Maintance

এক ক্লিকে দেশের সব আর্থিক প্রতিষ্ঠানের ঠিকানা

প্রকাশঃ ৪:২০ অপরাহ্ন, অক্টোবর ২৬, ২০১৩ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ৭:৩৯ অপরাহ্ন, অক্টোবর ২৭, ২০১৩

টেক শহর ডেস্ক : দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতে প্রতিদিন যোগ হচ্ছে নতুন সব সেবা। সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ রূপকল্প বাস্তবায়নে এগিয়ে আসছে বিভিন্ন সংস্থা ও প্রতিষ্ঠান। এরই অংশ হিসাবে চালু করা হয়েছে একটি নতুন ওয়েব পোর্টাল। এতে দেশের সব আর্থিক খাত সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের ঠিকানা তুলে আনা হয়েছে।

ব্যাংক, বীমা, ক্ষুদ্র ঋণ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান, ডাকঘর, বেসরকারি সংস্থাসহ (এনজিও) আর্থিক খাত সংশ্লিষ্ট সব ধরনের প্রতিষ্ঠানের ঠিকানার তথ্য মিলবে এ ওয়েবসাইটে। এসব প্রতিষ্ঠানের গ্রাহকদের জন্য প্রথমবারের মতো চালু করা হয়েছে এ ডিজিটাল সেবা। অফিসিয়ালি এটির নামকরণ করা হয়েছে ‘এ ডিজিটাল ম্যাপ অব ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস ইন বাংলাদেশ’।  শনিবার ব্যতিক্রমী এ সেবা কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর ড. আতিউর রহমান।

প্রাথমিকভাবে দেশের বিভিন্ন স্থানের ৬৫ হাজার ৫৩৪ প্রতিষ্ঠানের ঠিকানা নিয়ে এটি শুরু হয়েছে। এর মধ্যে ব্যাংক শাখা রয়েছে ৮ হাজার ৬৪১, ২ হাজার ৬৫ এটিএম বুথ, ১১ হাজার ৪৪৬ ক্ষুদ্র ঋণদানকারী প্রতিষ্ঠান,  ৩ হাজার ৭৯ ডাকঘর, ৩১ হাজার ৭৫৫ মোবাইল মানি এজেন্ট এবং অন্যান্য ৮ হাজার ৫৪৮টি আর্থিক সেবাদানকারী বিভিন্ন ধরনের প্রতিষ্ঠান। ব্যাংক বা যে কোনো প্রতিষ্ঠান নতুন করে শাখা খুললে এ ওয়েবসাইটে সেটির ঠিকানাও যুক্ত করা হবে।

বাংলাদেশ ব্যাংক ও মাইক্রোক্রেডিট রেগুলেটরি অথরিটির (এমআরএ) যৌথ উদ্যোগে ম্যাপটি (www.fspmaps.com) তৈরি করা হয়েছে।

আর্থিক খাতে ডিজিটাল সেবা দেওয়ার অংশ হিসাবে বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশনের অর্থায়নে এ ম্যাপটি তৈরি করা হয়েছে। এর ফলে দেশের কোথায় কোন ধরনের আর্থিক সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান রয়েছে তা সহজেই জানা যাবে।

ডিজিটাল ম্যাপ, টেক শহর

পোর্টালে গিয়ে একজন গ্রাহক কোনো উপজেলায় কতোটি এধরনের সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানের শাখা রয়েছে তা জানতে পারবে। সে ক্ষেত্রে তাকে প্রথমে ওয়েবপোর্টালের ‘জেলা’র ওপর ক্লিক করতে হবে। এর পর ওই জেলার সব উপজেলার নাম আসবে। তিনি যে উপজেলা সম্পর্কে তথ্য চান সেটি ক্লিক করলে ম্যপসহ এ ধরনের সব প্রতিষ্ঠানের তথ্য পাওয়া যাবে। ম্যাপে কোন প্রতিষ্ঠানটি কোথায় অবস্থিত, জেলা বা উপজেলা শহর থেকে তার দূরত্ব কতো তা জানা যাবে।

রাজধানীর মিরপুরে বাংলাদেশ ব্যাংক ট্রেনিং একাডেমিতে (বিবিটিএ) শনিবার এ ম্যাপের আনুষ্ঠানিক উন্মোচনের পর প্রধান অতিথির বক্তব্যে গভর্নর বলেন, এর মাধ্যমে ডিজিটাল আর্থিক সেবার আরও এক ধাপ অগ্রগতি হলো। এর আগে অনলাইনে আন্তব্যাংক পরিশোধ ব্যবস্থা, ই-কমার্স পদ্ধতি,  অনলাইনে ঋণ তথ্য ব্যুরো (সিআইবি), ন্যাশনাল পেমেন্ট সুইসসহ পেপারলেস বিভিন্ন সেবা চালু করা হয়েছে।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন মাইক্রোক্রেডিট রেগুলেটরি অথরিটির নির্বাহী ভাইস-চেয়ারম্যান খন্দকার মাজহারুল হক, ইনস্টিটিউট অব মাক্রােফাইন্যান্সের নির্বাহী পরিচালক অধ্যাপক বাকী খলীলী এবং ওয়েব ডিজাইনে সহায়তাকারী প্রতিষ্ঠান ব্র্যান্ড ফিউশন মার্কেটিং লিমিটেডের বিশেষ প্রকল্প ম্যানেজার গার্থ লয়েলস, বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রধান অর্থনীতিবিদ ড. হাসান জামান এবং বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশনের প্রোগ্রাম অফিসার জ্যাকে কেন্ডাল।

-আমিন রানা, টেক শহর ডেস্ক

*

*

Related posts/