এইচপি ডেস্কজেট ২৫৪৫ : এক প্রিন্টারে অনেক সুবিধা

শাহরিয়ার হৃদয়, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : প্রিন্টারের বাজারে ক্রেতারা এখনও কমদামে বেশি ফাংশনের প্রিন্টার খোঁজেন। সাধারণ প্রিন্টিংয়ের পাশাপাশি স্মার্ট ডিভাইসের সাথে কানেক্টিভিটি সুবিধা থাকলে তো কথাই নেই। এখন এরকম অনেক প্রিন্টারই বাজারে এসেছে; কিন্তু এদিক দিয়ে সবচেয়ে এগিয়ে আছে এইচপি।

এ সুবিধার কারণে তাদের কয়েক বছর আগের প্রিন্টার মডেলও এখনকার নতুন প্রিন্টারের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করছে। এমন একটি প্রিন্টার এইচপি ডেস্কজেট অল-ইন-ওয়ান ডি২৫৪৫।

hp deskjet 2545_techshohor

দাম কম হওয়ায় এ ইংকজেট প্রিন্টারটি ইউজার ফ্রেন্ডলি ও এনভায়রনমেন্ট ফ্রেন্ডলি। আকারে কিছুটা বড়, ওজন ৫.২১ কেজি। ডিজাইন সাধারণ প্রকৃতির। পেজ ফিড করার স্লটটি উপরে ও আউটপুট স্লট ফ্রন্ট প্যানেলের নিচে। ইনপুট ট্রেতে ৫০টি ও আউটপুট ট্রে তে ৩০টি পেজ রাখা যাবে।

এর সবচেয়ে বড় সুবিধা- এটি অল-ইন-ওয়ান। তাই প্রিন্টের পাশাপাশি ফটোকপি ও স্ক্যান করা যাবে। ওয়াই-ফাই থাকায় আপনার ফোন, ট্যাবলেট বা ল্যাপটপ থেকে সরাসরি কমান্ড দিতে পারবেন। এর বাইরে আছে ইউএসবি ২.০ পোর্ট ও ইথারনেট পোর্ট।

প্রিন্ট ও স্ক্যানের সর্বোচ্চ রেজুল্যুশন ৪৮০০*১২০০ ডিপিআই। ডুপ্লেক্স প্রিন্টিং সুবিধা নেই। আউটপুটের কোয়ালিটি সাধারণ মানের। টেক্সট প্রিন্টিং নিয়ে অনেকেই সন্তুষ্ট হবেন। তবে হাই রেজুল্যুশনের কালার প্রিন্টিংয়ের সময় বিচ্যুত কালার আসতে পারে। ফটো প্রিন্ট চলনসই ও বেশ পরিচ্ছন্ন।

প্রিন্ট স্পিডের দিক দিয়েও এটি পিছিয়ে আছে। সাদাকালো প্রিন্টিংয়ের গতি মিনিটে ২০ পেজ ও কালার প্রিন্টিংয়ের ১৬ পেজ। এ ছাড়া এতে দুটি ইংকট্যাংক ব্যবহার করা হয়েছে, একটি ব্ল্যাক ও একটি ট্রাই-কালার (সায়ান, ম্যাজেন্টা, ইয়েলো)। ব্যবহারের খরচ একই ধাঁচের অন্যান্য প্রিন্টারের চেয়ে বেশ কম।

সব মিলিয়ে বলতে হবে, এটি লেজার প্রিন্টারের মতো আকর্ষণীয় পারফর্ম্যান্স না দিলেও ফিচারগুলোর কারণে অনেকের প্রয়োজন মেটাতে পারে। বিশেষ করে ছোট অফিস বা বাসার দৈনন্দিন কাজে।

এটি একও বছরের ওয়ারেন্টিসহ পাওয়া যাচ্ছে ৮ হাজার টাকায়।

এক নজরে ভালো
–        পরিবেশবান্ধব, দাম কম
–        মাল্টি-ফাংশন, চালনা খরচ কম

এক নজরে খারাপ
–        স্পিড কম
–        আউটপুট উচ্চমানের নয়

Related posts

*

*

Top