নেপালে গ্রামীণ ইন্টেলের কৃষিনির্ভর সফটওয়্যার প্রশংসিত

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : নেপালের এগ্রিকালচারাল ডেভেলপমেন্ট মন্ত্রণালয়ের পাইলট প্রকল্পের মাধ্যমে কয়েকটি এলাকায় ই-এগ্রিকালচার প্রকল্প চালু করা হয়। এতে গ্রামীণ ইন্টেল সোশ্যাল বিজনেস অংকুর, মৃত্তিকা, প্রতিকার এবং বিস্তার নামে চারটি সফটওয়্যার ব্যবহৃত হচ্ছে। এ সেবা নেপালের সুখেট, পোখারি কাদা, মেহেলকুনা এবং উত্তরগংগাতে দেওয়া হচ্ছে।

যেহেতু এই অভিনব কৃষি ব্যবস্থা অনেকের কাছেই অপরিচিত, সেহেতু এর কার্যকারিতা সম্পর্কে ছিল অনেকেরই সন্দেহ। তবে নেপাল সরকারের সয়েল ম্যানেজমেন্ট ডিরেক্টরেটের সিনিয়র সয়েল সায়েনটিস্ট ড. চন্দ্র রিসাল সফটওয়্যার থেকে প্রাপ্ত তথ্য পর্যালোচনা করে দারুণ সন্তুষ্ট হন।

e-agriculture by grameen intel-TechShohor

বিশ্বের প্রথম আইটি সোশ্যাল বিজনেস কোম্পানি গ্রামীণ ইন্টেল সোশ্যাল বিজনেস লিমিটেড সম্প্রতি নেপালে একটি কর্মশালার আয়োজন করে। কর্মশালার সহযোগি হিসেবে ছিল নেপাল সরকারের হাই ভ্যালু এগ্রিকালচারাল প্রজেক্ট এবং ইন্টারন্যাশনাল ফান্ড ফর এগ্রিকালচারাল ডেভেলপমেন্ট। তথ্য প্রযুক্তি কিভাবে কৃষকদের অধিক ফসল উৎপাদনে সহায়তা করতে পারে তা নিয়ে এ কর্মশালায় আলোচনা করা হয়।

৯ ফেব্রুয়ারি থেকে নেপালের রিজিওনাল লাইভস্টক সার্ভিস ডিরেক্টরেটে অনুষ্ঠিত পাঁচদিনব্যাপি এ কর্মশালায় গ্রামীণ ইন্টেল সোশ্যাল বিজনেসের চিফ অপারেটিং অফিসার পাভেল হক, স্ট্যাটেজিক বিজনেস ডেভেলপমেন্ট ডিরেক্টর শ্রীনিভাস গারুদাচর, প্রজেক্ট অফিসার সাকিফ নাইম খানসহ প্রায় ৪০ জন কৃষক ও সামাজিক উদ্দোক্তা উপস্থিত ছিলেন।

ড. চন্দ্র রিসাল বলেন, “এই অভিনব কৃষি ব্যবস্থা কৃষকদের দারুণভাবে সাহায্য করতে পারে। এগুলো ব্যবহারের মাধ্যমে কৃষকদের কষ্ট করে দূর-দূরান্ত থেকে কৃষিবিদদের সাহায্য নিতে যেতে হবে না। এখন তারা খুব সহজেই নিজ গ্রামে বসেই কম্পিউটারের মাধ্যমে কৃষি সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্য সেবা পেতে পারেন।

e-agriculture workshop by grameen intel-TechShohor

গ্রামীণ ইন্টেল সোশ্যাল বিজনেসের চিফ অপারেটিং অফিসার পাভেল হক বলেন, “বর্তমানের প্রতিযোগীতামূলক বাজারে কৃষি ফলন বৃদ্ধিকরা দারুণভাবে প্রয়োজন। এই সফটওয়্যারগুলো নিয়ে আমরা দারুণভাবে আশাবাদী। নেপালে আমাদের এ সফটওয়্যারগুলো কৃষি ফলন বৃদ্ধিতে দারুণভাবে সহায়ক হবে বলে আমার বিশ্বাস।”

এই সফটওয়্যারগুলোর মাধ্যমে কৃষি বিষয়ক সকল প্রকার সহায়তা যেমন চারা বা অংকুর নির্বাচন, মাটির গুনাগুন পরীক্ষা এবং সার প্রয়োগের নিদের্শনা, চারা পরিচর্যা এবং বিক্রয়ের তথ্য সরবরাহ করবে। এগুলো ব্যবহার করা যায় যেকোন কম্পিউটারে। বর্তমানে বাংলাদেশসহ ক্যাম্বোডিয়া, মেসিডোনিয়া এবং ভারতে গ্রামীণ ইন্টেল সোশ্যাল বিজনেসের এই সফটওয়্যার ফসল উৎপাদনে সহায়তা করে চলেছে।

– বিজ্ঞপ্তি অবলম্বনে তুহিন মাহমুদ

Related posts

*

*

Top