Maintance

চমক নেই তবুও ফিচারের ছড়াছড়ি আইফোন ৭ প্লাসে

প্রকাশঃ ১০:৫২ অপরাহ্ন, জানুয়ারি ১০, ২০১৭ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ২:৪৩ অপরাহ্ন, জানুয়ারি ১১, ২০১৭

নির্বেদ শাহরিয়ার, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : নতুন আইফোন বাজারে আসার আগে যেমন জল্পনা কল্পনা শুরু হয়, তেমনি উন্মুক্ত হওয়ার পরও আলোচনার রেশ চলে দীর্ঘদিন। আইফোন ৭ ও আইফোন ৭ প্লাসে প্রত্যাশা অনুযায়ী চমক না থাকলেও বিক্রির কমতি নেই। দেশের বাজারেও এ মেগা ফোন নিয়ে আগ্রহ বাড়ছে। তাইতো বিভিন্ন কোম্পানি ও মোবাইল ফোন অপারেটরগুলো বেশ কিছু দিন আগে থেকেই বিক্রির নানান অফার নিয়ে হাজির হয়েছে।

আইফোন ৭ প্লাসে ডুয়েল ক্যামেরা ও ৩.৫ এমএম হেডফোন জ্যাক বাতিল ছাড়া তেমন কোনো আহামরি চমক কিংবা পরিবর্তন আনা হয়নি। অন্য মডেলেও বলার মতো নতুনত্ব নেই। এরপরও সেপ্টেম্বরে বিশ্বজুড়ে উন্মোচন হওয়ার পর থেকে অ্যাপলপ্রেমীদের মাঝে বেশ সাড়া ফেলেছে এটি।

দেশেও অনেকে কেনার আগ্রহ দেখাচ্ছেন। বড় বাজেটের এ ফোন কেনার আগে খোঁজখবর নিচ্ছেন এটির বিষয়ে। তাদের জন্য আইফোন ৭ প্লাস নিয়ে এ রিভিউ।

iphone7plus-techshohor (2)

ডিজাইন
আইফোনের ডিজাইনে বড় ধরনের পরিবর্তন আনার আলোচনা হলেও সেটি হয়নি। ডিজাইন অনেকটা দেখতে আইফোন ৬এসের মতই। তবে আইফোন ৭ প্লাসের পিছনে নেই চিরচেনা এন্টেনা লাইনস। পানিরোধক সুবিধার কারণে ফোনটি বৃষ্টিতের মধ্যেই ব্যবহার করা যাবে।

হোম বাটনে পরিবর্তন আনা হয়েছে। এতে রয়েছে আধুনিক ট্যাপটিক ইঞ্জিন। এটি ফোর্স টাচ সেনসিটিভযুক্ত। ফোনটির পিছনে রয়েছে ডুয়েল ক্যামেলা ও এলইডি ফ্ল্যাশ। ডানে পাওয়ার বাটন ও বামে রয়েছে ভলিউম আপ ডাউন ও ভলিউম মিউট বাটন। এতে নেই চিরচেনা ৩.৫ এমএম অডিও জ্যাক। ফোনটির ওজন ১৮৮ গ্রাম।

ডিসপ্লে
আইফোন ৭ প্লাসের ডিসপ্লে প্রায় আইফোন ৬এস প্লাসের মতই। পিক্সেল ডেনসেটি থেকে শুরু করে রেজুলেশনও অপরিবর্তিত রয়েছে। ৫.৫ ইঞ্চি ডিসপ্লের ডিভাইসটিতে রয়েছে ৪০১ পিপিআই পিক্সেল ডেনসিটি।

ডিসপ্লের রেজুলেশন ১০৮০*১৯২০ পিক্সেল। থ্রিডি টাচ সুবিধা এর আগের ফোনের ডিসপ্লেতে থাকলেও আইফোন ৭ প্লাসে হোম বাটনেও থ্রিডি টাচ সুবিধা যুক্ত করা হয়েছে।

হার্ডওয়্যার
৩ গিগাবাইট র‍্যামের এ ফোনে রয়েছে অ্যাপলের এ১০ ফিউশন চিপসেটের কোয়াড কোর ২.৩৩ গিগাহার্টজ প্রসেসর। উন্নত গ্রাফিক্স সুবিধা দিতে রয়েচে ৬ কোরের গ্রাফিক্স চিপসেট। ফলে যে কোনো গেইম বা অনেকগুলো অ্যাপ একত্রে চালু হলে সহজেই ল্যাগ করবে না ডিভাইসটি।

বরাবরের মতই আইফোন ৭ প্লাসে নেই কোনো মেমোরি কার্ড ব্যবহারকারের সুবিধা। ২১,১২৮,২৫৬ গিগাবাইট ইন্টারনাল মেমোরি সংস্করণে পাওয়া যাবে ফোনটি।

এ ছাড়া রয়েছে ফিঙ্গারপ্রিন্ট, ওয়াইফাই ইত্যাদি সুবিধা। ব্যবহারকারীদের যদি অধিক স্টোরেজ প্রয়োজন হয়, তাহলে ১২৮ বা ২৫৬ গিগাবাইট ইন্টারনাল মেমোরি সংস্করণটিই কেনা উচিত হবে।

iphone7plus-techshohor (3)

ক্যামেরা
ক্যামেরায় বিশেষ পরিবর্তন আনা হয়েছে। প্রথমবারের মত ডুয়েল ক্যামেরা নিয়ে হাজির হলো অ্যাপল। আইফোন ৭ প্লাসের পেছনে রয়েছে ১২ মেগাপিক্সেল ডুয়াল ক্যামেরা। ফলে আরও উন্নত মানের ছবি নিশ্চিত করবে ডিভাইসটি।

২৮এমএম, এফ/১.৮, ওআই্‌এস এবং ৫৬এমএম, এফ/২.৮ ফিচার সমৃদ্ধ ক্যামেরার পাশাপাশি পেছনে রয়েছে ডুয়েল এল্‌ইডি ফ্ল্যাশ। এ ক্যামেরা দিয়ে ফোরকে ভিডিও রেকর্ড করা যাবে।

সেলফি ও ভিডিও চ্যাটের জন্য সামনে রয়েছে ৭ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। যা দিয়ে ১০৮০ পিক্সেল ভিডিও রেকর্ডও করা যাবে।

সফটওয়্যার
অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে রয়েছে আইওএস ১০.০.১। আইওএস ১০-এ যুক্ত হওয়া ফিচারের মধ্যে রয়েছে নতুন ডিজাইনের লক স্ক্রিন, উন্নত নোটিফিকেশন বার, দ্রুত অ্যাপ সার্চ, আরও উন্নত থ্রিডি টাচ সুবিধা।

এ ছাড়া এতে থার্ড পার্টি ডেভেলপাররা সিরিতে সাপোর্ট পাবেন। দ্রুত বার্তা আদান-প্রদানের জন্য কিবোর্ড আপডেট, অ্যাপল মিউজিক ও নিউজের নতুন ইউআই যুক্ত করা হয়েছে এতে।

বরাবরের মতই অ্যাপলের অন্যান্য ডিফল্ট আইবুকস, ভিডিওস, ফেইসটাইম, ম্যাপস, ফাইন্ড আইফোনস, কুইকভয়েস ইত্যাদি অ্যাপগুলো রয়েছে।

নতুন আপডেটে আইফোনের ক্যামেরাকে চাইলে ম্যাগনিফাইং গ্লাস হিসেবে ব্যবহার করা যাবে। এটি ব্যবহার করে যে কোনো টেক্সটকে বড় আকারে দেখা যাবে।

আইওএস ১০ অপারেটিং সিস্টেমে লাইভ ফটো ফিচারের আরও উন্নতি সাধন করা হয়েছে। আইওএস থেকে লাইভ ছবি সরাসরি সম্পাদনও করা যাবে। চাইলে ছবি এডিটিংয়ের পাশাপাশি সাইজ, ক্রপ, ফিল্টার ইত্যাদি যুক্ত করা যাবে।

iphone7plus-techshohor (1)

ব্যাটারি
আইফোন ৭-এ রয়েছে ২ হাজার ৯০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি, যা ৩৮৪ ঘন্টা স্ট্যান্ডবাই সুবিধা দেবে। এতে পাওয়া যাবে ২১ ঘন্টা টকটাইম, ৬০ ঘন্টা মিউজিক প্লেব্যাক সুবিধা।

এ ফোন একবার চার্জ দিলে আইফোন ৬এস এর চাইতেও ১ ঘন্টা বেশি চলবে।

মূল্য
দেশে আইফোন ৭-এর ১২৮ জিবি সংস্করণের দাম ধরা হয়েছে ১ লাখ ১ হাজার ৬৫০ টাকা। আইফোন ৭ প্লাস-এর ২৫৬ জিবি ও ৩২ জিবির দাম যথাক্রমে ১ লাখ ১৩ হাজার ২০০ টাকা ও ৮৯ হাজার ৯৫০ টাকা।

ভালো দিক
পানি রোধক সুবিধা। ফলে বৃষ্টি কিংবা পানিতে ভিজলেও সমস্যা হবে না।

হোম বাটনে পরিবর্তন এসেছে, যা ট্যাপ্টিক ইঞ্জিনে চলে এবং ফোর্স টাচ সেনসিটিভ সুবিধা।

পেছনে রয়েছে ডুয়েল ক্যামেরা।

খারাপ দিক
এটিতে হেডফোনের জ্যাক নেই। যা অনেকের পছন্দ নাও হতে পারে। তবে ৩.৫ এমএম জ্যাকের হেডফোন কনভার্টার ব্যবহার করে চালানো যাবে।

আইফোন ৭ প্লাস ফোনের সাইজ বড়, যা হ্যান্ডেল করতে অনেকেরই কষ্ট হবে।

আগের সংস্করণের চেয়ে নতুনত্ব তুলনামূলক কম।

*

*