ডেল ল্যাপটপে হরেক পুরস্কার

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ঈদে ডেল ব্র্যান্ডের ল্যাপটপ কিনলে হরেক রকম পুরস্কারের ঘোষণা দিয়েছে পরিবেশক প্রতিষ্ঠান স্মার্ট টেকনোলজিস।

এই অফার স্মার্ট টেকনোলজিস পরিবেশিত নির্দিষ্ট সিরিজের ডেল ল্যাপটপ কিনলেই ক্রেতারা স্ক্র্যাচ কার্ড পাবেন। সেখানে স্ক্র্যাচ করে এয়ার কন্ডিশন, এলইডি টিভি, ঢাকা-নেপাল-ঢাকা এয়ার টিকেট, মাইক্রোওয়েভ ওভেন, সাইকেল, ব্লেন্ডার, আয়রন, শপিং ভাউচার এবং প্রাইজবন্ডসহ নিশ্চিত কিছু উপহার পাবেন।

Dell-Eid-Promotion-Techshohor

তবে স্মার্ট টেকনোলজিস অফারটি স্টক থাকা পর্যন্ত দেবে। সারাদেশের যেকোন কম্পিউটার মার্কেট কিংবা ল্যাপটপ শোরুম থেকে এই অফার উপভোগ করা যাবে।

ইমরান হোসেন মিলন

ডেলের নতুন গেইমিং ল্যাপটপ

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : বাংলাদেশি গেইমারসহ প্রো-ব্যবহারকারীদের জন্য সর্বাধুনিক সংস্করণের নতুন ল্যাপটপ বাজারে এনেছে ডেল।

ডেল ইন্সপায়রন ৭৫৬৭ মডেলের ল্যাপটপটি ব্যবহারকারীর গেইম খেলা ও বিনোদনের চাহিদা পূরণে সক্ষম বলে জানায় ডেল।

রোববার রাজধানীতে আনুষ্ঠানিকভাবে ডেল বাংলাদেশের কান্ট্রি ম্যানেজার আতিকুর রহমান ল্যাপটপটি উন্মোচন করেন। আতিকুর রহমান বলেন, ল্যাপটপটি বাজারে আসায় গেইমাররা নিরবচ্ছিন্নভাবে গেইম খেলতে পারবেন। ল্যাপটপটি গেইমারদের জন্য বাড়তি সুবিধা দেবে বলেও জানান তিনি।

কর্মকর্তারা জানান, ব্যবহারকারীরা সপ্তম প্রজন্মের ইন্টেল কোর আই৭ কোয়াড কোর প্রসেসরের সাহায্যে প্রয়োজনমতো উন্নতমানের গেইম ও বিনোদন উপভোগ করতে পারবেন। এজন্য প্রসেসর এবং গ্রাফিক্সের সর্বোচ্চ-পারফরম্যান্স নিশ্চিত করতে এর কুলিং ফ্যান ডিজাইনে বৈপ্লবিক পরিবর্তন আনা হয়েছে।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, ল্যাপটপটিতে রয়েছে দুটি কুলিং ফ্যান, সঙ্গে তিনটি গরম হাওয়া নিষ্কাশন ব্যবস্থা। এর সঙ্গে থাকা বড় ধরনের ২৪০ থার্মাল ভেন্ট পুরো সিস্টেমকে ঠান্ডা রাখতে এবং নিরবচ্ছিন্ন গেমিং এবং স্ট্রিমিং সুবিধা দিতে একসঙ্গে কাজ করবে।

ল্যাপটপটিতে থাকছে এনভিডিয়া জিফোর্স জিটিএক্স ১০৫০টিআই গ্রাফিক্স কার্ড, সাথে ৪ জিবি জিডিডিআর৫ ডিসক্রিট মেমরি। ফলে গেইমের ক্ষেত্রে হাই ফ্রেম-পার-সেকেন্ড রেট এবং ভিডিও এডিটিং ও ট্রান্সকোডিংয়ে দ্রুতগতি পাওয়া যাবে। রয়েছে ১৫ দশমিক ৬ ইঞ্চির ফোরকে ইউএইচডি ডিসপ্লে।

ডিভাইসটিতে রয়েছে মাল্টিপল হার্ডড্রাইভ অপশন, যেখানে এক টেরাবাইট এইচডিডি ডুয়াল ড্রাইভ ও ২৫৬ গিগাবাইট পর্যন্ত এসএসডি ড্রাইভে প্রচুর ফাইল রাখা এবং সহজ ও দ্রুততার সাথে সেগুলো ব্যবহার করা যাবে।

অধিক সময় গেইম খেলা, ভিডিও দেখা কিংবা ইন্টারনেট ব্রাউজিংয়ের সময় বিদ্যুৎ চলে গেলেও ৬ সেলের ৭৪ ডব্লিউএইচআর ব্যাটারি সর্বোচ্চ ৯ ঘণ্টা ব্যাকআপ দেবে।

এছাড়া ল্যাপটপটিতে ওয়াইডস্ক্রিন এইচডি ওয়েবক্যাম, ডুয়াল অ্যারে ডিজিটাল মাইক্রোফোন, এইচডিএমআই ও ইউএসবি পোর্ট, নিরাপত্তা লকসহ প্রয়োজনীয় ফিচার রয়েছে।

উইন্ডোজ ১০ অপারেটিং সিস্টেমসহ ল্যাপটপটিতে মাই ডেল, ডেল ডিজিটাল ডেলিভারি, ডেল ব্যাকআপ অ্যান্ড রিকভারি, ২০ গিগাবাইটের ক্লাউড স্টোরেজ সুবিধার ড্রপবক্স, মাইক্রোসফট অফিস, অ্যান্টিভাইরাসসহ প্রয়োজনীয় বেশ কিছু সফটওয়্যার রয়েছে।

বাজারে এট দুটি ভিন্ন রঙে পাওয়া যাচ্ছে।

ইমরান হোসেন মিলন

ইন্সপিরন ১৫-৫৫৬৭ : ডিসপ্লেতে সাধারণ, মানে ও দামে মাঝারি

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : মাঝারি মূল্যে ৫০ থেকে ৬৫ হাজার টাকার মধ্যে কেনার জন্য ল্যাপটপ বাছাই করা বেশ কষ্টসাধ্য। প্রায় একই স্পেসিফিকেশনের, কাছাকাছি ডিজাইনের ল্যাপটপ প্রায় সব কোম্পানিই তৈরি করে থাকে। এগুলোর মধ্যে থেকে নিজের পছন্দেরটি কিনতে গিয়ে প্রায়ই ধাঁধায় পড়তে হয়।

আগে থেকে হোমওয়ার্ক করা না থাকলে বিক্রয় কর্মীদের কথার মারপ্যাচে খেই হারিয়ে ফেলতে হবে। এমন বাজেটের ল্যাপটপ যারা কিনতে চান তাদের কথা মাথায় রেখে একটি মডেলের বিস্তারিত নিয়ে এ রিভিউ।

ব্র্যান্ড হিসেবে ডেলকে খুব বেশি পরিচয় করিয়ে দেওয়ার নেই। তবে প্রযুক্তি ও সময়ের সঙ্গে তাল মেলাতে প্রায়ই নতুন মডেল আনছে এ প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান। এ কারণে একটি মডেলের অনেক কিছু জানার আছে।

এক নজরে ডেল ইন্সপিরন ১৫ ৫০০০ সিরিজ ২০১৬ (১৫-৫৫৬৭)

  • ৭ম জেনারেশন কোর আই ৫ ৭২০০ইউ  প্রসেসর ( ২.৫ গিগাহার্জ, ৩ .১ গিগাহার্জ টার্বো, ডুয়াল – কোর, ৪ থ্রেড)
  • ১৫.৬ ইঞ্চি ফুল এইচডি ডিসপ্লে  (১৯২০x১০৮০ পিক্সেল)
  • ৪ গিগাবাইট ডিডিআর ৪ র‌্যাম
  • এএমডি র‌েডিওন আর৭ এম৪৪৫ জিপিউ, ২ গিগাবাইট ডেডিকেটেড মেমরি (জিডিডিআর ৫)
  • ডিভিডি রম
  • ৩ সেল ব্যাটারি, ৪ ঘন্টা ব্যাকাপ
  • ল্যান, ওয়াই-ফাই, ব্লুটুথ কানেক্টিভিটি
  • ১ টেরাবাইট হার্ড ডিস্ক অথবা ২৫৬ গিগাবাইট এসএসডি

ডিজাইন
গ্লসি প্লাস্টিকে তৈরি ল্যাপটপটি দেখতে তেমন অসাধারণ না হলেও, মূল্যের সঙ্গে মানানসই মানের প্লাস্টিকের কারণে ব্যবহারকারীদের কোনও সমস্যা হবে না। ডান পাশে রয়েছে একটি ইউএসবি ২ পোর্ট, কার্ড রিডার ও ডিভিডি ড্রাইভ। এটির সামনে ও পেছনে কোনও পোর্ট নেই।

বাম পাশে রয়েছে দুটি ইউএসবি ৩ পোর্ট, চার্জিং পোর্ট, একটি এইচডিএমআই পোর্ট, একটি ল্যান পোর্ট ও হেডফোন-মাইক্রোফোন কম্বো জ্যাক।

ল্যাপটপি খুললেই দেখতে পাবেন ১৫.6 ইঞ্চি স্ক্রিন। ঠিক ওপরে ওয়েব ক্যাম ও নিচে কিবোর্ড ও টাচ প্যাড। ডিসপ্লের চারপাশে ম্যাট প্লাস্টিক ব্যবহার করা হলেও কিবোর্ডে হাত রাখার জায়গাটিতে কিছুটা গ্লসি প্লাস্টিক রয়েছে।

কিবোর্ডের ডান পাশের ওপরের অংশে রয়েছে পাওয়ার বাটন।

ল্যাপটপটির তলায় রয়েছে স্পিকারগুলো ও কুলিং ফ্যান ইনটেক। এ কারণে এটি বিছানায় ব্যবহার না করাই ভাল হবে।  

পারফরমেন্স

সিপিউ : কোর আই-৫ সিপিউগুলো মূলত দৈনন্দিন সকল কাজের জন্য তৈরি করা হয়ে থাকে। এ ক্ষেত্রেও ব্যাতিক্রম নয়। তবে ইন্টেল বিগত কয়েক বছর ধরেই প্রসেসিং ক্ষমতার দিকে তেমন নজর না দিয়ে, শুধু ব্যাটারি ব্যবহার কমানোর জন্য গবেষণা করছে।

এ কারণে চতুর্থ প্রজন্মের প্রসেসর সমৃদ্ধ ল্যাপটপ ব্যবহারকারীদের আপগ্রেড করার প্রয়োজন একেবারেই নেই।

বেঞ্চমার্ক স্কোর থেকে দেখা যাচ্ছে, প্রসেসরটি সাধারণ কাজের জন্য যথেষ্ট ভাল। তবে তা সে পর্যন্তই সীমাবদ্ধ।

তবে ৭ম জেনারেশনে তৈরির কৌশলগত কারণে (১৪ ন্যানোমিটার ট্রানসিস্টর সাইজ) প্রসেসরটি বেশ ভাল ব্যাটারি লাইফ ও কম তাপ উৎপাদন করে থাকে।

অবশ্য হতাশ হওয়ার কোনো কারণ নেই – কেননা প্রসেসরটি ফটোশপ, সাধারণ অফিস কাজ, ব্রাউজিং, মাঝারি গেমিং ও প্রোগ্রামিংয়ের কাজ ভালো ভাবেই করতে প্রস্তুত। যদিও কোনটিই তাক লাগানোর মত দ্রুততার সঙ্গে নয়।

জিপিউ : এএমডি রেডিওন আর৭ এম৪৪৫ – এ বিশাল নামটি দেখে জাঁদরেল একটি জিপিউ মনে হতেই পার। তবে কাজের ক্ষেত্রে এটি খুব ভালো কিছু নয়।

প্রসেসরের সঙ্গে থাকা ইন্টেল এইচডি ৬২০ গ্রাফিক্সের চাইতে এটি দ্বিগুণ পারফরমেন্স দিতে সক্ষম হলেও সত্যিকারের ল্যাপটপ গেমিং গ্রাফিক্স কার্ড- যেমন এনভিডিয়া জিটিএক্স ৯৬০এম এর চাইতে প্রায় তিন গুন কম পারফরমেন্স দিতে পারবে এটি।

dell6

এ নিয়ে এটিকে বাতিলের খাতায় ফেলারও কারণ নেই, কেননা এ বাজেটে আর একটি ল্যাপটপ গ্রাফিক্স কার্ডই বাজারে রয়েছে – এনভিডিয়া জিটি৯৪০এমএক্স, যেটির পারফরমেন্সও ঠিক এম৪৪৫ এর সমান।

এ জিপিউয়ের মাধ্যমে প্রায় সকল গেইম হাই সেটিংয়ে ৩০ এফপিএসে খেলা যাবে। ১২৮০x৭২০ পিক্সেল রেজুলেশনে ও ফুল ১৯২০ x ১০৮০ পিক্সেল রেজুলেশনে সুবিধা হবে না।

যারা ল্যাপটপে ভিডিও এডিটের কাজ করেন, তারা অবশ্যই জিপিউটির ওপেন সিএল রেন্ডারিং ব্যবহার করে সুফল পাবেন। সেদিক থেকে এ বাজেটে আলাদা জিপিউ ছাড়া ল্যাপটপের চাইতে এটি অবশ্যই ভাল।

স্টোরেজ : এটি মূলত ১ টেরাবাইট ৫৪০০ আরপিএম হার্ডডিস্ক সম্বলিতভাবে বাজারে পাওয়া যাচ্ছে। তবে যদি ২৫৬ গিগাবাইট এসএসডি সম্বলিত সংস্করণটি পাওয়া যায় সেটি কেনাই বুদ্ধিমানের কাজ হবে।

হার্ড ডিস্কটির রিড ও রাইট স্পিড ১০০-১২০ মেগাবাইট/প্রতি সেকেন্ড – যা ভিডিও এডিট বা ফটোশপে ভারি কাজ করার জন্য একেবারেই অপ্রতুল।

অন্যদিকে ২৫৬ গিগাবাইট এসএসডি সম্বলিত সংস্করণে ব্যবহার করা হয়েছে স্যানডিস্কের বিজনেস ক্লাস এসএসডি। এটির রিড ও রাইট স্পিড ৫০০+ মেগাবাইট প্রতি সেকেন্ড। অনেকের কাছে অবশ্য এটির জায়গা কম মনে হতে পারে।

ব্যবহারিক উপযোগীতা

ডিসপ্লে : ১৫.৬ ইঞ্চি ফুল এইচডি ডিসপ্লে সম্বলিত ল্যাপটপটির রঙ ও ভিউ এঙ্গেলের দিক থেকে বেশ হতাশ করবে। ডিসপ্লেটি এলইডি ব্যাকলাইট সম্বলিত এলসিডি প্যানেল হলেও আইপিএস প্রযুক্তির বদলে ব্যবহার করা হয়েছে টি-এন প্রযুক্তি।

এ কারণে রঙের ডেপথ বেশ কম। কন্ট্রাস্টের ঘাটতি রয়েছে ও সরাসরি সামনে থেকে না দেখলে রঙ বদলে যাওয়ার সমস্যা রয়েই গেছে। যদিও এ বাজেটে এর চাইতে ভালো ডিসপ্লের ডিভাইস বাজারে তেমন নেই।

কিবোর্ড ও টাচ প্যাড : চিকলেট কিবোর্ডটি প্রায় সবার কাছেই আরামদায়ক মনে হবে। ফুল নম্বর প্যাড থাকায় এক্সেল ব্যবহারকারীদের কাছে এটি ভালো লাগবে।

তবে কিবোর্ডটি ব্যাকলিট হলে আরও ভাল হতে পারত। সম্ভবত বাজেটের মাঝে রাখার কারণেই সেটি বাদ দেওয়া হয়েছে।

টাচপ্যাডটি বেশ প্রশস্ত ও আরামদায়ক। বাটনগুলো টাচপ্যাডের অংশ হবার ফলে যে কোনও জায়গা থেকেই ক্লিক করা যাবে সহজেই।

প্যাডটির ওপর মসৃন প্লাস্টিক ব্যবহার করায় নেভিগেশনেও সমস্যা হবেনা।  

স্পিকার : এটির তলায় থাকা স্পিকার দুটি তেমন জোরালো নয়। সাউন্ড কোয়ালিটির দিক থেকেও শুধু কাজ চালানোর মতোই।

থার্মাল ডিজাইন : ল্যাপটপটি সাধারণ ব্যবহারের সময় ফ্যান বন্ধ রেখেই চলতে সক্ষম। তাই বলা যেতে পারে হিট হবার সম্ভাবনা নেই তেমন। ফ্যানগুলোর বাতাস টানার জায়গাগুলো নিচে হওয়ার কারণে ল্যাপটপটি শক্ত টেবিল বা কুলারের ওপর রেখে ব্যবহার করাই ভালো।

গেইম খেলার সময় জিপিউ পুরোদমে চলার কারণে বেশ গরম হতে পারে। 

পোর্ট : মাত্র তিনটি ইউএসবি পোর্ট রয়েছে। সাধারণত এর একটিতে ব্যবহারকারীরা মাউস সংযুক্ত করেন। ফলে বাকি দুটির মধ্যে একটিতে কিবোর্ড যোগ করলে বাকি একটি দিয়ে সব কাজ এক সঙ্গে চালানো মুশকিল।

আলাদা মনিটর বা প্রজেক্টর লাগানোর জন্য দেওয়া রয়েছে একটি এইচডিএমআই পোর্ট। ফলে প্রায় সময়ই এইচডিএমআই টু ভিজিএ অ্যাডাপ্টার লাগতে পারে।

আলাদা মাইক্রোফোন পোর্ট না থাকার বিষয়টি একটি সমস্যা বলা যেতে পারে। তবে পোর্টের স্বল্পতা আজকাল প্রায় সব ল্যাপটপেরই মূল সমস্যায় পরিণত হওয়ায় আসলে তেমন কিছু করার নেই।

ব্যাটারি লাইফ : তিন সেলের ব্যাটারি চার ঘন্টা পর্যন্ত ব্যাকআপ দিতে সক্ষম। বাস্তবে অবশ্য তিন ঘন্টার বেশি আশা না করাই ভাল।

মূল্য : দেশের বাজারে ৫৩ থেকে ৫৪ হাজার টাকায় পাওয়া যাচ্ছে।

এক নজরে ভাল

  • মূল্য অনুযায়ী ভালো প্রসেসর, জিপিউ
  • ফুল এইচডি ডিসপ্লে
  • ভাল থার্মাল ডিজাইন
  • র‌্যাম বাড়ানোর সুবিধা
  • ডিভিডি রম থাকায় পরে আরও স্টোরেজ বাড়ানোর সুবিধা
  • ভাল বিল্ড

এক নজরে খারাপ

  • টি-এন প্যানেল ডিসপ্লে, কন্ট্রাস্ট ও কালারে ঘাটতি
  • সাধারণ স্পিকার
  • সাধারণ ব্যাটারি লাইফ
  • গ্লসি প্লাস্টিকে আঙুলের ছাপ পড়ার সম্ভাবনা

এ রিভিউ তৈরি করেছেন টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর এস. এম. তাহমিদ

৮কে মনিটর আনছে ডেল

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : চলমান কনজ্যুমার ইলেক্ট্রনিক্স শোতে নতুন ফ্ল্যাগশিপ মনিটর আনার ঘোষনা দিয়ছে ডেল। ইউপি৩২১৮কে মডেলের আল্ট্রাশার্প ৩২ ইঞ্চির এই মনিটরটি ৮কে রেজ্যুলেশনের।

উচ্চমানের রেজ্যুলেশনের পাশাপাশি মনিটরটি ১.০৭ বিলিয়ন কালার এবং শতভাগ অ্যাডোব আরজিবি ও এসআরজিবি কালার স্পেস সমর্থন করে।

যারা জানেন না তাদের জন্য বলি, ৮কে রেজ্যুলেশন মানে ৭৬৮০*৪৩২০ পিক্সেল। যা প্রায় ৩৩ মেগাপিক্সেল। এটি ফোরকে রেজ্যুলেশনের চারগুন ও ১০৮০ পিক্সেল রেজ্যুলেশনের ১৬ গুন বেশি।

Dell 8k Monitor-TechShohor

বর্তমানে শুধুমাত্র এনভিডিয়া ১০- সিরিজের জিপিইউ ৬০ হার্টজে ৮কে রেজ্যুলেশন আউটপুট দিতে পারে। তাই এই মনিটরে যথাযথ রেজ্যুলেশন পেতে ব্যবহারকারীকে শক্তিশালী কম্পিউটার ব্যবহার করতে হবে।

৪ হাজার ৯৯৯ ডলারের এই মনিটরটি আগামী মার্চে যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে পাওয়া যাবে। ধারাবাহিকভাবে বিশ্বের অন্যান্য বাজারেও মনিটরটি পাওয়া যাবে।

জিএসএম এরিনা অবলম্বনে রুদ্র মাহমুদ

মাল্টিপ্ল্যানে বৃহস্পতিবার শুরু ডিজিটাল আইসিটি মেলা

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : দেশের অন্যতম বড় কম্পিউটার ও কম্পিউটার অ্যাক্সেসরিজ মার্কেট এলিফ্যান্ট রোডের কম্পিউটার সিটি সেন্টার বা মাল্টিপ্ল্যান সেন্টারে ডিজিটাল আইসিটি মেলা শুরু হচ্ছে আগামীকাল। ছয় দিনব্যাপী এই মেলায় মাল্টিপ্ল্যান সেন্টারের দোকানগুলো বিশেষ ছাড় আর অফারে তাদের পণ্য বিক্রি করবে বলে জানান মেলার আয়োজকরা।

বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলন করে মেলা নিয়ে আবারও বিস্তারিত জানান আয়োজকরা।

সংবাদ সম্মেলনে এবারের মেলার আহ্বায়ক ও মাল্টিপ্ল্যান সেন্টার দোকান মালিক সমিতির সভাপতি তৌফিক এহেসান বলেন, এবারের আয়োজন অষ্টম। মেলায় জোর দেওয়া হয়েছে সাইবার সিকিউরিটি বিষয়টির উপরে। মেলা চলাকালীন সাইবার সিকিউরিটি নিয়ে নানা ধরনের আয়োজন থাকবে বলে জানান তিনি।

BCS_Maltiplan_Techshohor
তিনি বলেন, মেলার মাধ্যমে মানুষের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টির কাজ করা হবে। যাতে প্রযুক্তির ব্যাপক ব্যবহার ছড়িয়ে দিয়ে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার কাজ আরও ত্বরান্বিত করা যায়।

আয়োজকরা জানান, মেলায় ছাড়, উপহারের পাশাপাশি থাকবে র‍্যাফেল ড্র, রক্তদান কর্মসূচী, প্রবেশ টিকিটের সঙ্গে বিনামূল্যে সিনেমা দেখা, বিনামূল্যে ইন্টারনেট, গেইমিং জোন, ফটোগ্রাফি, চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতাসহ নানা ধরনের আয়োজন।

মেলায় প্রবেশ মূল্য ১০ টাকা। তবে স্কুল শিক্ষার্থীরা বিনামূল্যে মেলায় প্রবেশ করতে পারবেন।

মেলার প্লাটিনাম স্পন্সর এইচপি, এসার,গিগাবাইট, ডায়মন্ড স্পন্সর ডেল, গোল্ড স্পন্সর আসুস, লেনোভো এবং স্পন্সর হিসেবে রয়েছে ইসেট।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বিসিএসের মহাসচিব সুব্রত কুমার সরকার, গ্লোবাল ব্র্যান্ডের পরিচালক রফিকুল ইসলাম, ডেলের কান্ট্রি মার্কেটিং ম্যানেজার প্রতাপ সাহাসহ আরও অনেকেই।

ইমরান হোসেন মিলন

ডেলের ল্যাপটপ কিনে মনিটর পেল শান্ত

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : রাজধানীর মনিপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণীর শিক্ষার্থী বিল্লাহ হোসেন শান্ত। বাবা আবু সাঈদের সঙ্গে ল্যাপটপ মেলায় এসে ডেল ব্র্যান্ডের কোর আই৫ এর একটি ল্যাপটপ কেনেন ৩১ হাজার টাকায়। পরে স্ক্র্যাচ কার্ড ঘঁষে শান্ত পায় একটি ডেলের মনিটর।

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে শুরু হওয়া ল্যাপটপ মেলার শেষ দিনে এই পুরস্কার পান তারা।

মিরপুর থেকে আসা আবু সাঈদ দেওয়ান ও তার ছেলে শান্ত জানায়, তারা ডেলের কোর আই৫ মডেলের ল্যাপটপ কিনে সঙ্গে পেয়েছেন একটি মোবাইল ফোন, একটি আন্টিভাইরাস, একটি ল্যাপটপ ব্যাগ। কিন্তু এর সঙ্গে মনিটর পাবেন এমন ভাবেননি।

Dell-Monitor

শান্ত টেকশহরকে বলে, সে নিজেই ল্যাপটপটি ব্যবহার করবে। এর পাশাপাশি এখন মনিটরটি টিভি দেখার কাজেই ব্যবহার করতে চায় সে।

ল্যাপটপ কিনে মনিটর পাওয়ার অনুভূতি খুব আনন্দের জানিয়ে সে বলে, তার খুব ভালো লাগছে এমন পুরস্কার পেয়ে। মেলা থেকে ল্যাপটপ কিনে সে খুব খুশিও।

শেষ দিনের সকাল থেকে মেলা শুরু হয়েছে। শেষ হবে রাত আটটায়।

ইমরান হোসেন মিলন

ল্যাপটপ মেলায় যত অফার দিচ্ছে ব্র্যান্ডগুলো

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : মেলায় বেশকিছু অফার ও মূল্যছাড় নিয়ে হাজির হয়েছে বিশ্বখ্যাত ল্যাপটপ ব্র্যান্ডগুলো। পাশাপাশি প্রথমবারের মতো অংশ নিয়েছে দেশিয় ল্যাপটপ ব্র্যান্ড ওয়ালটন।

বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে তিন দিনের এই টেকশহর ডটকম ল্যাপটপ মেলায় বিভিন্ন অফার আর পুরস্কারের পসরা সাজিয়ে বসেছে প্রতিষ্ঠানগুলো।

তিনটি মডেলের ল্যাপটপ নিয়ে প্রথমবারের মতো মেলায় অংশ নিয়েছে ওয়ালটন। প্যাশন, টারমারিন্ড এবং ওয়াক্স জাম্বলি।

LaptopFair-Techshohor

তিনটি সিরিজের ল্যাপটপেই ডিসকাউন্ট দিচ্ছে ওয়ালটন। কোর আই ৩ ল্যাপটপগুলোতে ৫ শতাংশ, কোরআই ৫ এ ৭ শতাংশ এবং কোরআই ৭ ল্যাপটপে ৮ শতাংশ মূল্যছাড় দিচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি।

ল্যাপটপের সঙ্গে অফার দিচ্ছে ডেল। মূল্য ছাড়ের সঙ্গে স্ক্র্যাচ অ্যান্ড উইন এ থাকছে বাইসাইকেল, মনিটরসহ আরও বেশকিছু পুরস্কার জেতার সুযোগ। তাছাড়া নিশ্চিত উপহার হিসেবে থাকছে গিফট ভাউচার।

এছাড়াও ডেল সপ্তম প্রজন্মের ল্যাপটপের সঙ্গে নিশ্চিত হিসেবে একটি স্পিকার, ৫০০ টাকা ডিসকাউন্ট পাওয়া যাচ্ছে।

এসার প্রতিদিন কুপনে দুটি এলইডি টিভি উপহার দেবে। ভাগ্যবান ক্রেতারা তা পাবেন। এছাড়াও নিশ্চিত হিসেবে একটি জ্যাকেট ও একটি ব্যাকপ্যাক পাওয়া যাবে এসার ল্যাপটপ কিনলে।

এইচপি ল্যাপটপের সঙ্গে মোট সাতটি গিফট দেওয়া হচ্ছে। তাছাড়াও মূল্যছাড় দিচ্ছে এইচপি।

স্ক্র্যাচ অ্যান্ড উইন অফারে আসুস ল্যাপটপ মেলায় রেফ্রিজারেটর, আসুস জেনফোন, জ্যাকেট টিশার্ট পাওয়ার স্ট্রিপ ও অ্যান্টি ভাইরাস পাওয়ার সুযোগ।

লেনোভো ল্যাপটপ কিনলে ক্রেতারা স্ক্র্যাচ অ্যান্ড উইনে একটি বাইসাইকেল, একটি এলইডি টিভি এবং জ্যাকেট জেতার সুযোগ দিচ্ছে। তবে এর বাইরে রয়েছে বিভিন্ন মডেলভেদে মূল্যছাড়।

টেকশহর ল্যাপটপ মেলা শনিবার পর্যন্ত সকাল ১০টা থেকে রাত আটটা পর্যন্ত চলবে। মেলার খবর পাওয়া যাবে টেকশহর ডটকমে

ইমরান হোসেন মিলন

জমতে শুরু করেছে ল্যাপটপ মেলা

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : বিজয়ের মাসে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) শুরুর কিছু পরেই জমতে শুরু করেছে টেকশহর ল্যাপটপ মেলা।

শীতের সকালের জড়তা কাটিয়ে অনেক দর্শনার্থীই এখন মেলায় আসতে শুরু করেছেন। সোহানুর রহমান একজন দর্শনার্থী জানান, তার আগামীকাল আসার কথা থাকলেও সময় পেয়ে সকালেই চলে এসেছেন মেলায়। ইতোমধ্যে তিনি একটি ল্যাপটপও কিনেছেন বলে জানান।

মেলার বিভিন্ন প্যাভিলিয়ন ও স্টল ঘুরে দেখা যায়, দর্শনার্থীরা তাদের পছন্দের ল্যাপটপ দেখছেন। অনেকের পছন্দ হলে কিনছেনও।

LAPTOP-FAIR-Techshohor
ডেলের প্যাভিলিয়নে কথা হয় এক বিক্রয়কর্মীর সঙ্গে। তিনি জানান, অনেকেই তাদের কাছ থেকে বিভিন্ন মডেলের ল্যাপটপের স্পেসিফিকেশন জানতে চাইছেন। বেশ কয়েকজন কিনেছেন বলেও বলেন তারা।

এইচপির বিজনেস ডেভেলপমেন্ট ম্যানেজার সালাউদ্দিন মোহাম্মদ আদেল বলেন, তারা চেষ্টা করছেন মেলায় সর্বোচ্চ ছাড় দেওয়ার। তাই তারা বিভিন্ন অফার দিচ্ছেন।

মেলায় সবগুলো ব্র্যান্ডের ল্যাপটপে মূল্যছাড় দিচ্ছে প্রতিষ্ঠানগুলো। মেলার তিন দিনই এসব ছাড় অব্যাহত থাকবে।

মূল্যছাড়, ইন্সট্যান্ট গিফট, স্ক্র্যাচ কার্ড ঘষে বিভিন্ন পুরস্কার জেতার সুযোগ রয়েছে।

মেলা প্রতিদিন রাত ৮টা পর্যন্ত চলবে।

ইমরান হোসেন মিলন

টেকশহরডটকম ল্যাপটপ মেলা শুরু

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : রাজধানীতে সকাল থেকে শুরু হয়েছে তিন দিনের ল্যাপটপ মেলা। রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) বৃহস্পতিবার সকাল থেকে ‘টেকশহরডটকম ল্যাপটপ ফেয়ার ২০১৬’ শুরু হয়েছে। শেষ হবে ১৭ ডিসেম্বর শনিবার।

তবে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু ‘প্রযুক্তিতে মুক্তি’ স্লোগান দিয়ে বিজয়ের মাসের এই মেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন বিকেল চারটায়।

এক্সপো মেকারের পরিচালনা বিভাগের প্রধান ও ল্যাপটপ ফেয়ার ২০১৬ এর সমন্বয়ক নাহিদ হাসনাইন সিদ্দিকী জানান,আয়োজক প্রতিষ্ঠান এক্সপো মেকারের এটি ১৮তম ল্যাপটপ মেলা। এতে একটি মেগা প্যাভিলিয়ন, ছয়টি প্যাভিলিয়ন, ছয়টি মিনি প্যাভিলিয়ন ও ৪৪ স্টলে দেশ-বিদেশের শীর্ষস্থানীয় প্রযুক্তিপণ্য নির্মাতা ও বিপণনকারী প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের সর্বশেষ প্রযুক্তির পণ্য প্রদর্শন ও বিক্রি করছে।

mela vir
ফাইল ছবি

তিনি বলেন, ২০০৮ সাল থেকে প্রতিবছর এই মেলা আয়োজন করা হচ্ছে। পূর্বের মেলাগুলোতে শিক্ষার্থী, তরুণ প্রজন্মসহ সকলের অংশগ্রহণ ছিলো প্রত্যাশার চেয়েও বেশি। আমরা প্রত্যাশা করছি এবারের মেলা আগের সব রেকর্ড ছাড়িয়ে যাবে।

এবারের মেলায় এসার, আসুস, ডেল, এইচপি, লেনোভো, ওয়ালটন, লাভা, তোশিবা, টুইনমস, গিগাবাইট, ডিলাক্স, এক্সট্রিম, লজিটেক, ডিলিংক, অ্যাভিরা, ইসেট অ্যান্টিভাইরাস, রাপু, আইলাইফ, টোটোলিংক, লিনেক্স ও এডাটার মতো ব্র্যান্ডের পণ্য পাওয়া যাবে বলে বলেন তিনি।

এই প্রদর্শনীতে পাওয়া যাবে ট্যাবলেট কম্পিউটার, ইন্টারনেট সিকিউরিটি পণ্য ও ল্যাপটপের আনুসঙ্গিক গ্যাজেটও। বিশেষ ছাড়, উপহারের পাশাপাশি মেলায় বেশ কয়েকটি নতুন মডেলের ল্যাপটপের মোড়ক উন্মোচন করা হবে।

এবারের মেলার প্রধান পৃষ্ঠপোষক তথ্যপ্রযুক্তি ভিত্তিক নিউজ পোর্টাল টেকশহর ডটকম

মেলায় বিভিন্ন ল্যাপটপ ব্র্যান্ড মূল্যছাড়, অফার, স্ক্র্যাচকার্ড ঘষে পুরস্কার পাওয়ার সুযোগ আর নিশ্চিত উপহার নিয়ে হাজির হয়েছে।

প্রতিবারের মতো এবার মেলার অফিসিয়াল ফেইসবুক পেইজে কুইজ প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছে। কুইজে অংশ নিয়ে ল্যাপটপ, স্মার্টফোনসহ আকর্ষনীয় পুরস্কার জিতে নেয়া যাবে।

মেলায় সহ-পৃষ্ঠপোষক ল্যাপটপ ব্র্যান্ড এসার, আসুস, ডেল, এইচপি, লেনোভো ও ওয়ালটন। এছাড়া স্মার্টফোন পার্টনার হিসেবে লাভা, টিকিট বুথ পার্টনার হিসেবে অ্যাভিরা সিকিউরিটি এবং পার্টনার হিসেবে রয়েছে পিপলস রেডিও ও এডুমেকার।

প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত এই মেলা চলবে। মেলায় প্রবেশ মূল্য ৩০ টাকা। তবে স্কুলের শিক্ষার্থীরা ইউনিফর্ম পরে অথবা পরিচয়পত্র দেখিয়ে বিনামূল্যে প্রবেশ করতে পারবেন।

টেকশহরডটকম এর অ্যাপ ডাউনলোড করেও মেলায় বিনামূল্যে প্রবেশ করা যাবে। মেলার টিকিট থেকে প্রাপ্ত অর্থ দূরারোগ্যে আক্রান্ত ভুক্তভোগী পরিবারের সহায়তায় দান করা হবে।

প্রদর্শনীর সব আপডেট ও খবর মেলার অফিসিয়াল ফেইসবুক পেইজ এবং দেশের আইসিটি ও টেলিকম বিষয়ক শীর্ষস্থানীয় নিউজ পোর্টাল টেকশহরডটকমে পাওয়া যাবে।

ইমরান হোসেন মিলন

টেকশহরডটকম ল্যাপটপ মেলা শুরু বৃহস্পতিবার

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : রাজধানীতে আবারও বড় পরিসরে বসছে তিন দিনের ল্যাপটপ মেলা। আগামী বৃহস্পতিবার থেকে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) শুরু হবে ‘টেকশহরডটকম ল্যাপটপ ফেয়ার ২০১৬’। শেষ হবে ১৭ ডিসেম্বর শনিবার।

রোববার রাজধানীতে একটি সংবাদ সম্মেলন করে মেলার আয়োজন সম্পর্কে বিস্তারিত জানান আয়োজকরা।

এক্সপো মেকারের পরিচালনা বিভাগের প্রধান ও ল্যাপটপ ফেয়ার ২০১৬ এর সমন্বয়ক নাহিদ হাসনাইন সিদ্দিকী জানান,আয়োজক প্রতিষ্ঠান এক্সপো মেকারের এটি ১৮তম ল্যাপটপ মেলা। এতে একটি মেগা প্যাভিলিয়ন, ছয়টি প্যাভিলিয়ন, ছয়টি মিনি প্যাভিলিয়ন ও ৪৪ স্টলে দেশ-বিদেশের শীর্ষস্থানীয় প্রযুক্তিপণ্য নির্মাতা ও বিপণনকারী প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের সর্বশেষ প্রযুক্তির পণ্য প্রদর্শন ও বিক্রি করবে।

Techshohor-Laptopfair-Tech
তিনি বলেন, ২০০৮ সাল থেকে প্রতিবছর এই মেলা আয়োজন করা হচ্ছে। পূর্বের মেলাগুলোতে শিক্ষার্থী, তরুণ প্রজন্মসহ সকলের অংশগ্রহণ ছিলো প্রত্যাশার চেয়েও বেশি। আমরা প্রত্যাশা করছি এবারের মেলা আগের সব রেকর্ড ছাড়িয়ে যাবে।

এবারের মেলায় এসার, আসুস, ডেল, এইচপি, লেনোভো, ওয়ালটন, লাভা, তোশিবা, টুইনমস, গিগাবাইট, ডিলাক্স, এক্সট্রিম, লজিটেক, ডিলিংক, অ্যাভিরা, ইসেট অ্যান্টিভাইরাস, রাপু, আইলাইফ, টোটোলিংক, লিনেক্স ও এডাটার মতো ব্র্যান্ডের পণ্য পাওয়া যাবে বলে বলেন তিনি।

এই প্রদর্শনীতে পাওয়া যাবে ট্যাবলেট কম্পিউটার, ইন্টারনেট সিকিউরিটি পণ্য ও ল্যাপটপের আনুসঙ্গিক গ্যাজেটও। বিশেষ ছাড়, উপহারের পাশাপাশি মেলায় বেশ কয়েকটি নতুন মডেলের ল্যাপটপের মোড়ক উন্মোচন করা হবে।

এবারের মেলার প্রধান পৃষ্ঠপোষক তথ্যপ্রযুক্তি ভিত্তিক নিউজ পোর্টাল টেকশহর ডটকম

সংবাদ সম্মেলনে মেলার সহ-পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠান এসারের কান্ট্রি হেড এসএম সাকিব হাসান বলেন, তাদের দুটি নতুন সিরিজের ল্যাপটপ উন্মোচন হবে মেলাতে। এছাড়াও তারা গিফট ও মূল্যছাড় দেবেন।

আসুসের প্রোডাক্ত ম্যানেজার আশিকুজ্জামান বলেন, মেলায় তারা আসুস জেনফোন সিরিজের ল্যাপটপ উন্মোচন করবেন। তারা এই মেলার জন্য আগ্রহ নিয়ে অপেক্ষা করেন। কারণ মেলার মাধ্যমে অনেক মানুষের কাছে পৌঁছাতে পারেন তারা।

ডেলের কান্ট্রি মার্কেটিং ম্যানেজার প্রতাপ সাহা বলেন, ল্যাপটপ মেলায় একেবারে প্রান্তিক মানুষের কাছে পৌঁছানো যায়। তাই এটা ব্র্যান্ডগুলোর জন্য খুবই সহায়ক হয়। আর মেলায় যে পরিমাণে ছাড় ও উপহার দেওয়া হয় তা অন্যসময় পাওয়া যায় না।

এইচপির বিজনেস ডেভেলপমেন্ট ম্যানেজার সালাউদ্দিন মোহাম্মদ আদেল বলেন, তারা চেষ্টা করেন মেলায় সর্বোচ্চ ছাড় দেওয়ার। এজন্য তারা মেলায় নানা আয়োজনও করে থাকেন।

প্রথমবারের মতো অংশ নিতে যাওয়া দেশি ল্যাপটপ ব্র্যান্ড ওয়ালটনের মার্কেটিং এজিএম ইমরান হোসেন বলেন, তারা সাধারণ মানুষের মাঝে ল্যাপটপ ব্যবহারের পরিমাণ বাড়াতে চান। তাই এই মেলায় আসা। আর শিক্ষার্থীদের জন্য তারা বেশকিছু অফার দেবেন বলেও জানান।

প্রতিবারের মতো এবার মেলার অফিসিয়াল ফেইসবুক পেইজে কুইজ প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছে। কুইজে অংশ নিয়ে ল্যাপটপ, স্মার্টফোনসহ আকর্ষনীয় পুরস্কার জিতে নেয়া যাবে।

মেলায় সহ-পৃষ্ঠপোষক ল্যাপটপ ব্র্যান্ড এসার, আসুস, ডেল, এইচপি, লেনোভো ও ওয়ালটন। এছাড়া স্মার্টফোন পার্টনার হিসেবে লাভা, টিকিট বুথ পার্টনার হিসেবে অ্যাভিরা সিকিউরিটি এবং পার্টনার হিসেবে রয়েছে পিপলস রেডিও ও এডুমেকার।

প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত এই মেলা চলবে। মেলায় প্রবেশ মূল্য ৩০ টাকা। তবে স্কুলের শিক্ষার্থীরা ইউনিফর্ম পরে অথবা পরিচয়পত্র দেখিয়ে বিনামূল্যে প্রবেশ করতে পারবেন।

টেকশহরডটকম এর অ্যাপ ডাউনলোড করেও মেলায় বিনামূল্যে প্রবেশ করা যাবে। মেলার টিকিট থেকে প্রাপ্ত অর্থ দূরারোগ্যে আক্রান্ত ভুক্তভোগী পরিবারের সহায়তায় দান করা হবে।

প্রদর্শনীর সব আপডেট ও খবর মেলার অফিসিয়াল ফেইসবুক পেইজ এবং দেশের আইসিটি ও টেলিকম বিষয়ক শীর্ষস্থানীয় নিউজ পোর্টাল টেকশহরডটকমে পাওয়া যাবে।

ইমরান হোসেন মিলন

ডেল ৫০০০ সিরিজের ল্যাপটপ বাজারে

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : বাজারে ডেল ব্রান্ডের ইন্সপায়রন ৫০০০ সিরিজের ৫৫৬৭ মডেলের নতুন ল্যাপটপ এনেছে স্মার্ট টেকনোলজিস (বিডি) লিমিটেড।

ইন্টেল ৭ম প্রজন্মের কোর আই থ্রি, কোর আই ফাইভ এবং কোর আই সেভেন প্রসেসর দিয়ে বাজারে ছাড়া হয়েছে এই ল্যাপটপ। প্রতিটি ল্যাপটপেই থাকছে এক টেরাবাইট হার্ডড্রাইভ, ১৫ দশমিক ৬ ইঞ্চি এইচডি এলইডি ডিসপ্লে, উইন্ডোজ ১০ হোম, ডিভিডি রাইটার, ওয়াইফাই, ব্লুটুথ, গ্রাফিক্স কার্ড।

DELL-INSPIRON 7th Gen Laptop
কোর আই থ্রি ল্যাপটপটিতে রয়েছে ৪ জিবি ডিডিআরফোর, কোর আই ফাইভ ল্যাপটপটিতে ৪ জিবি ও ৮ জিবি ডিডিআর ফোর র‌্যাম এবং কোর আই সেভেন ল্যাপটপটিতে থাকছে ৮ জিবি ডিডিআর ফোর র‌্যাম।

দুই বছরের বিক্রয়োত্তর সেবাসহ বর্তমানে ল্যাপটপগুলো কালো, ধুসর এবং সাদা এই তিন রঙে দেশের বাজারে পাওয়া যাচ্ছে।

কোর আই থ্রি, কোর আই ফাইভ (৪ জিবি র‌্যাম), কোর আই ফাইভ (৮ জিবি র‌্যাম) এবং কোর আই সেভেন ল্যাপটপের মূল্য যথাক্রমে ৪৩ হাজার ৫০০ টাকা, ৫৭ হাজার টাকা, ৫৮ হাজার ৫০০ টাকা এবং ৭১ হাজার ৫০০ টাকা।

ইমরান হোসেন মিলন