Maintance

দিনের বর্ষবরণ রাতের ফেইসবুকে

প্রকাশঃ ২:১৫ পূর্বাহ্ন, এপ্রিল ১৫, ২০১৬ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ২:১৯ পূর্বাহ্ন, এপ্রিল ১৫, ২০১৬

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : কবিগুরু রবীন্দ্রনাথের ‘এসো হে বৈশাখ, এসো এসো’ গান গেয়ে যখন রমনার বটমূলে বর্ষবরণ শুরু হয় তখন সূর্যি মামা সবে আলো ছড়াতে শুরু করেছে। দেশব্যাপী যখন ঢাকের বাদ্য-বাজনায় মঙ্গল শোভাযাত্রা বের হয় তখনও সূর্যি মামার তাপ খুব বেশি হয়নি। বৈশাখ মাসের প্রথম সূর্যের সঙ্গে তখন মেতে ওঠে বাঙালি তাদের ঐতিহ্য বর্ষবরণে।

তবে প্রযুক্তির যুগে সেই বর্ষবরণ থেমে থাকেনি শুধু ঘটনাস্থলে থাকা হাজার মানুষের মধ্যে। অল্প সময়ের মধ্যেই তা ছড়িয়ে পড়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোর মাধ্যমে।

তবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে পুরো দিনের সেই বর্ষবরণ উৎসবের মাতম যেনো শুরু হয় সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে। আর রাতের ফেইসবুকের ওয়াল ভরে ওঠে বর্ষবরণের ছবিতে।

boishakh
এর আগে গতকাল থেকেই শুরু হয় বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা বিনিময়। একে অপরকে শুভেচ্ছা জানাতে কেউ কম করেনি ফেইসবুকের মাধ্যমে।

শুধু শুভেচ্ছা নয়। ফেইসবুকের মাধ্যমে আবার অনেকেই নববর্ষের দিনে সাবধান থাকার বিষয়ে পরামর্শও দিয়েছেন।

Symphony 2018

যেমন হাসান জাকির নামের একজন নববর্ষের শুভেচ্ছা জানিয়ে লিখেছেন, এই গরমে যারা বাইরে বের হয়েছেন। হাতের কাছে পানি রাখুন। সবাইকে শুভ নববর্ষ।

শুধু জাকির নয়, এমন পরামর্শমূলক শুভেচ্ছা জানিয়েছেন অনেকেই।

Boishakh-2

নিজে বর্ষবরণে ফেইসবুকে কোনো ছবি দেননি জানিয়ে পোস্ট দিয়েছেন তানভীর ফয়সাল। তিনি লিখেছেন, পুরা ফেবুতে আমিই একমাত্র অভাগা যার বৈশাখে কোন ছবি তুলা হয় নাই। সারা দিন ক্যামেরা নিয়া অন্যের ছবি তুললাম, মাগার কেউ আমার একটা ছবি তুলে দিলো না।

পার্থ প্রতীম নামের একজন লিখেছেন, এবার বৈশাখে পান্তা মুরগি খাচ্ছি। ইলিশ খাওয়া নাকি নিষেধ তাই।

পহেলা বৈশাখে প্রধানমন্ত্রী এবং আমার স্টাটাস একই, মানে সমান সমান! কারণ, আমাদের দুজনের মেনুতেই ইলিশ ছিলো না, লিখে নিজের ফেইসবুক ওয়ালে পোস্ট করেছেন আরাফাত সিদ্দিক নামের এক ব্যবহারকারী।

*

*

Related posts/