অ্যান্ড্রয়েডের দরকারি ৫ অ্যাপস

হাসান যোবায়ের, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসের জন্য অ্যাপস স্টোরে লাখ লাখ অ্যাপস রয়েছে। এর ভিতর থেকে কাজের অ্যাপস খুঁজে বের করা বেশ ঝামেলার এবং সময় সাপেক্ষ ব্যাপার। তাই পাঠকদের সুবিধার্থে দরকারি কিছু অ্যাপস সম্পর্কে জানানো হলো।

অ্যান্ড্রো সেন্সর

স্মার্ট ফোনে এখন অনেক রকমের সেন্সর ব্যবহৃত হয়ে থাকে। কোন সেন্সরের কি কাজ তা অনেক সময় বুঝে উঠা মুশকিল হয়ে উঠে। এছাড়া মোবাইলে কি কি সেন্সর রয়েছে তা জানার জন্যেও অ্যান্ড্রো সেন্সর অ্যাপস অনেক কাজে দিবে। মাত্র ৭৩৯ কিলোবাইটের ফ্রি অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপসটি এই লিংক থেকে ডাউনলোড করা যাবে।

স্ন্যাপসিড

প্রায়ই একাধিক ফটো এডিটরের প্রয়োজন হয়ে থাকে। প্রতিদিন প্রয়োজন হবে এমন একটি অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপস হলো স্ন্যাপসিড। ছবির কোয়ালিটি বৃদ্ধি করা, ইফেক্ট দেয়া, কন্ট্রাস্ট বাড়ানো বা কমানো, ফোকাস, বিভিন্ন ড্রামাটিক ইফেক্ট দেয়াসহ অসাধারণ সব ফিচারে সমৃদ্ধ এই অ্যাপসটি। ২৩ মেগাবাইটের বিনামুল্যের এই অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপসটি এই লিংক থেকে ডাউনলোড করা যাবে।

ইন্সটাগ্রাম

ছবি এডিট করার জন্য অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপসের অভাব নেই তবে তার মধ্য হতে ইন্সট্যাগ্রাম হতে পারে অন্যতম সেরা একটি এডিটিং সফটওয়্যার। অনেক ফিল্টারের পাশাপাশি রয়েছে ছবি এডিট ও শেয়ার করার ফিচার। ১৫ মেগাবাইটের বাহারি এই অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপসটি এই ঠিকানা থেকে ডাউনলোড করা যাবে।

এভারনোট

হ্যান্ড নোটবুকের ব্যবহার এখন নেই বললেই চলে। সেখানে স্থান পেয়েছে এভারনোটের মত চমৎকার ডিজিটাল নোটবুক অ্যাপস। এভারনোটের মাধ্যমে দৈনিক রুটিন, টু ডু লিস্ট, নোট রাখা, রিমাইন্ডারসহ অনেক অনেক সুবিধা ভোগ করা যাবে। নিত্যদিন কাজের লাগার মতো অ্যাপস হলো এভারনোট। ১৪ মেগাবাইট সাইজের বিনামুল্যের এই অ্যাপসটি এই লিংক থেকে ডাউনলোড করা যাবে।

ইএস ফাইল এক্সপ্লোরার ম্যানেজার

অ্যান্ড্রয়েডের জন্য হরেক রকম ফাইল ম্যানেজার থাকলেও এই ফাইল ম্যানেজার অ্যাপসটি অনেক কাজের কাজি। একই সাথে ফাইল ম্যানেজার, অ্যাপ্লিকেশন ম্যানেজার, টাস্ক কিলার এবং ক্লাউড স্টোরেজ সেবা দিবে অ্যাপসটি। শুধু তাই নয় রিমোট ফাইল ম্যানেজার, টেক্সট এডিটর, বিল্ট ইন জিপ ফাইল সাপোর্টসহ আরো অনেক অনেক ফিচারতো রয়েছেই। সম্পূর্ণ ফ্রি এই অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপসটি এই লিংক থেকে ডাউনলোড করা যাবে।

Related posts

*

*

Top