সেলফিতে পলক-শাকিরা

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : পৃথিবী বিখ্যাত শিল্পী শাকিরা। ফেইসবুকে ইতিহাসে প্রথম ১০ কোটি ফলোয়ার পাওয়া এই কলম্বিয়ান শিল্পীর সঙ্গে সেলফি তুলেছেন তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

সুইজারল্যান্ডে ওয়ার্ল্ড ইকনোমিক ফোরামের (ডব্লিউইএফ) ৪৭তম বার্ষিক সম্মেলনে তোলা হয় এই সেলফি।

সেলফিতে হাস্যজ্জ্বল শাকিরাকে নিয়ে পলক ওই সেলফি স্ট্যাটাসে লিখেন, প্রিয় শিল্পী শাকিরার সাথে আমি। শাকিরা ওয়ার্ল্ড ইকনোমিক ফোরামের (ডব্লিউইএফ) বার্ষিক সম্মেলনে ক্রিস্টাল পুরস্কার পেয়েছেন। ছবিটি মঙ্গলবার রাতে ফেইসবুক শেয়ার করেন তিনি।

 

sakir-palok-techshohor

জুনাইদ আহমেদ পলকের ওই সেলফিতে মঙ্গলবার সন্ধ্যা পর্যন্ত ৫ হাজার ৯০০ লাইক পড়ে এবং এটি শেয়ার হয় ৮৩ বার।

পিস ডেসকালজ’ ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠার জন্য এই পুরস্কারে ভূষিত হন শাকিরা।

তুসিন আহমেদ

ফেইসবুকের ৯টি মজার তথ্য

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : বিশ্বজুড়ে দেড় বিলিয়ন মানুষ নিয়মিত ফেইসবুক ব্যবহার করে থাকেন। ফলে নিঃসন্দেহে এটি বিশ্বের এক নম্বর সামাজিক যোগাযোগ সাইট।

সম্প্রতি উইসপন্ড নামে একটি মার্কেটিং প্রতিষ্ঠান এই সাইটটির ৪০ গুরুত্বপূর্ণ ও মজার বিষয় প্রকাশ করেছে। তার মধ্য থেকে টেক শহরের পাঠকের জন্য ৯টি মজার বিষয় তুলে ধরা হলো।

খুব বেশি বয়স হয়নি ফেইসবুকের। কেননা এর ব্যবহারকারীরা তরুণ। ২০১৪ সালে ব্যবহারকারীর ৮৭ শতাংশ ছিল স্কুল শিক্ষার্থী। প্রায় ৭০ শতাংশ ব্যবহারকারী টিনেজারদের ফেইসবুক ফ্রেন্ড তাদের বাবা-মা।

আরও পড়ুন: আত্মমর্যাদাহীনরাই ফেইসবুকে বেশি স্ট্যাটাস দেয়!

How-to-Tell-If-a-Facebook-User-is-Fake

তবে ফেইসবুক অতটা নিরাপদ নয় মেয়ে টিনেজারদের জন্য। ৬৬ শতাংশ মেয়ে টিনেজার অভিযোগ করেছেন যে তারা সাইট ব্যবহারে বিভিন্নভাবে নিপীড়নের স্বীকার হয়ে থাকেন।

সামাজি যোগাযোগ সাইটটির স্ট্যাটাস পারস্পরিক প্রতিক্রিয়া তৈরি করে। ব্যবহারকারীদের রিলেশন স্ট্যাটাস পরিবর্তনের হার দিনে ২২৫ শতাংশ। তবে মাত্র ২৮ ভাগ ব্যবহারকারী তাদের বিয়ের এক ঘন্টার মধ্যে স্ট্যাটাস পরিবর্তন করে থাকে।

ব্যবহারকারীদের মধ্যে একটি কমন বিষয় হলো স্কুরের বন্ধুদের ফেইসবুকে আনফ্রেন্ড করা। এর সবচেয়ে বড় কারণ হলো ফেইসবুকে তাদের অসঙ্গতিপূর্ণ ও বিপরীতধর্মী পোস্ট।

মার্কিনীদের মধ্যে প্রায় ৩০ শতাংশ অফিসের কাজের সময় ফেইসবুক ব্যবহার করে থাকেন। অন্যদিকে ১৯ দশমিক ৪ শতাংশ কাজের সময় ফেইসবুক ব্যবহার করেন না।

টেলিভিশন শো’র মধ্যে ফেইসবুক ব্যবহারকারীদের কাছে সবচেয়ে জনপ্রিয় হলো দ্য সিম্পসন। স্যোসাল সাইটটিতে শো’টির ফলোয়ার সংখ্যা ৬৯ দশমিক ৬ মিলিয়ন। পরের অবস্থানটি মিস্টার বিনের।

১০০ মিলিয়নের বেশি ফলোয়ার নিয়ে ফেইসবুকের সবচেয়ে জনপ্রিয় মিউজিশিয়ান পপস্টার শাকিরা। তার পরের অবস্থানে ৯১ মিলিয়ন ভক্ত নিয়ে আছেন মার্কিন র‌্যাপার এমিনেম। বারবাডোসের গায়িকা,ফ্যাশন ডিজাইনার ও অভিনেত্রী রিহানা আছেন তিনে। ফেইসবুকে এই সুন্দরীর ভক্ত ৮১ মিলিয়নের বেশি।

সবচেয়ে বেশি অ্যাক্টিভ ফেইসবুকার মার্কিন ও কানাডিয়ানরা। দুই দেশ মিলে দিনে ফেইসবুক ব্যবহার করেন ১৫৭ মিলিয়ন মানুষ।

এশিয়াতে ফেইসবুক ব্যবহারকারী ২৫৩ মিলিয়ন। যদিও প্রায় একশ ৪০ কোটি মানুষের দেশ চীনে ফেইসবুক নিষিদ্ধ।

বিজনেস ইনসাইডার অবলম্বনে সৌমিক আহমেদ

আরও পড়ুন:  

দশক পেরিয়ে ইউটিউব, জেনে নিন সেরা সার্চ

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : এক দশক পার করলো জনপ্রিয় ভিডিও শেয়ারিং সাইট ইউটিউব

২০০৫ সালে ই-কমার্স ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পেপালের সাবেক একদল কর্মী গড়ে তোলেন অনলাইনে ভিডিও শেয়ারিং সাইট ইউটিউব। এক দশক পর এটি বিশ্বের সবচেয়ে বেশি ভিজিট করা সাইটগুলোর একটি। সোস্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটের মধ্যে ফেইসবুকের পরই ইউটিউবের স্থান।

এমন কোন বিষয় খুঁজে পাওয়া যাবে না যে বিষয়ের ভিডিও নেই ইউটিউবে। সে কারণেই বিশ্বব্যাপী সংবাদমাধ্যম, রাজনীতিবিদ, চলচ্চিত্র তারকা, শিক্ষক-শিক্ষার্থীসহ সব শ্রেণী পেশার মানুষের সংবাদ, শিক্ষা ও সর্বোপরি বিনোদনের গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যমে পরিণত হয়েছে ইউটিউব।

YouTube_

গত ১০ বছরে সাইটির হাজারো ভিডিও বিশ্ব ব্যাপি সার্চ হয়েছে কোটি কোটি বার। এর মধ্যে গ্যাংনাম স্টাইল ভিউ হয়েছে ২ দশমিক ২ বিলিয়ন বারের বেশি।

দক্ষিণ কোরিয়ার শিল্পী সাই’র গানটিই এখন পর্যন্ত ইউটিউবের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশিবার দেখা ভিডিও। ইউটিউবের শীর্ষ সার্চ করা ১০টি ভিডিও মধ্যে সবশেষেও আছে শিল্পীর জেন্টেলম্যান মিউজিক ভিডিওটি।

এরপরের অবস্থানটি কানাডিয়ার রকস্টার জাস্টিন বিভারের বেবি মিউজিক ভিডিওটির। ১১৩ কোটি ৭০ লাখের বেশি বার সার্চ হয়েছে ভিডিওটি।

৮১ কোটি ৮৯ লাখ বারের বেশি বার সার্চ হয়েছে রক মিউজিকের সঙ্গে ডান্সের ভিডিও পার্টি রক অ্যান্থাম।

চার নম্বরে থাকা মার্কিন সঙ্গীত শিল্পী কেটি প্যারি’র জনপ্রিয় গান ডার্ক হর্স সার্চ হয়েছে প্রায় ৮২ কোটি বার। তালিকার নয়ে আছে লিল্পীর বোর মিউজিক ভিডিওটি।

পাঁচ নম্বরে আছে বারবাডিয়ান শিল্পী রিহানার মিউজিক ভিডিও। ভিউ হয়েছে ৮১ কোটি ১২ লাখের বেশি বার।

‘চার্লি বিট মাই ফিঙ্গার অ্যাগেইন’ নামের ৫৬ সেকেন্ডের ভিডিওটি দুই ভাইয়ে খেলার অংশ। সারা বিশ্বে তুমুল জনপ্রিয়তা পাওয়া ভিডিওটি দেখা হয়েছে প্রায় ৮১ কোটি ১১ লাখ বার।

অন দ্যা ফ্লোর নিয়ে জেনিফার লোপেজ আছেন সাতে। আবেদনময় ভিডিওটি দেখা হয়েছে প্রায় ৮১ কোটিবার।

লিস্টে শাকিরা থাকবেন না, তা কি হয়? প্রায় ৮০ কোটি ৭০ লাখ বার দেখা হয়েছে ব্রাজিল বিশ্বকাপ নিয়ে তৈরি ওয়াকা ওয়াকা গানটি।

প্রতি মিনিটে ১০০ ঘন্টার ভিডিও আপলোড হচ্ছে ইউটিউবে। দিন দিন বেড়েই চলেছে ভিজিটরের সংখ্যা। সাইটের প্রাপ্তবয়স্ক ভিজিটরদের মধ্যে ৩১ শতাংশই ভিডিও আপলোড করে থাকেন। ২০০৯ সালে যা ছিল ১৪ শতাংশ।

আর ভিডিও সার্চের ক্ষেত্রে বিশ্বের শতকরা ৭২ ভাগ ব্যবহারকারী ইউটিউবে প্রবেশ করে থাকেন। আর ১৮ থেকে ২৯ বছর বয়সী মানুষের মধ্যে ৮২ ভাগই ভিডিও সার্চের জন্য বেছে নেন সাইটটি।

গত বছর ২০১৪ সালে সবচেয়ে বেশি শতকরা ৪৫ ভাগ ভিডিও আপলোড করা হয়েছে পোষা প্রাণীর। শতকরা ৪০ ভাগ ব্যবহারকারী নিউজ সংশ্লিষ্ট ভিডিও সার্চ করে থাকেন।

টিউব ফিল্টার অবলম্বনে সৌমিক আহমেদ

আরও পড়ুন:

 

ফেইসবুক ফ্যানে শাকিরার গিনেজ রেকর্ড

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : বিশ্বকাপ ফুটবলে ‘লা লা লা’ গানের পর শাকিরার ফেইসবুকে এখন ১০ কোটি অনুসারি। যা যে কোনো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কলম্বিয়ান এই পপ শিল্পীকে জনপ্রিয়তার শীর্ষ অবস্থান এনে দিয়েছে।

এ সর্ব্বোচ্চ লাইকের স্বীকৃতিও দিয়েছে গিনেজ বুক। এই অর্জনে ফেইসবুকে ফ্যানদের জন্য থ্যাঙ্কস ভিডিও পোস্ট করেছেন শাকিরা ।

সম্প্রতি শাকিরা ব্রাজিলের মারাকানা স্টেডিয়ামে দাঁড়ানো একটি ছবি ফেইসবুকে পোস্ট করেছিলেন৷ ব্রাজিল বিশ্বকাপের ফাইনাল খেলার আগের মুহূর্তের ছবি ছিল সেটা। ছবিটি মাত্র চার দিনের মধ্যেই পঁয়ত্রিশ লাখ লাইক পায়। এখন পর্যন্ত এটিই এই তারকার সর্ব্বেচ্চ লাইক পাওয়া ছবি।

Shakira,-techshohor

সোশ্যাল মিডিয়ায় এই বিপুল সংখ্যক অডিয়েন্সের জন্য থ্যাঙ্কস ভিডিওতে বিশ্বকাপকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন শাকিরা। সেইসাথে তিনি ফ্যানদেরও ধন্যবাদ জানান এতে। শুক্রবার ভিডিওটি পোস্ট করার এক ঘন্টার মধ্যে এক লাখ ৬২ হাজার ফ্যান এটি লাইক করে। অন্যদিকে ইউটিউবে লা লা লা ভিডিওটি ২০ কোটি ৩৬ লাখ বার দেখা হয়েছে।

শাকিরা তার বক্তব্যে বলেন, সোশ্যাল মিডিয়া বিশেষ করে ফেইসবুক আমাকে এবং অন্য শিল্পীদের স্টেজ ও অডিয়েন্সের মাঝের দূরত্বে সেতুবন্ধন তৈরী করে।

শাকিরা ২০০৮ সালে ফেইসবুকে আসেন। ৩৭ বছর বয়সী এই গায়ক ও গীতিকার ২০১২ সালের বসন্তে আরসিএ রেকর্ডস থেকে নিজের নামে অ্যালবাম বের করেন। একই বছর মে মাসের মধ্যে যা ৫ কোটি লাইক পায়।

– ইয়াহু অবলম্বনে আল আমীন দেওয়ান

 

ফেইসবুকে সবার শীর্ষে শাকিরা!

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ‘ওয়াকা ওয়াকা’ গান খ্যাত পপ গায়িকা শাকিরা নতুন রেকর্ড করেছেন। এ তারকার ফেইসবুক পেইজে  ভক্তের (ফ্যান) সংখ্যা ৮ কোটি ৬০ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। যা শীর্ষ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমটির ইতিহাসে রেকর্ড।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের এ যুগে তারকা খ্যাতি নির্ধারণেও এসেছে পরিবর্তনের ছোঁয়া। ফেইসবুকের ফলোয়ারেরভিত্তিতেও তারকার জনপ্রিয়তার বিচার করছেন অনেকে। সে দিক থেকে জনপ্রিয়তায় সবাইকে পেছনে ফেলে এগিয়ে  পপ গায়িকা শাকিরা।

এর আগে সবচেয়ে বেশি ভক্ত সমৃদ্ধ ফেইসবুজ পেইজের মালিক জাস্টিন বিবার থেকে ২০ মিলিয়ন এগিয়ে আছেন শাকিরা।

shakirafacebookpage_techshohor

সাড়ে আট কোটির বেশি ভক্ত হওয়ার কারণে আনন্দিত শাকিরা। আনন্দ প্রকাশে ফেইসবুক পেইজে এক পোস্টের মাধ্যমে তিনি জানান , ‘ওয়াও…আমার পেইজটি সবচেয়ে বেশি ফলোয়ার সমৃদ্ধি! আমি এখনো বিশ্বাস করতে পারছি না। আমি সব সময় চাই আমার যেন অনেক বন্ধু হয়। ৮ কোটি ৬০ লাখ বন্ধু হবে আমি কল্পনাও করতে পারিনি কখনও। সবাইকে ধন্যবাদ আমাকে সাপোর্ট দেয়ার জন্য।’

বর্তমান শাকিরার ফেইসবুক পেইজ ভক্ত সংখ্যা ৮ কোটি ৬০ লাখ এবং যা প্রতিনিয়ত বৃদ্ধি পাচ্ছে।

পপ গায়িকার শাকিরা পূর্ন নাম শাকিরা ইসাবেল মেবারাক রিপোল । কিন্তু শাকিরা নামেই তিনি পরিচিত। ১৯৭৭ সালে জম্মগ্রহণকারী এ গায়িকা একই সঙ্গে গীতিকার, সুরকার এবং নৃত্যশিল্পী।

কলম্বিয়ার স্থানীয় প্রযোজকদের সহায়তায় শাকিরার সঙ্গীত জীবনের প্রথম দুটি অ্যালবাম প্রকাশ পায়। কিন্তু সেগুলো কলম্বিয়ার বাইরে খুব একটা পরিচিতি পায়নি। ১৯৯৫ সালে তাঁর নিজস্ব প্রযোজনায় অ্যালবাম পিয়েস দেসকালসোস। যা শাকিরাকে খ্যাতি এনে দেয়।

শাকিরা  দু’বার গ্র্যামি পুরস্কার, সাতবার ল্যাটিন গ্র্যামি পুরস্কার পেয়েছেন। বিএমআইর তথ্যানুসারে তিনি কলম্বিয়ার সর্বকালের সবচেয়ে বেশি অ্যালবাম বিক্রিত গায়িকা।

সে সাথে তিনি ব্যবসায়িকভাবে দ্বিতীয় লাতিন আমেরিকান নারী গায়িকা যার অ্যালবাম বিশ্বব্যাপী পাঁচ কোটি কপি বিক্রি হয়।

– ইয়াহু নিউজ অবলম্বনে তুসিন আহমেদ