মাইক্রোসফটের নতুন সারফেস প্রো

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : টানা সাড়ে ১৩ ঘণ্টা ব্যাকআপ সুবিধা নিয়ে নতুন সারফেস প্রো উম্মুক্ত করেছে মাইক্রসফট।

পূর্বের সংস্করণের মত ডিজাইনের ডিভাইসটির ওজন ৭৭০ গ্রাম। এতে যুক্ত করা হয়েছে উন্নত সারফেস পেন, যার প্রেসার লেভেল ৪০৯৬।

ডিভাইসটি সম্পর্কে মাইক্রোসফটের সারফেস প্রধান প্যানস প্যানয় বলেন, সম্পূর্ণ নতুনরূপে গ্রাহকদের জন্য ট্যাবটি আনা হয়েছে। এটি ফোরজি এলটিই সংযোগ সমর্থন করবে। ডিভাইসটিতে গ্রাহকরা পাবেন আরও দ্রুত গতির নিশ্চিয়তা।

surface-pro-lead-2_techshohor

১২.৩ ইঞ্চি ডিসপ্লের ডিভাইসটির রেজুলেশন ২৭৩৬*১৮২৪ পিক্সেল, যা ২৬৭ পিপিআই পিক্সেল ডেনসিটি সমৃদ্ধ।

প্রসেসর দিক দিয়ে ইন্টেল এম৩, কোর আই ৫ এবং কোর আই ৭ এই তিনটি সংস্করণে পাওয়া যাবে। অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে রয়েছে উইন্ডোজ ১০ প্রো।

৪, ৮ এবং ১৬ জিবি র‍্যামের সংস্করণে ডিভাইসটিতে ১২৮ জিবি, ২৫৬ জিবি, ৫১২ জিবি এবং এক টেরাবাইট ইন্টারনাল মেমোরির সংস্করণ।

ছবি তোলার জন্য পিছনে রয়েছে ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা এবং সামনে রয়েছে ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। দুই ক্যামেরা দিয়ে এইচডি ভিডিও রেকর্ড করা যাবে।

ডিভাইসটিতে ইউএসবি ৩.০, ৩.৫ এমএম হেডফোন জ্যাক, মিনি ডিসপ্লে পোর্ট ও মাইক্রোএসডি কার্ড ব্যবহারের সুবিধা রয়েছে।

৭৯৯ মার্কিন ডলার থেকে ডিভাইসটির মূল্য শুরু হয়েছে। ডিভাইসটি গ্রাহকরা হাতে পাবেন ২৫ জুন। তবে বিশ্বের ২৫টি দেশে প্রি-অর্ডার শুরু হয়েছে ।

দ্য নেক্সট  ওয়েব অবলম্বনে তুসিন আহমেদ

উড়োজাহাজে ল্যাপটপ ট্যাব বহনে নিষেধাজ্ঞা কার্যকর

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ইসলামিক স্টেট জঙ্গি গোষ্ঠীর ‘প্রচ্ছন্ন হুমকি মোকাবিলায়’ সতর্কতা হিসেবে কয়েকটি মুসলিম প্রধান দেশ থেকে ছেড়ে যাওয়া সরাসরি ফ্লাইটে মোবাইলের চেয়ে বড় ডিভাইস বহনে কড়াকড়ি করেছে যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য।

বিমানের কেবিনে মোবাইল থেকে বড় আকারের ইলেকট্রনিক ডিভাইস বহনের যে নিষেধাজ্ঞা যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য আরোপ করেছিল তা কার্যকর হতে শুরু করেছে।

তুরস্ক, মধ্যপ্রাচ্য এবং উত্তর আফ্রিকার কিছু দেশ থেকে যুক্তরাষ্ট্র এবং যুক্তরাজ্যে আসা ফ্লাইটে এসব নিষেধাজ্ঞা কার্যকর করা শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

airplane_wi-fi_techshohor

এর আগের সপ্তাহেই ফ্লাইটের মূল কেবিনে মোবাইল ফোনের চেয়ে বড় আকারের ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস বহনে নিষেধাজ্ঞা দেয় দেশ দুটি।

যুক্তরাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলছে, ওই সব বিমানবন্দর থেকে আসা যাত্রীরা ট্যাবলেট, পোর্টেবল ডিভিডি প্লেয়ার, ল্যাপটপ, আইপ্যাড ও ক্যামেরার মতো বড় আকারের ইলেকট্রনিক ডিভাইস বিমানের মূল কেবিনে আনতে পারবেন না। সেগুলো ‘চেকড ব্যাগেজে’ দিতে হবে।

একই ধরনের পদক্ষেপ নিয়েছে যুক্তরাজ্য। দেশটির প্রধানমন্ত্রী টেরিজা মে’র এক মুখপাত্র বলেছেন, মধ্যপ্রাচ্যের ছয় দেশ থেকে আসা ফ্লাইটের মূল কেবিনে ইলেকট্রনিক ডিভাইস নিয়ন্ত্রিত হবে।

আটটি দেশের নয়টি এয়ারলাইন্সে যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞায় প্রভাব পরবে। টার্কি, মরোক্কো, জর্ডান, ইজিপ্ট, ইউনাইটেড অারব এমিরেটস, কাতার, সাউদি অ্যারাবিয়া এবং কুয়েত এয়ারলাইন্স এর আওতায় রয়েছে। বিভিন্ন দেশ থেকে প্রতিদিন যুক্তরাষ্ট্রে ৫০টি ফ্লাইট যায় প্রতিষ্ঠানগুলোর।

নিষেধাজ্ঞার পর এয়ারপোর্টের গেইটে যাত্রীদের মালামাল প্যাকিং এবং সরবরাহ সেবা চালু করেছে ইউএই এমিরিটেস এয়ারলাইন। এতে একবার চেক করা হলে হয়ে গেলে যাত্রীরা ফ্লাইট থেকে নামা পর্যন্ত ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস ব্যবহার করতে পারবেন।

যুক্তরাজ্য বলছে, টার্কি, লেবানন, জর্ডান, মিশর, তিউনিসিয়া ও সৌদি আরব থেকে সরাসরি ফ্লাইটের মূল কেবিনে স্মার্টফোনের চেয়ে বড় ডিভাইস বহন করা যাবে না।

যুক্তরাজ্যে নিষধাজ্ঞায় বলা হয়েছে স্মার্টফোনসহ, লম্বায় ১৬ সেন্টিমিটার এবং প্রস্থে ৯.৩ সেন্টিমিটারের বেশি এমন ডিভাইসের ক্ষেত্রে এটি প্রযোজ্য হবে। যদিও বর্তমান সময়ের বেশিরভাগ স্মার্টফোনই এর চেয়ে ছোট আকারের।

নিষেধাজ্ঞার ব্যাপারে যুক্তরাষ্ট্রের সন্ত্রাস দমন বিষয়ক এক কর্মকর্তা বিবৃতিতে বলেছেন, তারা যে তথ্য পেয়েছে তাতে দেখা গেছে, সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর বিমান পরিবহন খাতে হামলা চালানোর চেষ্টা খুব বেড়ে গেছে।

এ দিকে যুক্তরাষ্ট্র এবং যুক্তরাজ্যের এমন নিষেধাজ্ঞায় এভিয়েশন বিশেষজ্ঞরা ধারণা করছে এতে এয়ারলাইনগুলোর লাভের ওপর প্রভাব পড়বে। আর তাদের যাত্রীর সংখ্যা কমে যেতে পারে।

বিবিসি ও বিডিনিউজ অবলম্বনে

বিমানে ল্যাপটপ ও ট্যাবলেট বহনে নিষেধাজ্ঞা

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : যুক্তরাষ্ট্রের পর এবার ব্রিটেনও মধ্যপ্রাচ্যের ছয়টি মুসলিম দেশ থেকে আসা বিমানে ল্যাপটপ ও ট্যাবলেট বহনে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করতে যাচ্ছে। এমনকি কেবিনে বড় আকারের স্মার্টফোন বহনের নিষেধাজ্ঞা আরোপ করতে যাচ্ছে দেশ দুটি।

ইসলামিক স্টেট বা আইএস ‘জঙ্গিরা’ এসব ইলেকট্রনিক্স ডিভাইসে বিস্ফোরক বহন করছেন এমন অবিযোগ তুলে মুসলিম দেশগুলোথেকে আসা বিমানে এই নিয়েধাজ্ঞা আরোপ করেছে দেশ দুটি।

যুক্তরাজ্যের আগে আটটি দেশের সরাসরি ফ্লাইটের ওপর এই নিষেধাজ্ঞার কথা জানিয়েছে মার্কিন সরকার এবং এগুলো সবই মুসলিম দেশ।

Plan-laptop_Tablet-techshohor

এই নিষেধাজ্ঞার আওতায় পড়ছে তুরস্ক, লেবানন, জর্ডান, মিশর, তিউনিসিয়া, কাতার, কুয়েত ও সৌদি আরবের এয়ারলাইন্স।

এসব দেশ থেকে আসা এয়ারলাইন্সকে এই সিদ্ধান্ত কার্যকর করতে চারদিন সময় দেওয়া হয়েছে।

তুরস্কের ইস্তাম্বুলের একজন ব্যবসায়ী ইব্রাহীম কস্কুন বলছেন, আজকের দুনিয়াতে এই সিদ্ধান্ত একেবারেই অগ্রহণযোগ্য।

বিমান যাত্রীদের অনেকেই ল্যাপটপ বা ট্যাবলেটে গানা শোনেন বা সিনেমা দেখেন। কিন্তু এই নিষেধাজ্ঞার কারণে ইলেকট্রনিক্স ডিভাইস বহনই করতে পারবেন না যাত্রীরা।

তিনি বলছেন, আজকের দিনে প্রযুক্তির অগ্রগতির সময়ে এমন সিদ্ধান্ত খু্ব ভয়াবহ। আজকাল সবার কাছেই একটা ল্যাপটপ বা ট্যাবলেট থাকে। যা তারা নানা ধরনের কাজেই ব্যবহার করে। এমন সিদ্ধান্তের আমি নিন্দা করছি।

মিশরের একজন নাগরিক আহমেদ র‍্যামজি বলছেন, এটি একটি অর্থহীন সিদ্ধান্ত। এ ধরের নিষেধাজ্ঞা দিয়ে কখনোই সন্ত্রাস বন্ধ করা যাবে না।

ব্রিটিশ সরকার বলছে, বিমান যাত্রীদের নিরাপত্তার জন্যই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

আর মার্কিন সরকার বলছে, সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলো যাত্রীবাহী বিমানকে ইদানীং অনেক বেশি টার্গেট করছে বলে তাদের কাছে গোয়েন্দা তথ্য রয়েছে।

হোয়াইট হাউজের মুখপাত্র শন স্পাইসার বলছেন, গোয়েন্দা তথ্য থেকে জানা যাচ্ছে সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলো বাণিজ্যিক বিমানগুলোকে টার্গেট করতে নানা রকম নতুন উদ্ভাবনী কায়দা ব্যবহার করছে। এ বিষয়ে গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতেই এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

তবে শুধুমাত্র কয়েকটি দেশের ওপর এটি আরোপ হচ্ছে বলে অনেকে এটিকে বর্ণবাদী আচরণও বলছেন।

বিবিসি বাংলা থেকে

আসছে উইন্ডোজনির্ভর গ্যালাক্সি ট্যাব প্রো এস২

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : যদিও স্যামসাং তাদের পরবর্তী প্রজন্মের ফ্ল্যাগশিপ ডিভাইস উন্মোচনের জন্য শিগগিরই হতে যাওয়া মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেসের জন্য অপেক্ষা করছে, তারপরেও প্রযুক্তি বিশ্ব আগে থেকেই স্যামসাংয়ের পরবর্তী ট্যাবলেটের তথ্য উন্মোচন করছে। গ্যালাক্সি ট্যাব প্রো এস২ মডেলের এই ট্যাব সম্প্রতি নিয়ন্ত্রক সংস্থা এফসিসির অনুমোদন পেয়েছে।

সর্বশেষ দাখিলকৃত কাগজপত্রাদি অনুসারে, নতুন ট্যাবটিতে দীর্ঘ ব্যাটারি ব্যাকআপ দিতে থাকছে ৫০৭০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি। এছাড়া সাথে থাকবে উইন্ডোজ ১০ নির্ভর অপারেটিং সিস্টেম।

Samsung-Galaxy-TabPro-S2-TechShohor

এর আগে গ্যালাক্সি ট্যাব প্রো এস২ ব্লুটুথ সার্টিফিকেশন পায়। এবার আমেরিকার যোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা এফসিসির সার্টিফিকেশন পেয়েছে।

জানা গেছে, স্যামসাংয়ের এই ট্যাবলেটটির মডেল নাম্বার এসএম-ডব্লিউ৭২৭ভি। এতে থাকছে গরিলা গ্লাস সম্বলিত ১২ ইঞ্চির সুপার অ্যামোলেড ডিসপ্লে, যার রেজ্যুলেশন ১৪৪০*২১৬৬ পিক্সেল।

ডিভাইসটিতে আরও থাকছে ইন্টেল কোর আই৫-৭২০০ সপ্তম জেনারেশনের প্রসেসর, যার ক্লক রেট ৩.১ গিগাহার্টজঅ এছাড়া থাকছে ইন্টেল এইচডি গ্রাফিক্স ৬২০। থাকছে ৪ গিগাবাইট র‍্যাম ও ১২৮ গিগাবাইট ইন্টারন্যাল স্টোরেজ। এসডি কার্ড স্লটের মাধ্যমে মেমরি বাড়ানোর সুবিধাও থাকছে।

ট্যাবটিতে ছবি তোলার জন্য পিছনে ১৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা ও সামনে ৫ মেগাপিক্সেলের সেলফি ক্যামেরা থাকছে। এছাড়া অন্যান্য সুবিধাতো থাকছেই।

ইউনিভার্সিটি হেরাল্ড অবলম্বনে রুদ্র মাহমুদ

আই লাইফ কিডস ট্যাব ৭: সাধারণ হলেও বিশেষ ফিচারে দারুণ

এস এম তাহমিদ, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : প্রথম আইপ্যাড বাজারে আসার পর থেকেই দেখা গেছে শিশুদের মাঝে ট্যাবলেট বেশ জনপ্রিয়তা পেয়েছে। গেইমসের পাশাপাশি পছন্দের কার্টুন, বই, ইন্টারঅ্যাকটিভ পড়াশোনার অ্যাপ নিয়ে খেলার সুবিধা থাকায় অভিভাবকরা প্রায়ই তাদের ট্যাবটি বাচ্চাদের হাতে দেন।

আইপ্যাডের সফলতার পথ ধরে বেশ কিছু প্রতিষ্ঠান মূলত বাচ্চাদের জন্যই ট্যাব বানানো শুরু করেছে, যার একটি হচ্ছে আই-লাইফ কিডস ট্যাব ৭। বাচ্চাদের জন্য উপযোগী এটির বিশেষ কিছু ফিচার অন্য ট্যাব থেকে এটিকে আলাদা করেছে।    

একনজরে আই-লাইফ কিডস ট্যাব ৭

  • ৭ ইঞ্চি ডিসপ্লে, রেজুলেশন ১০২৪x৬০০ 
  • ১.৩ গিগাহার্জ ডুয়াল-কোর প্রসেসর
  • মালি ৪০০ জিপিউ
  • ১ গিগাবাইট ডিডিআর ৩ র‌্যাম
  • ৮ গিগাবাইট স্টোরেজ, মাইক্রো-এসডি কার্ড স্লট
  • ওয়াই-ফাই ও থ্রি-জি ইন্টারনেট
  • অ্যান্ড্রয়েড ৪.৪ কিটক্যাট অপারেটিং সিস্টেম
  • ১ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ও ৩ মেগাপিক্সেল ব্যাক ক্যামেরা
  • ৩২০০ এমএএইচ ব্যাটারি
  • ব্লুটুথ, জিপিএস, এফএম রেডিও

4

ডিজাইন
শিশুদের উপযোগী এ ট্যাবে ব্যবহার করা হয়েছে উজ্জ্বল নীল বা গোলাপী প্লাস্টিক, যা বেশ ভাল পরিমাণে আঘাত সহ্য করতে সক্ষম। ট্যাবটির চারটি কোনায় আঘাত সামলানোর জন্য দেওয়া হয়েছে রাবারের বাম্পার।

সামনে রয়েছে স্পিকার, হোম, এসওএস ও ব্যাক বাটন এবং ফ্রন্ট ক্যামেরা। মাঝের বাটনগুলো রয়েছে স্ক্রিনের ডান পাশে, স্পিকার রয়েছে বাম পাশে ও ক্যামেরা স্ক্রিনের ওপরে।

ডান পাশে রয়েছে হেডফোন জ্যাক, মাইক্রো ইউএসবি পোর্ট যার মাধ্যমে চার্জ করা ও ওটিজি সুবিধা দুটিই পাওয়া যাবে। এর সাথে রয়েছে মেমরি কার্ড স্লটটি।

ট্যাবটির ওপরে রয়েছে পাওয়ার ও ভলিউম বাটনগুলো। এটি পুরোপুরি প্লাস্টিকের তৈরি হলেও বেশ শক্তভাবেই তৈরি করা হয়েছে, যাতে করে শিশুদের হাতে সহজে নষ্ট না হয়।1

পারফরমেন্স
১.৩ গিগাহার্জ গতির ডুয়াল কোর ট্যাবটির পারফরমেন্সের দিক থেকে তাক লাগিয়ে দেবে না। তবে সাধারণ ওয়েব ব্রাউজ, ভিডিও দেখা, ছোট-খাট গেইম খেলা ও অন্যান্য কাজের জন্য এর পারফরমেন্স যথেষ্ট ভালো। যদিও ট্যাবটির স্পেসিফিকেশন ২০১১-১২ সালের মাঝারি মানের ট্যাবের মতো।

সাধারণ কাজের ক্ষেত্রে বেশ চলনসই হলেও এইচডি গেইম বা অনেকগুলো ওয়েব পেইজ এক সঙ্গে খোলার মত কাজ করার জন্য এটিতে যথেষ্ট পরিমাণ র‌্যাম নেই।

ট্যাবলেটটির সবচাইতে বড় অসুবিধা বলা যেতে পারে এর স্টোরেজ স্বল্পতা। মাইক্রো এসডি কার্ড ব্যবহারের সুবিধা থাকলেও প্রায় সব অ্যাপ্লিকেশনই অ্যান্ড্রয়েড সিস্টেম স্টোরেজ ব্যবহার করায় খুব তাড়াতাড়ি স্টোরেজ ভর্তি হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়ে যায়।

তবে শিশুদের উপযোগী করে তৈরি হবার ফলে খুব বেশি অ্যাপ্লিকেশন ইন্সটল করার প্রয়োজনীয়তা কম। তাই সকল ভিডিও ও গান মেমরি কার্ডে রাখলে এটি নিয়ে তেমন সমস্যা হবে না।

6

ট্যাবটির ডিসপ্লে রেজুলেশন ও কালার দুটিই বেশ নিম্নমানের হলেও দামের বিবেচনায় খারাপ নয়। ক্যামেরা, স্পিকার ও মাইক্রোফোনের ক্ষেত্রেও একই কথা বলা যেতে পারে।

ব্যাটারি লাইফের দিক থেকেও বলা যেতে পারে এটি খেলনা পর্যায়েই রয়ে গিয়েছে। কেননা ৪-৫ ঘন্টার বেশি টানা ব্যবহার করা যাবে না, যা থ্রিজি ইন্টারনেট ব্যবহারে ৩ ঘন্টাতেও নেমে যেতে পারে।

কানেক্টিভিটির দিক থেকে ট্যাবটি বেশ অবাক করেছে। ওয়াই-ফাই, থ্রিজি, জিপিএস, ব্লুটুথ, ইউএসবি ওটিজি প্রায় সবকিছুই রয়েছে এতে।

5

বিশেষ ফিচার
শিশুদের হাতে দেয়া ট্যাবে অভিভাবকের বেশ ভাল পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ প্রয়োজন – এমন চিন্তা করে এটি তৈরি করা হয়েছে। এর মাঝে হার্ডওয়্যারের দিক থেকে এসওএস বাটনটি দিয়ে তিনটি প্রোগ্রাম করা নম্বরে কল করা যাবে।

এতে ঠিক কোন অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করা যাবে সেটি নির্ধারণ করে বাকিগুলো লক করা যাবে। একই সঙ্গে ট্যাবটি কোথায় রয়েছে সেটিও অভিভাবক সবসময় জানতে পারবেন।

এতে শিশুদের জন্য একটি বিশেষ ব্রাউজার ব্যবহার করা হয়েছে, যা নিজ থেকেই শিশুদের অনুপযোগী ওয়েবসাইট ও কনটেন্ট ব্লক করে দেবে।

এ ছাড়াও বাচ্চারা ঠিক কি কাজ করছে ট্যাবে সেগুলোর পরিসংখান দেখার সুবিধাও রয়েছে।

2

মূল্য
বাজারে ৪০০০-৪৫০০ টাকায় পাওয়া যাচ্ছে ট্যাবটি।

একনজরে ভাল

  • বডি বেশ শক্ত ডিজাইনের। এ কারণে শিশুদের হাতে দিলেও ভাঙ্গার আশংকা কম
  • শিশুতোষ কন্টেন্ট ফিল্টারিং ও প্যারেন্টিং সুবিধা
  • থ্রিজি ইন্টারনেট ব্যবহারের সুযোগ
  • উজ্জ্বল ও সুন্দর রঙ

এক নজরে খারাপ

  • ব্যাটারি লাইফ বেশ কম
  • অ্যান্ড্রয়েড সংস্করণ বেশ পুরাতন
  • স্টোরেজ স্বল্পতা

৫৫৯৯ টাকায় ৭ ইঞ্চির মাইসেল ট্যাব

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : মাইসেল মোবাইল বাজারে নিয়ে এসেছে ৭ ইঞ্চি ডিসপ্লের থ্রিজি ডুয়েল সিম সুবিধার পি২+ মডেলের ট্যাবলেট। ৫ হাজার ৫৯৯ টাকার এই ট্যাবে ওটিজি সুবিধা থাকায় পেনড্রাইভ, মাউস, কিবোর্ড ব্যবহার করা যাবে।

অ্যান্ড্রয়েড ললিপপ ৫.১ অপারেটিং সিস্টেম চালিত ট্যাবটিতে রয়েছে ১.৩ গিগাহার্জ ডুয়াল কোর প্রসেসর। থ্রিজি নেটওয়ার্ক সমর্থিত ট্যাবটিতে রয়েছে ১ গিগাবাইট র‍্যাম এবং ৮ গিগাবাইট ইন্টারন্যাল মেমরি। মেমরি কার্ড স্লটের মাধ্যমে ৩২ গিগাবাইট পর্যন্ত মেমরি ব্যবহার করা যাবে।

Mycell P2 Plus-TechShohor

অধিক সময় চার্জ থাকার নিশ্চয়তায় রয়েছে ৩০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার লি-পলিমার ব্যাটারি। এছাড়া ট্যাববটিতে পিছনে ২ মেগাপিক্সেল ও সামনে ১.৩ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা রয়েছে।

ডুয়াল সিম সমর্থিত এই ট্যাবে রয়েছে ওয়াই-ফাই, ব্লুটুথ, হটস্পট, ফটো ভিউয়ার, ডকুমেন্ট ভিউয়ারসহ প্রয়োজনীয় নানা অ্যাপস। বাড়তি কার্যকারিতার জন্য রয়েছে টিপি সেন্সর, জি-সেন্সরসহ বেশ কিছু সেন্সর।

ট্যাবলেটটির সাথে ওটিজি ক্যাবলসহ একটি ফ্লিপ কাভার দেওয়া হচ্ছে। দেশের মোবাইল বাজারগুলোতে ট্যাবলেটটি পাওয়া যাচ্ছে।

রুদ্র মাহমুদ

স্মার্টফোনের বিক্রি বেশি, ক্রেতা কম ল্যাপটপ বাজারে

তুসিন আহমেদ, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর :  রাজধানীর বড় দুটি প্রযুক্তি বাজারে চলতি সপ্তাহে দুই ধরনের চিত্র ধরা পড়েছে। দেশের সবচেয়ে বড় কম্পিউটার বাজার আইডিবি ঘুরে দেখে যায় আগের মতো ভিড় নেই ক্রেতাদের।

অন্যদিকে পান্থপথে অবস্থিত বসুন্ধরা সিটি শপিং সেন্টারে দেখা যায়, স্মার্টফোনের দোকানগুলোতে পছন্দমত স্মার্টফোন কিনতে ভিড় করছেন নানা বয়সী প্রযুক্তি প্রেমী ক্রেতারা।

আগারগাঁওয়ে অবস্থিত আইডিবি ভবনে ল্যাপটপ কিনতে আসেন সফটওয়্যার কোম্পানিতে ওয়েব ডেভেলফার হিসেবে কর্মরত তালহা রহমান। তিনি টেকশহর ডটকমে জানায়, বহনযোগ্য সুবিধার জন্য তিনি সাশ্রয়ী দামে একটি ল্যাপটপ কিনতে এসেছেন।

idb-techshohor

তালহার সঙ্গে সুর মিলিয়ে কথা বলেন আরেক ক্রেতা সাব্বির হাসান। তিনি মূলত ডেস্কটপ কম্পিউটার ব্যবহার করেন। কিন্তু অফিসের কাজের কারণে নানা জায়গায় ভ্রমন করতে হয়। তাই ল্যাপটপের দিকে নজর তার। লেখালেখি আর অফিসের কাজের জন্য ছোট ডিসপ্লের নেটবুক কিনতে চান তিনি।

তবে বাজারে ১০ ইঞ্চি বা ১১ ইঞ্চি ডিসপ্লের ল্যাপটপের সংখ্যা খুব কম। তাই কোনটি নিবেন ঠিক বুঝে উঠতে পারছিলেন না সাব্বির।

বাজার ঘুরে দেখা যায় এসার, আসুস, ডেল ব্র্যান্ডের ১১.৬ ইঞ্চি ডিসপ্লের নেটবুক বাজারে পাওয়া যাচ্ছে। ২৩ হাজার টাকা থেকে শুরু হয়েছে এই নেটবুকের মূল্যে।

এসার অ্যাস্পায়ার ইএস১-১৩১ মডেলের ১১ ইঞ্চি নেটবুক বিক্রি হচ্ছে ২৩ হাজার টাকায়। এতে রয়েছে ইন্টেল সেলেরন প্রসেসর, ৪ গিগাবাইট র‍্যাম, ৫০০ গিগাবাইট হার্ডড্রাইভ। একই মডেলের কোয়াড কোর প্রসেসরযুক্ত সংস্করণের মূল্য ২৫ হাজার টাকা।

আসুস এক্স২০০এমএ মডেলের ১১ ইঞ্চি ডিসপ্লের নেটবুক বিক্রি হচ্ছে ২৩ হাজার ৫০০ টাকায়। এতে রয়েছে ২ গিগাবাইট র‍্যাম, ৫০০ গিগাবাইট হার্ডড্রাইভ।

আসুস ই২০২এসএ মডেলের ১১.৬ ইঞ্চি ডিসপ্লের নেটবুকে রয়েছে ২ গিগাবাইট র‍্যাম এবং ৫০০ গিগাবাইট হার্ডড্রাইভ। নোটবুকটি মূল্য ২৩ হাজার ৭০০ টাকা।

নেটস্টার লিমিটেডের বিক্রেতা নাহিদ টেকশহরডটকমকে জানান, ক্রেতা সংখ্যা খুবই কম। তবে প্রযুক্তি পণ্যের মূল্যে আগের মতই রয়েছে। কোনো পণ্যের মূল্য বৃদ্ধি পায়নি। ক্রেতাদের আগ্রহ ল্যাপটপের দিকে।

এদিকে স্মার্টফোনের বাজারে জমে উঠেছে বিক্রি। বসুন্ধরা শপিং সেন্টার ঘুরে দেখা যায় বিদেশী ব্র্যান্ডের ভিড়ে দেশি স্মার্টফোনের বিক্রি বেশি হচ্ছে। সাশ্রয়ী দামের কারণে স্থানীয় ব্র্যান্ডের বিক্রি বেশি। দেশি ব্র্যান্ডের মধ্যে সিম্ফনি,ওয়ালটন, গোল্ডবার্গ, উই, মাইসেল ব্র্যান্ডের ফোনের বিক্রি বেশি।

phone buy-techshohor

বাজার ঘুরে দেখা যায়, ওয়ালটন ব্র্যান্ডের ১৩ হাজার টাকা মূল্যের ৯৯০ আরএক্স-৩, আর এক্সটু ১২ হাজার ৯৯০ টাকা, প্রিমো জেডওয়ান ২৮ হাজার ৯০০ টাকার মূল্যে ডিভাইসগুলো ভালো বিক্রি হচ্ছে।

ওকাপিয়া ব্র্যান্ডের সিগনেচার ৯ হাজার ৯৯০ টাকা, ৬ হাজার ৪৯০ টাকায় ম্যাজিক প্রো মডেলেটির চাহিদা বেশি বাজারে।

উই ব্র্যান্ডের এল ওয়ান ৪ হাজার ২৫০ টাকা, আর ওয়ান ৫ হাজার ৯০০টাকা, বি ওয়ান ৭ হাজার ৭০০ টাকা এবং এক্স ওয়ান ১৮ হাজার ৬০০ টাকা মূল্যে ফোনগুলোর বিক্রি বেশি।

সিম্ফনির বেশি বিক্রি হচ্ছে ই৭৮ ফোন ৩ হাজার ১৯০ টাকা, এইচ ২৫০ ফোন ৯ হাজার১৯০ টাকা, এইচ ১৭৫ ফোন ৯ হাজার ৯৯০ টাকা, এইচ ৪০০ ফোন ৯ হাজার ৯০০ টাকা মূল্যের ফোনগুলো।

দেশিয় ফোনের পাশাপাশি চীনের শাওমি ও ওয়ানপ্লাস ব্র্যান্ডের ফোনের চাহিদা রয়েছে বাজারে। স্মার্টফোন বিক্রেতা প্রতিষ্ঠান গ্যাজেট জেনারেশনের প্রধান নিবার্হী আরমান টেকশহরডটকমকে জানান, শাওমি রেডমি থ্রি, রেডমি থ্রি নোট ডিভাইসের ভালো বিক্রি হচ্ছে। স্থানীয় ব্র্যান্ডের পাশাপাশি শাওমি, মেইজুরমত ব্র্যান্ডগুলোর দিকে ক্রেতাদের আগ্রহ আছে।

অ্যান্ড্রয়েড ফোন-ট্যাবলেট আনছে নোকিয়া

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : নোকিয়া, মোবাইলের কথা শুনলেইে এই নামটি সবার আগে আসতো। তবে নোকিয়া মোবাইল এখন অতীত। বিশ্বের দামি ব্র্যান্ডগুলোর মধ্যে দ্রুত খারাপ অবস্থানে চলে যাওয়ার উদাহরণ ফিনল্যান্ডের এই প্রযুক্তি কোম্পানি।

মাইক্রোসফটের কাছে নোকিয়ার ফোন ব্যবসা বিক্রির সময় প্রযুক্তি জায়ান্টটির সাথে এক কঠিন চুক্তিতে আবদ্ধ হয় প্রতিষ্ঠানটি। এতে ২০১৬ সালের শেষ প্রান্তিক পর্যন্ত নোকিয়া তাদের ব্র্যান্ডে ফোন অথবা অন্য কোনো কনজ্যুমার ডিভাইস বাজারে আনতে পারবে না।

nokia_android_pic

এখন সেই সময় প্রায় শেষ, নোকিয়া ইতোমধ্যেই ফোন ব্যবসায় দ্রুত ফিরে আসার ঘোষনা দিয়েছে। আর এসব ফোন হবে গুগলের অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমে।

নোকিয়া ব্র্যান্ড নামে প্রথম যে ডিভাইসটি বাজারে আসছে সেটি আগের প্লান্টে তৈরি হবে না, বরং চীনের এইচএমডি ডিভাইসটি তৈরি করবে।

চীনের নোকিয়ার প্রেসিডেন্ট মাইক ওয়াং নিশ্চিত করেছে যে, এই বছরের শেষ প্রান্তিকে নোকিয়া ব্র্যান্ডে ৩ থেকে ৪টি অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস বাজারে আসবে। এর মধ্যে স্মার্টফোন ও ট্যাবলেট উভয়ই থাকবে।

সম্প্রতি ফাঁস হওয়া কিছু ছবিও নোকিয়ার দুটি ভালোমানের স্মার্টফোন বাজারে আসার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

ফোন এরিনা অবলম্বনে রুদ্র মাহমুদ

একের ভিতর তিনের অভিজ্ঞতায় এইচপি এলিট এক্স৩

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : একই ডিভাইসের মধ্যে কম্পিউটার, ট্যাবলেট ও স্মার্টফোনের অভিজ্ঞতা দিতে এইচপি এনেছে তাদের নতুন স্মার্টফোন এলিট এক্স৩। এখন পর্যন্ত সবচেয়ে আকষর্নীয় উইন্ডোজ ফোনটি সেপ্টেম্বরে বাজারে আসার কথা থাকলেও এইচপির ওয়েবসাইট থেকে ইতোমধ্যেই বিক্রি শুরু হয়েছে।

৬ ইঞ্চির কোয়াড এইচডি অ্যামোলেড ডিসপ্লের এই স্মার্টফোনটিতে রয়েছে সম্প্রতি বাজারে আসা ২.৫ গিগাহার্টজের স্ন্যাপড্রাগন ৮২০ চিপ ও ৪ গিগাবাইটের এলপিডিডিআর৪ র‍্যাম। রয়েছে ৬৪ গিগাবাইট ইএমসিসি মেমরি।

HP Elite x3-TechShohor

পিছনে ১৬ মেগাপিক্সেল ফুল এইচডি ক্যামেরা, সেলফি তোলার জন্য সামনে ৮ মেগাপিক্সেলের ফুল এইচডি ক্যামেরা ও আইরিশ ক্যামেরা রয়েছে।

উইন্ডোজ ১০ মোবাইল অপারেটিং সিস্টেম চালিত এই স্মার্টফোনটি ডকের মাধ্যমে ল্যাপটপ কিংবা ট্যাবলেট হিসেবেও কাজ করা যাবে। কোম্পানিটি স্মার্টফোনটিকে একটি পিসির মতোই কার্যকরী ও সমান বলে দাবি করছে।

বায়োমেট্রিক নিরাপত্তা হিসেবে রয়েছে আইরিশ স্ক্যানার ও ফিঙ্গারপ্রিন্ট রিডার। দুটি স্টেরিও স্পিকার, ২ টেরাবাইট পর্যন্ত মেমরি সুবিধার জন্য কার্ড স্লট, ডুয়াল সিম সুবিধার এই স্মার্টফোনের ব্যাটারি ৪,১৫০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের।

এইচপির অফিসিয়াল অনলাইন স্টোর থেকে স্মার্টফোনটি ৭০৬ দশমিক ৮০ পাউন্ড বা ৯১৫ ডলারে কেনা যাচ্ছে।

এইচপির অফিসিয়াল ওয়েবসাইট অবলম্বনে রুদ্র মাহমুদ

একসঙ্গে ট্যাব ও ল্যাপটপ বানাবে মাইক্রোসফট-আইবিএম

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : সফটওয়্যার জায়ান্ট মাইক্রোসফট ও যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক টেকনোলজি অ্যান্ড কনসালটেন্ট প্রতিষ্ঠান ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস মেশিনস (আইবিএস) যৌথভাবে মাইক্রোসফট সারফেস ট্যাবলেট ও সারফেস বুক ল্যাপটপের ব্যবসায় নামছে।

আইবিএমের বিপুল পরিমাণ ক্রেতাকে লক্ষ্য করে প্রতিষ্ঠান দুটি ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়েছে।

আইবিএম এর আগে অ্যাপলের সঙ্গে যৌথভাবে আইফোন ও আইপডের অ্যাপস ব্যবসা করার জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়েছিল। ২০১৪ সালে হওয়া চুক্তিটির মতোই এবার মাইক্রোসফটের সঙ্গে যুক্ত হলো প্রতিষ্ঠানটি।

ibm_vs_ms-techshohor

অ্যাপল ছাড়াও বিশ্বের বড় বড় প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে ভালো সম্পর্কে রয়েছে আইবিএমের। তাদের সঙ্গে যুক্ত হয়ে মাইক্রোসফটের বেশ সুবিধাই হবে বলে মনে করছে বিশেষজ্ঞরা। তাদের ধারণা, এই চুক্তির ফলে মাইক্রোসফটের হার্ডওয়্যার ব্যবসা ও উইন্ডোজ ১০ অপারেটিং সিস্টেমটি সবখানে ছড়িয়ে পড়বে।

আইবিএমের সঙ্গে যুক্ত হওয়া প্রসঙ্গে মাইক্রোসফটের ডিভাইস বিভাগের জেনারেল ম্যানেজার ব্রেইন হল বলেন, আইবিএমের সঙ্গে খুব ভালো সময় অতিক্রম করতে পারবো বলে আমরা আশাবাদী।

বিজনেস ইনসাইডার অবলম্বনে শামীম রাহমান

কমদামে স্যামসাংয়ের নতুন ট্যাবলেট

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : নতুন ট্যাবলেট ডিভাইস উন্মুক্ত করেছে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রযুক্তি জায়ান্ট স্যামসাং। গ্যালাক্সি জে ম্যাক্স নামে এই ডিভাইসটিতে রয়েছে ৭ ইঞ্চি ডব্লিউএক্সজিএ রেজুলেশন ডিসপ্লে।

ডিভাইসটিতে রয়েছে ১.৫ গিগাহার্জ কোয়াড কোর প্রসেসর। ৮ গিগাবাইট ইন্টারনাল মেমোরির পাশাপাশি এতে রয়েছে ১.৫ গিগাহার্টজ র‍্যাম। চাইলে মেমোরি ২০০ গিগাবাইট পর্যন্ত বৃদ্ধি করা যাবে মাইক্রো এসডি কার্ড ব্যবহারের মাধ্যমে।

samsung -glaxy-table-techshohor

ডুয়েল সিম সুবিধাযুক্ত এই ট্যাবে অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে রয়েছে অ্যান্ড্রয়েড ললিপপ ৫.১। ছবি তোলার জন্য ডিভাইসটি পিছনে রয়েছে এলইডি ফ্ল্যাশ ও অটো ফোকাস সুবিধা যুক্ত ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। সেলফি ও ভিডিও চ্যাটের জন্য সামনে রয়েছে ২ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।

এছাড়া রয়েছে ৩.৫ এমএম অডিও জ্যাক, এফএম রেডিও সুবিধা। গান শোনার সুবিধার  দিতে ট্যাবলেটটির বক্সেই দেয়া থাকবে ব্লুটুথ হেডসেট।

দীর্ঘ সময় ব্যাটরি ব্যাকআপ সুবিধা দিতে ডিভাইসটিতে রয়েছে ৪ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি। সাশ্রয়ী দামের এই ডিভাইসটি কিনতে ব্যবহারকারীদের ব্যয় করতে হবে মাত্র ২০০ মার্কিন ডলার বা বাংলাদেশি টাকায় ১৪ হাজার টাকা। কালো ও গোল্ড রংয়ে পাওয়া যাবে ডিভাইসটি।

ফোন এরিনা অবলম্বনে তুসিন আহমেদ