ভ্রমণ সহায়ক ৫ অ্যাপ

তুসিন আহমেদ, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : পরিবারের সঙ্গে ঈদ উদযাপনের পরের দিন থেকে অনেকেই রাজধানীর বাইরে ছুটি কাটাতে যেতে চান। সামাজিকতা শেষে ঢাকাতেও ঘুরে বেড়াতে চান অনেকে। কোথায় যাবেন এমন গন্তব্যের পরিকল্পনা এখনও যাদের করা বাকি তাদের কাজে লাগবে বেশ কিছু অ্যাপ।

স্মার্টফোনের এ যুগে অ্যাপের মাধ্যমে জেনে নিতে পারবেন দেশে ও দেশের বাইরে ঘুরতে যাওয়ার বিভিন্ন ভ্রমণ স্থান সম্পর্কে।

আপনার ভ্রমণ পরিকল্পনা সাজাতে ও ভ্রমণে কাজে লাগতে পারে এমন পাঁচ অ্যাপ সম্পর্কে জানাতে এ প্রতিবেদন।

Google as Travel guide-2-TechShohor

ট্রিপনারি
আপনি নিশ্চয়ই ঘুরে বেড়াতে পছন্দ করেন। জানতে চান নতুন ভ্রমণ স্পট সম্পর্কে।সেখানে যাওয়া-আসাসহ আনুষঙ্গিক খরচইবা কেমন হতে পারে, সেটিও জানতে চান।

এমন সব প্রশ্নের উত্তরের খোঁজে ইন্টারনেট চষে বেড়াচ্ছেন কিংবা ভ্রমণবিষয়ক সাইট, সংবাদপত্র, ম্যাগাজিন ঘুরে ঘুরে তথ্য খুঁজছেন। তাদের জন্য সুখবর হলো  ভ্রমণবিষয়ক নিত্য নতুন তথ্য ও প্রশ্নের সমাধান নিয়ে হাজির হয়েছে ‘ট্রিপনারি’।

অ্যাপটির দারুণ ইন্টারফেস এক নজরেই পছন্দ হবে। ব্যবহারকারীরা ভ্রমণের জন্য নতুন স্থান আবিষ্কার করতে পারবেন। এটির মাধ্যমে ভ্রমণের জন্য পছন্দসই জায়গাটি বাছাই করে রাখা যাবে।

ট্রিপনারি ওই জায়গার ভ্রমণ ব্যয় কমে এলে ব্যবহারকারীকে তা নিজে থেকেই অবহিত করবে। এটিতে একই সঙ্গে রয়েছে নির্দিষ্ট সীমার মধ্যে ভ্রমণ বাজেট বানানোর অপশনও।

অফলাইনেও কাজ করবে এটি। বর্তমানে আইওএস ডিভাইসের জন্য অ্যাপ্লিকেশনটি রয়েছে। তবে ডেভেলপার প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে, দ্রুত তারা অ্যান্ড্রয়েডের জন্যও সংস্করণ বানাবে।

এ ঠিকানা থেকে এটি ডাউনলোড করা যাবে।

বিডি ট্যুর গাইড
দেশের বিভিন্ন দর্শনীয় স্থানের তথ্য পাওয়া যায় এ অ্যাপে। কিভাবে এসব স্থানে যেতে হবে, কোথায় থাকতে হবে, যেতে কতক্ষণ লাগবে ইত্যাদি সব তথ্য জানা যাবে অ্যাপটির মাধ্যমে।

চলতি পথে ভ্রমণসংক্রান্ত অনেক সমস্যার সমাধানও মিলবে এতে। রয়েছে সার্চ সুবিধা।

পছন্দের স্থানের নাম লিখে সার্চ করা যাবে। ইন্টারনেট ছাড়াও সম্পূর্ণ অফলাইনে কাজ করবে অ্যাপটি।

অ্যাপটিতে রয়েছে টেক্সট কপি ও তা শেয়ার করার সুবিধা।

বাংলায় তৈরি অ্যাপটি এ ঠিকানা থেকে ডাউনলোড করে ব্যবহার করা যাবে।

ঢাকার দর্শনীয় স্থান
ঐতিহ্যের কারণে রাজধানী ঢাকায় রয়েছে অনেকগুলো দর্শনীয় স্থান। এ স্থানগুলো কবে বন্ধ বা কবে খোলা, তা জানা না থাকায় অনেকেই অসময়ে সেখানে গিয়ে বিপাকে পড়েন।

‘ঢাকার দর্শনীয় স্থানসমূহ’ নামের অ্যাপ থেকে জানা যাবে স্পটগুলোর নির্দিষ্ট সময়সূচি।

একই সঙ্গে জানা যাবে জাতীয় জাদুঘর, চিড়িয়াখানা, লালবাগ কেল্লা, আহসান মঞ্জিলের মতো দশর্নীয় স্থানের ইতিহাস ও সময়সূচি।

স্পটভেদে টিকিটের মূল্য কত সেটাও জানা যাবে অ্যাপটি থেকে। অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারীরা বিনা মূল্যে অ্যাপটি এ ঠিকানা থেকে ডাউনলোড করে ব্যবহার করতে পারবেন।

Robi Traveler App-techshohor

রবি ট্রাভেলার
বিদেশ ভ্রমণকারীদের রোমিং সেবা দেওয়ার জন্য টেলিকম সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান রবি বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো চালু করেছে ‘রবি ট্রাভেলার’।

অ্যাপটির মাধ্যমে রবি গ্রাহকরা স্থানীয় ও রোমিং বিল, ব্যবহারের পরিমাণ, যে দেশে যাবেন সেখানকার রেটসহ বেশ কিছু তথ্য জানতে পারবেন।

এ ছাড়া এর মাধ্যমে আন্তর্জাতিক রোমিং সেবা গ্রহণসংক্রান্ত তথ্যাবলি ও রবি রোমিং হেলপলাইনেও যোগাযোগ করতে পারবেন।

অ্যাপটি আপাতত অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহারকারীদের জন্য উন্মুক্ত করা হয়েছে। গুগল প্লের এ ঠিকানা থেকে এটি ডাউনলোড করা যাবে।

মেডিসিফাই
ঘোরাঘুরির আনন্দে সময়মতো ওষুধ খেতে ভুলে যান? কিংবা ভ্রমণকালে চিকিৎসকের সাক্ষাতের সময় ভুলে যাওয়ার আশংকা আছে?

এসব ছোটখাট কিন্তু গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ের সমাধান মিলবে ‘মেডিসিফাই’ নামের অ্যাপে।

ব্যবহারকারীর যখন যে তথ্যের দরকার হবে, সময়মত স্মার্টফোনের স্বয়ংক্রিয় অ্যালার্মের মাধ্যমে তা জানিয়ে দেবে মেডিসিফাই।

আইফোন বা অ্যান্ড্রয়েড ফোনে মেডিসিফাই অ্যাপটি ইনস্টল করার পর ওপরে ডানদিকের মেন্যু থেকে রোগীর তথ্য যোগ করা যাবে।

‘পেসেন্ট’ ট্যাবটি নির্বাচন করে খুব সহজে জন্ম তারিখ, রক্তের গ্রুপ লিখে আলাদা আলাদা রোগীর প্রোফাইল বানানো যাবে।

এসএমএস নোটিফিকেশন পাওয়ার জন্য মোবাইল নম্বর দিয়ে সেটা সক্রিয় করে দিলেই হবে। এ ঠিকানা থেকে অ্যাপটি ডাউনলোড করে নেওয়া যাবে।

ঈদ কার্ড তৈরি করুণ অ্যাপে

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ঈদ আনন্দের বড় অংশ জুড়ে এক সময় ছিল ঈদ কার্ড। পাড়ার মোড়ে মোড়ে দেখা মিলত ঈদ কার্ডের দোকান। ছোটদের পাশাপাশি বড়রাও প্রিয়জনদের শুভেচ্ছা জানাতে কার্ড কিনতেন। সব কিছু ডিজিটাল হওয়ার এই এক খারাপ দিক। হারিয়ে যাচ্ছে কিছু প্রিয় বিষয়।

আগের জায়গা দখল করেছে ডিজিটাল সংস্করণের কার্ড। ই-মেইলের চাইতেও এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশি আদান প্রদান হয় রঙিন সব ভার্চুয়াল কার্ড।

চাইলে আপনার প্রিয় মানুষটিকে নিজের তৈরি একটি সুন্দর কার্ড পাঠিয়ে দিতে পারেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বা মেইলে। এ জন্য ফোনে নামিয়ে নিন ‘ঈদ কার্ডস’ নামের অ্যাপ্লিকেশনটি।

 

এক নজরে অ্যাপটির ফিচারগুলো

১. অ্যাপটিতে রয়েছে ডিফল্ট ঈদের শুভেচ্ছা বার্তার ছবি। তাতে পছন্দমত টেক্সট যুক্ত করার সুবিধা রয়েছে।

২. এতে রয়েছে অনেক ধরনের ফ্রেম। এখান থেকে পছন্দ মতো ফ্রেম কার্ডে যুক্ত করে নেওয়া যাবে।

৩. অ্যাপটি ব্যবহার করে কার্ড ডিজাইন করা যাবে। কার্ডে বন্ধুদের নাম যুক্ত ও রঙ পরিবর্তন করে নেওয়া যাবে।

৪. অ্যাপটির ইউজার ইন্টারফেস বেশ সহজ। কার্ড তৈরির পর তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সহজেই শেয়ার করার সুবিধা রয়েছে।

৫. কার্ডটি চাইলে ফোনের ইন্টারনাল স্টোরেজেও সংরক্ষণ রাখা যাবে।

৪.৫ রেটিং প্রাপ্ত অ্যাপটি গুগল প্লে থেকে ১০ হাজারের বেশি ডাউনলোড হয়েছে। এ ঠিকানা থেকে অ্যাপটি ডাউনলোড করে ব্যবহার করা যাবে।

আরও পড়ুন

  • ঈদে নতুন রান্নার রেসিপির অ্যাপ

ঈদে নতুন রান্নার রেসিপির অ্যাপ

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : কয়েকদিন পরেই ঈদ। এ আনন্দের দিনে মায়েরা তৈরি করে অনেক মজাদার খাবার। চাইলে মাকে নতুন রেসিপি সম্পর্কে জানিয়ে আপনিও সাহায্য করতে পারেন।

নতুন রেসিপির বিষয়ে জানা থাকলেও চিন্তার কোনো কারণ নেই। স্মার্টফোনের অ্যাপই তা শিখিয়ে দেবে। এমন একটি অ্যাপ্লিকেশন হলো ‘ঈদের রেসিপি’।

এক নজরে অ্যাপ্লিকেশনটির ফিচারগুলাে
অ্যাপটিতে সম্পূর্ণ বাংলায় ঈদের রান্না বিষয়ক রেসিপি দেওয়া আছে।

এটির ইন্টারফেস বেশ সহজ। রান্নার নামের উপর ক্লিক করে সম্পূর্ণ রেসিপি দেখা যাবে।

চাইলে টেক্সট কপি করে তা শেয়ার করা যাবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

একবার ডাউনলোডের পরে ইন্টারনেট সুবিধা ছাড়াই সম্পূর্ণ অফলাইনে ব্যবহার করা যাবে।

অ্যাপটিতে বিজ্ঞাপন প্রদর্শিত হয়, যা অনেক ব্যবহারকারীদের কাছে বিরক্তের কারণ হতে পারে।

গুগল প্লেতে অ্যাপটি ৪.৪ হাজারের বেশি ডাউনলোড হয়েছে। ৫ রেটিং প্রাপ্ত অ্যাপটি বিনামূল্যে এ ঠিকানা থেকে ডাউনলোড করে ব্যবহার করা যাবে।

তুসিন আহমেদ

ভারতে জনপ্রিয় ১০ অ্যাপ

তুসিন আহমেদ, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : সারা বিশ্বে ইন্টারনেট ব্যবহার বৃদ্ধি পাশাপাশি মোবাইল অ্যাপ জনপ্রিয়তা পেয়েছে। হাতে থাকা স্মার্টফোনে অ্যাপ ব্যবহার করে সহজেই যেকোনো কিছু করে ফেলা যায়। সে কারণে অ্যাপের প্রতি ঝুঁকছে সববয়সী প্রযুক্তিপ্রেমী।

পার্শ্ববর্তী দেশ ভারত অ্যাপের একটি বড় একটি বাজার বলে পরিচিত। সে দেশের মানুষ কোন অ্যাপ সবচেয়ে বেশি ব্যবহার করেন তার উপর নির্ভর করে সম্প্রতি টাইমস অব ইন্ডিয়াতে ভারতের সেরা দশ অ্যাপ নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

হোয়াটসঅ্যাপ 
ভারতের সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত অ্যাপের নাম হোয়াটসঅ্যাপ। সম্প্রতি প্রকাশিত এক জরিপে জানা যায়, দেশটিতে ২০০ মিলিয়ন সক্রিয় হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারী রয়েছে। হোয়াটসঅ্যাপ জানিয়েছে ভারতে সবচেয়ে বেশি ফোনকল করা হয় এই সেবাটির মাধ্যমে। হোয়াটসঅ্যাপ মূলত একটি বার্তা আদান-প্রদানকারী ম্যাসেজিং অ্যাপ।

ফেইসবুক ম্যাসেঞ্জার
গত বছরে ভারতে সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত অ্যাপ প্রথমে ছিল ফেইসবুক ম্যাসেঞ্জার। তবে চলতি বছর হোয়াটসঅ্যাপের কাছে অবস্থান হারাতে হলো।

শেয়ারইট
এক ফোন থেকে আরেক ফোনে ফাইল আদান-প্রদানে জনপ্রিয় অ্যাপ শেয়ারইট। ভারতে বাজরে তৃতীয় অবস্থানে অ্যাপটি। গত বছরে অ্যাপটির অবস্থা ছিল ৫ নম্বরে। প্রতিষ্ঠানটির তথ্যমতে সারা বিশ্বে ১০০কোটির বেশি নিবন্ধিত গ্রাহক শেয়ারইট ব্যবহার করেন।

ট্রুকলার
বেশ দ্রুত জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে অ্যাপটি। এটির সাহায্যে অপরিচিত ফোন নম্বর থেকে কল আসলে কে ফোন করলো সেই সম্পর্কে জানা যায়। গত বছর ভারতে সবচেয়ে ব্যবহৃত অ্যাপের মধ্যে ১১তম অবস্থানে ছিল। চলতি বছর জনপ্রিয়তা ও ব্যবহারকারীদের ভিত্তিতে ৪ নম্বরে উঠে এসেছে।

ফেইসবুক
বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় ও শীর্ষস্থানে থাকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম অ্যাপটি রয়েছে পঞ্চম স্থানে। গেলো বছরে ফেইসবুক অ্যাপ শীর্ষ তিনে ছিল। বর্তমানে ভারতে ২১৩ মিলিয়ন মানুষ ফেইসবুক ব্যবহার করে।

ইউসি ব্রাউজার
চীনের জায়ান্ট প্রতিষ্ঠান আলিবাবার অধিগ্রহণকৃত ইউসি ব্রাউজার ভারতের ৬ নম্বরে রয়েছে। গেলো বছর ব্রাউজারটির অবস্থান ছিল ৪ নম্বরে। ইউসি ব্রাউজার অ্যান্ড্রয়েড, আইওএস ও উইন্ডোজ প্লাটফর্মে রয়েছে। ২০১৪ সাল থেকে অপেরা মিনিটে টপকে গ্রাহকদের কাছে জনপ্রিয়তা পেতে শুরু করে ব্রাউজারটি।

এমএক্স প্লেয়ার
ভিডিও দেখার অ্যাপ এমএক্স প্লেয়ার সপ্তাম অবস্থানে রয়েছে। গত বছর ১৩তম স্থানে ছিল জনপ্রিয়তার দৌঁড়ে।

হোস্টস্টার
অনলাইন ভিত্তিক স্ট্রিমিং প্লাটফর্ম হোস্টস্টারে প্রায় ৫০ হাজার ঘণ্টার অধিক ভিডিও রয়েছে আটটি ভাষার। ভারতে বাজারে অনলাইন স্ট্রিমিংয়ে ক্ষেত্রে এটি বেশ জনপ্রিয় এবং অষ্টম অবস্থানে রয়েছে।

জিওটিভি
এই অ্যাপে ৪৫৪টি টিভি চ্যানেল রয়েছে। সম্প্রতি অ্যাপটিতে ২২ নতুন চ্যানেল যুক্ত করেছে। এটি নয় নম্বরে রয়েছে ভারতের অ্যাপ বাজারে।

ফেইসবুক লাইট
দশ নম্বরে রয়েছে ফেইসবুক লাইট অ্যাপটি। কম গতির ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা অ্যাপটি ব্যবহার কর সহজেই সামাজিক মাধ্যমটি ব্যবহার করতে পারেন।

আরও পড়ুন:

  • ভিডিও চ্যাটের পাঁচ জনপ্রিয় অ্যাপ্লিকেশন
  • বছর সেরা অ্যাপ ফেইসবুক, শীর্ষ দশে নেই মাইক্রোসফট

ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের সব তথ্য মোবাইল অ্যাপে

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : নিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জন্য অ্যান্ড্রয়েড সংস্করণের মোবাইল অ্যাপ চালু করেছে ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি।

বৃহস্পতিবার মহাখালী ক্যাম্পাসের জিডিএলএন সেন্টার থেকে ‘BRACU Mobile’ অ্যাপটি গুগল প্লে স্টোরে আপলোড করেন ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর সৈয়দ সাদ আন্দালিব।

অ্যাপটি ব্যাবহার করে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষার ফলাফল, নোটিশ, ক্লাস রুটিন ও পরীক্ষার সূচি জানা যাবে।

BRACU-APP-TECHSHOHOR1

এছাড়াও অ্যাপটির মাধ্যমে গুরুত্বপূর্ন সংবাদ, টেলিফোন নং, ছবি, ভিডিও এমনকি ক্যাফেটেরিয়ার মেনু জেনে নিতে পারবে ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরা।

অ্যাপটির পুশ নটিফিকেশন সার্ভিসের মাধ্যমে কোন রকম চার্জ ছাড়াই বিনামূল্যে গুরুত্বপূর্ন আপডেট পাবে ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরা।

অ্যাপটির মাধ্যমে ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীদের তৈরি দেশের প্রথম ন্যানো স্যাটেলাইট ‘ব্র্যাক অন্বেষা’র নানা আপডেট পাওয়া যাবে।

শিক্ষার্থীদের মতামতের ভিত্তিতে অ্যাপটির আরও উন্নত সংস্করণ তৈরি করা হবে। খুব শীঘ্রই অ্যাপটির আইওএস সংস্করণ পাওয়া যাবে বলে জানিয়ছেন সংশ্লিষ্টরা।

অ্যাপটির  উদ্বোধনে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

ইমরান হোসেন মিলন

এলো গুগল ক্রোমের নতুন আপডেট

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ব্যবহারকারীদের জন্য নতুন সংস্করণ নিয়ে হাজির হলো গুগল ক্রোম। নতুন উইজেট,নিরাপত্তা আপডেট ও অনেকগুলো এপিআইয়ের উন্নতি সাধণ করা হয়েছে এতে।

প্রতিষ্ঠানটি এক ব্লগপোষ্টে গুগল ক্রোমের নতুন আপডেট সম্পর্কে জানায়। অ্যান্ড্রয়েড, ক্রোম ওএস, লিনাক্স, ম্যাক ও উইন্ডোজ ব্যবহারকারীরা নতুন সংস্করণটি ব্যবহার করতে পারবেন।

যুক্ত হওয়া নতুন সার্চ উইজেটটি ব্যবহার করে হোমস্ক্রিন থেকে ব্যবহারকারীরা সহজেই যে কোনো তথ্য খুঁজে বের করতে পারবেন। চাইলে হোম উইজেটের সাইজ সহজেই পরিবর্তন করে নিতে পারবেন ব্যবহারকারীরা।

নতুন সংস্করণে ওয়েব ব্রাউজ ও গুগল সার্চ করা করা যাবে আরও দ্রুত। এতে নতুন পেমেন্ট ও পাসওয়ার্ড এপিআই যুক্ত করা হয়েছে। ফলে এখন থেকে ডেস্কটপ ব্যবহারকারীরা পেমেন্ট রিকুয়েস্ট এপিআই ব্যবহার করতে পারবেন।

এছাড়া পেইন্ট টাইমিং এপিআই, সিএসএস ফ্রন্ট-ডিসপ্লে এপিআইয়ের যথেষ্ট আপডেট করা হয়েছে সংস্করণটিতে।

অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারীরা এই ঠিকানা, উইন্ডোজ ও ম্যাক ব্যবহারকারীরা এই ঠিকানা থেকে নতুন সংস্করণটি ব্যবহার করতে পারবেন। চাইলে ডেস্কটপ কম্পিউটারে ক্রোম ব্রাউজরের সেটিংস গিয়ে অ্যাবাউট থেকে নতুন সংস্করণটি আপডেট করে নেয়া যাবে।

গুগল ব্লগ অবলম্বনে তুসিন আহমেদ

পাসওয়ার্ড ভুলে যান?

তুসিন আহমেদ, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ইন্টারনেটের এই যুগে অনলাইনে বিভিন্ন ওয়েবসাইটে নিবন্ধন করার প্রয়োজন পরে।  নিরাপত্তার স্বার্থেই সব ওয়েবসাইটে একই পাসওয়ার্ড ব্যবহার করতে নিষেধ করেন বিশেষজ্ঞরা। একাধিক ওয়েবসাইটে নিবন্ধনের পাসওয়ার্ড মনে রাখা কঠিন। আবার ভুলে যাওয়া পাসওয়ার্ড উদ্ধার করতে গেলেও ঝামেলার শেষ নেই। এই সমস্যার সহজ সমাধান দিতে পারে লাস্টপাস পাসওয়ার্ড।

এক নজরে অ্যাপ্লিকেশনটির ফিচার সমূহ:
এটি মূলত একটি পাসওয়ার্ড ম্যানেজার সফটওয়্যার। যেকোনো ডিভাইসের সঙ্গে অ্যাপটি সহজেই সিনক্রোনাইজ করে নেয়।

ব্যবহারকারীদের সবগুলো অ্যাকাউন্টের আইডি পাসওয়ার্ড অ্যাপটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে নিরাপদে সংগ্রহ করে থাকে।

ফোনে ফিঙ্গারপ্রিন্টের সুবিধা থাকলে তা ব্যবহার করেই অ্যাপটি লক করে রাখা যাবে।

lostpass-techshohor

অ্যাপটির বিভিন্ন ক্যাটেগারিতে স্যোসাল মিডিয়া ও জনপ্রিয় সাইটগুলোর তালিকা রয়েছে। যে সাইটে ব্যবহারকারীদের ইউজার নাম ও পাসওয়ার্ড সংরক্ষিত আছে সেটি দেখানো হবে।

ফোনের পাশাপাশি অ্যাপটির সুবিধাগুলো কম্পিউটারের ব্যবহার করার জন্য ব্রাউজারে অ্যাডঅন ইন্সটল করে নিতে হবে।

অ্যাপটি গুগল প্লেস্টোর থেকে ১০ লাখেরও বেশি বার ডাউনলোড করা হয়েছে। ৪.৬ রেটিং প্রাপ্ত অ্যাপ্লিকেশনটি এই ঠিকানা থেকে বিনামূল্যে ডাউনলোড করা যাবে।

আরও পড়ুন: 

সেহরি-ইফতারের সঙ্গে নামাজের সময়ও জানাবে অ্যাপ

তুসিন আহমেদ, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : পবিত্র মাহে রমজানের অনেকটা পেরিয়ে গেছে। তবে ব্যস্ততার কারণে অনেকে হয়ত এখনও ইফতার ও সেহরির সময় জানতে অসুবিধায় পড়েন। বিশেষ করে যাত্রা পথে থাকলে বা শেষ বিকালে অফিসে থাকলে ওই দিনের ইফতারের সময় জানতে চান। তাদের জন্য ক্যালেন্ডার পকেটে রাখা মুশকিল। এমন ক্ষেত্রে স্মার্টফোনের একটি অ্যাপই সময় জানানোর কাজটি সহজ করে দেবে।

তেমনি একটি অ্যাপ ‘অ্যাপ অব রামাদান’। এটি ফোনে থাকলে ইফতার ও সেহরীর পাশাপাশি সারা বছরের নামাজের সময় সম্পর্কেও জানা যাবে।

এ অ্যাপ্লিকেশন তৈরি করেছে মেগামাইন্ডস ওয়েব এন্ড আইটি স্যুলশন।

 

apps-techshohor

এক নজরে অ্যাপ্লিকেশনটির ফিচারগুলো

অ্যাপ্লিকেশনটির হোম স্ক্রিনেই দেখা যাবে প্রতিদিনের সেহরি ও ইফতারের সময়।  একই সঙ্গে সময়ের কাউন্ট ডাউনও দেখা যাবে।

অ্যাপটিতে কুরআন শোনার ব্যবস্থা রয়েছে। কুরআনের সবগুলো সূরা এখানে অডিও আকারে দেওয়া রয়েছে।

ডিজিটাল তসবিহ নামে চমৎকার একটি ফিচার রয়েছে এতে। এর মাধ্যমে ব্যবহারকারীরা জিকিরের হিসাব রাখতে পারবেন। তসবিহ স্ক্রিনের উপর প্রতিবার ক্লিকের সংখ্যাটা দেখানো হয়। এ সংখ্যা রিসেট করে নেওয়ারও অপশন রয়েছে।

ধর্মীয় নানা বিষয়ে মাসয়ালা রয়েছে অ্যাপটিতে।

রমজানে খাদ্যাভ্যাসের বিষয়টি মেনে চলা জরুরি। কী ধরনের খারাপ খেলে শরীর সুস্থ থাকবে সেটিও অ্যাপ্লিকেশনটির সাহায্যে জানা যাবে।

এতে রয়েছে ইসলাম ধর্মের বিভিন্ন হাদিস। ইন্টারনেট ছাড়াও প্রতিদিন হাদিসের নোটিফিকেশন পাওয়া যাবে।

গুগল প্লেস্টোরে ৪.৮ রেটিং প্রাপ্ত অ্যাপ্লিকেশনটির ইতোমধ্যে দশ হাজার বারের মতো ডাউনলোড হয়েছে। এই ঠিকানা থেকে বিনামূল্যে অ্যাপ্লিকেশনটি ডাউনলোড করে নেওয়া যাবে।

অ্যান্ড্রয়েডে নতুন রূপে স্কাইপ

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর :  নতুন রূপে স্কাইপ হাজির হলো অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারীদের জন্য। স্কাইপ ৮ সংস্করণটি সম্পূর্ণ রিডিজাইন করা হয়েছে। এতে যুক্ত করা হয়েছে নতুন ইউজার ইন্টারফেস।

স্কাইপে চিরচেনা নীল রঙের পাশাপাশি নতুন সংস্করণটি রঙিন করে তোলা হয়েছে। এতে নতুন স্টিকার, টেক্সট রঙসহ নতুন ফিচার যুক্ত করা হয়েছে।

অ্যাপটির মূল স্ক্রিনের রয়েছে তিনটি ট্যাব। ট্যাবগুলোতে রয়েছে হাইলাইটস ফিচার, যা স্ন্যাপচ্যাটের স্টোরিজ ফিচারের মত এবং রয়েছে চ্যাট হিস্টোরি। অ্যাপের মূল স্ক্রিনের ডান দিকের ট্যাপের সাহায্যে ছবি তুলে তা তালিকায় থাকা বন্ধুদের পাঠানো যাবে এবং চাইলে তা হাইলাইটসে যুক্ত করা যাবে।

এছাড়া অন্য ফিচারটির পূর্বের সংস্করণের মতই রয়েছে। তবে যে সকল ব্যবহারকারীরা ফোনে স্কাইপের পুরাতন সংস্করণ ব্যবহার করতে গিয়ে বিরক্ত তাদের পছন্দ স্কাইপ ৮। এমনটাই ধারণা করছে প্রতিষ্ঠানটি।

শনিবার অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারীদের জন্য প্লেস্টোরে উন্মুক্ত করা হয়েছে এটি। এই ঠিকানা থেকে নামিয়ে ব্যবহার করা যাবে। আগামী সপ্তাহে আইওএস এবং চলতি মাসের শেষে ম্যাক ও উইন্ডোজ ব্যবহারকারীদের জন্য উন্মুক্ত করা হবে স্কাইপের নতুন সংস্করণটি।

উল্লেখ্য স্কাইপ ২০০৩ সালে বাজারে আসে। পরবর্তীতে অনলাইন ভিডিও কলিংয়ে জনপ্রিয়তা পায় এটি। ২০১১ সালে মাইক্রোসফট কর্পোরেশন ৮·৫ বিলিয়ন ডলারে স্কাইপ লিমিটেডকে কিনে নেয়।

জিএসএমএরিনা অবলম্বনে তুসিন আহমেদ

উবারের ২০ কর্মী বরখাস্ত

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : যৌন হয়রানির ঘটনায় ২০ কর্মীকে বরখাস্ত করেছে অ্যাপভিত্তিক ট্যাক্সিসেবা প্রতিষ্ঠান উবার।

বরখাস্ত হওয়া এসব কর্মীদের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানি ও কোম্পানির নিময় ভঙ্গের অভিযোগ ছিল। তদন্ত প্রক্রিয়ায় অভিযুক্তরা দোষী প্রমাণিত হওয়ায় মঙ্গলবার উবারের প্রধান কার্যালয়ে আয়োজিত এক স্টাফ মিটিংয়ে তাদেরকে  বরখাস্ত করার সিদ্ধান্ত জানায় প্রতিষ্ঠানটি।

যৌন হয়রানি ছাড়াও বৈষম্য, মানসিক হয়রানি, অপেশাদার আচরণ, উৎপীড়ন, প্রতিশোধ গ্রহণ করা ও অন্যায্য ছাঁটাইসহ মোট ২১৫টি অভিযোগের বিরুদ্ধে তদন্ত করে উবার।

UBER-20-fired-techshohor

অভিযোগের মাত্রার ভিত্তিতে ২০ কর্মীকে ছাঁটাই করা হয়। নিজেদের সংশোধনে অপর ৩১ কর্মীকে পাঠানো হয়েছে ‘বিশেষ’ প্রশিক্ষণে। শেষবারের মতো সতর্ক করা হয় ৭ কর্মীকে।

উল্লেখ্য, উবারে চাকরি করার সময় যৌন হয়রানির শিকার হন এক নারী প্রকৌশলী। তিনি সেই অপ্রীতিকর অভিজ্ঞতার কথা একটি ব্লগ পোস্টে লেখেন। সুসান ফ্লাওয়ার নামে সেই প্রকৌশলী লেখেন, অনেকবার অভিযোগ করার পরও কোম্পানি এর বিরুদ্ধে কোনো পদক্ষেপ নেয়নি। এরপরই যৌন হয়রানির অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে তদন্ত প্রক্রিয়া শুরু করে উবার।

কর্মীদের অভিযোগের সমাধান দিতে ব্যর্থ হওয়ায় কোম্পানিটির র্শীষ কয়েকজন কর্মকর্তা পদত্যাগ করেন। এরপরই উবারের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ত্রাভিস ক্যালানিক তদন্ত শুরু করার নির্দেশ দেন।

বিবিসি অবলম্বনে আনিকা জীনাত

অ্যাপ চালাতে সময় বাঁচানোর অ্যাপ

তুসিন আহমেদ, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : আপনি ফোনে উবার অ্যাপ্লিকেশনটি চালু করলেন। অ্যাপটি ব্যবহার করতে হলে জিপিএস বা ইন্টারনেট সংযোগ চালু করতে হবে। এ জন্য কিছুটা সময় ব্যয় হয়ে থাকে।

যদি এমন হয়, আপনি উবার অ্যাপ্লিকেশন চালু করার সঙ্গে সঙ্গেই বাকি অপশনগুলো স্বয়ংক্রিয়ভাবে চালু হয়ে গেল। তেমনি একটি অ্যাপ্লিকেশন হলো ‘অটোসেট’।

শুধু উবার নয়, অ্যাপটি ব্যবহার করে যে কোনো অ্যাপ চালুর সময় কি কি সেটিংস অন বা অফ থাকবে তা নির্ধারণ করে নেওয়া যাবে।

 

এক নজরে অ্যাপ্লিকেশনটির ফিচারগুলো

ওয়াই-ফাই, ব্লুটুথ, স্ক্রিন উজ্জ্বলতা, রোটেশন, মিডিয়া ভলিউম, সাউন্ড মুড, জিপিএস, হটস্পট ইত্যাদি ফিচারগুলো অ্যাপের সঙ্গে স্বয়ংক্রিয়ভাবে চালু ও বন্ধের নিয়ন্ত্রণ সুবিধা দেবে অ্যাপটি।

অ্যাপটির সাহায্যে ফোনে কোনো অ্যাপ্লিকেশন চালু করলে সেটিংস বা আর কোন অপশন চালু বা বন্ধ থাকবে তা নির্ধারণ করে দেওয়া যাবে।

এটি ব্যবহার করতে ইন্টারনেট সংযোগের প্রয়োজন হবে না। অফলাইনে কাজ করবে।

ফোনে থাকা প্রতিটি অ্যাপ্লিকেশন আলাদা করে নিয়ন্ত্রণ করা যাবে অ্যাপটির মাধ্যমে।

এতে রয়েছে টাইম সেটিংস সুবিধা ও শিডিউল নোটিফিকেশন সুবিধা।

গুগল প্লেতে ৪.৬ রেটিং প্রাপ্ত অ্যাপ্লিকেশনটি পাঁচ হাজারের বেশি ডাউনলোড হয়েছে।

অ্যাপটি পেতে হবে ব্যবহারকারীদের ব্যয় করতে হবে ১ দশমিক ৬৯ মার্কিন ডলার। এ ঠিকানা থেকে অ্যাপ্লিকেশনটি ডাউনলোড করা যাবে।

আরও পড়ুন