স্থানীয় পর্যায়ে ডাটা সেন্টার স্থাপন আবশ্যক

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ডাটা সেন্টারের বর্তমান অবস্থা, এর নিরাপত্তাসহ সামগ্রিক বিষয়ে নিয়ে ‘গ্লোবাল আইটি ট্রেন্ডস : হাউ উইল দে এফেক্ট ইওর ডাটা সেন্টার স্ট্রাটেজি’ শীর্ষক এক সেমিনার শুক্রবার অনুষ্ঠিত হয়েছে। বেসিস ও ইকাডেমি আয়োজিত এই সেমিনারে বেসিস সদস্য কোম্পানির প্রতিনিধিসহ আগ্রহী অর্ধশতাধিক লোক অংশ নেন।

সেমিনারে বেসিসের পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনটির সহ-সভাপতি এম রাশিদুল হাসান। আলোচনা করেন এপিআই সিঙ্গাপুরের সিনিয়র কনসালট্যান্ট ওট্টো ডি রো এবং ইকাডেমির পরিচালক মনির আহমেদ।

অনুষ্ঠানে বেসিসের সহ-সভাপতি এম রাশিদুল হাসান বলেন, সময়ের চাহিদায় স্থানীয় পর্যায়ে ডাটা সেন্টার স্থাপন আবশ্যক হয়ে পড়েছে। ব্যক্তিগত থেকে শুরু করে প্রাতিষ্ঠানিক এমনকি সরকারি গুরুত্বপূর্ণ ডাটা সংরক্ষণের ক্ষেত্রে সঠিক নিয়মে ডাটা সেন্টার স্থাপন অত্যন্ত জরুরী। আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স, ইন্টারনেট অব থিংকস, অগমেন্টেড/ভার্চুয়াল রিয়েলিটির জনপ্রিয়তায় প্রতিষ্ঠানগুলোকে আইটি ও ডাটা সেন্টার স্ট্রাটেজিতে গুরুত্ব দিতে হবে। বেসিসের পক্ষ থেকে এর সদস্যসহ বাংলাদেশি আইটি কোম্পানির ডাটা সেন্টার সম্পর্কিত পরিকল্পনা গ্রহণে কাজ করা হচ্ছে।

Data Center Seminar at BASIS - TechShohor

অনুষ্ঠানের মূল আলোচক এপিআই সিঙ্গাপুরের সিনিয়র কনসালট্যান্ট ওট্টো ডি রো ইন্টার‌্যাক্টিভ প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে বর্তমান ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডের নতুন ব্যবসায় ও সোশ্যাল মিডিয়ার পরিবর্তন ও এর ভূমিকা নিয়ে বিস্তারিত তুলে ধরেন। একইসাথে গ্রাহকদের চাহিদানুযায়ী নিরাপদ ডাটা সেন্টার ব্যবস্থাপনা নিয়ে করণীয় বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করেন। তিনি জানান, নতুন ব্যবসায় ও তথ্যপ্রযুক্তি দক্ষতার দ্রুতবর্ধমান চাহিদানুসারে আগামী কয়েক বছরে ডাটা সেন্টার ইন্ডাস্ট্রি অন্তত দুই ডিজিট বড় হবে।

ইকাডেমির পরিচালক মনির আহমেদ ডাটা সেন্টার দক্ষতার উপর গুরুত্বারোপ করেন। তিনি বলেন, আমাদের দেশে ডাটা সেন্টার প্রযুক্তিতে দক্ষ জনবলের অভাব রয়েছে। কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর শিক্ষা নতুন এই প্বেসিসরযুক্তির সাথে সমন্বিত নয়। অনেকেই ভেন্ডর সার্টিফিকেশন প্রশিক্ষণ নিলেও ডাটা সেন্টার ফ্যাসিলিটি ডিজাইন, অপারেশন, ক্যাপাসিটিতে প্রশিক্ষণের শিক্ষার্থী খুবই কম। কিন্তু সময়ের চাহিদায় এ বিষয়ে যথাযথ প্রশিক্ষণ প্রয়োজন। বেসিসের সকল সদস্য কোম্পানি ও প্রফেশনালদের জন্য ইপিআই এর বাংলাদেশি পার্টনার ইকাডেমিতে সকল প্রশিক্ষণে ২০ শতাংশ ছাড় দেওয়া হবে বলেও ঘোষনা দেন তিনি।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি অবলম্বনে রুদ্র মাহমুদ

‘বিনিয়োগের পিছনে না ঘুরে কাজের পিছনে ছুটতে হবে’

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : দেশে প্রতিনিয়ত নতুন উদ্যোগ তৈরি হচ্ছে। তবে অনেক উদ্যোগই মাঝ পথে ছিটকে যায়। উদ্যোক্তাদের মধ্যে দেখা যায় কাজের চেয়ে বিনিয়োগ কিভাবে পাওয়া যাবে সেদিকে নজর বেশি দিতে। তাই উদ্যোগের কাজ ঠিকভাবে না গুছিয়ে বিনিয়োগকারীদের পিছনে ছুটতে থাকেন নতুন এসব উদ্যোক্তারা। যা স্টার্টআপের জন্য ক্ষতিকর হয়ে দাঁড়ায়। তাই বিনিয়োগের পিছনে না ছুটে কাজের পিছনে ছুটতে হবে। এমনি নানা পরামর্শে জমে উঠছিলো  ইএমকে সেন্টারে  সিএক্সওহাব আয়োজন।

শনিবার বিকেলে এই অনুষ্ঠানে কি-নোট উপস্থাপন করেন বিডি জবস ও আজকের ডিলের প্রধান নির্বাহী ফাহিম মাশরুর।

তিনি বলেন,  সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে প্রতিযোগিতার বাজার বাড়াছে। বিডিজবস প্রতিষ্ঠার সময় যদি ফেইসবুক থাকতো হয়ত তখন বিডিজবস তৈরি নাও হতে পারতো। তাই বলে পিছিয়ে থাকলে হবে না। নতুন প্রযুক্তি সঙ্গে উদ্যোক্তাদের এগিয়ে যেতে হবে। সৃজনশীল আইডিয়া থেকে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো, আইডিয়া অনুযায়ী কাজ ঠিকভাবে হচ্ছে কিনা। তাই উদ্যোক্তাদের কাজে ফোকাস করতে হবে।

cxo-hub-techshohor

তথ্যপ্রযুক্তি সাংবাদিকদের সংগঠন বাংলাদেশ আইসিটি জার্নালিস্ট ফোরামের (বিআইজেএফ) সভাপতি মুহাম্মদ খান বলেন,  তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক সাংবাদিকরা সব সময় ইন্টারনেট নির্ভর উদ্যোক্তদের নানাভাবে প্রচারণায় সাহায্য করেছে। তবে উদ্যোক্তারা অযাচিত মিডিয়াতে  নিজেদের প্রচার করতে অনেক সময় ব্যয় করেন। কিন্তু সেই সময়টাতে তারা নিজেদের উদ্যোগ এগিয়ে নিতে আরও বেশি কাজ করতে পারতেন।

তিনি বলেন, নিজেদের উদ্যোগ বড় পরিসরে এগিয়ে নিতে কাজের কোনো বিকল্প নেই। তাই সবার আগে কাজে মনোযোগী হতে তরুণ উদ্যোক্তাদের আহ্বান জানান তিনি।

এই আয়োজনে আরও উপস্থিত ছিলেন মাইএশিয়াভিসি’র প্রতিষ্ঠাতা সাজিদ রহমান, সেবা এক্সওয়াইজেডের প্রধান নিবার্হী  আদনান ইমতিয়াজ হালিম, টিম ইঞ্জিন এর প্রতিষ্ঠাতা সামিরা জুবেরি হিমিকা, প্রেওনিয়র ল্যাবের প্রধান নিবার্হী আরিফ নিজামীসহ আরও অনেকে।

তুসিন আহমেদ

অনলাইন মার্কেটিংয়ের সেমিনার শনিবার

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : অনলাইনে পণ্যের প্রচার-প্রচারণার কৌশল নিয়ে সেমিনারের আয়োজন করেছে ই-কমার্স প্ল্যাটফর্ম স্টোরিয়া ডটকম।

শনিবার রাজধানীর জনতা টাওয়ার সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কে বিকাল ৩টা হতে ৫টা পর্যন্ত চলবে এ সেমিনার। সকলের জন্য উম্মুক্ত এ সেমিনারে অংশ নিতে হলে নিবন্ধন করতে হবে।

শনিবার দুপুর  পর্যন্ত   এই ঠিকানায় নিবন্ধন করা যাবে।

ই-ক্যাব সভাপতি রাজীব আহমেদ, স্টোরিয়ার প্রধান নিবার্হী আল আরমান,চিফ অপারেশন অফিসার হাসিব বিন রাফিক, বিজনেস ডেভেলপার তাসদীখ হাবিবসহ সংশ্লিষ্ট খাতের অভিজ্ঞজনরা এতে বক্তা হিসেবে থাকবেন।

seminar-techshohor

সেমিনারের উদ্দেশ্য সম্পর্কে আয়োজকরা জানান, অনলাইনে পণ্যের প্রচারণার জন্য ডিজিটাল মার্কেটিং এজেন্সিগুলোর মাধ্যমে বিজ্ঞাপন চালানো ব্যয়বহুল হওয়ায় বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই তারা নিজেরা এ কাজগুলো করে থাকেন। কিন্তু অভিজ্ঞতা ও দক্ষতার অভাবে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই ভাল ফলাফল পাওয়া যায় না। ফেইসবুক প্রতিনিয়ত তাদের বিজ্ঞাপন এলগারিদম পরিবর্তন করে। যারা সেগুলো সম্পর্কে আপডেট রাখেন না তাদের অনেক সময়ই বলতে শোনা যায় যে, ফেইসবুকে রিচ কমে গেছে। অনলাইন প্রচারের এমন নানা বিষয় নিয়ে আলোচনা হবে এই সেমিনারে।

দেশে ফেইসবুক ব্যবহারকারীর সংখ্যা ২ কোটি ৪০ লাখের বেশি। এর মধ্যে প্রায় ২৮ লাখ ব্যবহারকারী  বিভিন্ন পেইজ পরিচালনা করেন।

উপরের এই পরিসংখ্যানই বলে দেয় দেশে অনলাইন ব্যবসার কেন্দ্রবিন্দুই এখন ফেইসবুক। আর এখানে ব্যবসার এই প্রচার-প্রচারণার গুরুত্বেই স্টোরিয়ার এই সেমিনার।

তুসিন আহমেদ

বুয়েটে উইমেন ইঞ্জিনিয়ার্স কংগ্রেস শুরু সোমবার

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বুয়েট) প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ‘উইমেন ইঞ্জিনিয়ারস কংগ্রেস ২০১৬’। বুয়েট ক্যারিয়ার ক্লাব দুইদিন ব্যাপী এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করছে আগামী সোমবার-মঙ্গলবার।

পূর্বের তুলনায় নারী প্রকৌশলী বর্তমান সময়ে ৩০ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। তবে অনেক নারী সামাজিক নানা বাধার কারণে চাকরিক্ষেত্রের কাজে আগ্রহ দেখান না। নারী প্রকৌশলীদের এই সকল বাধা ভেঙ্গে কাজে উৎসাহ যোগাতে প্রথমবারের মত এই আয়োজন করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে আয়োজনকরা।

15036269_1211524892247002_2210411150017252337_n

আয়োজকদের পক্ষ থেকে মোহাইমিনুল হক টেকশহরডটকমকে জানান, এই আয়োজনে কুইজ প্রতিযোগিতা, প্যানেল ডিসকাশন, ইঞ্জিনিয়ার্স অলিম্পিয়াড, মোটিভেশন বিষয়ক সেমিনার অনুষ্ঠিত হবে।

মোটিভেশন সেমিনার সবাই অংশগ্রহণ করতে পারবেন।

এই আয়োজনে প্রধান অথিতি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বুয়েটের উপাচার্য অধ্যাপক সাইফুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি থাকবেন ডব্লিউএইপিএ’য়ের সভাপতি সেলিনা আফরোজ, প্রফেসর ডক্টর নজরুল ইসলাম, বাগডুম ডটকমের প্রধান নির্বাহী সৈয়দা কামরুন আহমেদসহ আরও অনেকে।

আয়োজনটি সম্পর্কে বিস্তারিত জানা যাবে এই ঠিকনায়

তুসিন আহমেদ

ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডের প্রথম দিন : কোথায় কখন কী সেমিনার সম্মেলন

তুসিন আহমেদ,টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : শুরু হয়ে গেছে দক্ষিণ এশিয়ার সবচেয়ে বড় প্রযুক্তি উৎসব ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডের দিন। আর কিছুক্ষণ পরেই রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় (আইসিসিবি) ১১টা ৩৫ মিনিটে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই মহোৎসবের উদ্বোধন করেবেন।

তিন দিনের এই ব্যাপক আয়োজনে প্রথম দিনেই ই-কমার্স, গেইমিং, ডিজিটাল প্লাটফর্ম ও প্রযুক্তি ব্যবসা বিষয়ক কয়েকটি সেমিনার অনুষ্ঠিত হবে।

বেলা আড়াইটায় আইসিসিবির এক নম্বর হলে শুরু হবে ‘বিজনেস মডেল ফর হাই টেক জেন’ শীর্ষক সেমিনার। এতে বক্তা হিসেবে থাকবেন বেসিক পরিচালক সাইদ আলমাস কবির, বিএইচটিপিএয়ের ব্যবস্থাপক পরিচালক হোসনে আরা বেগম, মাইক্রোসফট এশিয়া প্যাসিফিকের সাউথ এশিয়া  ডিরেক্টর সেলস লুকাস লু’সহ আরও অনেকে।

‘এডুকেশন ফর এভরি সিটিজেন বিল্ডিং এ ডিজিটাল প্লাটফর্ম ফর এডুকেশন অ্যান্ড লার্নিং’ শীর্ষক সেমিনার বিকাল সাড়ে পাঁচটায় শুরু হবে এক নম্বর হলে। এতে বক্তা হিসেবে থাকবেন বেসিস সভাপতি মোস্তাফা জব্বার, এএসওসিআইও সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুলাহ এইচ কাফি, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব সোহবার হোসাইনসহ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে বিশেষজ্ঞ সুপরিচিত বক্তরা।

digital-world-venu-techshohor

দেশে এখন রাজধানীকেন্দ্রিক ই-কমার্সের জোয়ার । তাই কীভাবে দেশের সর্বত্র ই-কমার্সের সেবার পৌঁছে দেয়া যায় এই বিষয়ক সেমিনার অনুষ্ঠিত হবে বেলা দুইটায় ২ নম্বর হলে। ‘হাউ টু এক্সপেন্ড ই-কমার্স টু রুরাল এরিয়া’ শীর্ষক এই সেমিনার বক্তা হিসবে থাকবেন ই-ক্যাবের সাধারণ সম্পাদক মোঃ. আব্দুল ওয়াহেদ তমাল, বাগডুমের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) সৈয়দা কামরুন আহমেদসহ ই-কমার্স ব্যবসায়ী ও বিশেষজ্ঞরা।

‘ক্রিয়েটিং এ নিস ফর মোবাইল এবং গেইমিং’ বিষয়ক সেমিনার ২ নম্বর হলে অনুষ্ঠিত হবে । এতে বক্তা হিসেবে থাকবেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আলহাজ্ব শাহরিয়ার আলম, গেইম ডেভেলপার মাশা মুস্তাকিম, রাইজ আপ ল্যাবস প্রতিষ্ঠাতা এরশাদুল হক গেইম নির্মাতা ও উদ্যোক্তারা।

বুধবার বিকালে অনুষ্ঠিত হবে মিনিস্ট্রিয়াল কনফারেন্স। এতে আট দেশের তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী উপস্থিত থাকবে। এই কনফারেন্সে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। সম্মেলনে সভাপতিত্ব করবেন তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। সেশন সঞ্চালনা করবেন প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব আবুল কালাম আজাদ।

রাত৮টা পর্যন্ত চলবে ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড। এটি সবার জন্য উম্মুক্ত।

‘নন স্টপ বাংলাদেশ’ স্লোগানে শুরু হতে যাওয়া এই উৎসবের মূল আয়োজনে রয়েছে তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগ। সহযোগী হিসেবে থাকছে বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল(বিসিসি), বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস(বেসিস), প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের অ্যাকসেস টু ইনফরমেশন প্রোগ্রাম(এটুআই)-সহ বিভিন্ন তথ্যপ্রযুক্তি সংগঠন ও সংস্থা ।

সপ্তম পঞ্চবার্ষিকীতে গুরুত্ব পাচ্ছে প্রযুক্তি খাত

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : দেশে সপ্তম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনায় অন্যান্য খাতের পাশাপাশি সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে তথ্যপ্রযুক্তি খাতকে। দেশে সম্ভাবনাময় খাত বিবেচনায় এখন এই খাতকে অগ্রাধিকার দিতেই হবে বলে বলেছেন পরিকল্পনা মন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল।

রোববার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) আয়োজিত আইসিটি বিভাগের ‘সপ্তম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা : ক্রমোন্নতি ও আইসিটির মাধ্যমে নাগরিকদের সক্ষমতা প্রদান’ শীর্ষক সেমিনারে একথা বলেন তিনি।

সেমিনারে মন্ত্রী বলেন, বিশ্বে এখন মোট বার্ষিক হিসাবে আর্থিক খাত ৬৩ ট্রিলিয়ন ডলার। যার মাত্র তিন ট্রিলিয়ন ডলার দখল করে আছে তথ্যপ্রযুক্তি খাত। আর্থিক হিসাবে খুব অল্প সময়ের মধ্যে এই খাতের বড় ধরনের পরিবর্তন আসতে যাচ্ছে। এক পরিসংখ্যান বলছে আগামী ২০২৫ সাল নাগাদ এই আর্থিক খাতের যে পরিমান হবে সেখানে তথ্যপ্রযুক্তি প্রায় ৯২ ট্রিলিয়ন ডলার অবদান রাখবে।

7th 5yr-paln-techshohor

মোস্তফা কামাল বলেন, আমাদের অবকাঠামোগত সব ধরনের সুবিধা রয়েছে। এটিকে কাজে লাগিয়ে সামনের পাঁচ বছরে এই খাতের আয় পাঁচ বিলিয়নের বেশি করার চেষ্টা করতে হবে। এই খাতের শুরু আছে, শেষ নেই। তাই খাতের গুরুত্ব বিবেচনায় আইসিটি শিল্পের মধ্যে যোগাযোগ জোরালো করা দরকার।

মন্ত্রী বলেন, জাপান, কোরিয়া, চীনের মতো আমাদের দেশকেও আইসিটিতে সমৃদ্ধ করা সম্ভব। অন্য দেশগুলোর সঙ্গে সহযোগিতাপূর্ণ সম্পর্ক রেখেই তথ্যপ্রযুক্তিকে এগিয়ে নেয়ার পরিকল্পনা করা হচ্ছে। যা বাস্তবায়ন করতে হবে সবার সহযোগিতায়।

তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের সপ্তম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনার মধ্যে রয়েছে বেশ কয়েকটি প্রকল্প বাস্তবায়ন, কিছু নতুন প্রকল্প হাতে নেওয়া এবং চলমান প্রকল্পের সঙ্গে সঙ্গে স্থায়ীভাবে কিছু কাজ করার পরিকল্পনা। সে অনুযায়ীই কাজ করা হচ্ছে বলে জানান তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

তিনি জানান, তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে বেশ কয়েকটি পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে চায়। এর জন্য বিভাগের কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে ছয়টি ফোকাস গ্রুপ ডিসকাশনের মধ্য দিয়ে ২০টি প্রকল্প তৈরি করেছে। এই প্রকল্পগুলিকে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে। সেখান থেকে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় প্রকল্পগুলোকে নির্বাচন করবে।

পলক বলেন, আগামী পাঁচ বছরে সরকারিভাবে দুই লাখ এবং বেসরকারিসহ প্রায় ২০ লাখ তরুণকে বিভিন্ন প্রশিক্ষণ দিয়ে কর্মসংস্থানের উপযোগী করা হবে।

এই পরিকল্পনার মধ্যেই দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের প্রোমোশনের ‘প্রোমোশন অব আইটি ইন্ডাস্ট্রি অ্যান্ড এক্সপোর্ট’ নামের একটি প্রকল্প হাতে নেওয়ার কথাও বলেছে তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগ। এর মধ্য দিয়ে জাপান, কোরিয়া, চীন, থাইল্যান্ডসহ বেশকিছু দেশে বাংলাদেশের এই খাতকে তুলে ধরা হবে। তাদের সঙ্গে একত্রে কাজ করতে দেশগুলোর সঙ্গে সহযোগিতা করবে বিভাগ।

সেমিনারে আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) সভাপতি শামীম আহসান, বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনে আরা বেগম, আইসিটি বিভাগের সচিব শ্যাম সুন্দর সিকদার, অতিরিক্ত সচিব সুশান্ত সরকারসহ আরও অনেকে।

ইমরান হোসেন মিলন

জাপানে উচ্চ শিক্ষা ও চাকরি বিষয়ক সেমিনার

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ড্যাফোডিল জাপান আইটির (ডিজেআইটি) উদ্যোগে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ব্যাঙ্কুয়েট হলে অনুষ্ঠিত হবে জাপানে উচ্চ শিক্ষা ও চাকরি বিষয়ক সেমিনার।

স্ট্যাডি-ওয়ার্ক-সেটেল ইন জাপান শীর্ষক এই সেমিনারটি হবে মঙ্গলবার বিকেল ৪টায়। এতে জাপানে বাংলাদেশের শিক্ষার্থীদের উচ্চশিক্ষা ও চাকরির পাশাপাশি স্থায়ীভাবে বসবাসের সুযোগ এবং সম্ভাবনা নিয়ে আলোচনা করা হবে।

japan

সেমিনারে প্রধান আলোচক থাকবেন ইউনিটাস ল্যাংগুয়েজ স্কুল, জাপানের প্রতিনিধি মিতসুহিকু শিন্ধু এবং ড্যাফোডিল জাপান আইটির মহাব্যবস্থাপক সুইয়সি ইওয়াসাকি।

সেমিনারটি সবার জন্য উন্মুক্ত। এখান থেকে সেমিনারে অংশ নেয়ার জন্য নিবন্ধন করা যাবে।

শামীম রাহমান

সফল হতে বিশ্বজয়ের স্বপ্ন দেখতে হবে

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : স্টার্টআপ তৈরিতে অনুপ্রাণিত করতে ‘স্টার্টআপ জার্নি : লার্ন ফ্রম সিলিকন ভ্যালি’ শীর্ষক একটি সেমিনার অুনষ্ঠিত হয়েছে।

সোমবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় প্রশাসন ইনস্টিটিউট (আইবিএ) মিলনায়তনে সেমিনারটির যৌথ আয়োজন করে আইবিএ এবং ফেনক্স ভেঞ্চার ক্যাপিটাল।

সিলিকন ভ্যালি ভিত্তিক বিনিয়োগ প্রতিষ্ঠান ফেনক্স ভেঞ্চার ক্যাপিটালের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহ-প্রতিষ্ঠাতা ড. আনিস উজ্জামান প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন। এছাড়াও বিশেষ অতিথি ছিলেন বেসিস সভাপতি ও ফেনক্স ভেঞ্চার ক্যাপিটালের জেনারেল পার্টনার শামীম আহসান। সভাপতিত্ব করেন আইবিএ পরিচালক প্রফেসর ড. একেএম সাইফুল মজিদ।

IMG

অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, তথ্যপ্রযুক্তিসহ বিভিন্ন খাতে বাংলাদেশের বেশ কয়েকটি উদ্যোগ এখন বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় অবস্থানে রয়েছে। নিউজকক্রিড, গ্রাফিক পিপল, টাইগার আইটি, রিভ সিস্টেমস, ডাটাসফট, লিডস সফট, বিডিজবস, জেনুইটি আইটিসহ অনেক উদ্যোগ এখন বিশ্বে স্বগৌরবে বাংলাদেশকেতুলে ধরছে। আর এসব উদ্যোগের পিছনে রয়েছে উদ্যোক্তাদের দেশ এমনকি বিশ্বকে বদলে দেওয়ার স্বপ্ন। আমাদের তরুণকে এ ধরণের বড় স্বপ্ন দেখতে হবে।

ভালো উদ্যোগের জন্য বিনিয়োগ কোনো বাধা নেই জানিয়ে বক্তারা বলেন, ফেনক্স ভেঞ্চার ক্যাপিটালসহ বিশ্বের অনেক বড় বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান এখন বাংলাদেশে বিনিয়োগ করছে। বাংলাদেশ এখন তথ্যপ্রযুক্তির পরবর্তী গন্তব্যস্থল তাও এখন বিশ্ব স্বীকৃতি দিয়েছে।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন আইবিএ’র প্রফেসর ড. মোহাম্মদ জিয়াউল হক মামুন, প্রফেসর ড. জাওয়াদুর রহমান জাহিদ, প্রফেসর নিয়াজ আহমেদ, অ্যাসোসিয়েট প্রফেসর মুস্তাক আহমেদ, অ্যাসিস্ট্যান্ট প্রফেসর হুমায়রা লতিফা আহমেদ, অ্যাসিস্ট্যান্ট প্রফেসর সৈয়দা মাহরুফা বাশার, লেকচারার ফারহান ইমতিয়াজ, এটিএম জাকারিয়া খান প্রমুখ।

ইমরান হোসেন মিলন

ই-কমার্সের শুরুতে ফেইসবুক দারুণ কার্যকরী : নতুনদের প্রতি পরামর্শ

ফখরুদ্দিন মেহেদী, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ই-কমার্সের ক্ষেত্রে মিডিয়া মার্কেটিং খুবই গুরুত্বপূর্ণ। দেশে হাজারো ই-কমার্স সাইট তৈরি হচ্ছে। এ পরিস্থিতিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে (সোস্যাল মিডিয়া) মার্কেটিং করা খুবই জরুরি। কেননা ই-কমার্সে গ্রাহক হচ্ছে সবচেয়ে বড় টুলস। আর এ গ্রাহকের কাছে পৌঁছানোর জন্য সোস্যাল মিডিয়া সবচেয়ে জনপ্রিয়।

মার্কেটিংয়ের ক্ষেত্রে ফেইসবুক ও টুইটারের পাশাপাশি লিংকডইন ও ই-মেইল মার্কেটিংয়ের দিকেও নজর দিতে হবে। তবে ই-মেইল মার্কেটিংয়ের ক্ষেত্রে সবাইকে গণহারে মেইল না করে সাবস্ক্রাইবারদের টার্গেট করে পাঠালেই ভালো ফলাফল পাওয়া যাবে।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর পাবলিক লাইব্রেরীতে শুরু হওয়া ই-কমার্স মেলায় বিডিওএসএন আয়োজিত ‘ই-বানিজ্য : শুরু ও চালিয়ে নেওয়া’ শীর্ষক সেমিনারে এমন পরামর্শ দেন বক্তারা।

ই-কমার্স-মেলা-চাকরি খুজব না দেব-সেমিনার-টেকশহর

সেমিনারে তথ্যপ্রযুক্তি কিংবা ই-কমার্সে উদ্যোক্তা হতে হলে চিন্তার প্রসার ঘটাতে হবে। এমন কোন আইডিয়া খুঁজে বের করতে হবে যা আর কেউ কোথাও ব্যবহার করেনি। এরপর প্রচুর গবেষণা ও তথ্যাদি বিশ্লেষণ করে উদ্যোগ নিতে হবে। এমনটাই মনে করেন ই-কমার্সে এখন পর্যন্ত সফল ব্যক্তিরা।

এতে অন্যরকম গ্রুপের চেয়ারম্যান মাহমুদুল হাসান সোহাগ তার অভিজ্ঞতা তুলে ধরেন। তিনে বলেন, দেশে অশিক্ষিত বা স্বল্প শিক্ষিতরাই বেশি উদ্যোগ নেন। দেশের বিদ্যমান শিক্ষা ব্যবস্থা তথাকথিত শিক্ষিতদের চিন্তা করতে ভুলিয়ে দিয়েছে। কিন্তু এখন সময় এসেছে সে ধারা থেকে বের হয়ে আসার।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য তুলে ধরে সোহাগ বলেন, দেশের অবকাঠামো এবং গ্রাহক বিবেচনায় ২৬ হাজার কোটি টাকার ই-বানিজ্য বাজার গড়ে উঠার সম্ভবনা আছে।

উদ্যোক্তা হতে আগ্রহীদের জন্য সফল এ উদ্যোক্তা বলেন, উদ্যোক্তাদের লক্ষ্য সম্পর্কে ওয়াকিবহাল হতে হবে। কি করতে চান তা ঠিক করে এ নিয়ে প্রচুর গবেষনা করতে হবে। শুরুতেই বড় করে চিন্তা না করে ছোট করে ভাবতে হবে। প্রয়োজনে প্রথমে একটি নির্দিষ্ট এলাকা বা মহলকে টার্গেট করে তাদের জন্য কোন পন্য বা সেবা নিয়ে আসতে হবে।

পণ্যের বাছাইয়ে ইউনিক তথা একটি গোষ্টি বা শ্রেণীর রিয়েল নিড খুঁজে বের করার পরামর্শ দিয়ে সোহাগ বলেন, প্রয়োজনে ঐতিহ্যের সঙ্গে মিল আছে এমন পণ্য দিয়েও ব্যবসা শুরু করা যেতে পারে। কেননা এতে মুখে মুখে প্রতিষ্ঠানের সুনাম ছড়ায়। শুরুতে বিজ্ঞাপণ দিয়ে মার্কেটিং করার চিন্তা বাদ দেবার পরামর্শ দেন তিনি।

মার্কেটিংযের বিষয়ে তিনি বলেন, একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে ৫০ থেকে দেড় লাখ টাকা খরচ হয় এবং এ খরচ পর্যায়ক্রমে বাড়তেই থাকে। তাই শুরুতে ওয়েবসাইট তৈরির ঝামেলায় না গিয়ে ফেইসবুকেই যাচাইয়ের কাজটা করে নেওয়া যেতে পারে বলেও তিনি পরামর্শ দেন।

সোহাগ বলেন, এরপর ব্যবসা শুরু হয়ে গেলে পণ্য গ্রাহকের কাছে ঠিক মতো পৌঁছে দিতে হবে এবং কোনো ধরনের প্রতারণার আশ্রয় নেওয়া যাবে না। তাহলে প্রতিষ্ঠানের বদনাম হবে এবং গ্রাহক ছুটে যাবে। প্রয়োজনে পণ্য ফেরত দেওয়াটাও নিশ্চিত করতে হবে।

ভার্চুয়ানিকের সিইও আসাদ ইকবাল জানান, ই-কমার্সের ক্ষেত্রে মিডিয়া মার্কেটিং খুবই গুরুত্বপূর্ণ। বিশেষ করে সোস্যাল মার্কেটিং খুবই জরুরি। কেননা ই-কমার্সে গ্রাহক হচ্ছে সবচেয়ে বড় টুলস। আর এই গ্রাহকের কাছে পৌঁছানোর জন্য সোস্যাল মিডিয়া সবচেয়ে জনপ্রিয়। একই সঙ্গে নিজের ওয়েবসাইট এবং পণ্য কেন অন্যদের চেয়ে আলাদা সেটিও সবাইকে জানাতে হবে। এজন্য ইউনিক ধারণার প্রবর্তন করার কথা বলেন তিনি।

মার্কেটিংয়ের ক্ষেত্রে ফেইসবুক ও টুইটারের পাশাপাশি লিংকডইন ও ই-মেইল মার্কেটিংয়ের দিকেও নজর দিতে হবে। তবে ই-মেইল মার্কেটিংয়ের ক্ষেত্রে সবাইকে গণহারে মেইল না করে সাবস্ক্রাইবারদের টার্গেট করে পাঠালেই ভালো ফলাফল পাওয়া যাবে। কেননা একজন গ্রাহক একবার একটি পণ্য কেনার পর পরবর্তীতে ভালো কোন পণ্যের আপডেট পেতে পছন্দ করেন। আর এটি নির্ভরতা তৈরীতেও কার্যকর ভূমিকা রাখে বলে মনে করেন তিনি।

ই-কমার্স দেশের তরুণদের জন্য নতুন দিগন্তের সৃষ্টি করছে বলে মনে করেন প্রিয়শপ ডটকমের সিইও আশিকুল আলম খান। তিনি বলেন সঠিক পন্থায় এগুলো সফল হওয়া সম্ভব এবং অন্যদেও জন্য কর্মসংস্থান করা সম্ভব।

উদ্যেক্তা হতে আগ্রহীদের প্রথমেই একটি ট্রেড লাইসেন্স করে ফেলার পরামর্শ দিয়েছেন ই-বিপনন ডটকমের সিইও এ এম ইশতিয়াক সারওয়ার। তিনি বলেন, ই-কমার্স নিয়ে ট্রেড লাইসেন্স করতে গেলে সিটি কর্পোশেনের ফরমে ব্যবসার ধরণের জায়গায় আইটি বা আইটিএস লেখার পারামর্শ দেন তিনি।

চাকরি খুঁজব না চাকরি দেব গ্রুপের উদ্যোক্তা কর্মশালা শনিবার

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ব্যবসা উদ্যোগের পরিকল্পনা তৈরি এবং সেগুলোর দুর্বলতা চিহ্নিত করতে নতুন উদ্যোক্তাদের জন্য একটি কর্মশালার আয়োজন করেছে ‘চাকরি খুঁজব না চাকরি দেব‘ গ্রুপ।

আগামী শনিবার রাজধানীর পলাশী মোড়ে ফ্রেপড মিলনায়তনে ‘রাইটিং বিজনেস প্ল্যান ফর স্টার্টআপ’ শীর্ষক কর্মশালাটি অনুষ্ঠিত হবে। বিকাল ৪টা থেকে সাড়ে ৬টা পর্যন্ত কর্মশালাটি চলবে।

গ্রুপের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, উদ্যোক্তা কিংবা উদ্যোক্তা হতে আগ্রহী অথবা শিক্ষার্থীদের জন্য এ কর্মশালা উন্মুক্ত থাকবে। তবে ১৫০ টাকা দিয়ে নিবন্ধন করতে হবে।

আরও পড়ুন : উদ্যোক্তা তৈরিতে ‘চাকরি খুঁজব না চাকরি দেব

উদ্দ্যেক্তা-টেকশহর

অপটিমা এইচআর সল্যুশনসের এফসিএম এম মোর্শেদ হায়দার কর্মশালাটি পরিচালনা করবেন।

কর্মশালায় ব্যবসায় পরিকল্পনা কিভাবে করতে হবে তা নিয়ে পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন, উন্মুক্ত আলোচনা, গ্রুপ ওয়ার্ক এবং গ্রুপ উপস্থাপনা থাকবে।

চাকরি খুঁজব না চাকরি দেব নিয়মিত এ ধরনের কর্মশালার আয়োজন করে। তবে এবার প্রায় এক মাস বিরতির পর এটি আয়োজন করা হচ্ছে।

কর্মশালার সমন্বয়ক প্রমি নাহিদ জানান, কর্মশালা কেন্দ্রে এসে যে কেউ তাৎক্ষণিকভাবে নিবন্ধন করতে পারবেন।

ব্যবসা শুরুর পর কোনো না কোনো স্তরে এসে এর পরিকল্পনায় পরিবর্তন আনতে হয়, সেই পরিবর্তনের মাত্রা কতটুকু হবে এবং এর তুলনামূলক কিছু চিত্র নিয়ে কর্শশালায় আলোচনা করা হবে। এ থেকে উদ্যোক্তারা তাদের ব্যবসাকে এগিয়ে নিতে দিক নির্দেশনা পাবেন বলে জানান সমন্বয়ক।

– ফখরুদ্দিন মেহেদী

আরও পড়ুন

ই-কমার্সে স্বাবলম্বী হওয়ার দৃষ্টান্ত আপনপ্লাস

আমদানির বিকল্প হতে চায় জেনন ইলেকট্রনিক্স