শেষ হলো এনটিএফ-৩ বাংলাদেশ প্রকল্প

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর: উন্নয়নশীল দেশগুলোর রফতানি বাড়াতে নেদারল্যান্ড সরকারের সিবিআই ও ইন্টারন্যাশনাল ট্রেড সেন্টার যৌথভাবে ৪ বছরের চুক্তির মাধ্যমে নেদারল্যান্ড ট্রাস্ট ফান্ড (এনটিএফ) প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে।

নেদারল্যান্ডের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে এই প্রকল্প বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) ও ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (ডিসিসিআই) এর সহযোগিতায় বাংলাদেশেও বাস্তবায়িত করা হয়। সোমবার আনুষ্ঠানিকভাবে নেদারল্যান্ড ট্রাস্ট ফান্ড-৩ বাংলাদেশ প্রকল্পের সমাপ্তি ঘটে। বেসিস মিলনায়তনে আনুষ্ঠানিকভাবে এই প্রকল্পের সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।

basis-techshohor

এনটিএফ-৩ বাংলাদেশ প্রকল্পের আওতায় ইউরোপের বাজারে বাংলাদেশি সফটওয়্যার ও তথ্যপ্রযুক্তিনির্ভর সেবার রফতানি বাড়াতে বিভিন্ন উদ্যোগ নেওয়া হয়। ব্যবসায় সম্পর্ক তৈরির পাশাপাশি কোম্পানিগুলোর সক্ষমতা তৈরি ও ব্র্যান্ডিং বাড়ানো হয়। প্রায় ৬০টি বেসিস সদস্য কোম্পানি আন্তর্জাতিক বাজারে তাদের পণ্য ও সেবা পৌঁছে দেয়ার সুযোগ পায়। এর আগে একইভাবে বাংলাদেশে এনটিএফ-২ প্রকল্পও বাস্তবায়িত হয়।

সমাপনী অনুষ্ঠানে এনটিএফ-৩ প্রকল্পের সার্বিক চিত্র তুলে ধরেন বাংলাদেশ প্রকল্পের ব্যবস্থাপক জনাব মার্টিন ল্যাবে এবং বাংলাদেশি সফটওয়্যার ও তথ্যপ্রযুক্তিনির্ভর বাজার সম্পর্কে গবেষণাপত্র তুলে ধরেন ওজেনিনজেন ইউনিভার্সিটি অ্যান্ড রিসার্চ সেন্টারের পোস্ট-ডক রিসার্চার জনাব হাকি পামুক।

এছাড়া বক্তব্য রাখেন বেসিস সভাপতি জনাব মোস্তাফা জব্বার, জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি জনাব রাসেল টি আহমেদ, সহ-সভাপতি জনাব এম রাশিদুল হাসান প্রমুখ। উপস্থিত ছিলেন বেসিস পরিচালক জনাব উত্তম কুমার পালসহ এনটিএফ-৩ প্রকল্প সংশ্লিষ্ট সদস্য কোম্পানিগুলোর প্রতিনিধিরা। অংশগ্রহণকারীরা এই প্রকল্পের বিষয়ে তাদের অভিজ্ঞতা তুলে ধরেন।

আনিকা জীনাত

নতুন তথ্যপ্রযু্ক্তি নীতিমালা শিগগির, হবে ইনোভেশন নীতিও : পলক

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : নতুন উদ্ভাবনকে গুরুত্ব দেওয়ার পাশাপাশি এ জন্য একটি নীতিমালা তৈরির কথা বলেছেন তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। একই সঙ্গে শিগগির নতুন তথ্যপ্রযুক্তি নীতিমালা করার কথাও জানিয়েছেন তিনি।

বুধবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ের বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) ‘জাতীয় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি নীতিমালা ২০১৫’ যুগোপযোগীকরণ কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

পলক বলেন, বিভিন্ন যে ইনোভেটিভ চিন্তা এটার জন্য সামাজিক সমস্যার মুখোমুখি হতে হয়। এসব সমস্যার সম্মুখীন হলেই ইনোভেটররা নতুন ইনোভেশনের জন্য আগ্রহী হয়ে ওঠেন, নতুন আইডিয়া বের করতে সহায়ক হন।

innovation-policy-palak-techshohor

দেশের বাজারকে বিশ্ব দরবারে তুলে ধরতে হবে জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, মেডিকেল সলুশনের কিংবা রোড ট্রান্সপোর্টেশন- সব কিছুতে এখন নতুন উদ্ভাবন হচ্ছে। মূল সমস্যা সমাধানের পথ দেখানোর কাজটা কিন্তু বাংলাদেশের মাটিতে হতে পারে। দেশের উদ্যোক্তাদের অবশ্যই উৎসাহিত করা হবে।

পলক জানান, এ জন্য ইনোভেশন ডিজাইন অ্যান্ড অন্ট্রাপ্রেরনশিপ একাডেমি গড়ে তোলা হয়েছে। এর বাইরে ইনোভেশনে আরও আগ্রাহী করে তুলতে বাংলাদেশকে একটা রিসার্চ ফিল্ড ও একটা টেস্ট কেস হিসেবে বিশ্বের কাছে তুলে ধরা প্রয়োজন।

পলক বলেন, বাংলাদেশ এখন বিশ্বের মধ্যে ইনক্লুসিভ ডেভেলপমেন্টে ৩৬তম হয়েছে। আর দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে সেরা। তার মানে ঠিক পথেই রয়েছি আমরা।

এ জন্য নীতিমালা দরকার জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ইতোমধ্যে এডুকেশন পলিসি আছে, উইমেন পলিসি আছে, আইসিটি পলিসি আছে, এগুলো নিয়ে আরও কাজ চলছে; ভবিষ্যতের জন্য তৈরি করছি।

কর্মশালায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) সভাপতি মোস্তাফা জব্বার।

বিশেষ অতিথি ছিলেন ইউএনডিপির বাংলাদেশ কান্ট্রি ডিরেক্টর সুদীপ্ত মুখার্জি, সভাপতিত্ব করেন তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের ভারপ্রাপ্ত সচিব সুবীর কিশোর চৌধুরী।

কর্মশালায় আরও উপস্থিত ছিলেন ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান বাগডুমের প্রতিষ্ঠাতা, এফবিসিসিআই পরিচালক ও ভেঞ্চার ক্যাপিটাল অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি শামীম আহসান, এটুআইয়ের পলিসি অ্যাডভাইজার আনীর চৌধুরীসহ আরও অনেকে।

ইমরান হোসেন মিলন

তথ্যপ্রযুক্তি স্থাপনায় ভ্যাট অব্যাহতি বহাল

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ২০১৬-১৭ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে তথ্যপ্রযুক্তি স্থাপনা বা বাড়ি ভাড়ার উপর ১৫ শতাংশ ভ্যাট রাখার প্রস্তাব করেছিলেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

তবে খাতটির উদ্যোক্তা এবং সংগঠেনর নেতারা শুরু থেকেই এই খাতে সব ধরনের ভ্যাট-ট্যাক্স অব্যাহতির জন্য জোর দাবি তুলে আসছিলেন। সেই দাবির ফলে বাজেটে তথ্যপ্রযুক্তি স্থাপনা বা বাড়িভাড়ায় রাখা ১৫ শতাংশ ভ্যাট অব্যাহতির কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। যা গত বছরের সংশোধিত বাজেটে অব্যাহতিও দেওয়া হয়।

২০১৭-১৮ সালের বাজেটেও সেই ভ্যাট অব্যাহতি বহাল রাখা হয়েছে। ভ্যাট অব্যাহতি বহাল রাখায় দেশে খাতটির স্ফূরণ এবং খাতটি আরও সুসংগঠিত হবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

সংশ্লিষ্ট উদ্যোক্তা-ব্যবসায়ী এবং খাত সংশ্লিষ্ট সংগঠনের নেতারা সরকারের এমন সিদ্ধান্তে সাধুবাদ জানিয়ে বলেন, এতে করে খাতটিকে বিদেশীদের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করতে সাহস যোগাবে।

বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) সভাপতি মোস্তাফা জব্বার বলেন, তথ্যপ্রযুক্তি স্থাপনা বা বাড়ি ভাড়ায় ভ্যাট অব্যহতির সিদ্ধান্তকে আমরা সাধুবাদ জানায়। এটা অবশ্যই ক্রমবিকশিত তথ্যপ্রযুক্তির জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ।

joomshaper-office-techshohor

তিনি বলেন, এর ফলে আমাদের সামগ্রিক তথ্যপ্রযুক্তির ক্ষেত্রে ইতিবাচক ফল বয়ে আনবে। কারণ একটি দেশিয় প্রতিষ্ঠান যখন এমন সুবিধা পাবে তার সামগ্রিক কাজে, নিজেদের পণ্যের প্রসার এবং নিজেদের ব্যবসাকে তারা বিদেশি বড় বড় প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করার দিকে মনোযোগ দিতে পারবে।

প্রবীণ এই তথ্যপ্রযুক্তিবিদ মনে করেন, বাজেট থেকে তথ্যপ্রযুক্তি স্থাপনা যে ১৫ শতাংশ ভ্যাটের কথা আগে বলা হয়েছিল সেটি অব্যাহতি বহাল থাকায় দেশে খাতটির স্ফূরণ অব্যাহত থাকেব।

এই ভ্যাট অব্যাহতি বহাল রাখায় দেশের তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোর পথ চলা আরও সহজ হবে বলে টেকশহরডটকমকে জানান বেসিসের সাবেক সভাপতি, দেশের অন্যতম ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান বাগডুমের প্রতিষ্ঠাতা, এফবিসিসিআই পরিচালক ও ভেঞ্চার ক্যাপিটাল অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি শামীম আহসান।

তথ্যপ্রযুক্তি খাতে ই-কমার্স উদ্যোক্তা প্রিয়শপ ডটকমের প্রধান নির্বাহী আশিকুল আলম খাঁন বলেন,  আইসিটির সকল ক্ষেত্রের কোম্পানির বাড়ি ভাড়ায় কোন ভ্যাট নেই। আমরা আশা করবো ই-কমার্সেও সেটি অব্যাহতি বহাল থাকবে। যদি ই-কমার্সে আলাদা করে বাড়ি ভাড়ার উপর ভ্যাট বসানো হয় তাহলে ব্যবসা পরিচালনা করা কঠিন হয়ে পড়বে। নতুন এবং ক্রমবর্ধমান খাত হিসেবে সরকার বিষয়টি মাথায় রেখে তা অব্যাহতি বহাল রাখলে খাতটিকে এগিয়ে নিতে কাজ করা সহজ হবে।

ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ বা ই-ক্যাবের সভাপতি রাজিব আহমেদ বলেন, তথ্যপ্রযুক্তি স্থাপনায় সবধরনের ভ্যাট-ট্যাক্স অব্যাহতি রাখা জরুরী। বিশেষ করে ক্রমবর্ধমাণ হিসেবে ই-কমার্সের উপর যে কোন রকমের ট্যাক্স ও ভ্যাট প্রত্যাহার করতে হবে। এর কোন বিকল্প নেই।

তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত বাজেটে ই-কমার্সের জন্য আলাদা করে কোনো বরাদ্দ দেয়া হয়নি। আগে এই খাতকে অর্থ সহায়তা দিয়ে এগিয়ে নিতে হবে। না হলে দেশি উদ্যোক্তারা পথে বসবেন।

ইমরান হোসেন মিলন

বেসিস নির্বাচন স্থগিত, গঠনতন্ত্র সংশোধনের নির্দেশনা

আল-আমীন দেওয়ান, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের শীর্ষ বাণিজ্য সংগঠনটির ২০১৭-১৮ টার্মের তিনটি পদে নির্বাচনের সকল কার্যক্রম স্থগিত হয়ে গেছে।

বৃহস্পতিবার বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের ডিটিও শাখা এক চিঠিতে সংগঠনটির সংঘস্মারক ও সংঘবিধি সংশোধনের পর নির্বাচন অনুষ্ঠানের নির্দেশনা দেয়া হয়। ফলে এর আগে চলতি নির্বাচন অনুষ্ঠানের আর কোনো কার্যক্রম হচ্ছে না। তাই বৃহস্পতিবার নমিনেশন আহবান করে নোটিশ দেয়ার কথা থাকলে তা আর হয়নি। তফসিল অনুযায়ী ৮ জুলাই নির্বাচন অনুষ্ঠানের কথা।

ডিটিও এর চিঠিতে বলা হয়,  ‘বাণিজ্য সংগঠন বিধিমালা ১৯৯৪ এর বিধি ২১ বিলুপ্ত করা হয়েছে । এমতাবস্থায় বাংলাদেশ সফটওয়্যারে  বেসিস এর সংঘস্মারক এবং সংঘবিধি সংশ্লিষ্ট ধারাসমূহ পরিবর্তন বা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে সংশোধন করে নির্বাচন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার জন্য নির্দেশনা দেয়া হল।’

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব মিরাজুল ইসলাম উকিল টেকশহরডটকমকে জানান, ‘বেসিসকে আইন অনুযায়ী তাদের সংঘস্মারক ও সংঘবিধি সংশোধন করে তারপর নির্বাচন অনুষ্ঠান করতে বলা হয়েছে।’

সংশোধনের জন্য নিদির্ষ্ট কোনো সময় দেয়া হয়েছে কিনা জানতে চাইলে এই  উপ-সচিব বলেন, ‘এটি তারা যত দ্রুত করে পারবেন তত দ্রুত নির্বাচন হবে। যদি এক সপ্তাহে পারেন এক সপ্তাহে, এক মাসে হলে এক মাসে । ’

বেসিস নির্বাচন বোর্ডের সদস্য রফিকুল ইসলাম রাউলি টেকশহরডটকমকে জানান, ‘তিনি এখনও চিঠি দেখেননি। দেখে বোঝা যাবে করণীয় কী।  তবে নমিনেশনের ঘোষণা এখনও দেয়া হয়নি।’

basis-techshohor-21

নির্দেশনা অনুয়ায়ী সংশোধন প্রক্রিয়ায় কত সময় লাগবে আর তা জানাতে চাইলে বেসিস সভাপতি তথ্যপ্রযুক্তিবিদ মোস্তাফা জব্বার টেকশহরডটকমকে জানান, এখন একটি উপ-কমিটি করে দেয়া হবে। এর পর সংঘস্মারক-সংঘবিধির কোথায় কী সংশোধন হবে তা সনাক্ত করতে হবে।

‘কমিটি পুরো গঠনতন্ত্র যাচাই-বাছাই করে সংশোধন চিহ্নিত করে নির্বাহী কমিটির কাছে সুপারিশ করবে। নির্বাহী কমিটি পর্যালোচনা করে  এতে মতামত বা অনুমোদনের জন্য মন্ত্রণালয়ে পাঠাবে। মন্ত্রণালয় সংশোধন যথাযথ বলার পরে অতিরিক্ত সাধারণ সভা (ইজিএম) ডেকে সেখানে তা তোলা হবে।’

মোস্তাফা জব্বার বলেন, ‘ইজিএম এর জন্য ২১ দিনের সময় লাগবে। ইজিএমে পাশ হলে উপস্থিত সদস্যদের স্বাক্ষরসহ সংশোধিত গঠনতন্ত্র মন্ত্রণালয়ে জমা দিতে হবে। মন্ত্রণালয় অনুমোদন দেয়ার পরে জয়েন্ট স্টকে দিয়ে হালনাগাদ করতে হবে। আর এর পরই ওই সংশোধিত গঠনতন্ত্র অনুয়ায়ী নতুন করে নির্বাচন প্রক্রিয়া শুরু হবে।’

বর্তমান কমিটির প্রথম টার্মের মেয়াদ শেষ হবে ১৫ জুলাই। কার্যনির্বাহী কমিটি এই সময়ে এটি করতে পারবে কিনা তা সভায় সিদ্ধান্ত নিয়ে কমিটির মেয়াদ বর্ধিত করার আবেদন করা হতে পারে বলে জানান সংগঠনটির সভাপতি।

এর আগে বুধবার বেসিস সভাপতি মোস্তাফা জব্বার বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের বাণিজ্য সংগঠন পরিচালকের কাছে আবেদনে বলেন, ‘কার্যনির্বাহী কমিটির জ্যেষ্ঠ তিন সদস্য সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট রাসেল টি আহমেদ, ভাইস প্রেসিডেন্ট এম রাশিদুল হাসান ও পরিচালক উত্তম কুমার পালকে পদত্যাগ করতে চিঠি দিয়েছিল নির্বাচন বোর্ড। কিন্তু আপিল বোর্ডের বরাত দিয়ে সেই সিদ্ধান্ত বাতিল করে সংঘবিধি লংঘন করে আমাকেও লটারির মাধ্যমে পদত্যাগ করতে বলে। এটি আমার প্রতি অন্যায়। আমি কেবলমাত্র এক বছর ধারাবাহিকভাবে দায়িত্ব পালন করে আসছি।’

ওই আবেদনে তিনি ‘পদত্যাগে লটারি’ পদ্ধতি বেসিস সংঘবিধির ১২.৫ এবং ১৪.৫ এর লংঘন বলে উল্লেখ করেন।

আবেদনে বলা উল্লেখ করা হয়,  ‘বস্তুত এই দুটি ধারা অনুসারে ধারাবাহিকভাবে তিন বছর পরিচালকের দায়িত্ব পালন করার পর থেকে এই পরিচালকগণ সংঘবিধি লংঘন করে পরিচালকের দায়িত্ব পালন করছেন। এমনকি তারা পরিচালক পদে অবৈধভাবে নির্বাচনেও অংশ গ্রহণ করেছেন।’

আবেদনে বিষয় ছিল, ‘বেসিস পরিচালক হিসেবে অবসর গ্রহণের জন্য কৃত লটারি বাতিল, জ্যেষ্ঠ পরিচালকদের অবসর গ্রহণের নির্দেশ দান ও ৩ বছর ধারাবাহিকভাবে দায়িত্ব পালনকারী ৩ পরিচালককে পরিচালক পদ থেকে অপসারণের আবেদন’।

সংগঠনটির বর্তমান গঠনতন্ত্র অনুয়ায়ী ৩ বছরের সেশন সময়ে প্রতি টার্মে(প্রতি বছর) কার্যনির্বাহী কমিটি হতে ৩ জন পদত্যাগ করবেন। পদত্যাগ করে শূন্য হওয়া ৩ পদে হবে নির্বাচন।

নতুন নির্বাচিত এবং পুরোনো মিলে ৯ পরিচালক নতুন করে কার্যনির্বাহী কমিটির পদের দায়িত্ব নেওয়ার নির্বাচন করবেন।

এবার পদত্যাগ নিয়ে সমঝোতা না হওয়ায় এবার ‘পদে থাকার জ্যেষ্ঠতা’র ভিত্তিতে কমিটির সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট রাসেল টি আহমেদ, ভাইস প্রেসিডেন্ট এম রাশিদুল হাসান ও পরিচালক উত্তম কুমার পালকে পদত্যাগ করতে চিঠি দিয়েছিল নির্বাচন বোর্ড।

নির্বাচন বোর্ডের ওই সিদ্ধান্তে ‘আপত্তি’ করে আপিল বোর্ডে পুনর্বিবেচনার আবেদন করেছিলেন তারা।

গত বৃহস্পতিবার নির্বাচন বোর্ড আপিল বোর্ডের সিদ্ধান্ত তুলে ধরে চিঠি দিয়ে জানায়, জ্যেষ্ঠতা নয় পদত্যাগ হবে লটারি করে। ওই দিনই কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্যরা এ সিদ্ধান্তের চিঠি পান।

মঙ্গলবার পদত্যাগের লটারিতে নাম ওঠে বেসিস কার্যনির্বাহী কমিটির সভাপতি মোস্তাফা জব্বার,  সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট রাসেল টি আহমেদ এবং ভাইস প্রেসিডেন্ট ফারহানা এ রহমানের।

 

বেসিস সদস্যদের জন্য স্মার্টকার্ড চালু

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : সদস্যদের জন্য স্মার্টকার্ড চালু করেছে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস)।

‘মেম্বারশিপ স্মার্ট কার্ড’ এর মাধ্যমে হাসপাতাল, হোটেল, বিমানবন্দর, রেস্টুরেন্সসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে বিশেষ ছাড় এবং অগ্রাধিকার ভিত্তিতে বেসিস সদস্যরা সেবা পাবেন।

বুধবার রাজধানীর একটি হোটেলে এক অনুষ্ঠানে এই স্মার্টকার্ডের উদ্বোধন করেন তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

Basis-Membership-Card-Techshohor

জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, একসময় বাংলাদেশে তথ্যপ্রযুক্তি বলে কেনো খাত ছিল না। বর্তমান সরকার ২০৪১ সালের মধ্যে তথ্যপ্রযুক্তিনির্ভর উন্নত বাংলাদেশ গড়ার ঘোষণা দিয়েছে। বেসিস একসময় বিজেএমইএ এর মতো শক্তিশালী সংগঠনে পরিণত হবে।

বেসিস সভাপতি মোস্তাফা জব্বার বলেন, দীর্ঘদিন ধরে সদস্যরা এ ধরণের কার্ড বা সেবার দাবি জানিয়ে আসছিলেন। দেরিতে হলেও কার্ডটি দিতে পারে আমরা আনন্দিত। আপাতভাবে ১৫টি প্রতিষ্ঠানের সাথে সমঝোতা হলেও আগামীতে আরো প্রতিষ্ঠান যুক্ত হবে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান ইমরান আহমেদ বলেন, বেসিস সরকারের পাশাপাশি দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতে অন্যতম অবদান রেখে চলেছে। সামনের দিনেও তারা সরকারের সঙ্গে সহযোগিতার ভিত্তিতে এই খাতে কাজ করবেন বলে আশা প্রকাশ করেন।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বেসিসের জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি রাসেল টি আহমেদ, সহ-সভাপতি এম রাশিদুল হাসান, পরিচালক উত্তম কুমার পাল, সোনিয়া বশির কবির, রিয়াদ এস এ হোসেনসহ অংশীদারি প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রতিনিধিরা।

আনিকা জীনাত

বেসিস নির্বাচন : পদত্যাগ করবেন মোস্তাফা জব্বার, রাসেল ও ফারহানা

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : পদত্যাগের লটারিতে নাম উঠল বেসিস কার্যনির্বাহী কমিটির সভাপতি মোস্তাফা জব্বার,  সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট রাসেল টি আহমেদ এবং ভাইস প্রেসিডেন্ট ফারহানা এ রহমানের।

দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের শীর্ষ বাণিজ্য সংগঠনটির গঠনতন্ত্র অনুয়ায়ী ২০১৭-১৮ মেয়াদের তিনটি পদে নির্বাচন অনুষ্ঠান প্রক্রিয়া শুরু করতেই পদত্যাগ করবেন এই তিন নেতা।

মঙ্গলবার বিকালে রাজধানীর কারওয়ান বাজারস্থ বিডিবিএল ভবনের পঞ্চম তলায় বেসিস কার্যালয়ে এই লটারি অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচন বোর্ড এবং বেসিস সংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্র লটারির এই ফলাফল নিশ্চিত করেছে।

পদত্যাগ কারা করবেন সে সিদ্ধান্ত হয়ে যাওয়ায় নির্বাচন বোর্ড এখন নমিনেশন আহবান করে নোটিশ দেবেন ২৫ মে।

সংশোধিত গঠনতন্ত্র অনুযায়ী কার্যনির্বাহী কমিটির সেশন ৩ বছর। সে হিসেবে চলতি সেশন ২০১৬-১৯ সালের আরও এক টার্ম রয়ে গেলেন, বর্তমান কমিটির ভাইস প্রেসিডেন্ট এম রাশিদুল হাসান ও পরিচালক উত্তম কুমার পাল, সৈয়দ আলমাস কবির, মোস্তাফিজুর রহমান সোহেল, সোনিয়া বশির কবির এবং রিয়াদ এস এ হোসেইন।

অন্যদিকে পদত্যাগ করতে হওয়া তিন সদস্যও চাইলে আবার নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে পারেন। তিন পদে নতুন করে বেসিসের যেকোনো সদস্য নির্বাচন করতে পারবেন।

basis--techshohor

নির্বাচন তফসিল অনুযায়ী ৮ জুলাই হবে নির্বাচন।

সংগঠনটির গঠনতন্ত্র অনুয়ায়ী ৩ বছরের সেশন সময়ে প্রতি টার্মে(প্রতি বছর) কার্যনির্বাহী কমিটি হতে ৩ জন পদত্যাগ করবেন। পদত্যাগ করে শূন্য হওয়া ৩ পদে হবে নির্বাচন।

নতুন নির্বাচিত এবং পুরোনো মিলে ৯ পরিচালক নতুন করে কার্যনির্বাহী কমিটির পদের দায়িত্ব নেওয়ার নির্বাচন করবেন।

এর আগে পদত্যাগ নিয়ে সমঝোতা না হওয়ায় এবার ‘পদে থাকার জ্যেষ্ঠতা’র ভিত্তিতে কমিটির সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট রাসেল টি আহমেদ, ভাইস প্রেসিডেন্ট এম রাশিদুল হাসান ও পরিচালক উত্তম কুমার পালকে পদত্যাগ করতে চিঠি দিয়েছিল নির্বাচন বোর্ড।

নির্বাচন বোর্ডের ওই সিদ্ধান্তে ‘আপত্তি’ করে আপিল বোর্ডে পুনর্বিবেচনার আবেদন করেছিলেন তারা।

গত বৃহস্পতিবার নির্বাচন বোর্ড আপিল বোর্ডের সিদ্ধান্ত তুলে ধরে চিঠি দিয়ে জানায়, জ্যেষ্ঠতা নয় পদত্যাগ হবে লটারি করে। ওই দিনই কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্যরা এ সিদ্ধান্তের চিঠি পান।

আল-আমীন দেওয়ান

পেপ্যাল দ্রুত চালুর বিষয়টি ব্যাংকগুলোর হাতে

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : দেশে পেপ্যালের সেবা কবে চালু হবে সেটি নির্ভর করছে কোম্পানিটির সঙ্গে চুক্তির অনুমতি পাওয়া ব্যাংকগুলোর হাতে। এখন ব্যাংকগুলো বাকি প্রক্রিয়া যত দ্রুততার সঙ্গে শেষ করতে পারবে, তত তাড়াতাড়ি এ সেবা চালু হবে।

সোমবার বিকালে রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁওয়ে এক অনুষ্ঠানের ফাঁকে পেপ্যাল নিয়ে জিজ্ঞাসায় এ কথা বলেন বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক শুভংকর সাহা। তিনি বলেন, বহুল কাঙ্খিত এ সেবা চালুর দিনক্ষণ এখন ব্যাংকগুলোর হাতেই।

ইবিএল-বেসিস কো-ব্র্যান্ডেড ইউএসডি মাস্টারকার্ড উদ্বোধনের ওই অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন তিনি। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন অর্থ প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান। বিশেষ অতিথি হিসেবে আরও ছিলেন তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের ভারপ্রাপ্ত সচিব সুবীর কিশোর চৌধুরী। উপস্থিত ছিলেন বেসিস সভাপতি তথ্যপ্রযুক্তিবিদ মোস্তাফা জব্বার।

অনুষ্ঠানের পরে কবে পেপ্যাল চালু হবে এমন জিজ্ঞাসায় কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক বলেন, কয়েক মাস আগেই কয়েকটি ব্যাংককে পেপ্যালের সঙ্গে চুক্তির অনুমতি দেয়া হয়েছে। এখন তারা চালু করতে পারলেই গ্রাহকরা এ সেবা পাবেন।

ইবিএল-বেসিস কো-ব্র্যান্ডেড ইউএসডি মাস্টারকার্ডে দেশের বাইরে ৩০ হাজার ডলার পর্যন্ত খরচের অনুমতির বিষয়টি উদাহরণ টেনে তিনি বলেন, এটির অনুমতি দেয়ার বেশি সময় হয়নি। এখন তারা সেবাটি চালু করে ফেলেছে। পেপ্যালের বিষয়টিও ব্যাংকগুলো দ্রুত করতে পারে।

চুক্তির অনুমতি জুম মাধ্যমে পেপ্যালের সেবা চালুর বিষয়ে কিনা জানতে চাইলে তিনি জানান, ‘হ্যা’।

paypal-bd-bangladesh_red

চলতি বছরের মার্চে সোনালী ব্যাংক,  অগ্রণী, রূপালী ব্যাংকের সঙ্গে সোশ্যাল ইসলামী এবং ডাচ-বাংলা ব্যাংককে এ সেবার জন্য অনুমতি দেয় বাংলাদেশ ব্যাংক।

তবে দেশে জুম মাধ্যমে পেপ্যালের সে সেবা চালু হবে। জুম পেপ্যালের অধিগ্রহণ করা একটি কোম্পানি। এক সঙ্গে হওয়ার আগে এটি আমেরিকাভিত্তিক অনলাইন রেমিট্যান্স কোম্পানি হিসেবে সুপরিচিত ছিল।

এই উদ্যোগে রেমিট্যান্স আহরণ এবং আউটসোর্সিংয়ের অর্থ সহজে দেশে আনার উপায় নেয়া হবে।

সোমবারের এই অনুষ্ঠানে শুভংকর সাহা বলেন, ইইএফ ফান্ডের অন্যতম খাত ছিল আইটি খাত। এ খাতে জাতীয় পর্যায়ে উঠে এসেছে, বড় হয়েছে এমন বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠানে এই ফান্ডের মুলধন সহায়তা ছিল।

‘যখন থেকে আইটি সেক্টর ডেভলপ হয়েছে এবং আমাদের দেশে রপ্তানি ও আমদানির যে প্রয়োজন পড়েছে সেই জায়গা থেকে বাংলাদেশ ব্যাংক বৈদেশিক মু্দ্রা নীতিমালার ক্ষেত্রে পৃথক নজর, আলাদা অগ্রাধিকার দিয়ে লিবারাইজেশন করেছে।’

তিনি জানান, ‘আমরা এখন ব্যাংকগুলোকে অনলাইন করেছি। অনলাইনের বাইরের অল্প কয়েকটি ব্যাংকের ব্র্যাঞ্চ রয়েছে। আমাদের আন্ত:ব্যাংক লেনদেন একেবারে অটোমেটিক করেছি, সেখানে ইলেক্ট্রনিক ফান্ড ট্রান্সফার করছি এবং সেটিকে আপগ্রেড করবো আগামীতে, যেটি এ বছর সেপ্টেম্বরের মধ্যে হয়ে যাবে।’

বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক বলেন, ‘আমাদের কার্ড ট্রানজিকশন অনেক বেড়েছে। আমাদের ডেবিট কার্ড আছে এক কোটির বেশি, ক্রেডিট কার্ডও নয় লাখের বেশি। গত মার্চ মাসে শুধু কার্ডে ট্রানজিকশন হয়েছে ১২’শ কোটি টাকা। কিন্তু এই অংশ যথেষ্ট নয়, আমাদের এটি বাড়াতে হবে।’

আল-আমীন দেওয়ান

বেসিস নির্বাচন : পদত্যাগ লটারিতেই

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : শেষ পর্যন্ত লটারিতেই বেসিস কার্যনির্বাহী সদস্য হতে কারা পদত্যাগ করবেন সে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

মঙ্গলবার বিকালে রাজধানীর কারওয়ান বাজারস্থ বিডিবিএল ভবনের পঞ্চম তলায় বেসিস কার্যালয়ে এই লটারি অনুষ্ঠিত হবে।

বেসিস নির্বাচন বোর্ডের সদস্য রফিকুল ইসলাম রাউলি টেকশহরডটকমকে নিশ্চিত করেন, পদত্যাগ লটারিতেই হচ্ছে।

এর আগে ‘পদে থাকার জ্যেষ্ঠতা’র ভিত্তিতে কমিটির সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট রাসেল টি আহমেদ, ভাইস প্রেসিডেন্ট এম রাশিদুল হাসান ও পরিচালক উত্তম কুমার পালকে পদত্যাগ করতে চিঠি দিয়েছিল নির্বাচন বোর্ড। পদত্যাগ নিয়ে নির্বাচন বোর্ডের ওই সিদ্ধান্তে ‘আপত্তি’ করে আপিল বোর্ডে পুনর্বিবেচনার আবেদন করেছিলেন তারা।

গত বৃহস্পতিবার নির্বাচন বোর্ড আপিল বোর্ডের সিদ্ধান্ত তুলে ধরে চিঠি দিয়ে জানায়, জ্যেষ্ঠতা নয় পদত্যাগ হবে লটারি করে। ওই দিনই কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্যরা এ সিদ্ধান্তের চিঠি পান।

basis-techshohor

দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের শীর্ষ বাণিজ্য সংগঠনটির গঠনতন্ত্র অনুয়ায়ী ২০১৭-১৮ মেয়াদের তিনটি পদে নির্বাচন অনুষ্ঠান প্রক্রিয়া শুরু করতেই এই পদত্যাগ।

ফলে চলতি সেশন ২০১৬-১৯ সালের প্রথম টার্মে বর্তমান কমিটির সভাপতি মোস্তাফা জব্বার, সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট রাসেল টি আহমেদ, ভাইস প্রেসিডেন্ট উত্তম কুমার পাল, ফারহানা এ রহমান, এম রাশিদুল হাসান ও পরিচালক সৈয়দ আলমাস কবির, মোস্তাফিজুর রহমান সোহেল, সোনিয়া বশির কবির এবং রিয়াদ এস এ হোসেইন এর মধ্যে যে কাউকে পদত্যাগ করতে হতে পারে।

নির্বাচন তফসিল অনুযায়ী ৮ জুলাই হবে নির্বাচন। নির্বাচন বোর্ড নমিনেশন আহবান করে নোটিশ দেবে ২৫ মে।

২০১৪ সালের ডিসেম্বরে সংশোধিত গঠনতন্ত্র অনুযায়ী কার্যনির্বাহী কমিটির সেশন ৩ বছর। সে হিসেবে চলতি সেশন ২০১৬-১৯ সাল। তবে এই সেশন সময়ে প্রতি টার্মে কার্যনির্বাহী কমিটি হতে ৩ জন পদত্যাগ করবেন। এক বছর সময়ের ওই টার্মে পদত্যাগ করে শূন্য হওয়া ৩ পদে হবে নির্বাচন।
প্রতিটি টার্মে নতুন নির্বাচিত এবং পুরোনো মিলে ৯ পরিচালক নতুন করে কার্যনির্বাহী কমিটির পদের দায়িত্ব নেওয়ার নির্বাচন করবেন।

আল-আমীন দেওয়ান

নাসা স্পেস অ্যাপসে শেষ দিনে ভোটের আহ্বান

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : যুক্তরাষ্ট্রের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা আয়োজিত প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা ‘নাসা স্পেস অ্যাপস চ্যালেঞ্জের চূড়ান্ত পর্বে পিপলস চয়েজ ক্যাটাগরিতে বাংলাদেশকে ভোট দেওয়ার শেষ দিন আজ রোববার।

বাংলাদেশের তিনটি প্রকল্প এখন এই ক্যাটাগরিতে পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়েছে এবং অন্য প্রকল্পগুলোর সঙ্গে ভোটে লড়াই করছে। ইতোমধ্যে দেশের এই তিন প্রকল্প সেরা ২৫ এর মধ্যে অবস্থান করছে।

সম্প্রতি বেসিসের উদ্যোগে দেশে আয়োজিত নাসা স্পেস অ্যাপস চ্যালেঞ্জ ২০১৭ প্রতিযোগিতায় আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতার জন্য ১১টি প্রকল্প মনোনীত হয়। পিপলস চয়েজ ক্যাটাগরিতে স্থান পাওয়া প্রকল্পগুলো হলো-আত্ম উন্মেষ (ATTO-UNMESH), জোয়াপথ২৫ (JOAPTH25) ও টিম ইংলাইটাস (TEAM ENGLITAS)।

Nasa_Space-app-PC-Techshohor

নাসা স্পেস অ্যাপস চ্যালেঞ্জের বাংলাদেশের আহ্বায়ক আরিফুল হাসান অপু জানান, পিপলস চয়েজ ক্যাটাগরিতে দেশের তিনটি প্রকল্প উঠে আসা খুবই আনন্দের। আজকেই শেষ দিন। আমরা যদি একটু কষ্ট করে ভোট দিই তাহলে আমরা এই তিনটির মধ্যে অন্তত একটিকে সেরা পাঁচে নিয়ে আসতে পারবোই।

এছাড়াও আরও আট প্রকল্প নাসার চূড়ান্ত প্রতিযোগিতার তালিকায় রয়েছে। যেগুলো ভোটিং ছাড়াই নাসা সরাসরি বিচার-বিশ্লেষণ করবে।

পিপলস চয়েজ ক্যাটাগরিতে থাকা প্রকল্পগুলোকে ভোট দিতে প্রথমে এই ওয়েবসাইটে গিয়ে বিনামূল্যে একটি অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে। এরপর সাইটটিতে লগ-ইন করে এই লিংকে যেতে হবে। সেখান থেকে বাংলাদেশি তিনটি প্রকল্প সার্চ করে প্রত্যোকটিতে ভোট দিতে হবে। একটি অ্যাকাউন্ট থেকে দিনে একবার ভোট দেওয়া যাবে।

ইমরান হোসেন মিলন

দেশজুড়ে ইন্টারনেট উৎসব

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : দেশের সরকারি বিভিন্ন সেবা, ইন্টারনেটভিত্তিক ব্যবসায়ের প্রচার-প্রসার ও ইন্টারনেট গ্রাহক বাড়াতে দ্বিতীয়বারের মতো শুরু হচ্ছে ‘জাতীয় ইন্টারনেট সপ্তাহ’।

ঢাকা ছাড়াও দেশের সব উপজেলায় ইন্টারনেটের এই উৎসব শুরু হবে মঙ্গলবার।

মঙ্গল ও বুধবার রাজধানীর ঢাকা কলেজ প্রাঙ্গণে বসছে ‘ঢাকার এক্সপো’। এতে দেশের শীর্ষস্থানীয় ই-কমার্স কোম্পানি, মোবাইল অ্যাপস ডেভেলপমেন্ট প্রতিষ্ঠান, ওয়েব পোর্টাল, ডিভাইস কোম্পানিসহ ইন্টারনেটভিত্তিক পণ্য ও সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান অংশ নেবে।

Logo-of-National-Internet-Week-Techshohor

সরকারের তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের অধীনে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তর এবং বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) এবারের ইন্টারনেট সপ্তাহের আয়োজক।

মঙ্সগলবার ১০টায় ঢাকা কলেজে আনুষ্ঠানিকভাবে জাতীয় ইন্টারনেট সপ্তাহের উদ্বোধন করবেন তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি থাকবেন তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের ভারপ্রাপ্ত সচিব সুবীর কিশোর চৌধুরী, বেসিস সভাপতি মোস্তাফা জব্বার এবং ঢাকা কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মো. মোয়াজ্জেম হোসেন মোল্লাহ্। সভাপতিত্ব করবেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বনমালী ভৌমিক।

আনিকা জীনাত

সাইবার নিরাপত্তায় শিক্ষার্থীদের প্রশিক্ষণ

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : নারায়নগঞ্জের একটি স্কুলে ইন্টারনেট ও সাইবার নিরাপত্তা বিষয়ে সচেতনতামূলক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সোমবার নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারের বান্টি আইডিয়াল হাই স্কুলে এই সচেতনতামূলক কর্মশালার আয়োজন করে ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ এবং আইসিটি বিজনেস প্রমোশন কাউন্সিল।

এই স্কুলের শিক্ষার্থী এবং শিক্ষকদের জন্য ইন্টারনেট ও সাইবার নিরাপত্তার উপর সচেতনতা ও হাতে কলমে কিছু বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। এতে এক হাজার শিক্ষার্থী এবং ৩০ জন শিক্ষক অংশ নেন।

Narayanganj-Awareness-Ispab-Techsohor

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন নারায়নগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবু। এ ধরনের সচেতনতামূলক অনুষ্ঠান আয়োজনের জন্য তিনি আইএসপিএবি ও আইবিপিসিকে ধন্যবাদ জানান। একই সঙ্গে ওই অঞ্চলের অন্যান্য বিদ্যালয়ে এমন কর্মশালা নিয়মিত আয়োজনের আহ্বানও জানান।

আইএসপিএবির সাধারণ সম্পাদক ইমদাদুল হক বিদ্যালয়টিতে ডিজিটাল ল্যাব স্থাপনের পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের ইন্টারনেটের জ্ঞানের মাধ্যমে আধুনিক তথ্যপ্রযুক্তির যুগে একজন দক্ষ তথ্যপ্রযুক্তিবিদ হিসেবে গড়ে ওঠার জন্য প্রয়োজনীয় সর্বোচ্চ সহায়তা প্রদানের ঘোষণা দেন। এ সময় তিনি বান্টি আইডিয়াল হাই স্কুলকে দুটি ল্যাপটপ কম্পিউটার উপহার দেন।

অনুষ্ঠানে আরও ছিলেন আইএসপিএবি যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মঈন উদ্দিন আহমেদ, ট্রেজারার  সুব্রত সরকার, আইসিটি বিজনেস প্রমোশন কাউন্সিলের প্রোগ্রাম অফিসার মো. ফয়সাল খান।

কর্মশালায় প্রশিক্ষণ দেন তথ্যপ্রযুক্তিবিদ বেসিস সভাপতি মোস্তাফা জব্বার, অপটিম্যাক্স কমিউনিকেশন লিমিটেডের পরিচালক ইকবাল বাহার জাহিদ, বিজয় কম্পিউটারের প্রধান নির্বাহী জেসমিন জুই।

ইমরান হোসেন মিলন