ক্যানন এসএক্স ৪০০ : টাচ ছাড়াই সস্তায় পেশাদার ফটোশুট

আদনান নিলয়, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ক্যাননের স্টাইলিশ লুকের এক পয়েন্ট অ্যান্ড শুট ক্যামেরা হলো পাওয়ারশট এসএক্স ৪০০। ক্যামেরাটির কথা আলাদা করে বলতে হবে দুটো কারণে। এক- ডিজাইন, দুই- এটির অত্যাধিক জুম ক্ষমতা।

এ দামে সাধারণ একটি ক্যামেরায় ছয় গুণের বেশি জুম না হলেও এর ১৬ মেগাপিক্সেল লেন্স ৩০ গুণ পর্যন্ত জুম করা যায়। সাধারণ ছবি তোলার ক্ষেত্রে তা দরকার হয় না বলে ক্যামেরাটি পেশাদার বা শখের ফটোগ্রাফারদের কথা চিন্তা করেই তৈরি হয়েছে। ডিএসএলআরের মতো ডিজাইনই এর প্রমাণ।

Canon Powershot SX400-techshohor

ডিজাইন
আগেই বলেছি, ডিএসএলআরের ডিজাইনে গড়া হয়েছে এটি। ডিএসএলআর যেহেতু পকেটে ঢুকে না, তাই এটিও ঢুকবে না। খাপে অথবা গলায় ঝুলিয়ে নিয়ে বেড়াতে হবে।

এটি দিয়ে ছবি তুলতে অনেক আরাম পাবেন ফটোগ্রাফররা। টেক্সচার এমন ধাতু দিয়ে বানানো হয়েছে যাতে হাত থেকে ফসকানোর কোনো সম্ভাবনা নেই। তা ছাড়া বড় হওয়ায়, কোনো বাটনই ছোটখাট নয়। সব বাটনের ওপর আঙ্গুল সবসময় এসে থাকবে।

লাল ও কালো রঙে পাওয়া যাচ্ছে। এর মধ্যে লালই বেশি আকর্ষণীয়।

পারফরমেন্স
গতির কথা বলতে গেলে আপনি খাপ থেকে বের করে ক্যামেরাটি দিয়ে ৩ সেকেন্ডে একটা ছবি তুলতে পারবেন। ক্যাননের অন্য সব মডেল থেকে এটির গতি প্রায় দ্বিগুণ।

ছবি তোলাতে কোনো সমস্যা হবে না। কিছু ঝামেলা হলেও তা হবে মেন্যুতে। নানা কারণে বেশ স্লো হয়ে যেতে পারে মেন্যু।

স্মার্টফোনে আমরা টাচ টু ফোকাসে অভ্যস্ত হলেও এতে ম্যানুয়ালি তা করতে হবে, সেখানেও বেশি সময় লাগবে।
ভিডিও রেজুলেশনে ১০৮০ পিক্সেল ভিডিও রেকর্ড করা যাবে না, ৭২০ পিক্সেল পর্যন্ত তা সীমাবদ্ধ।

সফটওয়্যার
সফটওয়্যারের অনেক ফিচার আছে থাকলেও সেগুলো খুব গোছানো নয়। খুঁজে খুঁজে বের করতে হয় ফিচারগুলো। টাচস্ক্রিন না হওয়ায় একটু বেশি অসুবিধা হবে।

অটো মোড এ সমস্যা অনেকটা দূর করে দেয়। নামের মতো এ মোড প্রায় সবই কাজই অটো করে দেবে। বিভিন্ন শুটিং মোড সিলেক্ট করার অপশন জানিয়ে দেবে এটি। পরিবেশ বিশ্লেষণ করে ফ্ল্যাশ উপস্থিত করবে, ছোটখাট রেড-আই সমস্যা দূর করবে ইত্যাদি।

গতিশীল বস্তুর ছবি তুলতে আমাদের প্রায়ই সমস্যা হয়, লাইভ ভিউ মোড যেটা সহজে দূর করবে।

অনেক রকম ফিল্টারের অপশন রয়েছে ক্যামেরাটিতে। বিভিন্ন অবস্থা ও পরিবেশ বিবেচনায় তা প্রয়োগ করতে পারেন।

সবশেষে, একটা নেগেটিভ পয়েন্টের কথা বলি। এ ক্যামেরায় ওয়াই-ফাই নেই। স্মার্টফোনের মতো তাই সহজে ছবি আদান-প্রদান করতে পারবেন না।

দেশের বাজারে এটি পাওয়া যায় কমবেশি ১৩ হাজার ৩০০ টাকায়।

এক নজরে ভালো
– চমৎকার ডিজাইন
– ৩০ এক্স জুম

এক নজরে খারাপ
– ওয়াই-ফাই নেই
– টাচস্ক্রিন নয়
– ভিডিও রেজুলেশন ৭২০ পিক্সেল

Related posts

*

*

Top