গুগলে তথ্য খোঁজার বিকল্প ১০ উপায়

ইমরান হোসেন মিলন, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : তথ্যপ্রযুক্তি ও ইন্টারনেটের অভাবনীয় উন্নতির এই সময়ে তথ্য খোঁজা নিমিষের ব্যাপার মাত্র। ওয়েব জগতে প্রবেশ করে মুহূর্তের মধ্যে কোনো কিছু সম্পর্কে হাজারো তথ্য জেনে নেওয়া যায়। সার্চের ক্ষেত্রে এখন পর্যন্ত একাধিপত্য গুগলের। অজানাকে সামনে তুলে ধরতে জুরি নেই এ সার্চ ইঞ্জিনের।

জেনে হয়ত অবাক হবেন, গুগলে কোনো তথ্য সার্চ করার ক্ষেত্রে আমরা সাধারণত একটি উপায়েই চেষ্টা করে থাকি। বড়জোর হয়ত আরও এক বা দুটি বিকল্প কিছু দিয়ে সার্চ করা হয়। তবে আরও কিছু উপায় রয়েছে, যেগুলো ব্যবহার করে কাঙ্খিত ফলাফল পাওয়া যেতে পারে।

প্রযুক্তি বিষয়ক সাইট ব্রাইটের মতে, ৯৬ শতাংশ ব্যক্তি জানে না গুগলে ঠিক কত উপায়ে প্রয়োজনীয় তথ্যের খোঁজ করা যায়। বিকল্প ১০ উপায়ের কথা জানিয়েছে সাইটটি। টেক শহর ডটকম পাঠকদের জন্য এ প্রতিবেদনে তুলে ধরা হচ্ছে এসব বিকল্প।

Google_Buy

হয় এটা, নয় ওটা
আমরা অনেক তথ্য সার্চের চেষ্টা করি যেগুলোর ক্ষেত্রে খুব নিশ্চিতভাবে কি-ওয়ার্ড বলতে পারি না। মানে অনেকটা দ্বিধাবিভক্ত অবস্থা থেকে এসব তথ্য বা কোনো নাম সার্চ দিয়ে থাকি। এটা কোনো সমস্যা নয়। খুব সহজে সেগুলোর প্রয়োজনীয় বিকল্প খুঁজে পেতে কিছু সিম্বল বা চিহ্ন দিয়ে খোঁজ করা যায়। সেক্ষেত্রে উদ্ধৃতি চিহ্ন (“”) ব্যবহার করে সার্চ দেওয়া যায়।

উদ্ধৃতি চিহ্নের পাশাপাশি ‘অথবা’ বা ইংরেজিতে or বিকল্প হিসেবে ব্যবহার করলে সার্চের ফলাফল আপনার অধীনেই যাবে।

প্রতিশব্দ ব্যবহার
প্রায় প্রতিটি ভাষার জন্যই শব্দ ভাণ্ডার পরিপূর্ণ হয়েছে প্রতিশব্দের কারণে। ইংরেজিও বেলাতেও এটি প্রযোজ্য। তাই অনলাইনে কোনো কিছু খুঁজতে গেলে প্রতিশব্দ একটি ভালো উপায় হতে পারে।

এ কারণে গুগলে কোনো কিছু প্রথমবারে খুঁজে না পেলে, তখন সেখানে এমন প্রতিশব্দ দিয়ে খুঁজলে সহজে পাওয়া যাবে।

এ ক্ষেত্রে অবশ্য শব্দটি লিখে (~)ব্রাকেটের ভিতরের এমন চিহ্ন ব্যবহার করলে তা দ্রুত পাওয়া সম্ভব। যেমন : “healthy ~food”.

ওয়েবসাইট ধরে খোঁজা
আমরা অনেকেই আছি ইন্টারনেট ঘাঁটতে ঘাঁটতে কোনো ওয়েবসাইটে হয়তো কখনো মজার কোনো প্রবন্ধ বা নিবন্ধ চোখে পড়ে। পরে সেটি আপনার বন্ধুদের সঙ্গে শেয়ার করতে চাইলেন। তখন সহজে ও খুব দ্রুততম সময়ে সেটি পেতে চাইলে নিচের টিপস ব্যবহার করতে পারবেন।

এ জন্য আপনাকে সার্চ অপশনে গিয়ে ওয়েবসাইটের নাম এবং তার সঙ্গে ওই প্রবন্ধ বা নিবন্ধের কোনো মূল শব্দ যোগ করলে খুব দ্রুত এবং সরাসরি সেটা পাওয়া সম্ভব।

তারকা চিহ্ন দিয়ে সার্চ
অনেক সময় স্মৃতি আপনার সাথে প্রতারণা করে বসে। সহজ একটি বিষয় সহজেই মনে করতে পারে না। তখন দেখা যায় কোনো একটি শব্দ বা শব্দগুচ্ছ দিয়ে সার্চ করলেই হয়তো যা চাওয়া হচ্ছে, সেটি পাওয়া সম্ভব।

অথচ সেটা মনে করতে না পারায় তাৎক্ষণিকভাবে প্রয়োজন মেটানো যায় না। এসব ক্ষেত্রে ওই শব্দ বা শব্দগুচ্ছের স্থানে একটি তারকা চিহ্ন দিয়ে সার্চ দিলে তা সহজেই পাওয়া যেতে পারে।

যখন অনেক শব্দ ভুলে যাবেন
অনেক সময় দেখা যায়, কোনো কিছু খুঁজতে গেলে অনেক শব্দ ভুলে যেতে হয়। কোনো ভাবেই যদি সেগুলো মনে করতে না পারেন তাহলে চেষ্টা করবেন ওই বিষয়ের শুরু ও শেষের শব্দ মনে করতে পারেন কিনা। তাহলেই দেখবেন সেটি পেতে কোনো সমস্যাই হবে না।

সে শব্দগুলো দিয়ে এমন করে সার্চ দিলেই আপনার কাজ সফল হবে। যেমন : ”I wandered AROUND(4) cloud.”

Custom_google_search-techshohor

সময়কাল ধরে
ইতিহাসের অনেক কিছু্‌ প্রতিনিয়ত প্রয়োজন হয়। অনেক সময় দেখা যায় আমাদের এমন কিছু দরকার পড়ে যেগুলো কোনো নির্দিষ্ট সময়কালে ঘটেছে।

এ ক্ষেত্রে সার্চের প্রশ্ন হিসেবে সেই সময়কাল উল্লেখ করা যেতে পারে। তখন দুটি সময়কালের মাঝে তিনটি ডট চিহ্ন দিতে হবে। যেমন : ১৮৯৯…১৯২০।

ইউআরএল বা টাইটেল দিয়ে
কোন আর্টিকাল খুঁজে পেতে চাইলে সেটির টাইটেল বা ওয়েব ঠিকানা দিয়েও সার্চ করা যেতে পারে।

তবে সার্চের আগে সেই আর্টিকেলের টাইটেল ও ইউআরএলে কোনো স্পেস রাখা যাবে না এবং মাঝে একটি কোলন চিহ্ন দিতে হবে। যেমন : intitle:husky

একই মতো ওয়েবসাইট দিয়ে
ওয়েবসাইটে ওই নামের সঙ্গে মিল আছে এমন কোনো সাইট খুঁজতে ‘রিলেটেড’ লিখে কোলন ব্যবহার করা যেতে পারে।

এ ক্ষেত্রে যে ধরনের সাইট খুঁজতে চান- সেটার নাম প্রবেশ করান। দেখবেন তা আপনার চোখের সামনে চলে এসেছে। যেমন : Related:nike.com। তবে এক্ষেত্রে কোনো শব্দের মাঝেই স্পেস দেওয়া যাবে না।

শব্দগুচ্ছ দিয়ে সার্চ
কোনো কিছু সার্চ করতে গিয়ে কোনো কোটেশন মার্ক ছাড়া শুধু শব্দগুচ্ছ দিয়ে সার্চ দিলে তা খুব সহজেই এবং কার্যকরভাবে পাওয়া যায়। এভাবে সার্চ দিলে রিলেটেড অনেক কিছুই পাওয়া যাবে। কিন্তু সেসব শব্দগুচ্ছে যদি কোটেশন মার্ক বা কোটেশন চিহ্ন দেওয়া হয় তবে শুধু ওই একটিই দেখাবে।

এভাবে কোনো গান বা কবিতার একটি লাইন থেকেই পুরোটা খুঁজে বের করা সম্ভব হয়।

গুরুত্বহীন শব্দ দিয়ে সার্চ
অনেক সময গুরুত্বহীন অনেক শব্দই হয়ে উঠতে পারে গুরুত্বপূর্ণ। তাই কোনো কিছু খুঁজতে গিয়ে সেসব শব্দ দিয়ে সার্চ করলে প্রয়োজনীয় বিষয় সহজেই পাওয়া সম্ভব হয়। এ ক্ষেত্রে অবশ্য বিয়োগ চিহ্ন ব্যবহার করা যেতে পারে।

উদাহরণ হিসেবে বলা যায়, অনেক সময় কিছু আকর্ষণীয় বইয়ের সাইট খুঁজতে চান অনেকেই। সেক্ষেত্রে এভাবে interesting books-buy গুগলে সার্চ দিলেই প্রয়োজনীয় বিষয় পাওয়া যেতে পারে।

ইউটিউবে ভিডিও অটো প্লে বন্ধ করতে চাইলে

তুসিন আহমেদ, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : অনলাইনে ভিডিও দেখতে ইউটিউবে নির্ভরতাই বেশি। গান থেকে শুরু করে শিক্ষা, চলচ্চিত্রসহ নানা বিষয়ের হাজারো ভিডিও খুঁজতে ও দেখতে এ মাধ্যমে ঢোকেন সবাই। যারা একটির পর একটি ভিডিও দেখতে চান তাদের জন্য রয়েছে অটোপ্লে নামের ফিচার।

তবে ফিচারটি অনেক সময় বিরক্তিও তৈরি করে। অনেক ক্ষেত্রে তাই এটি বন্ধ রাখতে হয়। সেই উপায়ও যুক্ত আছে ইউটিউবে। ওয়েব ব্রাউজার ও অ্যাপে এটি বন্ধের উপায় একেক রকম।

কিভাবে মোবাইল ও ডেস্কটপ কম্পিউটারে ইউটিউবের অটোপ্লে ফিচার বন্ধ করতে হবে তা তুলে ধরা হলো এ টিউটোরিয়ালে।

youtube-tips-techshohor

আইওএস ও অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসে
স্মার্টফোন বা ট্যাবে সহজে ভিডিও দেখতে ইউটিউবের অ্যাপ রয়েছে। আওএস ও অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমে ব্যবহৃত অ্যাপ প্রায় একই। তাই অটোপ্লে বন্ধের কৌশল দুই অপারেটিং সিস্টেমে একই।

দুই পদ্ধতিতে মোবাইল অ্যাপ থেকে অটোপ্লে অপশনটি বন্ধ করা যায়।

প্রথমে ইউটিউব অ্যাপের সেটিংসে যেতে হবে। তারপর জেনারেল অপশনে যেতে হবে। সেখানে ‘autoplay’ নামক অপশনটিতে আনচেক করে দিতে হবে।

youtube-tipss-techshohor

দ্বিতীয় পদ্ধতিটি বেশ সহজ। অ্যাপে যে কোনো ভিডিও চালু করে ভিডিওয়ের নিচে আপ নেক্সট অপশনের পাশে অটোপ্লে ফিচারটি আনচেক করে দিলেই হবে।

ওয়েব ব্রাউজারে
মোবাইলে অ্যাপ্লিকেশনের মতই ওয়েব ব্রাউজারে কোনো ভিডিও প্লে করলে ডান দিকে ‘autoplay’ নামক অপশনটি দেখা যাবে। তাতে ক্লিক করলে আনচেক করে দিলেই হবে।

পুরনায় ফিচারটি চালু করতে একই পদ্ধতি অবলম্বন করে জাস্ট অপশনটি চেক করে দিকে হবে।

আরও পড়ুন 

হ্যাকের পর অপেরা মিনির সতর্কবাণী!

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : অপেরা নিশ্চিত করেছে প্রতিষ্ঠানটির সিঙ্ক সার্ভার ভেদ করে হ্যাকাররা ব্যবহারকারীদের পাসওয়ার্ড হাতিয়ে নিয়েছে।  তবে হ্যাকের পরে ওয়েব ব্রাউজারটি ব্যবাহারকারীদের সতর্ক করেছে।

নরওয়েভিত্তিক মোবাইলে ইন্টারনেট ব্রাউজার কোম্পানিটি তাদের সিঙ্ক সার্ভারের ক্রটি জানতে পেরে ব্যবহারকারীদের আগেও সতর্ক করেছিল বলে দাবি করেছে।

প্রতিষ্ঠানটির দাবি, তারা ওই হামলা খুব দ্রুত রোধ করতে পেরেছে। তবে কিছু ব্যবহারকারীর তথ্য হ্যাকারদের হাতে গিয়ে থাকতে পারে বলে মনে করছে তারা।

opera-mini-TechShohor
এই সপ্তাহের প্রথমদিকেই অপেরা সিঙ্ক সিস্টেম ব্যবহারকারীরা আক্রান্ত হয়েছে তা সনাক্ত করতে সক্ষম হয়েছিল বলে দাবি করেছে প্রতিষ্ঠানটি।

হামলাটি খুব দ্রুত রোধ করা সম্ভব হয়েছে এবং তদন্ত প্রক্রিয়া অব্যাহত রয়েছে বলে একটি ব্লগ পোস্টে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। তবে সেসময় যারা অপেরায় লগইন করেছিলো তাদের ইউজার আইডি এবং পাসওয়ার্ড খোয়া যেতে পারে বলেও ধারণা করছে প্রতিষ্ঠানটি।

তবে সতর্কতা হিসেবে অপেরা তাদের সিঙ্ক অ্যাকাউন্টের পাসওয়ার্ড রিসেট দিচ্ছে। ব্লগ পোস্টে অপেরা কর্তৃপক্ষ লিখেছে, তারা ইতোমধ্যেই অপেরা সিঙ্ক ব্রাউজার ব্যবহারকারীদের কাছে ই-মেইল পাঠিয়েছে। তারা এ ধরনের ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ করে তাদের পাসওয়ার্ড বদল করতে অনুরোধ জানিয়েছে। তবে শুধু অপেরা সিঙ্ক ব্যবহারকারীদের নয়, অন্য তৃতীয় পক্ষের মাধ্যমে যারা এটি ব্যবহার করে সেসব পাসওয়ার্ডও রিসেট দিতে বলেছে কর্তৃপক্ষ।

টাইমস অব ইন্ডয়া অবলম্বনে ইমরান হোসেন মিলন

নিরাপত্তা ঝুঁকিতে ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার ব্যবহারকারীরা!

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : নিরাপত্তা ঝুঁকিতে রয়েছে সফটওয়্যার জায়ান্ট মাইক্রোসফটের বিশ্বজুড়ে জনপ্রিয় ওয়েব ব্রাউজার ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার এর ব্যবহারকারীরা।

২০১৪ সালের আগস্টে ওয়েব ব্রাউজার ইন্টারনেট এক্সপ্লোরারের নিরাপত্তা আপডেট ও টেকনিক্যাল সহযোগিতা বন্ধ করে দেওয়ার ঘোষণা দেয় সফটওয়্যার জায়ান্ট প্রতিষ্ঠানটি।

এরপর থেকেই নিরাপত্তা ঝুঁকিতে পড়ে ওয়েব ব্রাউজার ইন্টারনেট এক্সপ্লোরারের ৮, ৯ ও ১০ ভার্সন। যুক্তরাজ্য ভিত্তিক অনলাইন টেকনোলজিক্যাল নিউজ সাইট কম্পিউটার ওয়ার্ল্ড এর মতে বিশ্বজুড়ে এখানো ৩৪০ মিলিয়ন ব্যবহারকারী রয়েছে ইন্টারনেট।

Internet-Explorer

মাইক্রোসফট জানিয়েছে ব্যবহারকারী চাইলে তাদের ওয়েব ব্রাউজারটির পুরনো সংস্করণটি ডেক্সটপে ব্যবহার করতে পারবেন। সে ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে কোন রকম নিরাপত্তা আপডেট দেওয়া হবে না।

তবে ব্যবহারকারীদের ইন্টারনেট এক্সপ্লোরারের আপডেট ওয়েব ব্রাউজার ভার্সন ১১ ব্যবহাররের পরামর্শ দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

গত বছর মাইক্রোসফটের সর্বশেষ কম্পিউটার অপারেটিং সিস্টেম উইন্ডোজ ১০ এর সঙ্গে এজ নামে ওয়েব ব্রাউজার উন্মুক্ত করে মার্কিন প্রতিষ্ঠানটি। এরপর থেকেই পুরনো ভার্সনগুলো ব্যবহাররের বিষয়ে ব্যবহারকারীদের নিরুৎসাহিত করছে মাইক্রোসফট।

বাজার গবেষণা প্রতিষ্ঠান নেট মার্কেট শেয়ারের মতে বিশ্বজুড়ে ওয়েব ব্রাউজারের মধ্যে ৫৭ শতাংশ ব্যবহারকারী নিয়ে শীর্ষে মাইক্রোসফটের ওয়েব ব্রাউজার ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার।

এছাড়া অন্য ওয়েব ব্রাউজারের মধ্যে সার্চ জায়ান্ট গুগলের ক্রোম ব্যবহার করছেন বিশ্বের ২৫ শতাংশ ব্যবহারকারী, মোজিলার ফায়ারফক্স ১২ শতাংশ ও টেক জায়ান্ট অ্যাপলের সাফারি ব্যবহার করছেন ৫ শতাংশ ব্যবহারকারী।

বিবিসি অবলম্বনে সৌমিক আহমেদ

হালনাগাদ সংস্করণ এলো ইউসি ওয়েব ব্রাউজারের

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ইউসি ওয়েব ব্রাউজারের নতুন দুটি হালনাগাদ সংস্করণ এনেছে ইউসি ওয়েব। অ্যাপলের আইওএস ও উইন্ডোজ ডেস্কটপ ব্রাউজার হিসেবে সংস্করণ দুটি আনা হয়েছে।

বর্তমানে প্রচলিত বিভিন্ন ট্রেন্ড অনুযায়ী নানান ডিভাইসে ব্যবহার উপযোগী করে ব্রাউজারটি তৈরি করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে ইউসি ওয়েবের ব্যবসা বিভাগের কর্মকর্তা কেনি ওয়াইহি বলেন, দিনের বেশিরভাগ সময় আমাদের নানা ডিজিটাল ডিভাইসের সংস্পর্শে কাটে। ইউসি ব্রাউজার বিভিন্ন প্ল্যাটফর্মে উন্নত অভিজ্ঞতা দেবে।
UCWeb

নতুন সংস্করণ দুটি ক্লাউড সেবা ব্যবহারের সুবিধা দেবে। এর মাধ্যমে ব্রাউজিংয়ে কম ডেটা খরচ হবে।

ইউসি ওয়েবের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে, হালনাগাদ সংস্করণের ব্রাউজারটি ৫০ শতাংশ পর্যন্ত ডেটা সংকোচন করবে।

ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস টাইমস অবলম্বনে আহমেদ মনসুর

শেষ হয়ে আসছে ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার যুগ

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : নতুন একটি ওয়েব ব্রাউজার নিয়ে কাজ করছে সফটওয়্যার নির্মাতা প্রতিষ্ঠান মাইক্রোসফট।

ওয়েব ব্রাউজারটির কোড নাম প্রোজেক্ট স্পারটান। ব্রাউজারটি উইন্ডোজ ১০ এর জন্য বিশেষভাবে তৈরি করা হচ্ছে।

সফটওয়্যার বাজারে সারা বিশ্বে ব্যাপক সাফল্য পাওয়া মাইক্রোসফট ওয়েব ব্রাউজার ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার এক রকম ফ্লপ সফটওয়্যার বলা যায়।

exporar

নতুন ওয়েব ব্রাউজারটির আগমনের খরবে প্রযুক্তি বিশ্বে গুঞ্জন কি হতে যাচ্ছে মাইক্রোসফটের ইন্টারনেট এক্সপ্লোরারের ভবিষ্যৎ। অনেকেই বলছেন বন্ধ হয়ে যেতে পারে ব্রাউজারটি।

তবে মাইক্রোসফটের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন বন্ধ হচ্ছে না ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার। উইন্ডোজ ১০ এর জন্য কৌশলগত দ্বিতীয় ব্রাউজার হিসেবে থাকবে ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার ব্রাউজারটি।

মাইক্রোসফটের পরবর্তী প্রজন্মের ব্রাউজার তৈরি করছে প্রোজেক্ট স্পারটান। নতুন একটি নামের মাধ্যমে ব্রাউজারটি মোড়কউন্মোচন করা হবে বলে জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

নতুন ডিজাইনের ব্রাউজারটিতে থাকবে রেন্ডারিং ইঞ্জিন। যুক্ত থাকবে মাইক্রোসফটের ভার্চুয়ার এসিসটেন্ট করটানা।

উইন্ডোজ ১০ এর সঙ্গে বাজারে ছাড়া হবে মাইক্রোসফটের প্রোজেক্ট স্পারটানের নতুন ওয়েব ব্রাউজারটি।

টাইমস অব ইন্ডিয়া অবলম্বনে সৌমিক আহমেদ

আরও পড়ুন:

ভিন্ন নামে হলেও টিকে থাকতে চায় ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার

বন্ধ হওয়ার পথে ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার!

বিশেষ ফিচারের ব্রাউজার ভিভালডি

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : অপেরার নিজস্ব ব্রাউজার থাকার পরও ভিভালডি নামে নতুন এক ব্রাউজার এনেছেন প্রতিষ্ঠানটির সফটওয়্যার বিভাগের প্রাক্তন নির্বাহী জন ভন টেচনার। এতে ব্যক্তিগত নোট ও স্ক্রিন শটে বুকমার্ক রাখা এবং একাধিক গ্রুপ ও ফোল্ডার তৈরির মতো বিশেষ বিশেষ ফিচার থাকবে বলে জানিয়েছেন এই সফট বিশেষজ্ঞ।

মূলত যারা ঘন ঘন নেট ঘাঁটেন এবং ব্রাউজার থেকে বেশি কিছু পেতে চান তাদের জন্য তৈরি আনা হয়েছে ভিভালডি।

রয়টার্সকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে টেচনার জানিয়েছেন, ডেস্কটপের জন্য ব্রাউজারটি ২৭ জানুয়ারি উন্মুক্ত করা হয়। প্রাথমিকভাবে উইন্ডোজ, লিনাক্স ও ম্যাক প্ল্যাটফর্মে এটি ব্যবহার করা যাচ্ছে।

vivaldi

টেচনার আরও জানান, স্মার্টফোন ও ট্যাব ভার্সন তৈরি হয়ে গেলে ভিভালডি চূড়ান্তভাবে চালু করা হবে।

২০১১ সালে অপেরা ত্যাগ করেন টেচনার। এরপর ভিভালডি ডটনেট নামে একটি সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট তৈরি করেন। এর নামকরণ করা হয় অ্যান্টনি ভিভালডি নামের এক গীতিকারের নামানুসারে। নতুন ব্রাউজারে সেই নামটাই অক্ষুণ্ণ রাখা হয়েছে।

পিসি ওয়ার্ল্ড অবলম্বনে আহমেদ মনসুর

মোবাইল ব্রাউজারে সেরা ইউসি

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : কোন অপারেটিং সিস্টেমের ডিফল্ট ওয়েব ব্রাউজার না হয়েও জনপ্রিয়তার শীর্ষে রয়েছে চীনভিত্তিক ইন্টারনেট সেবাদাতা কোম্পানির ইউসি ব্রাউজার। সম্প্রতি স্ট্যাটকাউন্টারের এক জরিপে এই তথ্য প্রকাশিত হয়।

সময়ের সাথে পাল্লা দিয়ে সারা বিশ্বে মোবাইল ব্যবহারকারীদের কাছে জনপ্রিয়তা পাচ্ছে ইউসি ব্রাউজারটি। বাংলাদেশে ১৩ দশমিক ১৪ শতাংশ ব্যবহারকারী এই ব্রাউজারটি ব্যবহার করে। ভারতের ব্যবহারকারী ২৩ শতাংশ। যা গত ২০১৩ সালের তুলনায় ১৪ শতাংশ বেশি।

uc webbroserগত বছর সার্চ বাজারে ১১দশমিক ১ শতাংশ নিয়ে ক্রোম, সাফারি ও অ্যান্ড্রয়েড ব্রাউজারের পরে চতুর্থ স্থানে ছিল ইউসি ব্রাউজার। তবে ইউসি ছাড়া অন্য ব্রাউজারগুলো নিজ প্রতিষ্ঠানের অপারেটিং সিস্টেমের সাথে ডিফল্ট দেয়া থাকে। সেই হিসেবে থার্ডপার্টি কোন ব্রাউজারের মধ্যে র্শীষে রয়েছে ইউসি।

মূলত দ্রুতগতি এবং ল্যাগ কম হওয়ার কারণে ব্যবহারকারীদের মন জয় করে নিয়েছে এই ব্রাউজারটি। এছাড়া ইন্দোনেশিয়ার বাজারে ব্রাউজারটির দখলে রয়েছে প্রায় ২০ শতাংশ।

এনডিটিভি অবলম্বনে তুসিন আহমেদ 

 

গুগল ক্রোমে বাংলা দেখা সমস্যার সমাধান

তুসিন আহমেদ, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : জনপ্রিয় ওয়েব ব্রাউজার গুগল ক্রোম সম্প্রতি নতুন আপডেট এনেছে। তবে আপডেট দেওয়ার পর ক্রোম ব্রাউজারের সাহায্যে বাংলা দেখতে সমস্যা হচ্ছে অনেক ব্যবহারকারীর। যুক্তবর্ণ ভেঙ্গে যাচ্ছে এবং ‘আকার’ ‘ই-কার’ প্রভৃতিও এলোমেলো হয়ে যাচ্ছে।

বাংলা দেখার এ সমস্যার সমাধান কিভাবে করতে হবে তা এ টিউটোরিয়ালে  তুলে ধরা হলো।

প্রথমে ক্রোম ব্রাউজারের মেন্যু থেকে সেটিংসে যেতে হবে।

গুগল-টেকশহর
এরপর ‘শো অ্যাডভান্সড সেটিংস’ সিলেক্ট করতে হবে।

2
তারপর ‘কাস্টমাইজ ফন্ট’- এ ক্লিক করলে নতুন একটি মেন্যু আসবে।

3

সেখান থেকে ‘Standard Font’  অপরিবর্তিত রেখে নিচের ‘Serif Font’ ও ‘Sans-serif Font’ পরিবর্তন করে ‘Siyam Rupali’ নির্বাচন করে ‘Done’ বাটনে ক্লিক করতে হবে।

যদি অভ্র ইন্সটল না থাকে  তাহলে এখান থেকে ফন্টটি ডাউনলোড করে নেয়া যাবে।

সব কাজ শেষ হলে ব্রাউজটারটি রিস্টার্ট দিলেই বাংলা দেখে যাবে কোনো সমস্যা ছাড়াই।

আরও পড়ুন

ক্রোম ব্রাউজারে বেশি র‍্যাম দখল সমস্যার সমাধান

ক্রোমবুকে চলবে অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপস

ক্রোমে বুকমার্ক ব্যাকআপ ও রিস্টোর করা

উইন্ডোজের জন্য ৬৪ বিটের ক্রোম ব্রাউজার উন্মুক্ত

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : উইন্ডোজ ৭ ও ৮ এর জন্য অবশেষে ৬৪ বিটের ক্রোম ব্রাউজার উন্মুক্ত করল গুগল। এবার সকলের জন্য সব চ্যানেলে এটি পুরোপুরি উন্মুক্ত করা হয়েছে।

গত জুলাইতে গুগল প্রথমে ৬৪ বিটের ক্রোম ব্রাউজারটির বেটা সংস্করণ আনলেও তা মূলত নির্মাতা এবং প্রজেক্টটির উন্নয়নের জন্য কর্মরত কর্মীরা ব্যবহার করতে পারতেন। এবার নতুন গতির এ সেবা সবাই ব্যবহার করতে পারবেন।

তবে উইন্ডোজে ৬৪ বিটের ক্রোম ব্রাউজারটির সুবিধা পেতে এটি নতুন করে ডাউনলোড করতে হবে।

আরও পড়ুন : কাজের কাজী পাঁচ ওয়েব ব্রাউজার

google-kids-techshohor

 

গুগল জানিয়েছে, ৬৪ বিটের ক্রোম ব্রাউজারটির গতিতে উন্নয়ন ঘটাতে গ্রাফিক্স ও মিডিয়া বেঞ্চমার্ক যুক্ত করা হয়েছে। এর মধ্যে সংযুক্ত ভিপি৯ কোডেক ইউটিউব ভিডিও দেখতে ১৫ শতাংশ গতি বাড়বে। তা ছাড়া বিভিন্ন নিরাপত্তা ঝুঁকি এড়াতেও এটি কার্যকর হবে।

সর্বশেষ প্রযুক্তি এবং কম্পাইলার অপটিমাইজেশন ৬৪ বিটের ব্যবহার ক্রোম ভার্সনটির গতি উইন্ডোজ ৩২ বিটের তুলনায় অনেক বেশি হবে। এতে যুক্ত করা হয়েছে একটি আধুনিক নির্দেশনা এবং একটি কলিং কনভেনশন যা গ্রাহককে দ্রুত নিবন্ধনের সুবিধা দিবে।

উইন্ডোজ ৮ এর জন্য ৬৪ বিটের নতুন সংস্করণটিতে হাই এন্ট্রপি এএসএলআর ফিচার যুক্ত করা হয়েছে, যা আত্মরক্ষার্থে জেডআইটি স্প্রের কৌশল গ্রহণে সক্ষম।

গুগল জনিয়েছে, অদূর ভবিষ্যতে আপডেটেড ব্রাউজারটি ৩২ বিট চ্যানেলের জন্যও সমর্থণযোগ্য কবে তোলা হবে। তবে উইন্ডোজ ৬৪ বিট চ্যানেলটি কবে ডিফল্ট অপশনে ব্যবহৃত হবে তা এখনও জানায়টি টেক জায়ান্টটি।

নতুন সংস্করণটি ডাউনলোড করা যাবে এ ঠিকানা থেকে।

– দ্য নেক্সট ওয়েব অবলম্বনে ফখরুদ্দিন মেহেদী

আরও পড়ুন

গুগল ক্রোমের ৬৪ বিটের বেটা সংস্করণ উন্মুক্ত

ব্রাউজারে ডিফল্ট সার্চ ইঞ্জিন যুক্ত করা

টর হ্যাকের চেষ্টা : গোয়েন্দাদের ঠেকাচ্ছে গোয়েন্দারাই

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর :  ব্রিটিশ ও মার্কিন গোয়েন্দা এজেন্টরা ‘ডার্ক ওয়েব’ হ্যাক করার চেষ্টা করলেও সহকর্মীদের কারণে সফল হচ্ছেন না তারা। সংস্থার ভেতর থেকে আগে ভাগে টের পেয়ে তথ্য জানিয়ে ইন্টারনেটের লুকানো জগতকে টিকিয়ে রাখতে সাহায্য করছেন তারা।

এ ডার্ক ওয়েব ব্রাউজারটির নাম টর, গোপন বা নিষিদ্ধ ওয়েবসাইটে নাম ও পরিচয় লুকিয়ে ঢোকার জন্য এটি ব্যবহার করা হয়।

জানা গেছে, দুই দেশের দুটি গোয়েন্দা সংস্থার নির্দেশে যেসব গোয়েন্দা টরকে কাবু করতে বিভিন্ন উপায় খুঁজছেন তারা অন্য সহকর্মীদের তাচ্ছিল্যের শিকার হচ্ছেন।

টর নামের এ ব্রাউজার কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, গোয়েন্দারা তাদের সিস্টেমে ত্রুটি খোঁজার চেষ্টা করলেও তাদেরই একটি অংশ সাহায্য করছেন। ত্রুটির খবর পৌঁছে দিচ্ছেন টর কর্তৃপক্ষের কাছে।

আরও পড়ুন : ফেইসবুক-ইউটিউবে নজরদারি করছে ব্রিটিশ গোয়েন্দারা

_77102710_f8eb1952-8927-4055-a7d0-bb6842a276f0

গোয়েন্দা সংস্থাগুলো অবশ্য এ ব্যাপারে সরাসরি কোনো মন্তব্য করতে রাজি হয়নি।

ব্রিটিশ সংবাদ সংস্থা বিবিসির সঙ্গে এক সাক্ষাতকারে এসব তথ্য জানান টর প্রজেক্টের অপারেশনের দায়িত্বে থাকা অ্যান্ড্রু লিউম্যান। তিনি জানান, মার্কিন ও ব্রিটিশ গোয়েন্দা জিচিএইচকিউ ও এনএসএ’র ভেতর থেকে তারা সাহায্য পাচ্ছেন। ফলে ত্রুটি সংশোধন করে ব্যবহারকারীদের গোপনীয়তা বজায় রাখতে পারছেন তারা।

টর প্রজেক্টের সফটওয়্যার প্রকৌশলী হিসেবে লিউম্যানদের কাজ হচ্ছে ব্যবহারকারীদের ইন্টারনেট অ্যাক্টিভিটি যাতে ট্র্যাক না করা যায় তার ব্যবস্থা করা। সাধারণভাবে যাওয়া যায় না, এমন অনেক নিষিদ্ধ ও অবৈধ ওয়েবসাইটে যেতেও এটি ব্যবহার করা হয়।

‘ডার্ক ওয়েব’ নামে পরিচিত এসব সাইটে শিশু পর্নোগ্রাফি, শিশুদের নির্যাতনের চিত্র, মাদক বেচাকেনা, অস্ত্র বেচাকেনা ইত্যাদি অবৈধ কাজ দেখা যায়।

লিউম্যান জানান, প্রতি মাসে তারা নিরাপত্তা সংস্থার সূত্র থেকে গুরুত্বপূর্ণ বাগ ও ত্রুটির কথা জানতে পারছেন। যেগুলো সংশোধন করতে না পারলে হয়ত টর চালিয়ে যেতে পারতেন না।

তিনি বলেন, উইলিয়াম বিনি নামের সাবেক এক এনএসএ কর্মকর্তা তাকে জানিয়েছিলেন নাগরিকদের উপর নজরজারি অনেক এনএসএ কর্মী পছন্দ করেন না। তাই তারা গোপনে টরের মতো প্রজেক্টগুলোকে সহায়তা করছেন।

এ ব্যাপারে এনএসএর এক কর্মকর্তার কাছে জানতে চাইলে এ বিষয়ে তাদের কিছু বলার নেই বলে উল্লেখ করেন।

এসব ব্যপারে কিছু বলা তাদের নীতিমালার পরিপন্থী বলে মন্তব্য করেন অপর গোয়েন্দা সংস্থা জিসিএইচকিউর এক মুখপাত্র।

এর আগে এনএসএর সাবেক কর্মী এডওয়ার্ড স্নোডেনের ফাঁস করা তথ্য থেকে জানা গিয়েছিল, সন্ত্রাস প্রতিরোধ কার্যক্রমের অংশ হিসেবে এ দুই এজেন্সি টর প্রজেক্ট বন্ধ করার জোর প্রচেষ্টা চালাচ্ছে।

এ সংক্রান্ত এক নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞ জানিয়েছেন, লিউম্যানের দেওয়া তথ্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলো ব্যাপারটি অত্যন্ত গুরুত্বের সাথে নেবে।

-বিবিসি থেকে শাহারিয়ার হৃদয়

আরও পড়ুন

ইন্টারনেট জগৎদূষিত করছে গুগল

অ্যাপের মাধ্যমে তথ্য নিচ্ছে মার্কিন গোয়েন্দারা

মার্কিন টিভি চ্যানেলে সাক্ষাৎকার দিলেন স্নোডেন