আইফোনের বিকল্প ৭

শাহরিয়ার হৃদয়, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : আইফোনের প্রতি অনেক গ্রাহকের আলাদা আকর্ষণ আছে। অ্যাপলের লোগোটি যেন আভিতাজ্যের আরেক প্রতীক হয়ে দাঁড়িয়েছে। তাই আকাশছোঁয়া দাম সত্ত্বেও অনেকে শখ করে আইফোন কেনেন।

কিন্তু একই বা কাছাকাছি দামে আইফোনের চেয়ে অনেক বেশি ফিচারসমৃদ্ধ ফোন কিনতে পারতেন, তা কি আপনি জানেন? যারা এমনিতে অ্যাপলভক্ত, তাদের কিছু বলার নেই। কিন্তু যারা আইফোনের উপযুক্ত বিকল্প খুঁজছেন, তাদের জন্য কিছু অপশন দিতে এ প্রতিবেদন।

Galaxy s4-TechShohor

স্যামসাং গ্যালাক্সি এস৪
আইফোন ৫এস এর বিকল্প হিসেবে এ স্মার্টফোনটি সবার শীর্ষে আছে। অক্টা কোর প্রসেসর, ২ জিবি র‍্যাম ও ৫ ইঞ্চির অসম্ভব ভালো ডিসপ্লের পাশে আইফোনকে নগণ্য লাগাও অস্বাভাবিক নয়!

আরও আছে ১৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা, দীর্ঘ ব্যাটারি ব্যাকআপ। দামও কিছুটা কম।

galaxy note, techshohor

স্যামসাং গ্যালাক্সি নোট ৩
গ্যালাক্সি এস৪ এর চেয়েও শক্তিশালী কনফিগারেশন এ মোবাইল ডিভাইসের। বর্তমানের সবচেয়ে পাওয়ারফুল অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস বলা যায় এটিকে। অক্টা কোর প্রসেসর, ৩ গিগাবাইট র‍্যাম, ৩২ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ আর চোখ ধাঁধাঁনো ৫.৭ ইঞ্চি ডিসপ্লে।

১৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা তো আছেই, বিশেষ ফিচার হিসেবে আছে এস-পেন। তবে দাম কিছুটা বেশি এস৪ এর চেয়ে। তারপরও একে কোনদিক দিয়ে আইফোনের চেয়ে কম বলবেন?

gold-htc-one-TechShohor

এইচটিসি ওয়ান
এইচটিসি মৃত্যুকূপ থেকে উঠে এসেছে এ স্মার্টফোন বাজারে এনে। আকার-আকৃতি ও স্পেসিফিকেশন সব দিক দিয়ে একে আইফোনের প্রতিদ্বন্দ্বী বলা যায়। আইফোনের ডিজাইন নিয়ে যারা গর্ব করেন, তারাও ওয়ানের ডিজাইন ও স্টাইলের প্রশংসা করেছেন।

৪.৭ ইঞ্চি ডিসপ্লের পাশাপাশি আছে স্ন্যাপড্রাগন প্রসেসর, ২ জিবি র‍্যাম।  ৪ মেগাপিক্সেলের বিশেষ আলট্রাপিক্সেলের ক্যামেরা চমৎকার ছবি তোলে।

LG-G2-techshohor

এলজি জি২
এলজির ফ্ল্যাগশিপ এ মডেলের স্মার্টফোনটি বেঞ্চমার্কের শীর্ষে আছে এখন। এর ব্যতিক্রমী ফিচার হলো ভলিউম রকার, যা ফোনের পেছনে অবস্থিত। ৫.২ ইঞ্চির অত্যুজ্জ্বল ডিসপ্লে আইফোনের রেটিনা ডিসপ্লেকেও হারিয়ে দিতে পারে।

৩০০০ মিলিঅ্যাম্পের শক্তিশালী ব্যাটারি ও ১৩ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরার কারণে একে ‘বিস্ট’ অ্যাখ্যা দিয়েছেন সমালোচকরা।

sony experia Z1_techshohor

সনি এক্সপেরিয়া জেড১
দারুণ স্টাইলিশ ও রুচিশীল ফোনটিকে এক দেখাতেই অনেকে আইফোনের চেয়ে সুন্দর বলবেন। আইফোনের মতোই এতে রয়েছে অ্যালুমিনিয়াম ও গ্লাসের ইউনিবডি ডিজাইন। এটি ধুলাবালি ও পানি প্রতিরোধক।

৫ ইঞ্চির চমৎকার ডিসপ্লের পাশাপাশি আছে বর্তমানের অন্যতম সেরা ২০ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।

google Nexus-5-techshohor

গুগল নেক্সাস ৫
কমদামে শক্তিশালী কনফিগারেশন দিয়ে ইতোমধ্যে খ্যাতি পেয়েছে গুগলের নিজস্ব নেক্সাস লাইনআপ। তালিকার নতুন সংযোজন নেক্সাস ফাইভও কম নয়। এর অ্যান্ড্রয়েড কিটক্যাট আইওএসের সাথে সহজেই পাল্লা দিতে পারে।

উন্নত প্রসেসর, র‍্যাম ও ডিসপ্লে থাকলেও এর ক্যামেরাটি কিছুটা দুর্বল।

Nokia-Lumia-1020-techshohor

নোকিয়া লুমিয়া ১০২০
স্মার্টফোনে ক্যামেরাপ্রেমীদের জন্যই যেন তৈরি করা হয়েছে। ক্যামেরা যাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ তারা কেন কিনবেন আইফোন ৫এস, যেখানে লুমিয়া ১০২০ ফোনটিতে  ৪১ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা দিচ্ছে! আদপেই এর ক্যামেরার কোনো তুলনা চলে না।

উইন্ডোজ ফোনের সব ফিচার উপভোগ করার জন্য আছে ডুয়াল কোর প্রসেসর, ২ জিবি র‍্যাম। দেখতেও কোনো অংশে আইফোনের চেয়ে কম নয়।

Related posts

*

*

Top