকে শুরু। এয়ার ফল্টিারের মানের ওপর নির্ভর করেই দাম নির্ধারিত হয়।

মবিল ফল্টিার
গাড়িতে ব্যবহূত মবিলকে বিশুদ্ধ করতে Èমবিল ফল্টিার’ ব্যবহার করা হয়। টয়োটার এক্স করোলা, জি করোলা, এফ প্রিমিওসহ বিভিন্ন মডেলভেদে একটি মবিল ফল্টিারের দাম ৩৫০ টাকা থেকে শুরু। মিত্সুবিশির বিভিন্ন মডেলভেদে এর দাম ৬০০ টাকা থেকে শুরু। হোন্ডা, নিশান, হুন্দাই গাড়ির মবিল ফল্টিারের দাম ৩৫০ টাকা থেকে শুরু।

 স্পার্ক প্লাগ
গাড়ির ইঞ্জিনের জন্য অত্যন্ত প্রয়োজনীয় পার্টস হচ্ছে স্পার্ক প্লাগ। কেননা ইঞ্জিনে ফুয়েল প্রবেশের পরে পিস্টনের ঘূর্ণন শুরু হলে স্পার্ক প্লাগের স্পার্ক ছাড়া কোনোভাবেই গাড়ির ইঞ্জিন চালু সম্ভব নয়। টয়োটার এক্স করোলা, জি করোলা, এফ প্রিমিও, অ্যালিয়নসহ বিভিন্ন মডেলভেদে এক সেট স্পার্ক প্লাগের দাম ৬০০ টাকা থেকে শুরু। আবার মিত্সুবিশি গাড়ির বিভিন্ন মডেলভেদে এর দাম ১৮০০ টাকা থেকে শুরু। আর হোন্ডা, নিশান, হুন্দাই গাড়ির বিভিন্ন মডেলভেদে স্পার্ক প্লাগের দাম ১৩০ টাকা থেকে শুরু।

 সিভিজয়েন্ট
সাধারণত গাড়ির সামনের চাকার ডানে বা বঁায়ে দিক পরিবর্তনে সাহায্য করে সিভিজয়েন্ট। টয়োটার এক্স করোলা, জি করোলা, এফ প্রিমিও, অ্যালিয়নসহ বিভিন্ন মডেলভেদে সিভিজয়েন্টের দাম ২৫০০ টাকা থেকে শুরু। এ ছাড়া মিত্সুবিশি, হোন্ডা, নিশান, হুন্দাই গাড়ির বিভিন্ন মডেলভেদে গাড়ির সিভিজয়েন্টের দাম ২০০০ টাকা থেকে শুরু।

ওয়াইপার বে্লড
বৃষ্টির সময় গাড়ির সামনের গ্লাসে জমা পানি পরিষ্কারের জন্য ওয়াইপার বে্লড ব্যবহার করা হয়। মিত্সুবিশি, হোন্ডা, টয়োটা, হুন্দাই, নিশান গাড়িসহ বিভিন্ন মডেলভেদে এক সেট ওয়াইপার বে্লডের দাম ৪০০ টাকা থেকে শুরু ।

 শক অ্যাবজরভার
একটি গাড়ির চার চাকায় চারটি শক অ্যাবজরভার ব্যবহার করা হয়। এর কাজ হচ্ছে খারাপ রাস্তার ঝঁাকুনি থেকে গাড়ির যাত্রীদের রক্ষা করে। বাজারে বিভিন্ন মডেলভেদে টয়োটা, মিত্সুবিশি, হোন্ডা, নিশান ও হুন্দাই গাড়ির এক সেট শক অ্যাবজরভারের দাম ১৮০০ টাকা থেকে শুরু।

রেডিয়েটর
গাড়ির ইঞ্জিনকে অতিরিক্ত গরম হওয়ার হাত থেকে বঁাচানোর জন্যই ব্যবহার করা হয় রেডিয়েটর। গাড়ির বিভিন্ন মডেলভেদে একটি রেডিয়েটরের দাম ৩৫০০ টাকা থেকে শুরু। গরমের সময় গাড়ির যন্ত্রাংশের বাজারে এটির কাটতি থাকে বেশ।

*

*

Top