উইন্ডোজ কি এর ১০ কাজ

তুসিন আহমেদ, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : কম্পিউটারের কিবোর্ড উইন্ডোজ আইকনের মধ্যে একটি ‘কি’ বা ‘বাটন’ রয়েছে। এটিকে বলা হয় ‘উইন্ডোজ কি’। এতে ক্লিক করে সাধারণত উইন্ডোজ স্টার্ট মেন্যু চালু হয়। সেখানে যাবতীয় অ্যাপ্লিকেশন ও সেটিং অপশনগুলো রয়েছে।

তবে এ কাজ ছাড়াও এ বাটনের মাধ্যমে অনেকগুলো কাজ করে নেওয়া যায়। ফলে বারবার কোনো কাজের জন্য মাউসে হাত না রেখেই কিবোর্ডের সাহায্যে করে নেওয়া যাবে অনেকগুলো প্রয়োজনীয় কাজ।

এ টিউটোরিয়াল উইন্ডোজ কি-এর ১০ কাজ সম্পর্কে তুলে ধরা হলো।

windowskey-techshohor

উইন্ডোজ ১০-এর অ্যাকশন সেন্টার খোলার জন্য নোটিফিকেশন আইকন মাউস নিয়ে ক্লিক করতে হয়। এ কাজ Win + A স্পেস করলেই হয়ে যাবে।

অনেক সময় কোনো সফটওয়্যার দিয়ে কাজের সময় দ্রুত ডেক্সটপ দেখার প্রয়োজন হয়। এ কাজ সহজে করতে Win + D স্পেস করতে হবে।

উইন্ডোজ এক্সপ্লোরার চালু করতে Win + E স্পেস করতে হবে।

গেইম বার চালু করতে Win + G স্পেস করতে হবে।

সব প্রোগ্রাম মিনিমাইজ করতে Win + M স্পেস করতে হবে

মিনিমাইজ করা উইন্ডোজ রিস্টোর করতে Win + ⇧ Shift + M স্পেস করতে হবে।

টাস্কবারের ফোকাস পাল্টাতে Win + T স্পেস করতে হবে।

অতিরিক্ত কিংবা এক্সটার্নাল মনিটর ও প্রজেক্টরে দৃশ্য দেওয়ার জন্য Win + P স্পেস করতে হবে।

ইন্সটল করা অ্যাপ সার্চ করতে Win + Q স্পেস করতে হবে।

রান ডায়ালগ বক্স ওপেন করা Win + R স্পেস করতে হবে।

আরও পড়ুন

যে নতুন ফিচার এলো গুগল কিবোর্ডে

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর: গ্লোবাল কিবোর্ড অ্যাপের নতুন সংস্করণ উন্মুক্ত করলো গুগল। ব্যবহারকারীদের সুবিধার জন্য অটোমেটিক ইমোজি এবং জিআইএফ সাজেশন, নতুন থিমসহ নানা ফিচার সংযুক্ত করা হয়েছে এতে।

অনেক সময় ফোনে চ্যাট করতে গেলে টাইপ করতে ব্যবহারকারীদের কাছে অালসেমী লাগে। এই ঝামেলা দূর করবে নতুন সংস্করণটি। কেননা এতে যুক্ত করা হয়েছে ভয়েস টাইপিং সুবিধা। ফলে ভয়েস কমান্ডের সাহায্যে কিবোর্ড অ্যাপটি ব্যবহার করে লেখা যাবে।

google-keyboard-techshohor

এছাড়া এতে রয়েছে নতুন থিম, কুইক অ্যাক্সেস গুগল ট্রান্সলেটার, থিম সিলেক্টর ইত্যাদি সুবিধা। কিবোর্ড থেকে ‘G’ বাটন ধরে রাখলে গুগল ট্রান্সটলেটরে আইকন প্রদর্শিত হবে। থিম অপশন থেকে চাইলে ব্যবহারকারীরা পছন্দমত ব্যাকগ্রাউড নির্বাচন করতে পারবেন।

কিবোর্ড ছাড়াও জি-সুটের বাগ ফিক্সড ও নিরাপত্তা মূলত আপডেট নতুন সংস্করণে আনা হয়েছে।

ফোন এরিনা অবলম্বনে তুসিন আহমেদ

অ্যান্ড্রয়েডে অটো কারেকশন বন্ধ করবেন যেভাবে

তুসিন আহমেদ, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : অ্যান্ড্রয়েডচালিত ফোনের ডিফল্ট কিবোর্ড ব্যবহার করে টাইপ করলে বানান সঠিক করতে অটো কারেকশন ফিচারটি চালু থাকে স্বয়ংক্রিয়ভাবে। ফলে কোনো শব্দ টাইপ করার পরেই অটো কারেকশনে কিছু সাজেশন দেখায়।

সম্পূর্ণ শব্দটি লেখার পর অটো কারেকশন ফিচার স্বয়ংক্রিয়ভাবে ইংরেজি সঠিক বানানটি দেখায়। তবে বাংলায় কোনো ইংরেজি শব্দ লিখলে সেটি অটো কারেকশন ভুল হিসেবে চিহ্নিত করে এবং সাজেশনে থাকাটা ভুল শব্দটা টাইপ হয়। এতে লিখতে দেরি হয়। এটি বিরক্তি তৈরি হয় ও অনেকের কাছে সময়ের অপচয় বলে মনে হয়।

এ ধরনের ঝামেলা থেকে মুক্তির একমাত্র উপায় হলো অটো কারেকশন বন্ধ রাখা। কিভাবে এ কাজ করতে হবে এই টিউটোরিয়ালে তুলে ধরা হলো।

keyboard-techshors

প্রথম অ্যান্ড্রয়েডের হোম বাটন থেকে সেটিংসে যেতে হবে।

তারপর সেখান থেকে ‘language and input’-এ ক্লিক করতে হবে।

keyboard-techshohos
এরপর যেখান থেকে দেখা যাবে কোন কিবোর্ডটি ডিফল্ট হিসেবে ব্যবহার হচ্ছে।

সেখান থেকে ডান পাশে থাকা সেটিংসে ক্লিক করলে নতুন একটি পেইজ চালু হবে।

keyboard-techshohor
তারপর সেখানে থাকা  ‘autu correction’ অপশন থেকে ফিচারটি বন্ধ করে দিতে হবে।

তাহলে অটো কারেকশনের ঝামেলা থেকে মুক্তি মিলবে সহজেই।

আরও পড়ুন 

যে কিবোর্ড শর্টকাট সব ব্রাউজারে কাজ করবে

তুসিন আহমেদ,টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ইন্টারনেট জগতে প্রবেশের অন্যতম মাধ্যম হলো ওয়েব ব্রাউজার। এই সফটওয়্যারটি ব্যবহার করে ভার্চুয়াল বিশ্বে প্রবেশ করা যায়। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান নানা ফিচার সমৃদ্ধ ব্রাউজার উন্মুক্ত করেছে ব্যবহারকারীদের জন্য। এর মধ্যে গুগলের ক্রোম, অ্যাপলের সাফারি, মজিলা, ইউসিসহ নানা ব্রাউজার।

ভিন্ন ভিন্ন ব্রাউজার ব্যবহার করতে গেলে এর কমান্ডের ক্ষেত্রে ভিন্নতা থাকলেও কিছু কিবোর্ড শর্টকাট একই।যেগুলো সব ব্রাউজারেই কাজ করবে। তেমনি প্রয়োজনীয় কিবোর্ড শর্টকাটগুলো এই টিউটোরিয়ালে তুলে ধরা হলো।

keybard-techshohor

অনেক সময় কাজের মধ্যে ব্রাউজারের পাঁচ-ছয়ের বেশি ট্যাব খোলা হয়। মাউসের সাহায্যে এক ট্যাব থেকে আরেক ট্যাবে যেতে কিছুটা সময়ের প্রয়োজন হয়। তবে কি-বোর্ড শর্টকাট জানা থাকলে সহজেই ট্যাব পরিবর্তন করা যায়। এর জন্য Ctrl+1-2 এখানে ‘2’ এর স্থানে যে ট্যাবের নম্বর দেয়া হবে সেই ট্যাব চালু হবে। উদাহরণ স্বরূপ  যদি ৬ নম্বর ট্যাবে যেতে হয় ‘Ctrl+1-6’ টাইপ করতে হবে।

সর্বশেষ ট্যাব যেতে হলে Ctrl+9 এ যেতে চাপতে হবে। নতুন ট্যাব চালু করতে Ctrl+T চাপতে হবে।

লিংকে নতুন একটি ব্রাউজার উইন্ডোতে ওপেন করতে Shift+Left চাপতে হবে।

Ctrl এবং +  ক্লিক  যেকোনো ওয়েব পেইজ জুম করা যাবে। চাইলে Ctrl এবং মাউসে স্ক্রল উপরের দিকে করে জুম করা যাবে। জুম আউট করতে Ctrl এবং – এবং  Ctrl এবং মাউসের স্ক্রল নিচের দিকে নিতে হবে।

ওয়েব ব্রাউজারের ডিফল্টভাবে যতটুকু জুম ছিল ততটুকু ফিরিয়ে আনতে Ctrl+0 চাপতে হবে। পুরো পর্দা বা ফুল স্ক্রিন মোডে যেতে F11 ক্লিক করতে হবে।

কোনো কিছু সার্চ করতে ওয়েব ব্রাউজারে গিয়ে Ctrl+K বা Ctrl+E লিখে সার্চ করতে পারবেন।

অফিস বা বাসায় অনেক সময় ব্রাউজিং হিস্টোরি মুছে ফেলা প্রয়োজন হয়। সেক্ষেত্রে হিস্টোরি মুছে ফেলার জন্যে Ctrl+Shift+Del চাপলে ওই অপশনটি দেখাবে।

আরও পড়ুন : 

কিবোর্ডে টাইপ আরও সহজ ও দ্রুত হবে

তুসিন আহমেদ, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : স্মার্টফোন ব্যবহার করে ম্যাসেজিং, ই-মেইলের উত্তর, নোট রাখা ইত্যাদি কাজগুলো অনায়াসে করা যায়। তবে যদি ভালো মানের একটি কিবোর্ড থাকে টাইপ করার জন্য তাহলে তো কথাই নেই।

অনেক সময় স্মার্টফোনের ডিফল্ট কিবোর্ডটি ব্যবহারকারীদের ঠিক মনের মতো হতে নাও পারে। এমন হলে টেনশনের কিছু নেই। অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারীদের জন্য প্লেস্টোরে রয়েছে বিভিন্ন ধরনের কিবোর্ড।

এতসব কিবোর্ডের ভীড়ে চমৎকার একটি কিবোর্ড অ্যাপ্লিকেশন হলো ‘ফ্লেক্স জিআইএফ কিবোর্ড’।

apps

এক নজরে অ্যাপ্লিকেশনটির ফিচারগুলো
এটি বেশ ফাস্ট ও গতিময়। ফলে টাইপ করা যাবে আরও কম সময়ে ও দ্রুততার সাথে।

পছন্দমত থিম পরিবর্তন করতে অ্যাপটিতে রয়েছে ৪০টির বেশি রঙ্গিন থিম, সুন্দর ডিজাইন এবং তিনটি কাস্টম উপযোগী সাইজ।

বার্তা পাঠানোকে আরও মজাদার করতে অ্যাপটিতে রয়েছে ৮০০টির বেশি ইমোজি ও স্টিকার। ফলে মনের ভাব প্রকাশ করা যাবে আরও সহজে।

এটি সম্পূর্ণ অফলাইনে কাজ করবে। ফলে একবার ডাউনলোড করলে আর ইন্টারনেট সংযোগ দরকার হবে না।

কিবোর্ড অ্যাপটিতে ইংরেজির পাশাপাশি রাশিয়া, স্প্যানিশ, ইতালীয় ভাষা ব্যবহারের সুবিধা রয়েছে।

বিনামূল্যে অ্যাপ্লিকেশনটি এ ঠিকানা থেকে ডাউনলোড করে নেওয়া যাবে।

আরও পড়ুন

অ্যান্ড্রয়েডে বাংলা লেখার অ্যাপ পার্বতী কিবোর্ড

তুসিন আহমেদ, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিল : অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসে বাংলা লেখার জনপ্রিয় সফটওয়্যার রিদ্মিক কিবোর্ড সম্প্রতি প্লেস্টোর থেকে সরিয়ে দেয়া হয়। এ নিয়ে দেশে আলোচনা-সমালোচনা, বাদ-প্রতিবাদ শুরু হয়, এর রেশ এখনো কাটেনি।

তার কারণ, অধিকাংশই মনে করছেন, বাংলা লেখার এমন ভালো সফটওয়্যার আর নেই। ভাবনাটা সত্যি নয়। প্রচারণার আলোয় নেই বলে অনেকেরই জানা নেই, ‘পার্বতী কিবোর্ড’ নামে বাংলা লেখার চমৎকার আরেকটি অ্যাপ্লিকেশন আছে। ব্যবহারকারীরা চাইলে এই অ্যাপ দিয়ে ডেস্কটপের জনপ্রিয় সফটওয়্যার অভ্রের মতোই লিখতে পারবেন।

অ্যাপ্লিকেশনটি তৈরি করেছেন রাজশাহী  বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার বিভাগের ছাত্র আরিফ রহমান। এটি তৈরি করতে তার সময় লেগেছে প্রায় ১৫ দিন।

Untitled

তিনি জানায়, শিগগিরই অ্যাপটির নতুন সংস্করণ আনা হবে। এতে যুক্ত করা হবে উন্নত ফিচার, ইমোটিকস ইত্যাদি। এছাড়াও যুক্ত করা হবে আরও বেশ কিছু নতুন ফিচার।

এক নজরে অ্যাপ্লিকেশনটির ফিচার সমূহ :

১. অ্যাপটিতে রয়েছে ৮ টা চমৎকার থিম। ফলে পছন্দ মত থিম ব্যবহার করা যাবে।

২. অ্যাপ্লিকেশনটির সাহায্যে স্মার্টফোন কিংবা ট্যাবে কিবোর্ড যুক্ত করে বাংলা টাইপ করা যাবে।

৩. টাইপ করার সময় অটো সাজেশন থেকে প্রয়োজনীয় শব্দ বেছে নেয়া যাবে।

৪. অভ্রের মত ফনেটিক ব্যবহার করে বাংলা লেখা যাবে।

এই অ্যাপটি ব্যবহার করতে হলে প্রথমে settings যেতে হবে। এরপর Language and input –এ গিয়ে Parboti keyboard select করে দিতে হবে। এরপর Default Keyboard হিসাবে সেট করে দিলেই কাজ শেষ।

অ্যাপ্লিকেশনটি এই ঠিকানা থেকে ডাউনলোড করে ব্যবহার করা যাবে।