আইওএসে ড্রাগ-ড্রপ সুবিধা আসছে

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : সম্প্রতি প্রকাশিত বিভিন্ন তথ্য থেকে জানা গেছে, অ্যাপলের পরবর্তী মোবাইল অপারেটিং সিস্টেম আইওএস ১১ ব্যবহারকারীদের আইফোন ব্যবহার আরও সহজ করবে। বহুল প্রত্যাশিত অনেক সুবিধা আসবে এই অপারেটিং সিস্টেমে।

সাধারণত, আইওএস ব্যবহার করা মানেই আপনাকে এক অ্যাপ থেকে আরেক অ্যাপে যেতে হয়। যখন আপনি আইপ্যাড ব্যবহার করেন তখন দুইটি অ্যাপে একসাথে কাজ করার সুযোগ রয়েছে। তবে বিষয়টি ততোটা সহজ নয়। এক্ষেত্রে বেশিরভাগ কাজই হয় কপি এবং পেস্ট করে।

iphone-7-plus-techshohor

এর ফলে ব্যবহারকারীরা মাল্টিটাস্কিং সুবিধা কমই পেয়ে থাকেন। ডেভেলপার ও ব্যবহারকারীরা দীর্ঘদিন ধরেই বিষয়টি সহজ করার সুবিধা প্রত্যাশা করছে। তবে, এবার আইওএসে আসছে ড্রাগ অ্যান্ড ড্রপ সুবিধা। ডেভেলপার স্টিভ স্মিথের আনা এই আপডেটে ব্যবহারকারীরা সহজেই এক অ্যাপস থেকে অন্য অ্যাপসে ডেটা ট্রান্সফার করতে পারবেন।

স্প্লিট ভিউতে সুবিধাটি কাজ করবে, যা মাল্টিটাস্কিং সুবিধা দেবে। তবে বর্তমানে শুধুমাত্র আইপ্যাডে স্প্লিট ভিউ ফিচারটি কাজ করে। তবে ছোট স্ক্রিণের আইফোনে এটি কাজ করবে কিনা সেটি এখন দেখার বিষয়!

ম্যাশেবল অবলম্বনে রুদ্র মাহমুদ

ফেইসবুকে অটো প্লে ভিডিও বন্ধ করবেন যেভাবে

তুসিন আহমেদ, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : অফিসে কাজের ফাঁকে ফেইসবুকে হোম ফিড দেখছেন। হঠাৎ জোরে শব্দ করে কোনো ভিডিও চালু হয়ে গেল। তখন কিছুটা হলেও অপ্রস্তুত হতে হয়। ফেইসবুকে ভিডিও দেখতে অটো প্লে নামের নতুন ফিচারের কারণেই আচমকা ভিডিও চালু হয়।

এ কারণে ফেইসবুকের হোম পেইজ দেখার সময় ভিডিওয়ের প্লে বাটনে ক্লিক না করলেও ভিডিও চালু হয়ে যায়।

চাইলে অবশ্য অটো প্লে বন্ধ রাখা যায়। কিভাবে কাজটি করতে হবে এ টিউটোরিয়ালে তা তুলে ধরা হলো।

 

অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসে
ফেইসবুক অ্যাপে লগইন করার পর ডান পাশে সেটিংস আইকনে (তিনটি লাইন বাটন) ক্লিক করতে হবে।

তারপর ক্রলডাউন করে ‘app settings’-এ ক্লিক করতে হবে।

সেখান থেকে ‘autopay’ অপশনে যেতে হবে। সেখান থেকে ‘never autopay video’  অপশনটিতে ট্যাপ করে অফ করে দিতে হবে।

আইওএস ডিভাইসে ক্ষেত্রে
ফেইসবুকে অ্যাপে লগইনের পর ডান পাশে থাকা সেটিংস বাটনে ক্লিক করতে হবে।

সেখান থেকে ‘settings’-এ গিয়ে Account Settings-এ যেতে হবে।

এরপর Sounds-এ গিয়ে ‘Videos in News Feed Start with Sound’ অপশনটি বন্ধ করে দিতে হবে।

তাহলে ফেইসবুক ফিডে দেখতে না চাইলে ভিডিও অটো প্লে হবে না।

আরও পড়ুন

ভিডিও এডিটিং অ্যাপ আনলো অ্যাপল

তুসিন আহমেদ, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : বর্তমানে ছবির পাশাপাশি ভিডিও শেয়ারিং বেশ জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে। আইওএস ব্যবহারকারীরা যাতে এতে পিছিয়ে না থাকেন, তাই অ্যাপল ক্লিপস নামে সম্প্রতি নতুন একটি অ্যাপ্লিকেশন নিয়ে হাজির হয়েছে।

এ অ্যাপের সাহায্যে ভিডিওকে সহজেই সুন্দর ও আকষর্ণীয় করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করা যায়।

clips-techshohorp

এক নজরে অ্যাপ্লিকেশনটির ফিচারগুলো
অ্যাপটি ব্যবহার করে আইফোন, আইপ্যাড, আইপডের সাহায্যের সহজেই ভিডিও করা যাবে। এরপর তা এডিট করে শেয়ার করা যাবে।

ভিডিওয়ের শব্দ সহজেই মুছে ফেলা যাবে অ্যাপটির সাহায্যে। তারপর পছন্দমত মিউজিক যুক্ত করা যাবে।

ভিডিওতে টাইটেল যুক্ত করা যাবে। চাইলে অ্যানিমেশন টাইটেল যুক্ত করা যাবে।

টাইটেলে ইমোজি যুক্তের সুবিধা ফলে ভিডিওটি হবে আরও আকষর্ণীয়।

অ্যাপটির সাহায্যে চাইলে ডিভাইসের লাইব্রেরিতে ছবি ভিডিওতে যুক্ত করা যাবে।

চাইলে ভিডিওয়ের ব্যাকগ্রাউডে পছন্দের ছবি বা পোস্ট যুক্ত করা যাবে।

অ্যাপটির সাহায্যে ভিডিও তৈরি করে তা সরাসরি ইন্সটাগ্রাম, ফেইসবুক ও টুইটারের মত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করা যাবে।

অ্যাপ্লিকেশনটি ব্যবহার করতে হলে আইওএস ১০.৩ চালিত অপারেটিং সিস্টেমের ডিভাইস ব্যবহার করতে হবে।

এ ঠিকানা থেকে অ্যাপটি ডাউনলোড করে ব্যবহার করা যাবে।

সফটওয়্যার সেবায় ধ্রুবতারা হতে চায় ধ্রুবক

ভালো একটি চাকরি চাই- বেশিরভাগের এমন ভাবনার মাঝে ব্যতিক্রম দুই তরুণ। অ্যান্ড্রয়েড ও আইওএস নিয়ে তাদের নতুন কিছু করার চিন্তা পরিণত হয়েছে এক সফল উদ্যোগে। বিস্তারিত জানাচ্ছেন ইমরান হোসেন মিলন।

দেশে সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট ও অ্যান্ড্রয়েড প্ল্যাটফর্মে দক্ষতায় সেরাদের একজন মেহেদী হাসান খান। একই ভাবনার সঙ্গী হিসেবে পেয়েছেন সফটওয়্যারে বিশেষ পারদর্শী আশিক-উজ-জোহাকে। বুয়েটে প্রকৌশল শিক্ষা গ্রহণের সময়ই তাদের দীর্ঘদিনের পরিকল্পনা রূপ নিয়েছে ধ্রুবক ইনফোটেক সার্ভিসেসে

তরুন এ দুই প্রকৌশলী নিজেরাই কিছু করতে চেয়েছিলেন। নিজেদের দেশেই সফটওয়্যারের বিকাশে কাজে লাগাতে চেয়েছিলেন অ্যান্ড্রয়েড ও আইওএস প্লাটফর্মকে। তাদের সেই যৌথ প্রচেষ্টা এখন বাস্তব রূপ পেয়েছে।

Drubak-infotech-techshohor

মোবাইল প্ল্যাটফর্মে উভয়ের আগ্রহ ও দক্ষতার সুবাদে মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন, গেইমস, ওয়েব অ্যাপ্লিকেশন ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্টের সেবা প্রদানে বেশ সুনাম করেছে তাদের প্রতিষ্ঠানটি।

বুয়েটের কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগে পড়াশোনা করা আশিক ও মেহেদী মিলে ২০১৩ সালের মার্চে প্রতিষ্ঠা করেন ধ্রুবক ইনফোটেক সার্ভিসেস লিমিটেড। চার বছর পর তাদের এ উদ্যোগ ক্রমে বড় হয়েছে। এখন তাদের সঙ্গে কাজ করছেন আরও আট প্রকৌশলী। দেশি ও বিদেশি প্রতিষ্ঠানকে প্রযুক্তি সহায়তা দিচ্ছেন।

সফটওয়্যার প্রকৌশলী আশিক ধ্রুবকের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। অপর সহ-প্রতিষ্ঠাতা মেহেদী ব্যবস্থাপনা পরিচালকের দায়িত্বে রয়েছেন।

dhurok-all-rounder-techshohor

পিছন ফিরে দেখলে

সব উদ্যোগেরই পেছনে তাকালে সাধারণ হোক আর অসাধারণই হোক, একটা গল্প উঠে আসে। ধ্রুবকের রয়েছে তেমনি একটি গল্প। সাদামাটা হলেও তরুন এ দুই উদ্যোক্তার দৃঢ়তা, নিবিড় পরিশ্রম ও সংগ্রামের চিত্র উঠে এসেছে তাতে।

আশিক বলেন, বুয়েটে পড়ালেখার সময় তিন ও মেহেদী বেশিরভাগ ল্যাব, প্রজেক্ট, থিসিসগুলোতে একই গ্রুপে ছিলেন। সেই সুবাদে বন্ধুত্ব ও কাজকর্মের ব্যাপারে বোঝাপড়া তৈরি হয়েছে।

পুরনো দিনের কথা তুলে ধরে তরুন এ উদ্যোক্তা জানান, তারা বিভিন্ন বিষয়, আইডিয়া নিয়ে আলাপ করতেন। পড়ালেখা শেষের দিকে থাকায় ক্যারিয়ারের চিন্তাটা সামনে চলে আসে। দুজনেই তখন নিজেরা কিছু করা যায় কিনা সে বিষয়ে ভাবতে শুরু করেন। সেই ভাবনা রূপ নেয় পরিকল্পনায়, গড়ে ওঠে ধ্রুবক।

নিজের এ উদ্যোগকে এগিয়ে নেওয়ার দিনগুলো খুব সহজ ছিল না তাদের। এ সময়ে চোখের সামনে ‘ভালো’ চাকরির হাতছানিও ছিল। সেগুলো গ্রহণ করবেন, নাকি নিজেরা কিছু করে ভবিষ্যতে অন্যদের সেখানে চাকরি দেবেন- সে সিদ্ধান্ত নিতেও তাদের বেগ পেতে হয়েছে।

আশিকের ভাষায়, ‘আমাদের প্যাশন ছিল মোবাইল অ্যাপ ডেভেলপমেন্ট। ছাত্র অবস্থায় ২০১১ সালে ফ্রিল্যান্স ডেভেলপার হিসেবে মার্কেটপ্লেসে কাজ করা শুরু করি। ২০১২-১৩ সালের দিকে তখন মোবাইল অ্যাপ ডেভেলপমেন্ট ব্যাপারটায় এখনকার মত ক্রেজ ছিল না। মোবাইল অ্যাপ ডেভেলপমেন্টকে কেন্দ্র করে ক্যারিয়ার শুরু করতে চেয়েছি, তাই নিজেরাই কোম্পানি শুরু করার সিদ্ধান্ত নিই।’

বুয়েটে পড়ে ভালো চাকরির পিছনে না ছুটে তখন এমন সিদ্ধান্ত নেওয়াকে অনেকটাই চ্যালেঞ্জ হিসেবে দেখেন এ দুই উদ্যোক্তা। তবে সামাজিক অবমূল্যায়নের ভয়কে থোড়াই কেয়ার করে, নিজেদের পরিকল্পনায় থেকেছেন অটল।

আশিক বলেন, বড় সমর্থনটাই পেয়েছি পরিবার থেকে। ক্যারিয়ারের শুরুতে এ রকম একটা সিদ্ধান্তে পরিবারের সমর্থন অনেক বড় ব্যাপার। ছাত্র অবস্থায় জমানো সামান্য কিছু টাকা নিয়ে স্নাতকের পরই বনশ্রীতে একটি আবাসিক অ্যাপার্টমেন্টে ধ্রুবক ইনফোটেক সার্ভিসেস যাত্রা শুরু করে। এরপর ২০১৪ সালের শেষের দিকে অফিস মেরুল বাড্ডাতে বাণিজ্যিক ভবনে চলে আসে।

প্রতিষ্ঠানটিতে এখন আটজন কর্মী কাজ করছেন। যাদের বেশিরভাগই কম্পিউটার প্রকৌশলী।

যে ধরনের কাজ করে ধ্রুবক
ধ্রুবক মূলত সপটওয়্যার ডেভলপমেন্ট সেবা প্রদান করে। তাদের প্রতিষ্ঠান গুগলের অ্যান্ড্রয়েড ও অ্যাপলের আইওএস অপারেটিং সিস্টেমের জন্য মোবাইল অ্যাপ ও আনুষঙ্গিক সিস্টেম ইনফ্রাস্ট্রাকচার তৈরিতে বিশেষভাবে পারদর্শী।

এ ছাড়াও প্রতিষ্ঠানটি পিএইচপি (লারাভেল, কোড-ইগনাইটর) এবং জাভাস্ক্রিপ্ট (নোড জেএস, অ্যাঙ্গুলার জেএস) ফ্রেমওয়ার্কগুলোতে ওয়েবসাইট ও ওয়েবঅ্যাপ বানায়।

dhrubok-techshohor-office

গ্রাহক কারা
ধ্রুবক থেকে সেবা গ্রহণের তালিকায় দেশি-বিদেশি টেক-স্টার্টআপ ও করপোরেট প্রতিষ্ঠানগুলোই উল্লেখযোগ্য বলে বলেন আশিক-উজ-জোহা। তিনি বলেন, দেশে অনেক প্রতিষ্ঠান আছে যেগুলো স্টার্টআপ হিসেবে শুরু করে ব্যবসায়িক দিকটি ভালো নিয়ন্ত্রণ ও ব্যবস্থাপনা করতে পারলেও, প্রযুক্তিগত দিক থেকে কিছুটা দুর্বল। তাদের সেবা দেওয়া একটা লক্ষ্য ধ্রুবকের।

ধ্রুবক ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের পণ্য ও সেবার ধরন, গ্রাহকের চাহিদা ও সংখ্যা বিবেচনায় নিয়ে যথোপযুক্ত সার্ভার সিস্টেম, রেস্ট(REST) এপিআই, মোবাইল অ্যাপ, ম্যানেজমেন্ট ও অ্যানালাইটিক সিস্টেম নির্মাণে সহায়তা করে ।

প্রতিবন্ধকতা

ধ্রুবক ইনফোটেক সার্ভিসেস প্রতিষ্ঠার পরে গত চার বছরে অনেক প্রতিকূলতা ও প্রতিবন্ধকতার মধ্য দিয়ে সময় পার করতে হয়েছে বলে বলেন আশিক।

প্রতিষ্ঠানের জন্য দক্ষ, যোগ্য ও সঠিক মননের সফটওয়্যার প্রকৌশলী খুঁজে নেওয়ার ক্ষেত্রে অনেক সমস্যায় পড়তে হয়েছে। তিনি বলেন, ভালো সফটওয়্যার প্রকৌশলী হওয়া একটি চলমান প্রক্রিয়া। একজন প্রোগ্রামারকে প্রতিনিয়ত নিজের জ্ঞানের পরিধি, ব্যাপ্তি ও গভীরতা বৃদ্ধি করতে হয়; নতুন প্রযুক্তি, ল্যাংগুয়েজ ও প্রক্রিয়ায় নিজের পারদর্শিতা বৃদ্ধি করতে হয়। কিন্তু এমন সুপরিকল্পিত প্রকৌশলীর অভাব বোধ করেছেন তারা।

এ ছাড়াও বড় একটা সমস্যা ছিল পেমেন্ট গেটওয়ে। তাদের বেশিরভাগ গ্রাহক বিদেশি কোম্পানি ও নাগরিক হওয়ায় অধিকাংশ আয় আসে বিদেশ থেকে বিশেষ করে আমেরিকা ও অস্ট্রেলিয়া থেকে। সেই অর্থ নিয়ে আসতে পেমেন্ট গেটওয়ে নিয়ে সমস্যায় পড়তে হয়েছে। পোহাতে হয়েছে অনেক হয়রাণি।

ভবিষৎ পরিকল্পনা
তাদের স্বপ্ন ধ্রুবকে দেশে ও দেশের বাইরে সফটওয়্যার তৈরি ও সেবায় একটি ব্র্যান্ড ও নির্ভরযোগ্য প্রতিষ্ঠানে পরিণত করা। ভবিষ্যৎ লক্ষ্যের অনেকটাই কম্পিউটার ভিশন, মেশিন লার্নিং ও আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স কেন্দ্রিক। সেই লক্ষ্যে তারা ধ্রুবকে এসব প্রযুক্তিতে দক্ষ ও পারদর্শী জনবল তৈরিতে কাজ করছেন।

প্রতিষ্ঠানটি মোবাইলকেন্দ্রিক বুদ্ধিমান সফটওয়্যার তৈরির মাধ্যমে দেশি ও আন্তর্জাতিক সমস্যার সমাধান ও মানুষের জীবনমান উন্নয়নে কাজ করতে চায়।

যোগাযোগ
সেঞ্চুরি সেন্টার (ফ্লোর ৮)
খ ২২৫ প্রগতি সরণী
মেরুল বাড্ডা
ঢাকা ১২১২
ওয়েবসাইট: www.dhrubokinfotech.com
ফেইসবুক পেইজ

আইওএস ১০.৩ সংস্করণে রয়েছে যেসব ফিচার

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর  : অ্যাপল আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের ব্যবহারকারীদের জন্য আইওএস ১০.৩  সংস্করণ উন্মুক্ত করেছে। আইওএস ১১ সংস্করণ উন্মুক্তের আগে এটি বড় আপডেট বলে জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

নতুন আপডেটে সেটিংস মেনুতে পরিবর্তন আনা হয়েছে। সেটিংসে প্রবেশ করলেই উপরে প্রদর্শিত হবে অ্যাপল আইডির প্রোফাইল। এতে আইটিউন, আইক্লাউড, ফ্যামিলি শেয়ারিংসহ অ্যাপল আইডির সকল তথ্য সম্পর্কে জানা যাবে।

এছাড়া একই আইডি ব্যবহার করে কোন কোন ডিভাইসে লগইন করা আছে তাও জানা যাবে।

iso-techshohor

আইক্লাউডে মেনুতে গেলেই দেখা যাবে স্টোরেজ বৃদ্ধি করতে কতো ডলার খরচ হবে। এখানে দেখা যাবে, আইক্লাউডে কোন ডিভাইস কতটুকু জায়গা নিয়েছে। অ্যাপল ম্যাপসের অ্যাপের ইন্টারফেইসেও আনা হয়েছে পরিবর্তন। ম্যাপের মাধ্যমে থ্রিডি টাচ ফিচার ব্যবহার করে লোকেশনে ক্লিক করে সেখানকার তাপমাত্রা সম্পর্কে জানা যাবে।

ম্যাসেঞ্জার অ্যাপে পডকাস্ট সরাসরি শোনার পাশাপাশি পূর্বে থাকা নিরাপত্তা বাগ ফিক্সড করা হয়েছে। এছাড়া অ্যাপস্টোর আপডেটের পাশাপাশি সিরিকে আরও উন্নত করা হয়েছে।

চলতি বছর জুনে আইওএস ১১ উন্মু্ক্ত করতে পারে অ্যাপল। এতে থাকবে আরও আপডেট। তবে নির্দিষ্ট করে দিন তারিখ এখনো জানায়নি টেক জায়ান্টটি।

ফোনএরিনা অবলম্বনে তুসিন আহমেদ

২ লাখ অ্যাপ সরিয়ে দিতে পারে অ্যাপল

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : টেক জায়ান্ট অ্যাপল অ্যাপস্টোর থেকে প্রায় ২ লাখ অ্যাপ মুছে দিতে পারে।

চলতি বছর আইওএস ১১ উন্মুক্তের সময় এই কাজটি করা হবে বলে অ্যাপ বিষয়ক গবেষণা প্রতিষ্ঠান সেন্সর টাওয়ার জানায়।

তথ্যমতে, অ্যাপলের অ্যাপ স্টোরে যে সকল অ্যাপ ৬৪ বিট প্রসেসর উপযুক্ত নয় সেসব সরিয়ে দেওয়া হবে। অ্যাপ এই ধরনের অ্যাপের পরিমাণ হতে পারে ৮ শতাংশের মত।

ipad-techshohor

চলতি মাস থেকেই অ্যাপল ডেভেলপারদের সর্তক বার্তা পাঠাতে পারে। যদি আইওএস ১১ উন্মুক্তের আগে ৬৪ বিট প্রসেসর উপযুক্ত করে আপডেট না করা হয় তাহলে অ্যাপটি সরিয়ে দেওয়া হবে।

২০১৩ সালে আইফোন ৫এস উন্মুক্তের সময় ৬৪ বিট প্রসেসর যুক্ত করে অ্যাপল। পরবর্তী সময়ে অ্যাপলের আইওএস চালিত ডিভাইসগুলো ৬৪ প্রসেসরযুক্ত।

উল্লেখ্য সেন্সর টাওয়ার জানিয়েছে, গত বছর অ্যাপল অ্যাপ স্টোর থেকে প্রায় ৪৭ হাজার অ্যাপ সরিয়ে নেওয়া হয়েছিল।

যদিও অ্যাপল এখনো কোনো তথ্য জানায়নি কবে আইওএস ১১ উন্মুক্ত করবে। তবে ধারণা করা হচ্ছে চলতি বছর ওয়ার্ল্ডওয়াইড ডেভেলপার কনফারেন্সে (ডব্লিউডব্লিউডিসি) উন্মুক্ত করা হতে পারে নতুন সংস্করণটির। চলতি বছর ৫ থেকে ৯ জুন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে অ্যাপলের বার্ষিক ডেভেলপার সম্মেলন।

টাইমস অব ইন্ডিয়া অবলম্বনে তুসিন আহমেদ

আরও পড়ুন : 

আইওএসের জন্য কর্টানার নতুন আপডেট

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : আইফোনের জন্য টেক জায়ান্ট মাইক্রোসফটের ডিজিটাল সহকারী অ্যাপ্লিকেশন কর্টানার নতুন আপডেট এসেছে। এ সংস্করণে অ্যাপটি রিডিজাইনের পাশাপাশি নতুন ইউজার ইন্টারনফেস যুক্ত করা হয়েছে।

কর্টানার সাহায্যে ভয়েস কমান্ড দিয়ে মেইল পাঠানো, ইভেন্ট শিডিউল, ওয়েবসার্চিং, ক্লাউড সেবা ইত্যাদি কাজ করা যাবে। নতুন আপডেটের সংস্করণ হলো ২.০.০।

এ সংস্করণ ব্যবহার করে আগের তুলনায় আরও দ্রুত ব্যবহারকারীদের প্রশ্নের উত্তর দিতে পারবে কর্টানা।

iso-cortana-techshohor

আইওএসের জন্য কর্টানার উন্নত করার উদ্যোগ অনেককে অবাক করেছে। কেননা এ ডিজিটাল সহকারীর প্রতিপক্ষ সিরি রয়েছে আইওএস অপারেটিং সিস্টেমে।

বিশ্লেষকদের ধারণা, ডিজিটাল সহকারী অ্যাপ্লিকেশনের বাজারে সিরির সঙ্গে পাল্লা দিতে কর্টানাকে এগিয়ে রাখতে এ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

আইওএসের পাশাপাশি গুগলের অ্যান্ড্রয়েডের জন্যও রয়েছে কর্টানা। তবে বাংলাদেশের অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারীদের জন্য এখনও কর্টানা ব্যবহারের সুবিধা চালু হয়নি।

২০১৫ সালের ডিসেম্বরে বেটা সংস্করণ ব্যবহারের জন্য আইফোনে উন্মুক্ত করা হয়েছিল কর্টানা।

অ্যান্ড্রয়েড থেকে আইওএসে ব্যাকআপ নেওয়ার অ্যাপ

তুসিন আহমেদ, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : আপনি অ্যান্ড্রয়েড ফোন বদলে আইফোন ব্যবহার শুরু করবেন? তখন একটি থেকে অন্য ফোনে তথ্য আদান-প্রদান নিয়ে কিছুটা হলেও দুশ্চিন্তা থাকে বৈকি। কেননা অ্যান্ড্রয়েড থেকে অ্যান্ড্রয়েডে ফাইল আদান প্রদানের প্রক্রিয়া বেশ সহজ হলেও আইফোনের ক্ষেত্রে তা কিছুটা জটিল।

তবে এ নিয়ে খুব বেশি চিন্তাগ্রস্ত হওয়ার প্রয়োজন নেই। নিশ্চিন্তে ব্র্যান্ড বদলানোর কথা ভাবতে পারে। কেননা ঝামেলা ছাড়া সহজে কাজটি করতে আপনাকে সহায়তা করবে একটি অ্যাপ।

‘মুভ টু আইওএস’ নামের অ্যাপ্লিকেশনটির খুঁটিনাটি থাকছে এ টিপসে।

iso-techshohor

এক নজরে অ্যাপটির ফিচারগুলো
১. এটি ব্যবহার করতে কোনো তার লাগবে না। তবে ওয়াই-ফাই সংযোগ প্রয়োজন হবে।

২. ম্যাসেজ ও কল লিস্ট এবং ফোন নম্বর পাঠানো যাবে খুব সহজে।

৩. অ্যাপটির সাহায্যে ছবি ও ভিডিও স্থান্তান্তর করা যাবে।

৪. ওয়েবব্রাউজার বুকমার্ক, হিস্টোরি, মেইল অ্যাকাউন্টের তথ্য স্থানান্তর করা যাবে অ্যাপটির সাহায্যে।

বিনামূল্যে এ ঠিকানা থেকে অ্যাপ্লিকেশনটির ডাউনলোড করতে পারবেন। গুগল প্লে থেকে অ্যাপটি ১০ লাখের বেশি ডাউনলোড হয়েছে।

আরও পড়ুন

অ্যান্ড্রয়েডে হোম বাটনের বিকল্প অ্যাসিস্টিভ টাচ

তুসিন আহমেদ, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর :   ধরুণ আপনার হোম বাটন কাজ করছে না কিংবা আপনি অ্যাপলের আইওএস ওএস পছন্দ করেন। আওএসে অ্যাসিস্টিভ টাচ নামে চমৎকার একটি ফিচার রয়েছে যেটি হোম বাটন কাজ না করলেও ফোন চালাতে সহায়তা করে। এ ফিচার আপনি অ্যান্ড্রয়েড ফোনে ব্যবহার করতে চান। এখন উপায়, আইওএস ডিভাইস কিনবেন নাকি বিকল্প আছে কিছু।

এমন পরিস্থিতিতে যারা পড়েছেন তাদের জন্য টিপস হলো ‘অ্যাসিস্টিভ টাচ ফর অ্যান্ড্রয়েড’ অ্যাপটি ব্যবহার করে অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসে এ সুবিধা পাওয়া যাবে।

apps-techshohor

এক নজরে অ্যাপ্লিকেশনটির ফিচারগুলো
এটি মূলত ভাচুর্য়াল হোম বাটন। এ অ্যাপ ইজি টাচ ও লক স্ক্রিন সুবিধা দেবে।

অ্যাপটির সাহায্যে চাইলে র‍্যাম ক্লিন, বুস্ট স্পিড, ওয়ান ট্যাপ র‍্যাম বুস্টার সুবিধা পাওয়া যাবে।

এতে রয়েছে কুইক টাচ সেটিংস সুবিধা। সেখান থেকে ওয়াই-ফাই, ব্লুটুথ, মুড, ভলিউম ইত্যাদি সহজে নিয়ন্ত্রণ করা যাবে।

অ্যাপের আইকনটি অনেকটা অ্যাপলের আইওএস অপারেটিং সিস্টেমের অ্যাসিস্টিভ টাচের মতই।

অ্যাপ্লিকেশনটি একবার ডাউনলোড করলে পরে ব্যবহার করতে আর ইন্টারনেট সংযোগের প্রয়োজন হবে না।

অ্যাপটির একটি অসুবিধা হলো অনেক বেশি এড প্রদর্শিত হয়। তবে এড সরিয়ে ফেলতে চাইলে অ্যাপটি কিনতে হবে।

গুগল প্লেতে অ্যাপটি এক কোটি বারের বেশি ডাউনলোড হয়েছে। এ ঠিকানা থেকে অ্যাপ্লিকেশনটির বিনামূল্যে ডাউনলোড করে ব্যবহার করা যাবে।

আরও পড়ুন 

নতুন আইওএসে ব্যাটারি সমস্যা

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : সাধারণত হার্ডওয়্যারের জন্য সফটওয়্যারের নতুন সংস্করণ প্রয়োজনীয় এমনকি আবশ্যক। কিন্তু সবসময় সেটি সঠিক নয়। তেমনটাই ঘটেছে নতুন আইওএস ১০.১.১ সংস্করণে। অনেক আইফোন ব্যবহারকারী অভিযোগ করেছেন আইওএসের নতুন এই সংস্করণ ব্যাটারি লাইফ নষ্ট করছে। এমনকি মাত্র ২০ মিনিটেই চার্জ শেষ হয়ে যাচ্ছে।

অ্যাপল সাপোর্ট ফোরামে এমনই এক অভিযোগ উঠে। এরপর অভিযোগ বেড়ে সেটি ১৩ পৃষ্ঠা পর্যন্ত দাড়িয়েছে। সেখানে ব্যবহারকারীরা আইফোনের বিভিন্ন মডেলে অকল্পনীয়ভাবে ব্যাটারির চার্জ কমে যাওয়া এবং একটি নির্দিষ্ট চার্জিং থাকা অবস্থায় ফোনটি বন্ধ হওয়ার কথা জানিয়েছেন।

battery-TechShohor

প্রথম পোস্টটিতে বলা হয়, ৩০ শতাংশ চার্জ থাকতেই আইফোন বন্ধ হয়ে যাবে। সেখানে অনেকেই তাদের ক্ষেত্রেও একই ঘটছে বলে জানান।

টুইটারেও থেমে নেই অ্যাপল ব্যবহারকারীদের অভিযোগ। কয়েক শত টুইটার ব্যবহারকারী তাদের আইফোনে চার্জ থাকা স্বত্বেও হটাৎ করে বন্ধ হয়ে যাওয়ার অভিযোগ করেছেন।

গত সপ্তাহে অ্যাপল ঘোষনা দেয়, কিছু শর্তের ভিত্তিতে আইফোন ৬এসের ব্যাটারি বিনামূল্যে পাল্টে দেওয়া হবে। তবে আইফোনের অন্যান্য মডেলের ক্ষেত্রেও এমনটি ঘটতে দেখা যাচ্ছে, এমনকি সর্বশেষ বাজারে আসা আইফোন ৭ এর ক্ষেত্রেও।

দ্য নেক্সট ওয়েব অবলম্বনে রুদ্র মাহমুদ

সবার জন্য আইওএসের নতুন সংস্করণ

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : এই মাসের প্রথম দিন অ্যাপল পাবলিক বেটা টেস্টিং প্রোগ্রামের আওতায় স্বল্প সংখ্যক ব্যবহারকারীদের জন্য আইওএস ১০.২ এর বেটা সংস্করণ উন্মুক্ত করে। এর প্রায় এক সপ্তাহ পর সবার জন্য ছাড়া হলো আইওএস ১০.২ এর দ্বিতীয় বেটা সংস্করণ।

এর মাত্র এক দিন আগে নিবন্ধিত ডেভেলপারদের জন্য সংস্করণটি ছাড়া হয়। যে কোনো আইওএস ব্যবহারকারী তার হ্যান্ডসেটের সেটিংস থেকে জেনারেল এবং তারপর সফটওয়্যার আপডেট অপশনে গিয়ে নতুন সংস্করণটি ডাউনলোড ও ইনস্টল করতে পারবেন।

নতুন বেটা সংস্করণে অ্যাপলস টিভি অ্যাপও রয়েছে। ফলে অ্যাপল টিভির মালিকরা সহজেই মুভি ও টিভি শো দেখতে এবং কিনতে পারবেন। অ্যাপলের গত অক্টোবরের একটি অনুষ্ঠানে নতুন এই অ্যাপটি দেখানো হয়, যেখানে নতুন ম্যাকবুক প্রো লাইন উন্মোচন করা হয়েছিলো।

iOS 10.2 Public beta 2-TechShohor

নতুন ওএসে জরুরী এসওএস ফিচার যুক্ত করা হয়েছে। এই ফিচারটির ফলে ব্যবহারকারী তাদের ডিভাইসের পাওয়ার বাটন ৫ মিনিট চেপে ধরলে জরুরী সেবার নাম্বারে কল যাবে। এছাড়া মিউজিক অ্যাপেও বড় শাফল ও রিপিট বাটন যুক্ত করা হয়েছে।

নতুন এই বেটা সংস্করণে বেশ কিছু ইমোজি, ওয়ালপেপার ও ভিডিও অ্যাপের জন্য নতুন উইজেট যুক্ত করা হয়েছে। ক্যামেরা সেটিংসও নিয়ন্ত্রণ করার সুযোগ এসেছে, ফলে প্রতিবার অ্যাপটি রিস্টার্ট নিলে অটো রিসেট হবে না। এছাড়া মিউজিক রেটিং সুবিধাও যুক্ত হয়েছে।

জিএসএম এরিনা অবলম্বনে রুদ্র মাহমুদ