গুগলকে রেকর্ড ২৭০ কোটি ডলার জরিমানা

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ইউরোপে রেকর্ড পরিমাণ জরিমানা গুনতে হচ্ছে গুগলকে। সার্চ রেজাল্টে কারসাজির অভিযোগে ইউরোপীয় ইউনিয়নের কম্পিটিশন কমিশন মঙ্গলবার প্রতিষ্ঠানটিকে ২৭০ কোটি ডলার জরিমানা করেছে।

এর আগে একটি কোম্পানি গুগলের বিরুদ্ধে সার্চ রেজাল্টে একচেটিয়াত্বের অভিযোগ করে। আগামী তিন মাসের মধ্যে গুগলকে এই অর্থদণ্ড দেওয়ার জন্য বলে দিয়েছে কমিশন।

তবে গুগল বলছে তারা এই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করবে।

এর আগে একচেটিয়াত্ব রোধে গঠিত ইইউ কমিশন বাজার আধিপত্যের অপব্যবহার করায় ২০০৯ সালে ইন্টেল করপোরেশনকে ১১৮ কোটি ডলার জরিমানা করেছিল। গুগলের জরিমানা ইন্টেলের চেয়ে ঢের বেশি।

google-scan-techshohor

ইইউ এর রায়ে বলা হয়েছে, গুগল যদি এই অর্থ আগামী তিন মাসের মধ্যে পরিশোধ না করে তাহলে তাদের মাতৃপ্রতিষ্ঠান অ্যালফাবেটের প্রতিদিনের আয়ের ৫ শতাংশ হারে দণ্ড দিতে হবে। গত বছর গুগলের আয় হয়েছিল ৯ হাজার ২৭ কোটি ডলার।

সর্বশেষ আর্থিক প্রতিবেদনে দেখা যাচ্ছে, অ্যালফাবেট দিনে ১৪ মিলিয়ন ডলার আয় করে থাকে।

ইউরোপীয়ান ইউনিয়নের কম্পিটিশন কমিশনার মার্গারেট ভেস্তাগার বলেন, গুগল যেটা করেছে সেটা ইইউ অ্যান্টিট্রস্টি অনুযায়ী অবৈধ।

তিনি বলেন, গুগল সার্চ রেজাল্টে পরিবর্তন এনে বাজারের প্রতিযোগিতা নষ্ট করেছে। সেখানে কিছু কোম্পানি বেশি সুযোগ পেয়েছে আবার কিছু প্রতিষ্ঠান একেবারেই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

ইমরান হোসেন মিলন

আর ই-মেইল পড়বে না গুগল

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : এখন থেকে জিমেইল ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত ই-মেইল স্ক্যানিংয়ের মাধ্যমে কাস্টমাইজ করা বিজ্ঞাপন প্রচার করবে না গুগল।

এতদিন গুগলের ই-মেইল স্ক্যানিংয়ের বিরুদ্ধে অনেকেই সমালোচনা করে আসছিলেন। অবশেষে বিজ্ঞাপন প্রচারের জন্য মেইল স্ক্যানিংয়ের সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছে গুগল।

শুক্রবার একটি ব্লগ পোস্টের মাধ্যমে গুগল এই ঘোষণা দেয়। বছরের শেষ নাগাদ গুগল এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করবে।

gmail-google-techshohor

এতদিন সার্চ জায়ান্টটির ব্যবসায়ীদের জন্য জি স্যুট জিমেইল সার্ভিসে বিজ্ঞাপন দেখানো হতো না। এ সেবার ক্ষেত্রে জিমেইল স্ক্যান করা হতো না। এখন থেকে বিনামূল্যের জিমেইল সেবার ক্ষেত্রেও একই নিয়ম চালু করা হবে।

তবে কিছু ক্ষেত্রে জিমেইলে স্বল্প কিছু বিজ্ঞাপন থাকবে। যেমন ইউটিউবে আমরা কী ধরনের ভিডিও দেখি বা সার্চ করি তার ওপর ভিত্তি করে গুগল আমাদেরকে তথ্যভিত্তিক বিজ্ঞাপন দেখাবে।

গুগল টার্গেটেট অ্যাড বা ব্যক্তিগত পছন্দ অনুযায়ী বিজ্ঞাপন পাঠাতে কোন ধরনের তথ্য স্ক্যান করবে তা বিজ্ঞাপনের সেটিংস পেইজে গিয়ে দেখা যাবে।

তবে বিজ্ঞাপন প্রচারের জন্য ই-মেইল স্ক্যান না করলেও কিছু ক্ষেত্রে তারা ইমেইল স্ক্যান করা অব্যাহত রাখবে। গুগল তার টার্মস অব সার্ভিসে জানিয়েছে, স্পাম ও ম্যালওয়্যার চিন্হিত করতেই স্ক্যানিংয়ের সিদ্ধান্ত বহাল রাখা হয়েছে।

ব্লগ পোস্টে গুগল অ্যান্টি স্পাম, অ্যান্টি ফিশিং ও স্মার্ট রিপ্লাইয়ের ফিচার যুক্ত করার কথা জানিয়েছে। এই ফিচারগুলোর জন্যও গুগলের ইমেইল বিশ্লেষণের প্রয়োজন পরবে।

সিএনএন টেক অবলম্বনে আনিকা জীনাত

গুগলেই পাওয়া যাবে চাকরির খোঁজ

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর :  চাকরি খুঁজতে আর বিভিন্ন ওয়েবসাইটে ঢুঁ মারতে হবে না। সার্চ ইঞ্জিন গুগলই এখন থেকে চাকরির বিজ্ঞপ্তি খোঁজার কাজটি করে দেবে।

তবে এখন শুধুমাত্র যুক্তরাষ্ট্রের ব্যবহারকারীরাই গুগলে চাকরি খোঁজার কাজটি করতে পারবেন। অন্যান্য দেশে গুগল ফর জব অপশনটি পাওয়া যাবে না।

মঙ্গলবার থেকে গুগল তাদের ‘জব’ অপশনটি চালু করেছে। সার্চ রেজাল্টে যাতে একই রকম ফলাফল না আসে সে বিষয়টি নিশ্চিত করতে গুগল নিজেই ডুপ্লিকেট রেজাল্টগুলো ছেঁকে নেওয়ার কাজ করবে।

 

 

google-job-techshohor

চাকরির বিজ্ঞপ্তি দেওয়া প্রতিষ্ঠানের রেটিংও জানিয়ে দেবে গুগল। এই রেটিং সংগ্রহ করা হবে প্রতিষ্ঠানের সাবেক ও বর্তমান কর্মীদের কাছ থেকে। শুধু তাই নয়, চাকরি প্রার্থীর এলাকা থেকে জব লোকেশনের দূরত্বও দেখাবে গুগল।

চাকরির সন্ধানদাতা প্রতিষ্ঠান যেমন লিঙ্কড ইন, মনস্টার, ওয়ে আপ, ডাইরেক্ট এমপ্লয়ার্স, ক্যারিয়ার বিল্ডার, গ্লাসডোর ও ফেইসবুকের সঙ্গে গুগল চুক্তি করায় গুগলে চাকরি খোঁজার প্রক্রিয়াটি সহজ হয়েছে।

গ্যাজেটস নাও অবলম্বনে আনিকা জীনাত

টিম কুক, বেজোস, নাদেলাদের সঙ্গে বসছেন ট্রাম্প

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : নির্বাচিত হয়ে হোয়াইট হাউজে আসার আগে থেকেই দেশটির প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোকে কিছুটা হলেও বিষোদগার করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্প। সেসময় অনেক প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের কর্মী এমন কী সিলিকন ভ্যালির কর্মকর্তারাও আন্দোলনে যাওয়ার হুমকি পর্যন্ত দিতে বাধ্য হয়েছিল।

তবে নতুন খবর হচ্ছে, ডোনাল্ড ট্রাম্প এখন প্রযুক্তি কর্মকর্তাদের সঙ্গে তার সম্পর্কের বরফ গলাতে চাইছেন। সেজন্য প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাদের নিয়ে হোয়াইট হাউজে একটি সম্মেলন আয়োজন করছেন।

আগামী সোমবার সম্মেলনের সময় নির্ধারণ করে গত মাসেই সম্মতিপত্রে স্বাক্ষর করেছেন ট্রাম্প। আর এর মাধ্যমে প্রথমবারের মতো আমেরিকান টেকনোলজি কাউন্সিল হোয়াইট হাউজে বসতে যাচ্ছে।

Trump-Techshohor

সম্মেলনে অংশ নিতে যাওয়া গ্রুপটি এইচ-১বি ভিসা প্রোগ্রাম সংস্কার নিয়ে কথা বলবেন। তবে ট্রাম্প অনেক আগেই বিষয়টি নিয়ে সমালোচনা করেন প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোর। ট্রাম্প বিষয়টিতে প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলো সুযোগের অপব্যবহার করে অন্যদেশ থেকে স্বল্পমূল্যে শ্রমিক আমদানি করা হয় বলে অভিযোগ তোলেন।

এই কাউন্সিলের আরও একটি এজেন্ডা হচ্ছে, রাষ্ট্রের প্রযুক্তি অবকাঠামোর আধুনিকায়ন এবং সাইবার আক্রমণ থেকে কম্পিউটারগুলো কিভাবে রক্ষা করা যাবে।

প্রশাসনিক এক কর্মকর্তা বলছেন, সম্মেলনে ১৮টি প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিকে তারা আসার প্রত্যাশা করছেন। যার মধ্যে রয়েছে, অ্যামাজন প্রধান নির্বাহী জেফ বেজোস, অ্যাপল সিইও টিম কুক, মাইক্রোসফট সিইও সত্য নাদেলা, ফাউন্ডার ফান্ডস এর পিটার থিয়েল এবং গুগলের প্যারেন্ট কোম্পানি অ্যালফাবেটের সহযোগী চেয়ারম্যান এরিক স্মিত।

তবে গত মাসেই এই আয়োজন হওয়ার কথা ছিল যখন ট্রাম্প জলবায়ু চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্রের সরে আসার ঘোষণা দেয় এবং চুক্তিতে সই করেননি সেসময়।

তখন অবশ্য ফেইসবুক প্রধান নির্বাহী মার্ক জাকারবার্গ, গুগল সিইও সুন্দর পিচাই, জেনারেল ইলেক্ট্রনিক সিইও জেফ ইমমেট, অ্যাপল সিইও টিম কুক এমন সিদ্ধান্তের নিন্দা করেছিলেন।

তবে এমন সম্মেলন নিয়ে প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রতিনিধিরা কোনো ধরনের মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন।

অন্যরা গেলেও টেসলা ও স্পেসএক্স প্রধান নির্বাহী ইলোন মাস্ক সেখানে অংশ নেবেন না। কারণ তিনি প্যারিস জলবায়ু সিদ্ধান্তের পর এই অ্যাডভাইসরি কাউন্সিল থেকে পদত্যাগ করেন।

উবার প্রধান নির্বাহী ত্রাভিস কালানিকও সম্মেলন যোগ দেবেন না বলে জানা গেছে।

অন্য যারা যারা অংশ নেবেন বলে অনেকটা নিশ্চিত করেছেন তারা হলেন, মাস্টারকার্ড সিইও অজয় বঙ্গ, ওপেনগভ সিইও জাকারি বুকম্যান, ওরাকলের কো-চিফ এক্সিকিউটিভ সাফরা কার্টজ, ক্লাইনার পেরকিনস চেয়ারম্যান জন ডোরে, ভিএমওয়্যারের সিইও প্যাট গেলসিঙ্গার, প্ল্যানটির সিইও অ্যালেক্স ক্রাপ, ইন্টেল সিইও ব্রেইন কারজানিস, আকামাই সিইও টম লেইটন, স্যাপ সিইও বিল ম্যাকডারমোট, কোয়ালকম সিইও স্টিভেন মোলেনকফ, অ্যাডোবি সিইও সান্তনু নারায়ণ, আইবিএম সিইও গিন্নি রোমেট্টি এবং অ্যাকসেঞ্চার সিইও জুলিয়া সুইট।

ইমরান হোসেন মিলন

উস্কানিমূলক ভিডিও রিডাইরেক্ট করবে গুগল

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ইউটিউবে উস্কানিমূলক বা উগ্রবাদী কোনো বিষয়বস্তু পেলে তা সরিয়ে দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে গুগল। ধর্মভিত্তিক উগ্রবাদী ভিডিও খুঁজে তা মুছে ফেলার জন্য গুগল নতুন করে প্রকৌশলী নিয়োগ দেওয়ারও সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

যেসব ভিডিও প্রচার করে মানুষকে উগ্রবাদী মতাদর্শে উদ্বুদ্ধ করা হয় সেসব ভিডিও খুঁজতে আরও উন্নত প্রযুক্তিও ব্যবহার করবে গুগল। অনলাইন বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে তারা উগ্রবাদীদের কাছে পৌঁছে, উস্কানিমূলক ভিডিওগুলো রিডাইরেক্ট করে জঙ্গি বিরোধী ভিডিও দেখানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

youtube-techshohor

গুগলের জেনারেল কাউন্সিল কেন্ট ওয়াকারের মতে,সবাই উগ্রবাদী বিষয়বস্তু মুছে ফেলতে তৎপর। তবে প্রযুক্তি শিল্পের সবারই এটা স্বীকার করে নেওয়া উচিত, আমাদের নেওয়া পদক্ষেপগুলো যথেষ্ট নয়।

জার্মানি, ফ্রান্স ও ব্রিটেনে সন্ত্রাসী হামলার পরই উগ্রবাদী বক্তব্য ও ভিডিও সরাতে ফেইসবুক,টুইটার ও গুগলের ওপর চাপ প্রয়োগ করছে দেশগুলোর সাধারণ নাগরিকরা। উগ্রবাদী বিষয়বস্তু সরাতে প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোকে আরও বেশি সক্রিয় হওয়ার দাবি জানিয়ে আসছে তারা।

বৃহষ্পতিবার এক ব্লগ পোস্টে ফেইসবুক এসব পোস্ট সরাতে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ব্যবহারের ঘোষণা দিয়েছে। এই প্রযুক্তি ছবি মিলিয়ে এবং ভাষা চিনে উগ্রবাদী পোস্ট মুছে ফেলতে সক্ষম। ইউরোপের জঙ্গিদলগুলো কর্মী নিয়োগের ক্ষেত্রে ফেইসবুক ব্যবহার করছে এমন অভিযোগ ওঠার পরেই ফেইসবুক এ ঘোষণা দেয়।

রয়টার্স অবলম্বনে আনিকা জীনাত

১০ লাখের বেশি বিক্রি গুগলের পিক্সেল ফোন

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ১০ লাখের বেশি বিক্রি হয়েছে গুগলের পিক্সেল স্মার্টফোন। তবে সার্চ জায়ান্টটি এখনো অফিসিয়ালভাবে তথ্যটি প্রকাশ করেনি।

কত ইউনিট পিক্সেল ফোন বিক্রি করেছে তার হিসাবে মিলেছে ‘পিক্সেল লঞ্চার’ অ্যাপের মাধ্যমে। এই লঞ্চারটি গুগলের ফ্ল্যাগশিপ ফোনটির জন্য বিশেষভাবে তৈরি করা হয়েছে। গুগলের প্লেস্টোরে দেখাচ্ছে, গত আট মাসে এটি ১০লাখ থেকে ৫০ লাখ পর্যন্ত ডাউনলোড হয়েছে।

পিক্সেল ফোন ছাড়াও অ্যাপটি পিক্সেল সি ট্যাবলেটের কাজ করে। তাই সঠিক হিসাবে কষে বের করা যাচ্ছে না পিক্সেল ফোন বিক্রি হয়েছে।

তবে ফোন বিষয়ক ওয়েবসাইট জিএসএমএরিনা মনে করছেন এই পর্যন্ত ১০ বেশি পিক্সেল ফোন বিক্রি হয়েছে।

বিশ্লেষকরা ধারণা করছেন, প্রথম ডিভাইস এনে ১০ লাখ বিক্রি গুগলের জন্য শুভযাত্রা বলা যায়। এই ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে চলতি বছর পিক্সেল ২ নিয়ে হাজির হতে যাচ্ছে গুগল।

উল্লেখ্য ইতোমধ্যে প্রযুক্তি দুনিয়াতে পিক্সেল ২ নিয়ে গুঞ্জন শুরু হয়ে গেছে। ধারণা করা হচ্ছে, পিক্সেল ফোনে থাকতে পারে ৫ ইঞ্চির ২কে ডিসপ্লে।

কার্ভ ডিসপ্লের পাশাপাশি থাকতে পারে ফিঙ্গার প্রিন্ট সেন্সর, ৬ জিবি র‍্যাম, ভার্চুয়াল রিয়েলিটিসহ উন্নত মানের প্রসেসর। এতে থাকতে পারে আরও উন্নত ক্যামেরা, যা এ বছর বাজারে উন্মুক্তের অপেক্ষায় থাকা আইফোন ৮-এর ক্যামেরা থেকে ভালো হবে।

জিএসএমএরিনা অবলম্বনে তুসিন আহমেদ

এলো গুগল ক্রোমের নতুন আপডেট

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ব্যবহারকারীদের জন্য নতুন সংস্করণ নিয়ে হাজির হলো গুগল ক্রোম। নতুন উইজেট,নিরাপত্তা আপডেট ও অনেকগুলো এপিআইয়ের উন্নতি সাধণ করা হয়েছে এতে।

প্রতিষ্ঠানটি এক ব্লগপোষ্টে গুগল ক্রোমের নতুন আপডেট সম্পর্কে জানায়। অ্যান্ড্রয়েড, ক্রোম ওএস, লিনাক্স, ম্যাক ও উইন্ডোজ ব্যবহারকারীরা নতুন সংস্করণটি ব্যবহার করতে পারবেন।

যুক্ত হওয়া নতুন সার্চ উইজেটটি ব্যবহার করে হোমস্ক্রিন থেকে ব্যবহারকারীরা সহজেই যে কোনো তথ্য খুঁজে বের করতে পারবেন। চাইলে হোম উইজেটের সাইজ সহজেই পরিবর্তন করে নিতে পারবেন ব্যবহারকারীরা।

নতুন সংস্করণে ওয়েব ব্রাউজ ও গুগল সার্চ করা করা যাবে আরও দ্রুত। এতে নতুন পেমেন্ট ও পাসওয়ার্ড এপিআই যুক্ত করা হয়েছে। ফলে এখন থেকে ডেস্কটপ ব্যবহারকারীরা পেমেন্ট রিকুয়েস্ট এপিআই ব্যবহার করতে পারবেন।

এছাড়া পেইন্ট টাইমিং এপিআই, সিএসএস ফ্রন্ট-ডিসপ্লে এপিআইয়ের যথেষ্ট আপডেট করা হয়েছে সংস্করণটিতে।

অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারীরা এই ঠিকানা, উইন্ডোজ ও ম্যাক ব্যবহারকারীরা এই ঠিকানা থেকে নতুন সংস্করণটি ব্যবহার করতে পারবেন। চাইলে ডেস্কটপ কম্পিউটারে ক্রোম ব্রাউজরের সেটিংস গিয়ে অ্যাবাউট থেকে নতুন সংস্করণটি আপডেট করে নেয়া যাবে।

গুগল ব্লগ অবলম্বনে তুসিন আহমেদ

‘জাকারবার্গ আসলে সারা বিশ্বের একজন স্বৈরশাসক’

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ‘গোড়ার দিকে ইন্টারনেট একটি নিরপেক্ষ জায়গা ছিল। সেখানে সবার অধিকার সমান ছিল। কিন্তু বর্তমানে আমরা সবকিছু কেন্দ্রীভূত করে ফেলেছি। ব্যবহারকারীর যাবতীয় তথ্য সংগ্রহ করে তা বড় বড় কোম্পানির কাছে তুলে দিচ্ছি। সবচেয়ে বাজে ব্যাপার হলো, আমরা এই সমস্যার সমাধান করতে পারবো না। তবে এর ক্ষতির পরিমাণ হয়তো কমানো যাবে।’

সংবাদ মাধ্যম ‘দ্য নেক্স ওয়েব’কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এমনটা বলেছেন পাইরেট বে’র সহ-প্রতিষ্ঠাতা পিটার সানদে। তিনি সেই সাক্ষাৎকারে কিভাবে বিকেন্দ্রীকরণের বদলে ইন্টারনেটের সবকিছু কেন্দ্রীভূত হয়ে যাচ্ছে সেসব বিষয় নিয়ে আলাপ করেছেন।

পিটারের মতে, আগামীতে কী হবে তা নিয়ে মানুষের আগ্রহের শেষ নেই। কিন্তু এখন কী হচ্ছে তা নিয়ে কারো মাথাব্যাথাই নেই। প্রায়ই মানুষ তাকে প্রশ্ন করেন, কেমন হবে বর্ণহীন ডিজিটাল ভবিষ্যতের জীবন?

সত্যিটা হচ্ছে, আমরা এই বর্ণহীন জীবনটাতেই বেঁচে আছি। সবকিছুই ভুল দিকে যাচ্ছে। ভবিষ্যতে কী হবে প্রশ্ন সেটা নয়, প্রশ্ন হচ্ছে এখন কী হচ্ছে?

pirate-bay-founder-techshohor

মার্ক জাকারবার্গ নামে এক ব্যক্তির হাতে আমরা সব তথ্য তুলে দিচ্ছি। জাকারবার্গ আসলে সারাবিশ্বের একজন স্বৈরশাসক! কারণ কেউ তাকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেনি। আর জাকারবার্গের হাতে যা আছে তা চলে যাচ্ছে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে। তাই আমার মনে হয়, যা কিছু ভুল পথে যাওয়ার ছিল তা ভুল দিকেই গেছে। এই ভুল শোধরানোর কোনো উপায় নেই।

সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার হলো, এটি কোনো প্রযুক্তিগত সমস্যা নয়। ইন্টারনেট তৈরি করা হয়েছিল তথ্যের ক্ষমতা ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য। কিন্তু এখন আমরা সবকিছু কেন্দ্রীভূত করার বিষয়টিকেই সবার ওপরে স্থান দিয়ে রেখেছি।

গত ১০ বছরে যত টেক কোম্পানি বা ওয়েবসাইট এসেছে তার প্রায় সবগুলোই কিনে নিয়েছে শীর্ষে থাকা পাঁচ প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান। এগুলো হলো অ্যামাজন, গুগল, অ্যাপল, মাইক্রোসফট ও ফেইসবুক। কোনো রকমে প্রযুুক্তি জায়ান্টগুলোর নাগাল থেকে ছোট কোম্পানিগুলো রক্ষা পেলেও পরবর্তীতে তারাও আর কেন্দ্রীভূত না হয়ে টিকে থাকতে পারছে না।

এখন আর আমরা কিছু উদ্ভাবন বা সৃষ্টি করছি না। এর পরিবর্তে আমরা ভার্চুয়াল জিনিসগুলো নিয়েই পড়ে আছি। উবার, আলিবাবা কিংবা এয়ারবিএনবিয়ের কথাই ধরুন। এদের কি কোনো পণ্য আছে? না, নেই। পণ্যভিত্তিক মডেল থেকে আমরা এখন ভার্চুয়াল পণ্যের দিকে বেশি মনযোগ দিচ্ছি। অথচ ভার্চুয়াল জগতে কোনো পণ্যই নেই। এভাবেই সবকিছু কেন্দ্রীভূত হওয়ার প্রক্রিয়া চলছে।

এ ব্যাপারে আমাদের সচেতন হওয়া উচিত। পাশাপাশি আমাদের এটাও মনে রাখতে হবে, পরিস্থিতি আরো খারাপের দিকে যাচ্ছে। অনেক ধরনের প্রযুক্তিভিত্তিক সেবা রয়েছে যা কেন্দ্রীভূত হওয়ার শঙ্কায় রয়েছে। এটি আমাদের দৈনন্দিন জীবনে বড় ধরনের প্রভাব ফেলবে।

স্বয়ংক্রিয় গাড়ি নিয়ে আমরা অনেক উত্তেজিত। কিন্তু কার কাছে এই গাড়ি আছে? গাড়িটি কোথায় যেতে পারবে আর কোথায় পারবে না তা কি কেউ জানে? আমি এমন কোনো গাড়িতে উঠতে চাই না যা আমাকে নির্দিষ্ট গন্তব্যে পৌঁছে দিতে পারবে না।

বড় বড় প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের আর্থিক সাফল্যকেই সবচেয়ে বেশি প্রাধান্য দেয়। জনগণ ও সমাজের প্রয়োজনের কথা তারা পরে ভাবে। তাই প্রযুক্তি ও মালিকানার বিষয়ে একটি নৈতিক আলোচনা হওয়া দরকার। না হলে আমরা কর্পোরেট নিয়ন্ত্রিত সমাজের বাসিন্দা হয়ে যাবো। যেটি বর্তমানের চেয়ে আরও খারাপের দিকে চলে যাবে।

দ্য নেক্সট ওয়েব অবলম্বনে আনিকা জীনাত

ব্র্যান্ড ভ্যালুর শীর্ষ নয় প্রতিষ্ঠানই তথ্যপ্রযুক্তির

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : বিশ্বের সবচেয়ে মূল্যবান ১০ ব্র্যান্ডের মধ্যে প্রথম নয়টিই প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে আটটিই যুক্তরাষ্ট্রের। অপর একটি চীনের।

চীনের শেনজেনের প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান টেনসেন্ট বিশ্বের মূল্যবান ১০ ব্র্যান্ড নির্ধারণ করে বাৎসরিক একটি র‍্যাংকিং প্রকাশ করেছে ব্র্যান্ড জেড এ।

গুগল
দীর্ঘদিন থেকেই সবচেয়ে মূল্যবান ব্র্যান্ড হিসেবে রয়েছে সার্জ জায়ান্ট গুগল। ব্র্যান্ডটির মূল্য এখন ২৪৫ বিলিয়ন ডলারের বেশি। যা ২০১৬ সালের তুলনায় ৭ শতাংশ বেশি।

অ্যাপল

২৩৫ বিলিয়ন ডলার আর্থিক মূল্য নিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে অ্যাপল। তবে ২০১৫ সাল পর্যন্ত ব্র্যান্ড জেডের শীর্ষে থাকা অ্যাপল এর পর থেকেই কিছুটা মৃয়মাণ হয়েছে। ব্রান্ড জেডের গ্লোবাল হেড ডোরেন ওয়াং বলেন, গত বছর অ্যাপলের উদ্ভাবন গুগল ও অ্যামাজনের মতো ওতোটা দ্রুত করা সম্ভব হয়নি। এজন্য তাদের ব্র্যান্ড ভ্যালু কম হতে পারে।

মাইক্রোসফট

দৃশ্যত মূল্য কিছুটা পড়ে গিয়ে ১৪৩ বিলিয়ন ডলার নিয়ে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে মাইক্রোসফট। তবে এর পিছনে মাইক্রোসফট ক্লাউডের বড় ভূমিকা রয়েছে বলে মনে করেন ওয়াং। গত কিছু দিনে মাইক্রোসফটের রেভিনিউ বেড়েছে ৪০ শতাংশ। যার অন্যতম হচ্ছে ইন্টেলিজেন্ট ক্লাউডের অবদান।

অ্যামাজন

গত বছরের চেয়ে অ্যামাজনের ব্র্যান্ড ভ্যালু ৪১ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়ে এখন দাঁড়িয়েছে ১৩৯ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে। আরও ব্যাপক এলাকা নিয়ে সার্ভিস, অনলাইন শপিং, গ্রোসারি ডেলিভারি, ক্লাউড কম্পিউটিং এবং বিনোদনের জন্য অ্যামাজনের ব্র্যান্ড ভ্যালু এখন বাড়তি।

ফেইসবুক

মিথ্যা খবর এবং সহিংস কিছু বিষয় নিয়ে কিছুটা চাপে থাকলেও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুক তাদের ব্র্যান্ড ভ্যালুর দিক থেকে পিছিয়ে নেই। গত বছরের চেয়ে ২৭ শতাংশ বেড়ে এবার তাদের ব্র্যান্ড ভ্যালু দাঁড়িয়েছে ১৩০ বিলিয়ন ডলারে।

এটি অ্যান্ড টি

টেলিকম জায়ান্ট এটি অ্যান্ড টি ৬৫ শতাংশ ব্র্যান্ড ভ্যালু বাড়িয়ে এখন অবস্থান করছে ছয়ে। গত সাত বছরের চাইতে এবার এর ব্র্যান্ড ভ্যালু সবচেয়ে বেশি হয়েছে। ১১৫ বিলিয়ন ডলার নিয়ে প্রতিষ্ঠানটি এখন ছয় নম্বরে।

ভিসা

যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিষ্ঠান ভিসার নাম সারাবিশ্বের সবাই কমবেশি জানে। চলতি বছরেই ১০ শতাংশ বেড়ে এখন প্রতিষ্ঠানটির ব্র্যান্ড ভ্যালু হয়েছে ১১১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।

টেনসেন্ট

চীনের প্রতিষ্ঠান টেনসেন্ট এখন ব্র্যান্ড ভ্যালুতে অবস্থান করছে আট নম্বরে। ২৭ শতাংশ বেড়ে এখন এর মূল্য ১০৯ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। উইচ্যাট ম্যাসেজিং অ্যাপ দিয়েই প্রতিষ্ঠানটি অনেক উপরে উঠে গেছে। ২০১৩ সাল থেকে চীনে প্রতিষ্ঠানটির তৈরি করা উই চ্যাট মেসেজিং অ্যাপ দিয়ে শীর্ষ দশে স্থান করে নিয়েছে।

আইবিএম
২০০৬ সাল থেকে আইবিএম এই র‍্যাংকিংয়ে যুক্ত হয়েছে। এই বছরে গতবছরের চেয়ে ৮ শতাংশ বেড়ে এর ব্র্যান্ড ভ্যালু দাঁড়িয়েছে ১০২ বিলিয়ন মাির্কিন ডলারে।

ম্যাকডোনাল্ডস

প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান ছাড়া ব্র্যান্ড ভ্যালুতে এই একটি প্রতিষ্ঠানই স্থান করে নিয়েছে। খাবারের এই প্রতিষ্ঠানটিও যুক্তরাষ্ট্রের। ম্যাকডোনাল্ডস এখন শীর্ষ দশে অবস্থান করছে। তবে এর ব্র্যন্ড ভ্যালুর আর্থিক পরিমাণ দেওয়া হয়নি।

ইমরান হোসেন মিলন

অ্যান্ড্রয়েড ‘ও’ ইন্সটল করবেন যেভাবে

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : গুগলের ডেভেলপার সম্মেলনে বিভিন্ন হার্ডওয়্যার ও সফটওয়্যারের আপডেট আনার ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। এবার জনপ্রিয় অপারেটিং সিস্টেম অ্যান্ড্রয়েডের নতুন আপডেট অ্যান্ড্রয়েড ‘ও’ আনা হয়েছে নতুন অনেক ফিচার সমেত।  তবে আনুষ্ঠানিকভাবে পূর্নাঙ্গ সংস্করণটি উন্মুক্ত হতে আরও কিছুদিন সময় লাগবে।

আপাতত অ্যান্ড্রয়েড ও ব্যবহার করা যাবে নেক্সাস ৬পি, নেক্সাস ৫এক্স, নেক্সাস প্লেয়ার, পিক্সেল সি, পিক্সেল, পিক্সেল এক্সএল ডিভাইসে।

আপনি যদি এসব ডিভাইস ব্যবহার করেন, তাহলে ওএসটি পরখ করে নিতে পারবেন। কিভাবে কাজটি করবেন তা এ টিউটোরিয়ালে তুলে ধরা হলো।

andriod-o-techshohor

প্রথমে আপনার ডিভাইসটিকে অ্যান্ড্রয়েড বেটা প্রোগ্রামে নিবন্ধন করে নিতে হবে।

গুগলের সবগুলো নিয়ম মেনে সম্মতি দিয়ে নিবন্ধন করার পরে আপনার ডিভাইসটি আপডেটের জন্য তৈরি হবে। এরপর ডিভাইসটিতে আপডেট পৌঁছে যাবে।

তারপর স্বয়ংক্রিয়ভাবে আসা আপডেটটি চেক করতে ফোনের সেটিংস থেকে সিস্টেম আপডেটসে যেতে হবে।

ে

আপডেটটি ডাউনলোড হওয়ার পরে তা সিস্টেম আপডেটসে ক্লিক করে দেখে নেওয়া যাবে। এরপর ডিভাইসটি রিস্টার্ট নিবে এবং অ্যান্ড্রয়েড ও ইন্সটল হয়ে যাবে।

তবে আপনি যদি ডেভেলপার হয়ে থাকেন তাহলে এ ঠিকানায় গিয়ে অ্যান্ডেয়েড ও অপারেটিং সিস্টেমটি ডাউনলোড করে ফোনে ম্যানুয়ালি ইন্সটল করে নিতে পারেন।

ফোনে অ্যান্ড্রয়েড ও অপারেটিং সিস্টেমটি আপডেট করতে অবশ্যই ডিভাসইটির ফাইলের ব্যাকআপ রাখবেন আগে। যাতে জরুরি কোনো ফাইল মুছে গেলে ঝামেলায় পড়তে না হয়।

তুসিন আহমেদ

আরও পড়ুন 

অ্যান্ড্রয়েড বাগের জন্য ২ লাখ ডলার দেবে গুগল

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : অ্যান্ড্রয়েড ফোনে ছড়িয়ে পড়েছে কিছু ম্যালওয়্যার। এটি হয়েছে অপারেটিং সিস্টেমের কিছু বাগের কারণে। আর সেই ম্যালওয়্যার আক্রমণের পর গুগল ওএসের বাগ সারাতে ২ লাখ ডলার পুরস্কার ঘোষণা করেছে।

দিন কয়েক আগে অ্যান্ড্রয়েড চালিত ৩ কোটি ৬৫ হাজার ফোন ম্যালওয়্যার আক্রমণের শিকার হয়। জুডি নামে সেই ম্যালওয়্যারের কারণে বিপাকে পড়ে গুগল। এরপরই অ্যান্ড্রয়েডের সিকিউরিটি বাগ খোঁজার জন্য হ্যাকারদের উদ্দেশ্যে আর্থিক পুরস্কার হিসেবে ২ লাখ ডলার দেওয়ার ঘোষণা দেয়।

hacker-techshohor

অ্যান্ড্রয়েডের নিরাপত্তাজনিত ত্রুটি সারাতে গুগল দুই বছর আগে বাগ বাউন্টি নামে একটি প্রোগ্রাম চালু করে। এই প্রোগ্রামের গবেষক ও ইঞ্জিনিয়াররা বাগ সরাতে পারলে হ্যাকের মাত্রার ওপর ভিত্তি করে তাদেরকে এই আর্থিক পুরস্কার দেওয়া হয়। এভাবেই গুগল তাদের নিরাপত্তা ত্রুটি সারিয়ে থাকে। এবার ৩০ হাজার থেকে ৫০ হাজার ডলার পুরস্কারের হাতছানি থাকলেও এখনো কেউ এই বাগ সারানো প্রস্তাব দেয়নি।

সাইবার সিকিউরিটি ফার্ম চেক পয়েন্টের মতে, ক্ষতিকর অ্যাপগুলো বেশ কয়েক বছর ধরেই প্লেস্টোরে ছিল। সেখান থেকে ওই অ্যাপগুলো ৪৫ লাখ থেকে ১ কোটি ৮৫ লাখ বার ডাউনলোড করা হয়েছে।

অ্যান্ড্রয়েডের পুরানো ভার্সনগুলোর চেয়ে এখনকার ভার্সনগুলো বেশি শক্তিশালী ও নিরাপদ। তাই পুরানো ভার্সনগুলোকে সহজেই আক্রমণ করে বসে ক্ষতিকর অ্যাপগুলো।

দ্য ইকোনোমিক টাইমস অবলম্বনে আনিকা জীনাত