বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রজেক্ট প্রতিযোগিতা

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : রাজশাহীর বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের ইলেকট্রিক্যাল ও ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং (ইইই) বিভাগে একটি প্রজেক্ট প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বিভাগের বিভিন্ন বর্ষের শিক্ষার্থীরা প্রতিযোগিতায় অংশ নেন। এতে শিক্ষার্থীদের তৈরি করা স্মার্ট হোম উইথ সেক্রেটারি সিষ্টেম, ড্রিম হাউজ, সেক্রেটারি সিপ ড্রোনসহ বিভিন্ন প্রজেক্ট প্রদর্শন করা হয়।

vu

প্রতিযোগিতা শেষে বিজয়ীদের পুরস্কার প্রদান করেন বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের উপদেষ্টা অধ্যাপক এম. সাইদুর রহমান খান। ইইই বিভাগের কো-অর্ডিনেটর অধ্যাপক মোহাম্মদ সাজ্জাদুর রহমানের সভাপতিত্বে পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম. ওসমান গনি তালুকদার।

শামীম রাহমান

ডিআইইউয়ের প্রজেক্ট ফেয়ারে সেরা স্টপ মোশন এনিমেশন

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে (ডিআইইউ) অনুষ্ঠিত হলো ১৩তম কোর্স প্রজেক্ট ফেয়ার-২০১৫। এতে ‘স্টপ মোশন এনিমেশন’ নামের একটি প্রকল্প প্রথম হয়েছে। এছাড়া দ্বিতীয় ও তৃতীয় হয়েছে ‘টাইপোগ্রাফিসহ বর্ণমালার বই’ ও ‘রাইট ওয়ে’ নামের আরও দুটি প্রকল্প।

প্রথম হওয়া প্রকল্পটির সদস্যরা হলেন ফারুক হোসেন তন্ময়, জেসিকা জাহান রেহা, হোসেন তারেক ও তৌহিদুল ইসলাম হিমেল।

ফেয়ারটিতে ডিআইইউয়ের কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং, টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং, মাল্টিমিডিয়া টেকনোলজি অ্যান্ড ক্রিয়েটিভ আর্টস, ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যান্ড টেলিকমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং, ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেক্ট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং এবং ইংরেজি বিভাগের ২৯ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে। প্রজেক্ট ফেয়ারে মোট ১০টি প্রজেক্ট স্থান পায়।

Project Fair

ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি’র মানব সম্পদ উন্নয়ন ইন্সটিটিউটের নির্বাহী পরিচালক অধ্যাপক ড. ইউসুফ এম ইসলামের সভাপতিত্বে দিনব্যাপী এই ফেয়ারের আয়োজন করা হয়। এতে সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা উপাচার্য ও এমিরিটাস প্রফেসর ড. আমিনুল ইসলাম।

প্রধান অতিথি’র বক্তব্যে ড. আমিনুল ইসলাম বলেন, এ ধরনের ফেয়ার শিক্ষার্থীদের ভবিষ্যতে পেশাগত জীবনে দক্ষতা অর্জনে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে।

তিনি শিক্ষার্থীদের প্রকল্পগুলি পরিদর্শন করেন এবং তথ্যপ্রযুক্তির প্রয়োগ ও সবোর্চ্চ ব্যবহারের প্রশংসা করেন।

মেইক এ থনে নতুন প্রযুক্তির খোঁজে প্রতিযোগীরা

ফখরুদ্দিন মেহেদী, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : উৎসবমুখর পরিবেশে প্রজেক্ট সাজানোর মধ্য দিয়ে দ্বিতীয় দিন পার করলো ‘মেইক এ থন’ প্রতিযোগীতা। দেশে প্রথম বারের মতো শুরু হওয়া এ প্রতিযোগীতায় এ পর্যন্ত শ’খানেক প্রতিযোগী হাজির হয়েছেন বলে জানিয়েছেন আয়োজকরা।

মঙ্গলবার থেকে রাজধানীর ধানমন্ডির ইএমকে সেন্টারের নয় তলায় শুরু হয় এ প্রতিযোগীতা। প্রতিযোগিতা স্থল ঘুরে দেখা গেছে, ২০টির মতো দল বিভিন্ন প্রজেক্ট নিয়ে কাজ করছে। এদের প্রায় সবাই হার্ডওয়ার ও সফটওয়্যার যুক্ত করে নতুন প্রযুক্তি তৈরিতে ব্যস্ত।

ওয়াশআইটি নামে একটি প্রজেক্ট তৈরি করছেন রাহিম, শাখাওয়াত এবং শায়নান। এর মধ্যে শাখাওয়াত জানান, তাদের প্রযুক্তি মানুষশূন্য ঘরবাড়ি বা অফিসের জ্বালিয়ে রাখা লাইটের এনার্জি কমিয়ে বিদ্যুৎ সাশ্রয় করবে ।

স্মার্টবেল্ট বানাচ্ছেন তাওসিফ আনওয়ার, কৌশিক রয় এবং মৃন্ময়। এর মধ্যে মৃন্ময় জানান, তাদের তৈরি স্মার্টবেল্টটিতে আছে তিনটি সেন্সর। এগুলো ব্যবহারকারীর স্মার্টফোনে বেশি বা কম খাওয়া সম্পর্কিত তথ্য পৌঁছে দিতে সক্ষম।

10815713_396544727164473_1707602373_n

জুনায়েত হোসেন, সাইফুর রহমান এবং সামিউল হক তৈরি করছেন ব্রেইল যুক্ত গ্লাভস। তারা জানান, দৃষ্টি প্রতিবন্ধীদের কাছে এই গ্লাভস থাকলে এতে হাত বুলিয়ে তারা যেকোন টেক্সট সহজে পড়তে পারবে।

মেইক এ থন প্রতিযোগীতার আয়োজক বেটার স্টোরিজের প্রতিষ্ঠাতা মিনহাজ আনোয়ার টেকশহরডটকমকে জানান, এটি মূলত হার্ডওয়্যার ও সফটওয়্যারের সম্মিলন ঘটিয়ে আরও সহজ প্রযুক্তি তৈরির প্রতিযোগীতা। এর মাধ্যমে আমরা অধিকতর উন্নত উদ্ভাবন বের করে আনতে চাই।

তিনি আরও জানান, বৃহস্পতিবার বিকাল ৫ টার মধ্যে প্রতিযোগীদের প্রজেক্ট জমা দিতে হবে। এর মধ্য থেকে বিচারকদের রায়ে সেরা তিনজন নির্বাচন করে তাদেরকে ভারতের আহমেদাবাদে অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক মেকারফেস্ট প্রতিযোগীতায় পাঠানো হবে।

প্রতিযোগীতায় অংশগ্রহণকারীরা টকশপ বিডি থেকে প্রজেক্ট তৈরীর যাবতীয় যন্ত্রপাতি পাচ্ছেন। এর মধ্যে রয়েছে সেন্সর, মডিউল, ইন্টেল গ্যালিলিও, টেনার কিট ইত্যাদি।

টেকশপ বিডির বিজনেস ডেভেলপমেন্ট এক্সিকিউটিভ ফারজানা মুবিন জানিয়েছেন, অংশগ্রহণকারীদের সবাইকেই বিনামূল্যে যন্ত্রপাতি দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার সকালে প্রতিযোগীতার উদ্বোধন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক খন্দকার গোলাম রাব্বানী।