অপ্রত্যাশিত জয়ে ফেইসবুকে অভিনন্দনে সিক্ত বাংলাদেশ

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : শুক্রবার বাংলাদেশ সময় রাত পৌনে ৯টা। ইংল্যান্ডের কার্ডিফে চলছিল বাংলাদেশ বনাম নিউজিল্যান্ডের ম্যাচ। বোলিংয়ে ভালো করার পর ব্যাট হাতে নামলে প্রথমে ধাক্কা সামলাতে পারলো না বাংলাদেশ। মাত্র ১২ রানে পড়ে যায় তিনটি উইকেট।

৩৩ রানে চতুর্থ উইকেট হারালে টালমাটাল হয়ে পড়ে বাংলাদেশ দল। কিন্তু তারপরেই যেন কার্ডিফে নেমে এলো রূপকথার দুই নায়ক। মাহমুদুল্লাহ ও সাকিব আল হাসান।  দেশের হয়ে রেকর্ড জুটি গড়ে দুজনেই তুলে নেন শতক।

কার্ডিফে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে অপ্রত্যাশিত এমন একটি ম্যাচ জিতেছে বাংলাদেশ। জয়ের খুশিতে ভাসছে পুরো দেশ। আর চলছে সামাজিক মাধ্যমে দেশের, মাহমুদুল্লাহ ও সাকিবের বন্দনা।

অপ্রত্যাশিত এ জয়ে অনেকেই আবেগপ্রবণ হয়ে ফেইসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছেন। একইসঙ্গে ধন্যবাদ জানিয়েছেন সাকিব ও মাহমুদুল্লাহকে।

লতিফুল হক নামে এক ব্যবহারকারী লিখেছেন, বড় মঞ্চে আমাদেরই মানায়।

রাবিক আহমেদ নামের একতজন লিখেছেন, অভিনন্দন জানানোর ভাষা নেই। যে জয় তারা উপহার দিয়েছে তা সত্যিই আমাদের কাদিয়েছে খুশির আনন্দে। সাথে আছি সবসময় বাংলাদেশ।

কামরুল হাসান মুন নামে আরেক ব্যবহারকারী লিখেছেন, নটআউটউল্লাহ রিয়াদ।

ম্যাচ জেতার পর এমন ফেইসবুক ব্যবহারকারী অনেক কমই ছিলো যারা বাংলাদেশকে অভিনন্দন জানাননি।

তবে এখন চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে সমীকরণটা একটু জটিলই বলা যায়। কারণ আজকের ম্যাচে ইংল্যান্ডের কাছে অস্ট্রেলিয়া হারলে বা কোনো কারণে ম্যাচ ড্র অথবা পরিত্যাক্ত হলে বাংলাদেশ চলে যাবে সেমিফাইনালে।

সেটি মাথায় রেখে অভিনেতা আরিফিন শুভ লিখেছেন, নাউ প্রে ফর ইংল্যান্ড।

আরেক অভিনেতা ইরেশ যাকের লিখেছেন, ২৪ ঘণ্টার জন্য ২০০ বছর অত্যাচারের সব অভিযোগ তুইলা নিলাম। ইংল্যান্ড তোমরা আগায়া চলো।

খোদ মাইকেল ভন টুইটারে লিখেছেন, ওয়ান ডে ক্রিকেটে এ রকম ভালো পার্টনারশিপ আগে দেখেছি বলে মনে পড়ছে না।

আনিকা জীনাত

‘কাপটার নাম জয় বাংলা কাপ, জয় লংকা তো না’

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ‘কাপটার নাম জয় বাংলা কাপ, জয় লংকা তো না’। রোববার যখন বাংলাদেশ ক্রিকটে দল শ্রীলঙ্কার মাটিতে নিজেদের শততম টেস্টে স্বাগতিকদের পরাজিত করে তার ঠিক সঙ্গে সঙ্গেই সামাজিক  যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে এই কথাটিই পোস্ট করেন দেশের অন্যতম চলচ্চিত্র নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকী।

হ্যাঁ, বিদেশের মাটিতে খেলা হলেও সিরিজটির নাম ‘জয় বাংলা কাপ’। সেই কাপে বাংলাদেশের অধিকার থাকবে না তাতো হবে না। তাইতো শততম টেস্টে শ্রীলঙ্কার মাটিতে স্বাগতিকদের হারিয়ে জয় বাংলা কাপ একেবারে হাতছাড়া করেনি টাইগাররা।

আর তাতেই ফেইসবুক, টুইটারের ওয়াল এখন বাঙালির দখলে চলে এসেছে। রোববার শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে নিজেদের শততম টেস্টে  জয়লাভ করেছে বাংলাদেশ। এটি শুধু জয় নয়, একই সঙ্গে এটিকে একটি ইতিহাস বলা যায়।

bangladesh-techshohor

এই জয়ের মধ্য দিয়ে নিজেদের একটি ইতিহাস ঠাঁইও করে নিলো বিশ্ব ক্রিকেটে। চতুর্থ দেশ হিসেবে শততম টেস্টে জয়ের কৃতিত্ব গড়লো বাংলাদেশ।

আর তাতেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম সরব হয়ে উঠেছে অভিনন্দন, শুভেচ্ছা আর ভালোবাসায়।

এমন জয়ের খুশিতে গোলাম দস্তগীর তৌহিদ নামের এক ফেইসবুক ব্যবহারকারী লিখেই ফেলেছেন, শততম টেস্ট জয়ে আগামীকাল সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হোক! একমত হলে কমেন্ট করুন।

তার পোস্টে অনেকে আবার মন্তব্য করে সহমত পোষণ করেছেন।

শাহনাত মাসুম বাবু নামের একজন লিখেছেন, ঘুম ভেঙেই দেখি ইতিহাস। সাবাশ বাংলাদেশ।

তবে জয়ের পরেই ফেইসবুক টাইম লাইনের অধিকাংশ পোস্টই ছিল বাংলাদেশ দলকে অভিনন্দন জানিয়ে।

Bcricket-Test-100th-Techshohor

তবে বেশকিছু ভিন্ন পোস্টে চোখে পড়েছে। এর মধ্যে অনেকেই একটু হলেও মশকরার সুরে লিখেছেন তাদের নিজেদের অনুভূতি। তেমনই একটা অনুভূতি ব্যক্ত করেছেন উদিসা ইসলাম নামের এক ফেইসবুক ব্যবহারকারী।

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের কোচ চুন্দ্রকা হাতুরেসিংহে শ্রীলঙ্কার নাগরিক। ওই দিকে ইঙ্গিত করে  তিনি লিখেছেন, চন্দ্রিকা হাতুরেসিংহে একজন নিখাদ দেশদ্রোহী… ?

জয়ের পরে জাতীয় দলের ক্রিকেটাররাও শেয়ার করেছেন তাদের অনুভূতি। ঠিক জয়ের জন্য যখন দুই রান প্রয়োজন তখন থেকে জয়ের পর পর্যন্ত কয়েক মিনিটের একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন একদিনের আন্তর্জাতিক দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। সেখানে বাংলাদেশ দলের জয় উদযাপনের মুহূর্তকে ধরেছেন তিনি।

এছাড়াও জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ার পর টেস্ট দলের অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম একটি ছবি শেয়ার করেছেন। সেখানে তাকে জয়ের স্মারক হিসেবে একটি স্ট্যাম্প নিয়ে গাড়িতে বসে ছবি দিয়েছেন।

শুধু মাশরাফি, মুশফিক নয়, দলের অন্যান্য সব খেলোয়াড়ই ফেইসবুকে তাদের ভেরিফায়েড পেইজে এই জয়ের নিজেদের অনুভূতি প্রকাশ করেছেন।

Mushifiq-Techshohor

১৯ মার্চ শ্রীলঙ্কার কলম্বোর পিএসএস স্টেডিয়ামে সিরিজের শেষ এবং দ্বিতীয় টেস্টে স্বাগতিকদের চার উইকেটে পরাজিত করে টাইগাররা।

বাংলাদেশ শ্রীলঙ্কাকে তাদের  মাঠে এবং টেস্টে প্রথম পরাজিত করলো।  টেস্টের শেষ দিনে ১৯১ রানের লক্ষ্য তাড়া করে বাংলাদেশ ৫৭ ওভার ৫ বলে ছয়টি উইকেট হারিয়ে জয় নিশ্চিত করেছে।

এমন জয়ে দেশের রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী এক বার্তায় ক্রিকেট দলকে অভিনন্দন জানিয়েছেন।

ইমরান হোসেন মিলন

নিউজ ফিডে হারা-জেতা, হাল ছেড়েছেন অনেকেই

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকের নিউজ ফিড জুড়ে এখন শুধুই ধারণা করা। কে হারবে, কে জিতবে। আবার অনেকেই হাল ছেড়ে দিয়েছেন।

বাংলাদেশ বনাম সফরকারী ইংল্যান্ডের মধ্যকার দ্বিতীয় টেস্ট ম্যাচের তৃতীয় দিন বাংলাদেশ শুরু করে বেশ একটা আশা-ভরসা নিয়ে।

কিন্তু ইমরুল কায়েস আউট হয়ে যাওয়ার কিছু সময়ের মধ্যে আবারও সেই বালির বাঁধের মতো তলিয়ে যায় বাংলাদেশ দল। তারা আউট হয়ে যায় ২৯৬ রানে।

তবে দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষ হওয়ার সর্বশেষ বলে ওভার দ্যা উইকেট খেলতে গিয়ে আউট হয়ে যান মাহমুদুল্লাহ। তখন থেকেই শুরু হয় ফেইসবুক নিউজ ফিডে আলোচনা।

Ban Vs Eng_2nd test-Techshohor
ছবি : ইএসপিএন

একটি বলইতো ছিলো, ফিফটি না করলেই কি না? বাজে একটা আউট দেখলাম দিনের শেষে। গতকালই ফেইসবুকে এমন পোস্ট দিয়েছিলেন শাহরিয়ার সামি।

তবে সেই আলোচনা কাটিয়ে রোববার সকালটা ভালোই শুরু করে টাইগাররা। তখন অনেকেই আশার খুঁজে পাচ্ছিলেন। আর তাই সমানে পোস্টও করছিলেন প্রেডিক্টাবল স্কোর কতো হতে পারে সেটা।

সকালের খেলা দেখে তেমনই ধারণা করেছিলেন, হারুন অর রশিদ নামের এক ফেইসবুক ব্যবহারকারী। তিনি লেখেন, বাংলাদেশ এভাবে খেললে আশা করছি ৩৫০ রান লিড নেবে।

তবে ইংল্যান্ডের খেলা দেখে বাংলাদেশের জেতা আশা ছেড়ে দিয়েছেন অনেকেই। তাইতো সেই আশঙ্কা প্রকাশ করে মোশাররফ রুবেল লিখেছেন, লেটস গেস, কয় উইকেটে হরবো?

আরেকটি ট্রাজেডি বাংলাদেশের জন্য অপেক্ষা করছে জানিয়ে ইনামুল হক নামের একজন যেমন লিখেছেন, আরও একটি ট্রাজেডি দেখতে যাচ্ছি। অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের ক্ষেত্রে যা দেখেছিলাম।

তবে সবশেষেও অনেকেই জেতার আশা ধরে রেখেছেন। মুক্তাদির মাহমুদ লিখেছেন, দেখা যাক কী অপেক্ষা করছে। তবে হারার আগেই হারছি না।

ইমরান হোসেন মিলন

কোটি লাইক ছাড়ালো ‘বাংলাদেশ ক্রিকেট : দ্য টাইগার্স’ পেইজ

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : বাংলাদেশে ক্রিকেটের অফিসিয়াল ফেইসবুক পেইজ ‘বাংলাদেশ ক্রিকেট : দ্য টাইগার্স’ এক কোটির মাইলফলক অতিক্রম করেছে। ফলে ক্রিকেট দুনিয়াতে ফেইসবুকের জনপ্রিয়তার দৌঁড়ে এখন দ্বিতীয় অবস্থানে চলে গেলো বাংলাদেশ।

দুই কোটি ৬৬ লাখ লাইক নিয়ে প্রথম অবস্থানে রয়েছে ভারত। এছাড়াও দেশে লাইকের হিসাবেও পেইজটি দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে। এর আগে ‘প্রথম আলো’র লাইক এক কোটি ছাড়িয়েছে।

বর্তমানে ‘বাংলাদেশ ক্রিকেট : দ্য টাইগার্স’ নামে ফেইসবুকে পেইজে এক কোটি ৩৩ হাজার ২৬২ জন ভক্ত রয়েছে। যা সময়ের সাথে পাল্লা দিয়ে প্রতিনিয়ত বাড়ছে। এই পেইজে প্রতিমূহুর্তে লেখার সর্বশেষ আপডেট জানানো হয়ে থাকে। সেই সাথে বাংলাদেশ ক্রিকেট নানা খবরা-খবর মিলে পেইজটিতে।

bangladesh tigers-techsohor

ক্রিকেট বোর্ডের হিসেবে ৬৫ লাখ এবং ৩৯ লাখ দিয়ে তৃতীয় ও চতুর্থ অবস্থানে আছে পাকিস্থান ও দক্ষিণ আফ্রিকা। ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডে ফেইসবুকে পেইজ লাইক ৩৪ লাখ ১৩ হাজার।

উল্লেখ্য কেবল ক্রিকেটের অফিসিয়াল পেইজ নয়, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকেও জনপ্রিয়তায় তালিকায় রয়েছে ক্রিকেটারা। সম্প্রতি সাকিব আল হাসান অফিশিয়াল পেইজে লাইকার বা ফ্যানসংখ্যা ৯৪ লাখ ছাড়িয়েছে। বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের অন্যতম বোলিং স্তম্ভ ও এক দিনের আন্তর্জাতিক দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজার পেইজে রয়েছে ৭৬ লাখের বেশি ভক্ত।

তুসিন আহমেদ