Maintance

শাওমি প্যাড২ : সিম-মেমরি ছাড়াও সস্তায় ভালো কিছু

প্রকাশঃ ১২:২৪ অপরাহ্ন, ফেব্রুয়ারি ২২, ২০১৬ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ১২:২৬ অপরাহ্ন, ফেব্রুয়ারি ২২, ২০১৬

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : গত বছরের শেষের দিকে বাজারে এসেই সাড়া ফেলেছে শাওমি ব্র্যান্ডের এমআই প্যাড২। ৭.৯ ইঞ্চির এ ট্যাব দেখতে যেমন আকর্ষনীয়, তেমনি ফিচারেও বেশ উন্নত।

ট্যাবটির একটু ব্যতিক্রমী বৈশিষ্ট্য হলো এটিতে ভিন্ন দুটি অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করা হয়েছে। যার যেটি পছন্দ তিনি সেই ওএস চালিত ট্যাব বেছে নিতে পারবেন।

তবে এর সবচেয়ে বড় দুর্বলতা হলো এতে বাড়তি মেমরি স্লট ও সিম ব্যবহারের সুযোগ নেই। এতে অবশ্য হতাশ হওয়ার কারণ নেই কেননা ওয়াই-ফাই দিয়ে ইন্টারনেট চালাতে পারবেন অনায়াসে। দামে কম হওয়ায় এ দুই দুর্বলতা বাদ দিলে অন্যান্য ফিচারের কারণে এটি অনেকের বেশ পছন্দ হবে।

xiaomi-mi-pad-2-TechShohor-2

ডিজাইন
ট্যাবটির আলুমিনিয়াম ফিনিশিংয়ের কারণে যে কেউ এটিকে আইপ্যাড ভেবে বসতে পারেন। হ্যাঁ, ৭.৯ ইঞ্চির এ ট্যাব সিলভার ও গোল্ড দুটি রঙেই চমৎকার দেখায়। হাতে নেওয়ার আগ পর্যন্ত তা আইপ্যাডের মতোই মনে হবে। তবে এটির দাম সর্বশেষ আইফোনের দামের প্রায় অর্ধেক।

সলিড বিল্ড কোয়ালিটির ডিভাইসটিতে রাউন্ডেড কর্নারের পাশাপাশি পেছন দিকে কিছু বাঁকা রয়েছে, যা ব্যবহারের সময় হাতে চমৎকার গ্রিপ প্রদানে সহায়তা করবে। এটির ব্যাক কাভারটি রিমুভেবল, তাই সহজে পরিবর্তন করা যায়।

ডিভাইসটির ভলিউম রকার ও পাওয়ার বাটন রয়েছে কোনার দিকে। এতে ব্যবহারের সময় সহজেই ভলিউম রকার হাতের কাছে পাওয়া যাবে।

নিচের দিকে রয়েছে মাইক্রো সি ১.০ রিভারসিবল ইউএসবি পোর্ট ও পেছনে রয়েছে স্টেরিও স্পিকার। একদম উপরে রয়েছে হেডসেট জ্যাক। ডিসপ্লের নিচের অংশে রয়েছে মেন্যু, হোম এবং ব্যাক বাটন।

ডিভাইসটি মাত্র ৭ মিলিমিটার সরু, যা ব্যবহারকারীকে স্মার্ট ডিভাইসের অনুভূতি দেবে।

ডিসপ্লে
ট্যাবটিতে রয়েছে ৭.৯ ইঞ্চির আইপিএস ডিসপ্লে, যার রেজ্যুলেশন ২০৪৮*১৫৩৬ পিক্সেল ও পিপিআই ৩২৬। ইন্টেল এইচডি গ্রাফিক্স সম্পন্ন জিপিইউ থাকার কারনে ডিভাইসটির স্ক্রিন কোয়ালিটি বেশ ভালো।

শাওমি প্যাড ২ দিচ্ছে চমৎকার ইমেজ কোয়ালিটির সাথে স্পন্দনশীল কালার কনট্রাস্ট, ফলে পাওয়া যাবে প্রচুর উজ্জ্বলতা এবং রিডিং মোড, যা সেটিংস থেকেই সহজেই পরিবর্তনশীল।

xiaomi-mi-pad-2-TechShohor-3

সফটওয়্যার
বাজারে বিদ্যমান অন্যান্য ট্যাবগুলো থেকে শাওমির এ ট্যাবের অনেক ভিন্নতা রয়েছে। কারণ ব্যবহারকারী চাইলেই অ্যান্ড্রয়েড ললিপপ ও শাওমি ৭.০ ইউজার ইন্টারফেস অথবা উইন্ডোজ ১০ অপারেটিং সিস্টেমের মধ্যে যে কোনো একটি বেছে নিতে পারেন।

উইন্ডোজ ১০ অপারেটিং সিস্টেমের প্যাডটি ৬৪ গিগাবাইট ও অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমের প্যাডটি বাজারে এসেছে ১৬ জিবি মেমরি নিয়ে।

পারফরমেন্স
ট্যাবটিতে কোয়াড কোর ২.২৪ গিগাহার্জ প্রসেসরের সাথে চিপসেট হিসেবে রয়েছে ইন্টেল এটম এক্স৫-জেড৮৫০০ চেরি ট্রেইল।

সাধারণ কাজে একেবারে সাবলীল থাকবে ট্যাবটি, হাই গ্রাফিক্সের গেইমও খেলা যাবে অনায়াসে। তবে মাল্টিটাস্কিং কাজের সময় কিছুটা ধীরগতি পেতে পারেন ব্যবহারকারী।

xiaomi-mi-pad-2-TechShohor-1

মেমরি
২ গিগাবাইট র‍্যাম নিয়ে ট্যাবটি ১৬ গিগাবাইট ও ৬৪ গিগাবাইটের দুটি সংস্করণে পাওয়া যাচ্ছে। হতাশার বিষয় হচ্ছে শাওমি তাদের এই ট্যাবে কোন মাইক্রো এসডি স্লট সংযুক্ত করেনি। তাই বেশি মেমরি সুবিধা পেতে ৬৪ গিগাবাইটের সংস্করণটা বেছে নিতে হবে।

ক্যামেরা
ক্যামেরায়ও অনেকটাই এগিয়ে আছে ট্যাবটি। পেছনের ৮ মেগাপিক্সেল রিয়ার অটো ফোকাস ক্যামেরায় চমৎকার ছবি, অসাধারন ম্যাক্রো এবং ল্যান্ডস্কেপ ব্লার ছবি তোলায় সক্ষম।

১০৮০ পিক্সেলের স্বচ্ছ ভিডিও রেকর্ডিং করা যাবে এতে। সামনে রয়েছে ৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা, যা স্বচ্ছ ও নিখুত সেলফি তুলতে সহায়তা করবে।

xiaomi_mi_pad_2_gold-techShohor-4

ব্যাটারি
৬ হাজার ১৯০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি সম্বলিত ট্যাবটি স্টান্ডবাই মোডে ৬৪৯ ঘন্টা চলবে। মাল্টিমিডিয়া সিস্টেমে কথা বলা যাবে প্রায় সাড়ে ১২ ঘন্টা। গান শোনা যাবে প্রায় ১০০ ঘন্টা পর্যন্ত। আর দ্রুত চার্জ হওয়ার ফিচার রয়েছে এতে।

দাম
বর্তমানে দেশের বাজারে অ্যান্ড্রয়েড চালিত প্যাডটির বাজারমূল্য ২১ হাজার ৭০০ টাকা ও উইন্ডোজনির্ভর প্যাডটির দাম ২৮ হাজার ৯০০ টাকা ।

এক নজরে ভালো
– সুন্দর ডিজাইন ও দ্রুত চার্জ হয়
– চমৎকার ডিসপ্লে
– অসাধারন গেইমিং পারফরমেন্স
– অ্যান্ড্রয়েড ও উইন্ডোজ ইউজার ইন্টারফেস

এক নজরে খারাপ
– মাইক্রো এসডি স্লট নেই
– সিম ব্যবহারের সুযোগ নেই
– ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার ও এনএফসিও নেই

*

*