চীনে ওয়েব নজরদারিতে ২০ লাখ কর্মী

টেক শহর ডেস্ক : ইন্টারনেট ও ওয়েবভিত্তিক কার্যক্রম নিয়ন্ত্রণে চীনের জুড়ি নেই। দীর্ঘদিন থেকে নানাভাবে ইন্টারনেটের দুনিয়ায় নজরদারি চালাচ্ছে সরকার। সর্বশেষ চমকপ্রদ এক তথ্য প্রকাশ করেছে দেশটির সরকারি এক গণমাধ্যম। নতুন খবর অনুযায়ী বিশ লাখের বেশি কর্মী প্রতিনিয়ত নজর রাখছে সব ধরনের ওয়েবভিত্তিক কার্যক্রমে।

সরকার বিপুল এ জনশক্তিকে এ কাজে নিয়োগ দিয়েছে। বেইজিং নিউজের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইন্টারনেট মতামত বিশ্লেষক নামের এসব পর্যবেক্ষকরা সরকারি ও বাণিজ্যিকভাবে নিয়োগ পেয়েছেন। বিশ্লেষকরা বলছেন, ইন্টারনেটের ওপর নিয়ন্ত্রণ আরোপে দেশটির সর্বাত্মক চেষ্টার উদাহরণ এ চমকপ্রদ তথ্য।

China Monitor Microblogging site

চীনে মাইক্রোব্লগ ব্যবহার করে সরকারের সমালোচনা বা নিজেদের ক্ষোভ প্রকাশকারী ওয়েব ব্যবহারকারীর সংখ্যা প্রতিদিনই বাড়ছে। সাম্প্রতিক গবেষণায় দেখা গেছে, এ জন্য সামাজিক মাধ্যমগুলোকে লক্ষ্য করেই দেশটির সেন্সর কার্যক্রমে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। সরকার নিয়োজিত এসব পর্যবেক্ষকরা সামাজিক মাধ্যমগুলো থেকে কোনো পোস্ট বা মন্তব্য মুছে দিচ্ছেন না। তবে তারা এসব পোস্টে জনগণের মন্তব্য পর্যবেক্ষণের পর প্রতিবেদন তৈরি করে নীতিনির্ধারকদের কাছে প্রদান করছেন। প্রতিবেদনে এসব পর্যবেক্ষকরা একটি সফটওয়্যারের মাধ্যমে কিভাবে হাজার হাজার ওয়েবসাইট পর্যবেক্ষণ করে সেটিও তুলে ধরা হয়েছে। শুধু দেশের অভ্যন্তরে নয়, দেশের বাইরের ওয়েবসাইটও তারা নজরে রাখেন। এসব পর্যবেক্ষকদের জন্য সরকার চলতি মাসে পাঁচ দিনের এক প্রশিক্ষণেরও ব্যবস্থা করেছে।

বিবিসির চীনা সার্ভিসের কর্মী ডং লি বলেন, বিশ্বে ইন্টারনেট কার্যক্রমের মধ্যে চীনে সবচেয়ে বেশি নিয়ন্ত্রণ ও সেন্সর আরোপ করা হয়। পর্যবেক্ষণের পাশাপাশি ওয়েবসাইট ব্লক করে দেওয়ার ঘটনাও অহরহ ঘটে বলে তিনি উল্লেখ করেন। দেশটি কম সময়ই কিভাবে এসব নিয়ন্ত্রণ আরোপ করা হয় সে তথ্য প্রকাশ করে। খবর: বিবিসি

*

*

Top