অ্যান্ড্রয়েডে এলো সুপার মারিও রান

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : এক সময়ের জনপ্রিয় ভিডিও গেইম সুপার মারিও চলতি বছর স্মার্টফোন সংস্করণে এসে চমক তৈরি করেছে। মাত্র চার দিনে গেইমটি চার কোটি ডাউনলোডের রেকর্ড করে। এতদিন এটি শুধু অ্যাপলের আইওএস অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহারকারীরা এটি খেলতে পারতেন। সম্প্রতি অ্যান্ড্রয়েডের জন্য গুগল প্লেতে এসেছে গেইমটি।

গুগল প্লেতে গেইমটি পাওয়া গেলেও এখনি তা খেলা যাবে না। কেননা প্লেস্টোরে গেইমটি এখন নিবন্ধনের জন্য উন্মুক্ত করা হয়েছে। এরপর শিগগির ডাউনলোড করে খেলা যাবে। তবে নির্ধারিত তারিখ জানায়নি জাপানভিত্তিক ভিডিও গেইমস নির্মাতা প্রতিষ্ঠান নিনটেন্ডোর।

super-mario-run-techshohor

গুগল প্লেতে এ ঠিকানায় গিয়ে নিবন্ধন করে রাখা যাবে। এরপর গেইমটি যখন ডাউনলোডের জন্য উন্মুক্ত করা হবে, তখতন ডাউনলোড হবে ব্যবহারকারীদের ফোনে।

বিদায়ী বছরের সেপ্টেম্বরে অ্যাপলের গালা ইভেন্টে গেইমটি আনার ঘোষণা দেওয়া হয়।

স্মার্টফোনে এটার খেলার পদ্ধতি সহজ করা হয়েছে। টাচ করে সহজেই গেইমটি নিয়ন্ত্রণ করা যায়। দীর্ঘক্ষণ ট্যাপ করলে ‘হাই’ জাম্প দেবে মারিও।

সবচেয়ে মজাদার বিষয় হলো এটি মাল্টিপ্লেয়ারে খেলা যাবে। চাইলে কোনো বন্ধুর সঙ্গে একই সময় খেলা যাবে সুপার মারিও।

ফোন এরিনা অবলম্বনে তুসিন আহমেদ

অ্যাপস স্টোরে রেকর্ড করলো নিনটেনডোর গেইম

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : পোকেমন গোর রেকর্ড ভাঙার কথা ইতিমধ্যেই প্রকাশ পেয়েছে। তবে এবার অ্যাপস স্টোরে রেকর্ড গড়েছে নিনটেনডো। প্রতিষ্ঠানটির সুপার মারিও রান গেইমটি উন্মোচনের প্রথম চার দিনেই ৪ কোটি ডাউনলোড হয়েছে।

ডাউনলোডের পাশাপাশি সুপার মারিও রান বিনামূল্যের ক্যাটাগরিতে বিশ্বের ১৪০টি দেশে শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে। শুধু তাই নয় অ্যাপ স্টোরে অন্তত ১০০টি দেশে সবচেয়ে দ্রুত জনপ্রিয় হওয়া তালিকায়ও শীর্ষ দশে অবস্থান করছে।

Super_Mario_Run-TechShohor

এই রেকর্ডের পিছনে কিছু কারণও রয়েছে। প্রথমত, মোবাইল প্লাটফর্মে নিনটেনডো এবারই প্রথম নিজেরাই কোনো গেইম তৈরি করলো। দ্বিতীয়ত, নিনটেনডো অ্যাপলের সাথে চুক্তির মাধ্যমে বেশ খরচও করেছে। অ্যাপ স্টোরের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো অ্যাপল নিজে গেইমটির প্রচুর প্রচারণা চালিয়েছে। প্রতিটির অ্যাপ স্টোর স্লাইড টাইলস একই টাইটেল ব্যবহৃত হয়েছে। যে কারণে গেইমটি অ্যান্ড্রয়েডে আসেনি।

সর্বশেষ বিষয়টি হলো, নিনটেনডো গেইমটি অ্যাপ স্টোরে ‘ফ্রি’ টাইটেল নিয়ে উপস্থিত হয়ে, যা অধিক ডাউনলোডে আগ্রহী করছে। যদিও তৃতীয় লেভেলের পর ব্যবহারকারীকে অর্থ দিতে হবে।

তবে এই গেইমের মাধ্যমে এ পর্যন্ত নিনটেনডো কি পরিমাণ আয় করেছে তা প্রকাশ করেনি।

জিএসএম এরিনা অবলম্বনে রুদ্র মাহমুদ

নিনটেনডোর শেয়ার বেড়েছে ১২০ শতাংশ

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : একটি মাত্র গেইম পোকেমন গো দিয়ে এর নির্মাতা প্রতিষ্ঠান নিনটেনডোর শেয়ারের মূল্য মঙ্গলবার বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১২০ শতাংশ।

৬ জুলাই অ্যাপলের অ্যাপ স্টোর এবং অ্যানড্রয়েডের প্লে স্টোরে গেইমটি মুক্তি দেওয়ার পর থেকে বেড়ে চলেছে জাপানি এই গেইম নির্মাতা প্রতিষ্ঠানের শেয়ার।

যেখানে ৬ জুনাইয়ের পর থেকে প্রতিষ্ঠানটির মার্কেট ভ্যালু দাড়িয়েছে ২৩ বিলিয়ন ডলার।

Pokemon Go-TechShohorতবে বর্তমানে প্রতিষ্ঠানটির মোট সম্পদের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৪২ দশমিক ৫ বিলিয়ন ডলার। যা বিশ্বের অনেক বড় বড় প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান যেমন সনি, ক্যানন, প্যানাসনিক, তোশিবার চেয়ে বেশি।

পোকেমন গো বিশ্বে এমন উন্মাদনা তৈরি করেছে যে এখন অ্যাপলের অ্যাপ স্টোর এবং অ্যানড্রয়েডের প্লে স্টোরে সবচেয়ে বেশি ডাউনলোড অ্যাপের তালিকায় রয়েছে।

যদিও গেইমটি এখনো বিশ্বব্যাপি ছাড়া হয়নি। তবে গেইমটি বিনামূল্যেই ডাউনলোড করা যাচ্ছে। তবে খেলতে গিয়ে কিছু কিছু ক্ষেত্রে অর্থ দিয়ে কিছু চরিত্র বা প্লেয়ার কিনতে হচ্ছে। যা এর আয়ের মূল সোর্স।

এই পদ্ধতি নতুন ডেভেলপারদের জন্য একটা আদর্শ হতে পারে বলেও বলছেন গেইম বিশেষজ্ঞরা।

বিনিয়োগকারীরা আশা করছেন, অ্যাড অন ফিচারের মাধ্যমে নগদ অর্থ আয় করা সম্ভব হবে।

ইমরান হোসেন মিলন

২০ বছরে পোকেমন : আসছে নতুন ২ গেইম

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : যারা এখন অনেক বড় তাদের বলছি, ছেলেবেলায় খেলা পিকাসো কিংবা পোকেমন গেইমসের কথা মনে আছে? জনপ্রিয় এ গেইমটি সম্প্রতি দুই দশক পার করেছে। ছোটরা নিশ্চই এখনও এটির ভক্ত। তবে অ্যাংরি বার্ডসসহ রকমারি গেইমের ভিড়ে শুধু পোকেমনের জন্য তারা পাগল নয়, সেটা বলা যায়। তবুও দীর্ঘ সময় ধরে শিশু-কিশোর থেকে শুরু করে বড়দের কাছে জনপ্রিয়তা ধরে রেখেছে গেইমটি।

জনপ্রিয় এ গেইমের ২০ বছরপূর্তি উপলক্ষে পোকেমন সান ও পোকেমন মুন নামে জনপ্রিয় সিরিজটির নতুন গেইম উন্মুক্তের ঘোষণা দিয়েছে নিমার্তা প্রতিষ্ঠান নিনটেনডো। গেইম দুটি খেলা যাবে স্মার্টফোনেও।

১৯৯৬ সালের ৭ ফেব্রুয়ারি জাপানে ‘গেইম বয়’ নামে এ গেইমের প্রথম সিরিজ বাজারে ছাড়ে নিনটেনডো।

maxresdefault

পোকেমন বিশ্বের দ্বিতীয় সর্বাধিক সফল ও লাভজনক ভিডিও গেইমভিত্তিক মিডিয়া ফ্র্যাঞ্চাইজে পরিণত হয়েছিল সে সময়। নিনটেনডোরই আরেকটি গেইম মারিও ফ্রেঞ্চাইজের পেছনে ছিল এর অবস্থান।

পরে অ্যানিমেশন, মাঙ্গা, ট্রেডিং কার্ড, খেলনা, বই ও অন্যান্য মাধ্যমে বিভিন্নভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে পোকেমনকে।

সে সময় গেইমটির প্রায় ২০ কোটি কপি বিক্রি হয়। গেইমটির জনপ্রিয়তা ধরে রাখতে ভক্তদের জন্য ৯০০ পর্ব ভিডিও কার্টুন, ১৯টি মুভি ও অসংখ্য গেইম কার্ড তৈরি করা হয়।

বাংলাদেশেও গেইমটি ব্যাপক জনপ্রিয়তা পায়। পোকেমন কার্ড এখনও শিশু-কিশোরদের কাছে বেশ জনপ্রিয়।

আইকনিক এ ভিডিও গেইমের জনপ্রিয় চরিত্র পোকেমনের ২০ বছর পূর্তি উপলক্ষে বিশ্বজুড়ে উদযাপনে #পোকেমন চালু করা হয়।

নতুন গেইম দুটি চলতি বছরের শেষ নাগাদ উম্মুক্ত করা হবে বলে।

টাইমস অব ইন্ডিয়া অবলম্বনে তুসিন আহমেদ

আরও পড়ুন

সুপার স্ম্যাস ব্রোশ গেইমের নতুন সংস্করণ আসছে

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : জনপ্রিয় গেইম সুপার স্ম্যাস ব্রোশের নতুন সংস্করণ্ আসছে। গেইমটির নির্মাতা জাপানের নিনতেনদো এ ঘোষণা দিয়েছে। নতুন সংস্করণে আগের তুলনায় আরও সুন্দর এবং উন্নত মানের গ্রাফিক্স ব্যবহার করা হবে। আগামী কয়েক মাসের মধ্যে বাজারে আসবে গেইমটি।

গেইমসটির নতুন সংস্করণে ভিন্নমাত্রা যোগ করতে কাজ চলছে। যোগ করা হবে নতুন কয়েকটি চরিত্র। গেইমটিতে প্রতি সেকেন্ডে প্রায় ৬০টি ফ্রেম প্রদর্শিত হবে। ফলে গেইমটির চিত্রের মান নিনতেনদো প্রতিষ্ঠানটির অন্যান্য গেমের তুলনায় অনেক ভালো হবে।

তবে নতুন সংস্করণে গ্রাফিক্সের দিকে বেশি নজর দেওয়া হচ্ছে বলে প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

Super Smash Bros_techshohor

এ বিষয়ে প্রকাশিত এক খবরে বলা হয়েছে, গেইমাররা ফর ফান ও ফর গ্লরি এ দুটি মুডে গেইমটি খেলতে পারবেন। ফর ফানে গেইমারের বিজয়ের রেকর্ড থাকবে। অপরদিকে ফর গ্লরি মুডটি তুলনামূলক কঠিন হবে বলে জানায় প্রতিষ্ঠানটি।

নিনতেনদোর পক্ষ থেকে জানানো হয়, নতুন সংস্করণের প্রায় সব কাজ সর্ম্পূণ করা হয়েছে। তবে প্রাথমিকভাবে গেইমটি নিনতেনদোর গেইম কনসোল থ্রিডিএসের জন্য ছাড়া হবে। পরে গেইম কনসোল উই ইউর জন্যও ছাড়া হবে।

কর্মকর্তারা জানান, গেইমটি খেলতে গিয়ে গেইমরা ভিন্ন ধরনের একটা স্বাদ পাবেন এবং অতিদ্রুত নতুন সংস্করণটি আগেরটির মতো জনপ্রিয়তা পাবে।

– ইয়াহু নিউজ অবলম্বনে তুসিন আহমেদ

নিনটেনডোর দুর্লভ গেইম নিলামে

শাহরিয়ার হৃদয়, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : নিনটেনডোর একটি অত্যন্ত দুর্লভ গেইম বিক্রি হতে যাচ্ছে ইবে’র নিলামে। এর দাম হাজার ডলারের বেশি উঠতে পারে।

গেইমটি এখন খুবই দুর্লভ হওয়ায় কনসোলে দাগ থাকা সত্ত্বেও বিক্রিতে সমস্যা হবে না বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। নিনটেনডো প্রেমীদের কাছে এটি পুরনো ফেরারি গাড়ির মতো বলে মন্তব্য অনেকের।

নিনটেনডো ওয়ার্ল চ্যাম্পিয়নশিপ নামে এ গেইমের মাত্র ১১৬টি কপি তৈরি করা হয়েছিল ১৯৯০ সালে। এর মধ্যে নিলামে এর দাম পাঁচ হাজার ডলার পর্যন্ত উঠে গেছে।

Nintendo game_techshohor

২০১১ সালে একই গেইম ১১ হাজার ডলারে এক নিলামে বিক্রি হয়েছিল।  তবে তার হাল আরেকটু ভালো ছিল।

তবে গেইমটির কনসোলের অবস্থা বেশ জীর্ণশীর্ণ। উপরের ময়লা কাগজে বলপয়েন্ট দিয়ে ‘মারিও’ লেখা আছে। নিলামকারীরা এ ব্যাপারে জানায়, এটি অনেক বছর আগের গেইম, এবং যে উপরে ‘মারিও’ লিখেছে তার নিশ্চয়ই গেইম সম্পর্কে তেমন ধারণা ছিল না।

জানা যায়, ১৯৯০ সালে গেইমটি এক প্রতিযোগিতার জন্য তৈরি করা হয়েছিল। যে কারণে বাজারে ছাড়া হয়নি।  নিনটেনডো আয়োজিত এ প্রতিযোগিতার বিজয়ীরা ট্রফি জেতার পাশাপাশি ইউনিভার্সাল স্টুডিওতে ঘুরে আসার সুযোগ পেয়েছিলেন।

৯০ জন সেমি-ফাইনালিস্টকে গেইমটির একটি করে কনসোল দেওয়া হয়েছিল। সেখান থেকে এখন একটি বিক্রি হচ্ছে।

– বিবিসি অবলম্বনে