Maintance

হেডফোনের জোর বাড়াতে অবিকল্প ফিও এ১

প্রকাশঃ ১১:৩৭ পূর্বাহ্ন, নভেম্বর ১, ২০১৭ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ১০:৪২ অপরাহ্ন, নভেম্বর ১৯, ২০১৭

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : গান শোনার জন্য ফোনে ভালো সাউন্ড চাই। দাবিটি সবার হলেও আদতে ফোন কোম্পানিগুলো বিষয়টিতে সেভাবে নজর দিচ্ছে কিনা সেটাও ভেবে দেখার রয়েছে।

নির্মাতারা যেখানে মাঝারি মূল্যের ফোনের ডিসপ্লে, ক্যামেরা বা র‌্যামের দিকে প্রচুর নজর দেওয়া শুরু করেছে, সেখানে সাউন্ডের দিকে অনেকের খেয়ালই নেই।

এর মধ্যে অবশ্য ব্যতিক্রম এলজি। সম্প্রতি টেক জায়ান্টটি তাদের ফোনে চারটি ড্যাক ও অ্যাম্প যুক্ত করে সবার মন জয় করে নিয়েছে। এটাও শুধু ফ্ল্যাগশিপ ফোনের জন্যই।

সমস্যাটি কাটিয়ে উঠতেই চীনা নির্মাতা ফিও স্বল্প মূল্যে হেডফোন অ্যাম্প তৈরি শুরু করেছে। এর মধ্যে সবচেয়ে ছোট ও স্বল্প বাজেটের মডেলটির খুঁটিনাটি দেখা যাক এ রিভিউতে।

এক নজরে ফিও এ১

  • অ্যালুমিনিয়াম বডি
  • ৩.৫ মিলিমিটার ইনপুট ও আউটপুট
  • তিনটি ব্যাস বাড়ানোর সেটিংস ও একটি শুধু সাউন্ড বাড়ানোর সেটিং
  • টানা ১০ থেকে ১২ ঘণ্টা ব্যাকআপ দেওয়ার মত ব্যাটারি
  • ২৪-বিট ৯৬ কিলোহার্জ হাই-ফাই সাউন্ড ইনপুট ও আউটপুট
  • অ্যাম্প থেকেই ভলিউম নিয়ন্ত্রণ
  • চার্জ করার জন্য মাইক্রো ইউএসবি পোর্ট

ডিজাইন

খুবই ছোট আকৃতির পাওয়ার ব্যাংক বা পুরাতন এমপি-থ্রি প্লেয়ারের সঙ্গে ফিও এ১ এর মিল রয়েছে। অ্যালুমিনিয়ামে তৈরি বডির নিচে রয়েছে প্লাস্টিক প্লেট, যার এক পাশে রয়েছে সাউন্ড ইনপুট ও আরেক পাশে মাইক্রো ইউএসবি পোর্ট। মূল বডির ওপরেও রয়েছে কালো প্লাস্টিকের প্লেট, যার মাঝে রয়েছে পাওয়ার, ভলিউম বাটন ও সাউন্ড আউটপুট জ্যাক। অ্যাম্পের বডিতে ফিও লোগো ও পেছনে মডেল ও অন্যান্য লেখা রয়েছে।

ওপরের প্লাস্টিক অংশটি বাঁচাতে প্যাকেটের সঙ্গে রয়েছে প্লাস্টিক বাম্পার, প্যান্টের পকেটের সঙ্গে আটকাতে ক্লিপসহ বাম্পারও রয়েছে। খুবই হালকা ডিভাইসটি সহজেই বহন করা যাবে।

পারফরমেন্স

ক্ষুদ্রাকৃতির অ্যাম্পটি প্রায় সকল ইয়ারবাডেই খুব ভালো সাউন্ড দিতে সক্ষম। মিউজিকের বেসের দিকে বেশি না ঝুঁকে বরং পুরো সাউন্ডকেই পরিষ্কারভাবে আরও জোরালো করাতে ফিও বেশি নজর দিয়েছে। তবে এর মানে বেস একদমই নেই তা নয়, তিনটি বেস বাড়ানো কমানোর সেটিং দেয়া হয়েছে অ্যাম্পে।

ছোট ইয়ারবাডের তুলনায় বড় বেশি ইম্পিডেন্সের হেডফোনে এর প্রয়োজনীয়তা বেশি বোঝা যাবে। তবে আজকাল বাজারে মাঝারি বাজেটে প্রচুর দুই বা চারটি ড্রাইভার সমৃদ্ধ ইয়ারবাডও পাওয়া যাচ্ছে। সেগুলোতেও ভালো ভলিউমে পরিষ্কার সাউন্ড পেতে অ্যাম্পটি ব্যবহার করা যাবে।

তবে স্বল্পমূল্যের অ্যাম্পটির কিছুটা সীমাবদ্ধতা রয়েছে। বেশি চ্যানেলসমৃদ্ধ গান উচ্চ ভলিউমে শোনার সময় কিছুটা জড়িয়ে যেতে পারে। তবে সেরকম গান শোনার জন্য যেসব ডিভাইস প্রয়োজন তার সঙ্গে এর চেয়ে ভালো অ্যাম্প রয়েছে।

ব্যবহার

অ্যাম্পটির ব্যবহার খুবই সহজ। ফোনে বা পিসির হেডফোন জ্যাক থেকে অ্যাম্পের ইনপুটের সঙ্গে থাকা ক্যাবল দিয়ে সংযোগ দিয়ে অ্যাম্পের জ্যাকে হেডফোন লাগালেই হবে। এর পর পিসিতে বা ফোনে ৮০ শতাংশ ভলিউম রেখে অ্যাম্প অন করে প্রয়োজন অনুযায়ী এর থেকেই ভলিউম ঠিক করে নিতে হবে। মূলত ইনপুট ডিভাইসের ভলিউম ৮০ শতাংশের অধিক দেওয়া উচিত নয়।

ফোনের চাইতেও ল্যাপটপের সঙ্গে এর প্রয়োজনীয়তা বেশি অনুভব করা গেছে। কেননা বেশিরভাগ ল্যাপটপই সাউন্ড কোয়ালিটির দিকে একেবারেই মনযোগী নয়।

খারাপ দিকগুলো

ফিও এ১ শুধু অ্যাম্প, এটি নিজে সাউন্ড কার্ড নয়। যার অর্থ, ইনপুট সাউন্ডের মান খুব খারাপ হলে এটি তেমন সাহায্য করতে পারবে না। সেক্ষেত্রে ড্যাকসহ অ্যাম্প কেনা উচিত। তবে আজকাল বেশিরভাগ ফোন খুব ভালো মানের সাউন্ড আউটপুট করতে সক্ষম, শুধু অভাব ভলিউমের, এমনটাই বেশিরভাগ রিভিউতে দেখা গেছে।

এক নজরে ভালো

  • অল্প দাম
  • ক্ষুদ্রাকৃতির
  • দীর্ঘ ব্যাটারি লাইফ

এক নজরে খারাপ

  • অডিওফাইলদের জন্য নয়
  • সোর্সের সাউন্ড কোয়ালিটির ওপর নির্ভরশীল
  • হেডফোন জ্যাকের ওপর নির্ভরশীল

মূল্য

ফিও আনুষ্ঠানিকভাবে বাংলাদেশে একটি ওয়েবসাইটের মাধ্যমে বিক্রি করে থাকে। সে অনুযায়ী এর মূল্য দুই হাজার ৫০০ টাকা।

এ রিভিউটি করেছেন টেক শহর ডটকমের কনটেন্ট কাউন্সিলর এস.এম তাহমিদ

*

*

Related posts/