এমএস ওয়ার্ডের বিকল্প : গুগল ডক

তুহিন মাহমুদ, টেক শহর স্টাফ কনটেন্ট কাউন্সিলর : কম্পিউটার ব্যবহার করেন অথচ মাইক্রোসফট ওয়ার্ড (এমএস ওয়ার্ড) ব্যবহার করেননি কিংবা নাম শোনেননি এমন লোকের সন্ধান পাওয়া কষ্টকর। তবে জনপ্রিয়তায় শীর্ষ এই প্রিমিয়াম ওয়ার্ড প্রসেসরটি পছন্দ না হলে অথবা কিনে ব্যবহার করতে না চাইলে বিকল্প ওয়ার্ড প্রসেসর রয়েছে। মাইক্রোসফট ওয়ার্ডের বিকল্প বিনামুল্যের কিন্তু প্রায় একই ফিচার সমৃদ্ধ কয়েকটি ওয়ার্ড প্রসেসর নিয়ে ধারাবাহিকভাবে জানানো হবে। আজ প্রথম পর্বে রয়েছে টেক জায়ান্ট গুগলের ‘গুগল ডক’ সম্পর্কে।

গুগল ডক
মাইক্রোসফট ওয়ার্ডের পরেই জনপ্রিয়তার শীর্ষে রয়েছে প্রযুক্তি জায়ান্ট গুগলের ওয়ার্ড প্রসেসর ‘গুগল ডক’। ওয়ার্ড, এক্সেল, পাওয়ারপয়েন্টসহ এমএস ওয়ার্ডের প্রায় সব ফিচারই রয়েছে এতে। তবে সফটওয়্যারটি অনলাইন নির্ভর। গুগল ড্রাইভের মাধ্যমে যে কোনো ব্যবহারকারী এই সফটওয়্যারটি ব্যবহার করতে পারেন। সর্বোচ্চ ১৫ গিগাবাইট পর্যন্ত ডকুমেন্ট তৈরি, আপলোড ও শেয়ার করার সুযোগ রয়েছে এতে।

Google-Docs-TechShohor

সাদামাটা ডিজাইন ও ব্যবহারবান্ধব গুগল ডক সহজেই অন্য ডিভাইসে সিনক্রোনাইজ করা যায়। ডকুমেন্ট যতখুশি ততবার সম্পাদনা করা যাবে এতে। গুগল ডক লেখার শুরু থেকেই প্রতিটি সম্পাদনা ও পরিবর্তন সংরক্ষণ করে রাখে। ফলে ভুলে কোনো কিছু মুছে ফেললে সেটি ফিরিয়ে আনা যায়। সফটওয়্যারটির সবচেয়ে ভালো ফিচার হলো এটি শেয়ারের মাধ্যমে একাধিক ব্যক্তি একই সাথে ব্যবহার, সম্পাদনা ও সংরক্ষণ করা যায়। নিজস্ব গ্রুপের সাথে চ্যাট করারও সুযোগ রয়েছে।

অনলাইনের পাশাপাশি অ্যাপল ও অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইনের ব্যবহারের জন্য গুগল ডকের অ্যাপসও রয়েছে। ব্যবহার করতে চাইলে drive.google.com এ যেতে হবে।

Related posts

*

*

Top