যশোর ক্যাম্পে শেখানো হলো কম্পিটিটিভ প্রোগ্রামিং

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : যশোরে প্রোগ্রামিং ক্যাম্পে অংশগ্রহণকারীদের কম্পিটিটিভ প্রোগ্রামিং এর মূল বিষয়গুলো হাতে কলমে শেখানো হয়েছে।

তিন দিনের এই প্রোগ্রামিং ক্যাম্পে ৫০ শিক্ষার্থীকে নিয়ে বুট ক্যাম্প ও ২৭ শিক্ষার্থীর জন্য গ্রেস হপার গার্লস ক্যাম্পের আয়োজন করেছিল যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সিএসই বিভাগ ও বাংলাদেশ ওপেন সোর্স নেটওয়ার্ক (বিডিওএসএন)।

যবিপ্রবির শিক্ষার্থী অনন্যা সরকার তার মূল্যায়নে ক্যাম্পটিকে অসাধারণ মন্তব্য করে আরও বেশি ক্যাম্প আয়োজনের অনুরোধ করেন। একই বিশ্ববিদ্যালয়ের মারুফা ইয়াসমিন প্রশিক্ষকদের আন্তরিকতার প্রশংসা করেন।

Jessore-programming-camp-bdosn-techshohor

ক্যাম্পের অন্যতম মেন্টর ও খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী অরুণিমা মন্ডল জানান, দেশের নানান অঞ্চলে মেয়েদের জন্য এই ক্যাম্পের আযোজন করা হচ্ছে। অরুনিমা আশা করেন এই ক্যাম্পের অংশগ্রহণকারীরা ন্যাশনাল গার্লস প্রোগ্রামিং কনটেস্টে অংশগ্রহণ করবে।

একই সময়ে ক্যাম্পাসে আয়োজন করা হয় প্রোগ্রামিং বুট ক্যাম্প। প্রায় ৫০ জন শিক্ষার্থী এই বুট ক্যাম্পে অংশগ্রহণ করে। বুটক্যাম্প পরিচালনা করেন নিউজক্রেডের সফটওয়্যার প্রকৌশরী ও ২০১৬, ২০১৭ সালের প্রোগ্রামিং-এর বিশ্ব আসরে অংশগ্রহণকারী রাহাত জামান নিলয় ও বিডিওএসএনের প্রোগ্রাম কো-অর্ডিনেটর আল রাব্বী।

উল্লেখ্য দেশের বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের মধ্যে কম্পিউটার দক্ষতার বিকাশের জন্য বিডিওএসএন সারাদেশে এই আয়োজন করছে।

ইমরান হোসেন মিলন

চট্টগ্রামে হচ্ছে প্রোগ্রামিং বুট ক্যাম্প ও মেয়েদের ক্যাম্প

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : শিক্ষার্থীদের মধ্যে প্রতিযোগিতামূলক প্রোগ্রামিং জনপ্রিয় করা ও তাদের প্রোগ্রামিং দক্ষতা বাড়ানোর লক্ষ্যে বৃহস্পতিবার থেকে চট্টগ্রামে শুরু হয়েছে বুট ক্যাম্প ও গ্রেস হপার গার্লস ক্যাম্প।

বৃহস্পতিবার চট্টগ্রামের ছয়টি বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩৬ শিক্ষার্থীকে নিয়ে প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ে শুরু হয়েছে দুই দিনব্যাপী প্রোগ্রামিং বুট ক্যাম্প।

একই সময়ে এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইমেন শুরু হয়েছে তিনদিনের গ্রেস হপার গার্লস ক্যাম্প ফর প্রোগ্রামিং কনটেস্ট। বিভিন্ন বিশ্বববিদ্যালয়ের ৩২ জন মেয়ে এই ক্যাম্পে অংশ নিচ্ছে।

GHC-BDOSN-Techshohor

বাংলাদেশ ওপেন সোর্স নেটওয়ার্ক ও চট্টগ্রাম ওপেন সোর্স নেটওয়ার্কের উদ্যোগে ও বিশ্ববিদ্যালয় দুটির ব্যবস্থাপনায় ক্যাম্পগুলো অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

আয়োজকদের পক্ষে চট্টগ্রাম ওপেন সোর্স নেটওয়ার্কের সমন্বয়কারী আরাফাতের রহমান জানান, দেশের অন্যান্য স্থানের তুলনায় চট্টগ্রামের শিক্ষার্থীরা প্রতিযোগিতামূলক প্রোগ্রামিং-এ বেশ পিছিয়ে রয়েছে। তাদের দক্ষতা বাড়ানোর জন্য বছরব্যাপী উদ্যোগের অংশ হিসেবে এই কার্যক্রম চলবে।

বিডিওএসএনের #মিসিংডটার কার্যক্রমের সমন্বয়কারী শারমিন কবীর জানান, বর্তমানে দেশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কম্পিউটার বিজ্ঞানে ছাত্রীদের সংখ্যা উল্লেখযোগ্যভাবে বাড়লেও প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতায় মেয়েদের অংশগ্রহনের হার এখনো অপ্রতুল। তাদের মধ্য থেকে কনটেস্টের ভয় কাটানো এবং প্রোগ্রামিংয়ে আগ্রহী করে তুলতে এই আয়োজন।

বিডিওএসএন সূত্রে জানা গেছে, গত বছর থেকে #missingdaughter নামে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিতে মেয়েদের অংশগ্রহণ বাড়ানোর জন্য দেশব্যাপী এই উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। উভয় ক্যাম্পে প্রতিযোগিতামূলক প্রোগ্রামিং-এর বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরা হচ্ছে।

আজ আসন্ন জাতীয় কলিজিয়েট প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণেচ্ছু চট্টগ্রামের দলগুলোর জন্য একটি দিনব্যাপী কর্মশালারও আয়োজন করা হয়েছে।

ইমরান হোসেন মিলন

এবার মেয়েদের প্রোগ্রামিং ক্যাম্প চট্টগ্রাম, চলছে নিবন্ধন

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : দেশে মেয়েদের কম্পিউটার প্রোগ্রামিংয়ে আগ্রহী করে তুলতে দেশব্যাপী অনুষ্ঠিত হচ্ছে মেয়েদের প্রোগ্রামিং ক্যাম্প। এবার সেই ক্যাম্প অনুষ্ঠিত হবে চট্টগ্রামে।

মিসিং ডটার কার্যক্রমের আওতায় চট্টগ্রামে প্রোগ্রামিং ক্যাম্পটি আয়োজন করছে বাংলাদেশ ওপেন সোর্স নেটওয়ার্ক (বিডিওএসএন)।

‘গ্রেস হপার গার্লস প্রোগ্রামিং ক্যাম্প’ নামের এ আয়োজন আগামী ২৩ থেকে ২৫ ফেব্রুয়ারি চট্টগ্রামের এশিয়ান ইউনিভার্সিটি অব উইম্যান ক্যাম্পাসে অনুষ্ঠিত হবে।

bdosn-missing-programming-techshohor

দেশব্যাপী প্রোগ্রামিং ক্যাম্পের সমন্বয়কারী বিডিওএসএনের কর্মসূচী সমন্বয়কারী আল রাব্বী জানান, বর্তমানে দেশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে ছাত্রীদের সংখ্যা উল্লেখযোগ্যভাবে বাড়রেও প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতায় তাদের অংশগ্রহণের হার এখনো কম। তাদের মধ্য থেকে প্রোগ্রামিংয়ের ভয় কাটানো এবং প্রোগ্রামিংয়ে আগ্রহী করে তুলতেই এই আয়োজন।

বিডিওএসএন জানায়, গত বছর থেকে হ্যাশট্যাগ মিসিং ডটার নামে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিতে মেয়েদের অংশগ্রহণ বাড়ানোর জন্য এই উদ্যোগ নেওয়া হয়। সে থেকে চলতি বছরের এই সময় পর্যন্ত একাধিত কর্মশালা, ক্যাম্প, ক্যারিয়ার ক্যাম্প ও ইন্টার্নশিপের মাধ্যমে মেয়েদের প্রযুক্তিতে আগ্রহী করার উদ্যোগ চলছে।

চট্টগ্রামের এই ক্যাম্পে অংশ নিতে ইতোমধ্যেই নিবন্ধন কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এই ঠিকানায় গিয়ে মেয়েরা নিবন্ধন করতে পারবেন। মাধ্যমিক এবং বিশ্ববদ্যিালয়ের দ্বিতীয় বর্ষ পর্যন্ত মেয়েরা ১০০ টাকা বিকাশ করে নিবন্ধন করতে পারবেন।

আসন খালি থাকা সাপেক্ষে অংশ নেওয়ার সুযোগ পাওয়া যাবে। বিস্তারিত জানা যাবে এই ঠিকানায়

ইমরান হোসেন মিলন

টাঙ্গাইলে হল মেয়েদের প্রোগ্রামিং ক্যাম্প

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : হাইস্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪২ মেয়েকে নিয়ে টাঙ্গাইলের ‘গ্রেস হপার গার্লস ক্যাম্প ফর প্রোগ্রামিং কনটেস্ট’ শেষ হয়েছে।

গতকাল শনিবার বাংলাদেশ ওপেন সোর্স নেটওয়ার্ক(বিডিওএসএন) আয়োজিত এই ক্যাম্পের ব্যবস্থাপনায় ছিল টাঙ্গাইল মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার কৌশল বিভাগ (সিএসই)।

তিন দিনব্যাপী এই প্রোগ্রামিং ক্যাম্প উদ্বোধন করেন সিএসই বিভাগের প্রধান ড. মতিউর রহমান। তিন দিনের ক্যাম্পে প্রোগ্রামিংয়ের মূল বিষয়ের পাশাপাশি ডাইনামিক প্রোগ্রামিং, প্রোগ্রামিংয়ের জন্য প্রয়োজনীয় গণিত এবং প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতার বিভিন্ন সমস্যা সম্পর্কে আলোচনা ও হাতে কলমে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়।

GrassHoper Progremimn _Techshohor

প্রশিক্ষণ পরিচালনা করেন মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক দেলওয়ার হোসেন ও মোহাম্মদ আশরাফুল ইসলাম। আর জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নাহিদুল ইসলাম ক্যাম্প পরিচালনায় সহযোগিতা করেন।

উল্লেখ্য যে, মেয়েদের মধ্যে প্রোগ্রামিংকে জনপ্রিয় করা ও তাদের প্রোগ্রামিং দক্ষতার উন্নয়নে বিডিওএসএনের #মিসিংডটার কার্যক্রমের আওতায় দেশের বিভিন্ন স্থানে মেয়েদের জন্য এ প্রোগ্রামিং ক্যাম্পের আয়োজন করছে।

আগামী ২৭ থেকে ২৯ ডিসেম্বর নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে পরবর্তী ক্যাম্প অনুষ্ঠিত হবে।

ইমরান হোসেন মিলন

খুলনা ও চট্টগ্রামে শেষ হলো মেয়েদের প্রোগ্রামিং ক্যাম্প

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : দেশব্যাপী মেয়েদের প্রোগ্রামিং প্রশিক্ষণ ক্যাম্পের অংশ হিসেবে খুলনা ও চট্টগ্রামের ক্যাম্প শেষ হয়েছে। বাংলাদেশ ওপেন সোর্স নেটওয়ার্কের (বিডিওএসএন) উদ্যোগে সারাদেশে এই ক্যাম্প চলছে। দুটি স্থানেই বৃহস্পতিবার প্রোগ্রামি১ প্রশিক্ষণ ক্যাম্প শুরু হয়েছিল।

চট্টগ্রামে ক্যাম্প শেষে মেয়েদের হাতে সদনপত্র তুলে দেন চট্টগ্রাম ইন্ডিপেডেন্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের (সিআইইউ) উপাচার্য ড. মাহফুজুল হক চৌধুরী ও চট্টগ্রামের আনোয়ারার সাংসদ ওয়াসেকা আয়েশা খান। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ড. নোভা আহমেদ, সিআইইউএর শিক্ষক এমরান আহমেদসহ আরও অনেকে।

Khulna_closing
খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত ক্যাম্পে সনদপত্র তুলে দেন কুয়েটের কম্পিউটার কৌশল বিভাগের অধ্যাপক এম এম এ হাশেম। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন বিভাগের শিক্ষক বিষ্ণু বাঁধন সরকার।

এছাড়া অংশগ্রহণকারীদের সঙ্গে একটি বিশেষ সেশন পরিচালনা করেন গ্রামীণফোনের ডেটা ও ডিভাইস রাজশাহী সার্কেলের প্রধান কানিজ ফাতেমা।

মেয়েদের কম্পিউটার বিজ্ঞান তথা কম্পিউটার প্রোগ্রামিংয়ে আগ্রহী করে তোলা এবং প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতায় মেয়েদের অংশগ্রহণের হার বাড়ানোর জন্য বিডিওএসএন দেশের বিভিন্ন স্থানে এই প্রোগ্রামিং প্রশিক্ষণ ক্যাম্প আয়োজন করছে।

ক্যাম্পে অংশগ্রহণকারীরা তিনদিন ধরে প্রোগ্রামিংয়ের বিভিন্ন খুঁটিনাটি বিশেষ করে ডেটা স্ট্রাকচার, এলগরিদম এবং বিভিন্ন প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতার সমস্যা সম্পর্কে সম্যক ধারণা লাভ করছে।

দেশব্যাপী এই ক্যাম্পের সমন্বয়কারী বিডিওএসএনের কর্মসূচী সমন্বয়কারী আল রাব্বী জানান, এরই মধ্যে সাতটি জেলায় এ আযোজন সম্পন্ন হয়েছে। আগামী ২৪ নভেম্বর পরবর্তী ক্যাম্প অনুষ্ঠিত হবে।

ক্যাম্পে অংশ নিতে আগ্রহী মেয়েদের এই ওয়েবসাইটে গিয়ে নিবন্ধন করতে পারবেন।

ইমরান হোসেন মিলন

চট্টগ্রাম ও খুলনায় শুরু মেয়েদের প্রোগ্রামিং ক্যাম্প

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : তথ্যপ্রযুক্তি খাতের যে অগ্রগতি হয়েছে তাতে মেয়েরা প্রোগ্রামিং শিখে এই খাতে সমানভাবে দক্ষ হতে পারে। খুলনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (কুয়েট) ও চট্টগ্রাম ইন্ডিপেন্ডেট বিশ্ববিদ্যালয়ে বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হওয়া মেয়েদের প্রোগ্রামিং প্রশিক্ষণ ক্যাম্পে মেন্টর ও অতিথিরা এসব কথা বলেন।

কম্পিউটার বিজ্ঞান বিশেষ করে মেয়েদের কম্পিউটার প্রোগ্রামিংয়ে আগ্রহী করে তোলা এবং প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতায় মেয়েদের অংশগ্রহণের হার বাড়ানোর জন্য বাংলাদেশ ওপেন সোর্স নেটওয়ার্কের(বিডিওএসএন) উদ্যোগে দেশের বিভিন্ন স্থানে প্রোগ্রামিং প্রশিক্ষণ ক্যাম্পের অংশ হিসেবে ক্যাম্প দুটির আয়োজন করা হয়েছে।

কুয়েটের অধ্যাপক এম এম এ হাশেম অংশগ্রহণকারীদের উৎসাহ দিয়ে বলেন, আমাদের দেশের মেয়েরা বর্তমানে অ্যাপল, গুগল কিংবা ফেইসবুকের মতো প্রতিষ্ঠানে কাজ করছে এবং চেষ্টা করলে তারাও বিশ্বমানের প্রোগ্রামার হিসেবে নিজেদের গড়ে তুলতে পারবে।

BDOSN_CTG_PRO_CAMP_TECHSHOHOE
অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিডিওএসএনের যুগ্ম সম্পাদক এনায়েত হোসেন রাজিব, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক বিষ্ণু সরকার, বিডিওএসএনের মেন্টর অরুনিমা মন্ডল, তাহমিদ জিকো। চট্টগ্রামের ক্যাম্প পরিচালনা করছেন চট্টগ্রাম ইন্ডিপেন্ডেট বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক এমরান হারুন, বিজিসি ট্রাস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষক প্রিয়াংকা বনিক প্রমূখ।

গ্রেস হপার গার্লস প্রোগ্রামিং ক্যাম্প নামের তিন দিনব্যাপী এ ক্যাম্পে হাইস্কুল ও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম ও দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থীদের প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতার জন্য তৈরি করা হচ্ছে।

দেশব্যাপী এই ক্যাম্পের সমন্বয়কারী বিডিওএসএনের কর্মসূচী সমন্বয়কারী আল রাব্বী জানান, বর্তমানে দেশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে ছাত্রীদের সংখ্যা উল্লেখযোগ্যভাবে বাড়লেও প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতায় মেয়েদের অংশগ্রহণের হার এখনো অপ্রতুল। তাদের মধ্য থেকে এর ভয় কাটানো এবং প্রোগ্রামিংয়ে আগ্রহ বাড়াতেই বিডিওএসএন এমন আয়োজন করছে।

বিডিওএসএন জানায়, তারা গত বছর থেকে #missingdaughter নামে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিতে মেয়েদের অংশগ্রহণ বাড়ানোর জন্য এই উদ্যোগ নেয়। চলতি বছরের এই সময় পর্যন্ত একাধিত কর্মশালা, ক্যাম্প, ক্যারিয়ার ক্যাম্প ও ইন্টার্নশিপের মাধ্যমে মেয়েদের প্রযুক্তিতে আগ্রহী করার উদ্যোগ চলমান রয়েছে।

এই উদ্যোগের অংশ হিসেবে রাজশাহী, রংপুর, পাবনা, কুমিল্লা, সিলেট, কক্সবাজার, রাঙ্গামাটি, টাঙ্গাইল, বরিশাল, গাজীপুর, গোপালগঞ্জ ও নোয়াখালীতে পরবর্তী ক্যাম্প অনুষ্ঠিত হবে।

ক্যাম্পে অংশনিতে আগ্রহীরা এই ঠিকানায় প্রাথমিক নিবন্ধন করতে পারবে।

ইমরান হোসেন মিলন

দেশজুড়ে চলছে মেয়েদের প্রোগ্রামিং ক্যাম্প

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : দেশে মেয়েদের কম্পিউটার প্রোগ্রামিংয়ে আগ্রহী করে তুলতে বাংলাদেশ ওপেন সোর্স নেটওয়ার্ক (বিডিওএসএন) দেশের ১৫টি স্থানে প্রোগ্রামিং প্রশিক্ষণ ক্যাম্পের আয়োজন করেছে।

‘গ্রেস হপার গার্লস প্রোগ্রামিং ক্যাম্প’ নামের এ আয়োজন শনিবার ময়মনসিংহে শেষ হয়েছে। ময়মনসিংহের প্রোগ্রামিং ক্যাম্প শুরু হয়েছিল গত বৃহস্পতিবার।

এছাড়াও শনিবার থেকে শরিয়তপুর জেলায় জেড এইচ শিকদার বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্বাবিদ্যালয়ে চলছে দ্বিতীয় ক্যাম্পটি। তিন দিনব্যাপী এ ক্যাম্পে হাইস্কুল ও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম ও দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থীদের প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা করছে।

Grasshopper-BDOSN_Techshohor
দেশব্যাপী এই ক্যাম্পের সমন্বয়কারী বিডিওএসএনের কর্মসূচী সমন্বয়কারী আল রাব্বী জানান, বর্তমানে দেশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে ছাত্রীদের সংখ্যা উল্লেখযোগ্যভাবে বাড়রেও প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতায় মেয়েদের অংশগ্রহণের হার এখনো কম। তাদের মধ্য থেকে প্রোগ্রামিংয়ের ভয় কাটানো এবং প্রোগ্রামিংয়ে আগ্রহী করে তুলতেই এই আয়োজন।

বিডিওএসএন জানায়, গত বছর থেকে হ্যাশট্যাগ মিসিং ডটার নামে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিতে মেয়েদের অংশগ্রহণ বাড়ানোর জন্য এই উদ্যোগ নেওয়া হয়। সে থেকে চলতি বছরের এই সময় পর্যন্ত একাধিত কর্মশালা, ক্যাম্প, ক্যারিয়ার ক্যাম্প ও ইন্টার্নশিপের মাধ্যমে মেয়েদের প্রযুক্তিতে আগ্রহী করার উদ্যোগ চলছে।

বিডিওএসএনের সহ-সভাপিত এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রোবটিক্স বিভাগের প্রধান লাফিফা জামাল জানান, এক বছরের চেষ্টায় এবারের আন্তর্জাতিক কম্পিউটার প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতার ঢাকা সাইটে মেয়েদের অংশগ্রহণ কয়েকগুণ বৃদ্ধি পেয়েছে। গতবছর যেখানে মাত্র হাতে গোনা কয়েকটা দল ছিল, এবার সেখানে ১২৯টি মেয়েদের দল অংশ নিয়েছে।

আগামী ১০ থেকে ১২ নভেম্বর খুলনায় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে, গোপালগঞ্জে বঙ্গবন্ধু বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে এবং চট্টগ্রামে ইন্ডিপেন্ডেড বিশ্ববিদ্যালয়ে পরবর্তী তিনটি ক্যাম্প অনুষ্ঠিত হবে।

এছাড়া পর্যায়ক্রমে রাজশাহী, রংপুর, পাবনা, কুমিল্লা, সিলেট, কক্সবাজার, রাঙ্গামাটি, টাঙ্গাইল, বরিশাল, গাজীপুর ও নোয়াখালীতে পরবর্তী ক্যাম্প সমূহ অনুষ্ঠিত হবে।

ক্যাম্পে অংশ নিতে আগ্রহীরা এই ঠিকানায় প্রাথমিক নিবন্ধন করতে পারবে।

ইমরান হোসেন মিলন

মেয়েদের অনলাইন প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা শুরু

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : বিশ্বের প্রথম কম্পিউটার প্রোগ্রামার এডা লাভলেসের সম্মানে প্রতিবছর ১১ অক্টোবর পালিত হয় এডা লাভলেস দিবস। দিনটি মেয়েদের বিজ্ঞান-প্রকৌশল-প্রযুক্তি-গণিত শিক্ষা ও কর্মে উৎসাহী করার জন্য নানান আয়োজনে বিশ্বব্যাপী পালিত হয়।

দেশেও তার সম্মানে বাংলাদেশ ওপেন সোর্স নেটওয়ার্কের উদ্যোগে ও কোড মার্শালের সহায়তায় মেয়েদের জন্য একটি অনলাইন প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছে। বুধবার সন্ধ্যা সাতটায় কোডমার্শালে  প্রতিযোগিতাটি অনুষ্ঠিত হবে।

এতে যেকোনো মেয়ে অংশ নিতে পারবে এবং এর জন্য আলাদাভাবে নিবন্ধনের প্রয়োজন হবে না। সরাসরি প্রতিযোগিতার এই লিংকে গিয়ে নিবন্ধন করা যাবে। প্রতিযোগিতার অংশগ্রহণকারীদের আগামীতে বিডিওএসএন আয়োজিত ‘গ্রেসহপার প্রোগ্রামিং ক্যাম্পে’ অংশগ্রহণে অগ্রাধিকার দেওয়া হবে।

BDOOSN-PROGRAMMING-TECHSHOHOR
এর আগে গত ৮-১০ অক্টোবর ঢাকার আদাবরে অনুষ্ঠিত হয়েছে বিডিওএসএনের গার্লস প্রোগ্রামিং-এর নতুন মেন্টরদের ক্যাম্প। ক্যাম্পে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে ১৪ জন মেন্টর অংশগ্রহণ করে। ক্যাম্পে ঢাকা ও ঢাকার বাইরে মেয়েদের প্রোগ্রামিং-এর ব্যাপারে উৎসাহী ও দক্ষ করে তোলার কার্যক্রম নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়।

সোমবার মেন্টরদের মধ্যে সার্টিফিকেট বিতরণের মাধ্যমে ক্যাম্পটির সমাপণ হয়েছে। সমাপণী পর্বে উপস্থিত ছিলেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক মুহম্মদ জাফর ইকবাল, বুয়েটের অধ্যাপক মোহাম্মদ কায়কোবাদ এবং বাংলাদেশ ওপেন সোর্স নেটওয়ার্কের সাধারণ সম্পাদক মুনির হাসান।

বিডিওএসএন তাদের #missingdaughter কার্যক্রমের আওতায় এই আয়োজন করছে।

ইমরান হোসেন মিলন

এবার মহেশপুরের মেয়েরা শিখলো প্রোগ্রামিং

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ঢাকা ও দিনাজপুরের পর এবার ঝিনাইদহ জেলার মহেশপুর উপজেলায় মেয়েদের জন্য প্রোগ্রামিং ক্যাম্প অনুষ্ঠিত হয়েছে । ‘গ্রেস হপার গার্লস ক্যাম্প ফর প্রোগ্রামিং কনটেস্ট’ নামের এই প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা ক্যাম্পে অংশ নেয় ৩১ জন মেয়ে।

মহেশপুর জুনিয়র কোডার ও বাংলাদেশ ওপেন সোর্স নেটওয়ার্ক (বিডিওএসএন) এর যৌথ উদ্যোগে তিন দিনব্যাপী এই ক্যাম্প বুধবার শুরু হয়ে শুক্রবারশেষ হয়।

GPC-TECHSHOHOR
মহেশপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের কম্পিউটার ল্যাবে অনুষ্ঠিত ক্যাম্প শেষে ১১ জনকে পুরস্কৃত করা হয়। পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন মহেশপুর পৌর মেয়র আবদুর রশীদ খান।

প্রোগ্রামিং ক্যাম্পের অংশগ্রহণকারীদের অভিনন্দন জানিয়ে পৌর মেয়র আগামীতে এই ধরণের আয়োজনে সহযোগিতার আশ্বাস দেন। তিনি আশা করেন মহেশপুরের মেয়েরা আগামীতে জাতীয় পর্যায়েও ভালো করতে পারবে। সমাপনী পর্বে আরও বক্তব্য রাখেন মহেশপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জহুরুল ইসলাম।

তিনদিনের ক্যাম্পে প্রোগ্রামিংয়ে ডাইনামিক প্রোগ্রামিং, প্রোগ্রামিংয়ের জন্য প্রয়োজনীয় গণিত এবং প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতার বিভিন্ন সমস্যা সম্পর্কে আলোচনা ও হাতে কলমে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। প্রশিক্ষণ পরিচালনা করেন খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী শাকির আহসান, পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আকিব মুজতাবা ও গোপালগঞ্জ পলিটেকনিকের শিক্ষার্থী মিজানুর রহমান। সমন্বয় করেন যশোর পলিটেকনিকের শিক্ষার্থী মামুন।

ইমরান হোসেন মিলন