স্মার্টফোনে অনাগ্রহীদের জন্য নোকিয়া আশা ৫০৩

শাহরিয়ার হৃদয়, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : স্মার্টফোনের জয়যাত্রা চলছে এখন। অ্যান্ড্রয়েড, উইন্ডোজ ফোন ও আইফোন ছাড়া অন্য সব ফোনের ব্যবহার কমে আসছে। তবে এখনও অনেক ব্যবহারকারী আছেন যারা স্মার্টফোনের জটিলতায় যেতে চান না। আবার টুকটাক ইন্টারনেট ও সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করতে চান এবং একই সঙ্গে প্রচুর মাল্টিটাস্ক করতে ফোনের সহায়তা চান। তাদের জন্য একটি ভালো অপশন হলো নোকিয়ার আশা সিরিজ। এ সিরিজের সর্বশেষ ফোন ৫০৩ এর খুঁটিনাটি নিয়ে এ প্রতিবেদন।

ডিজাইন
এটি দেখতে অনেকটা আশা ৫০১ এর মতো। আকারে কিছুটা ছোট। নোকিয়ার ফোন হিসেবে একধাপ বেশি মজবুত। সামনে একটি বাটন রয়েছে, যা ব্যাক-কি হিসেবে কাজ করে। পুরুত্ব ০.৫ ইঞ্চি ও ওজন ১১১.৪ গ্রাম।

nokia-asha_techshohor

ডিসপ্লে
এতে স্মার্টফোনের ১৬ মিলিয়ন কালার ডিসপ্লের পরিবর্তনে ২৫৬কে টিএফটি টাচস্ক্রিন ডিসপ্লে ব্যবহার করা হয়েছে। ৩ ইঞ্চি ডিসপ্লের রেজুল্যুশন বেশ কম- ২৪০*৩২০ পিক্সেল। স্ক্রিনের ওপর গরিলা গ্লাসের প্রলেপ রয়েছে।

কানেক্টিভিটি
এতে ডুয়াল সিম সুবিধা ও থ্রিজি রয়েছে। আরও আছে ওয়াইফাই, ব্লুটুথ, মাইক্রো ইউএসবি, এফএম রেডিও। তবে জিপিএস নেই। সেন্সরের মধ্যে আছে অ্যাক্সেলোমিটার ও প্রক্সিমিটি।

ক্যামেরা
এর পেছনে একটি ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা রয়েছে। সঙ্গে রয়েছে ফ্ল্যাশ। ক্যামেরাটি ২৫৯২*১৯৪৪ পিক্সেলে ছবি তুলতে পারে এবং ১৫ এফপিএস এ ভিডিও করতে পারে।

কনফিগারেশন
নোকিয়ার নিজস্ব আশা সফটওয়্যার প্ল্যাটফর্ম এতে ব্যবহার করা হয়েছে। ইন্টারনাল মেমরি ৪ জিবি, যা ৩২ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে। যেহেতু এটি স্মার্টফোন নয়, তাই অ্যাপ স্টোরের সুবিধা নেই। কেবল নোকিয়া স্টোর থেকে সীমিত সংখ্যক কিছু অ্যাপ ডাউনলোড করা যাবে।

তবে যারা এই ফোনটি কিনবেন তারা প্রধানত ইন্টারনেট ও সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারের কথা মাথায় রেখে কিনবেন। এদিক দিয়ে ফোনটি পূর্ণ সাপোর্ট দেবে। তবে এটির আরেকটি দুর্বলতা হলো, পিডিএফ বা কোনো অফিস ডকুমেন্ট পড়া যাবে না।

ব্যাটারি
আশা সিরিজের বড় শক্তি ব্যাটারি। এটিও তাই। এর ১২০০ অ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি দিয়ে একবার চার্জে সাড়ে চার ঘণ্টা কথা বলা যাবে। স্ট্যান্ডবাই টাইম ৪৮০ ঘণ্টা।

ফোনটির দাম ৮ হাজার টাকা।

এক নজরে ভালো
–        নির্দিষ্ট লেভেলের ব্যবহারকারীদের জন্য খুবই উপযোগী
–        মজবুত গড়ন, মসৃণ পারফর্ম্যান্স
–        ব্যাটারি লাইফ ভালো

এক নজরে খারাপ
–        স্মার্টফোন নয়
–        ফ্রন্ট ক্যামেরা নেই
–        অ্যাপ ব্যবহার সীমিত

Related posts

*

*

Top