সবখানেই শচীন, স্টেডিয়াম থেকে অনলাইন

তারেক হাবিব, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : শুরু হচ্ছে শচীনহীন ক্রিকেটের অধ্যায়। বাস্তবতা এটাই। একটা সময় তো শেষ বলতেই হবে। সেই শেষ যাত্রাই শুরু হলো বৃহস্পতিবার মুম্বাই টেস্ট থেকে। এটি হবে ক্রিকেট মহানায়কের শেষ টেস্ট। নিজের প্রিয় স্টেডিয়ামেই খেলছেন ২০০ তম টেস্ট, ৪০ বছর বয়সে।

অনন্য সব রেকর্ডের বরপুত্র লিটল মাস্টারের বিদায়ে কাপছে পুরো ক্রিকেট বিশ্ব। ভারতের তো ক্রিকেট দেবতাই তিনি। এ মহাবীরের শেষ টেস্টে আবেগ ছুঁয়ে যাচ্ছে ভক্ত থেকে শুরু করে সকলকেই। কিংবদন্তীর বিদায়ে ভক্তদের মন খারাপ। বিদায় বেলায় প্রস্তুত মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়াম।

শুধু মুম্বাইয়ের স্টেডিয়াম পাড়া নয়, পুরো ভারত এমনকি বিশ্বের ক্রিকেট পাগল দেশগুলোতেও এখন আলোচনায় শুধু শচীন। থাকবেন আরও কয়েক দিন। অনলাইনের সবগুলো মাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে চলছে কিংবদন্তীকে নিয়ে আলোচনা।

সামাজিক মাধ্যমগুলোতে এ ব্যাপারে প্রচারণা ও গণসংযোগ চলছে চোখে পড়ার মতো। গত সপ্তাহে কলকাতার ইডেনে যখন খেলতে এসেছিলেন তখনও উঠেছিল শচীন জোয়ার। অনলাইনের ভার্চুয়াল জগতে অনেকেই নিজেদের মধ্যে ঠিক করে নিচ্ছে, কেমন হবে তাদের শুভেচ্ছা দেওয়ার কায়দা। শচীনের ছবির সঙ্গে শুভেচ্ছা বার্তা জুড়ে দিয়ে পোস্ট করা হচ্ছে ফ্যান পেইজগুলোতে।
sachin_pic
ফেইসবুকসহ অনলাইন মাধ্যমগুলোতে ভক্তদের মন্তব্য দেখলে বোঝা যাবে কতটা প্রিয় ক্রিকেটার শচীন রমেশ টেন্ডুলকার। ছেলে বেলা থেকে দেখা আসা দুর্দান্ত ব্যাটিং জিনিয়াস শচীনকে বড় হয়েও ভোলেনি অনেক ভক্ত। ফেইসবুক মন্তব্যে এমনটিই জানালেন Ashish Verma নামের একজন। তিনি লিখেছেন, “যখন আমার বয়স ছিল ৮, টিভিতে শচীনের ব্যাটিং আনমনা হয়ে দেখতাম; এখনো দেখি…”

মন্তব্যের হেরফের হলেও অধিকাংশের‌ ভাষ্য অনেকটা একই রকম। শচীন‌ ক্রিকেট মানেই তাদের কাছে আনন্দময় ক্রিকেট। তবে সংখ্যায় অল্প হলেও ভিন্ন বক্তব্যও আছে কারও কারও। ফেইসবুকে Moshiur Rahman লিখেছেন, ‘বিদায় মানেই নতুনের আগমন।’ শচীনের বিদায়ে নতুনদের সুযোগ আসবে, কিন্তু শচীন যোগ্য উত্তরসূরীর কী দেখা মিলবে ক্রিকেট পাড়ায়? এমন প্রশ্নও আসছে ফেইসবুকে।  Mejbah-ul Haque লিখেছেন, ক্রিকেটবিশ্বে বাজছে বিষাদের সুর।

এদিকে শচীনের অফিসিয়াল ফেইসবুক পেজে (www.facebook.com/SachinTendulkar) তার ছবি সংবলিত একটি পোস্ট দেয়া হয়েছে বৃহস্পতিবার। শচীনের বিদায়ী খেলার এ দিনে ‘NEVER BEFORE.. NEVER AGAIN’ শীর্ষক এ পোস্টে লেখা হয়, “As Sachin scales a new peak with his 200th Test match, Valuemart celebrates the moment with a special Limited edition 200 gram silver coin.”

Suman Chowdhury Mony লিখেছেন, ‍”কিন্তু এই দুই যুগে টেন্ডুলকার নিজেকে এমন উচ্চতায় নিয়ে গেছেন, এখন তিনি আর কেবল তাঁর পরিবারের নন, বন্ধুমহলের নন, এমনকি নন কেবলই ভারতীয় দলেরও। ক্রিকেট নামের খেলাটিরই এক আইকন তিনি। বিশ্বজুড়ে তাঁর ভক্ত আর অনুসারীর সংখ্যা অগণন। সেই দলে এমনকি আছেন তাঁর সবচেয়ে…”

ধারাভাষ্যকার Sandip Roy মন্তব্য করেছেন explains why Tendulkar is so beloved.  But Sachin is now 40, and in sports, even gods must retire. Pele did it. Mark McGwire did it, now Sachin. And this is a red carpet retirement, complete with a “We Miss You Sachin” song.

Related posts

*

*

Top