দামের বিচারে স্বাচ্ছন্দ্যের আল্ট্রাবুক ডেল ভস্ট্রো ৫৪৬০

 শাহরিয়ার হৃদয়, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : প্রিমিয়াম ইউজারদের কথা মাথায় রেখে বেশিরভাগ কোম্পানি ঘনঘন নতুন আলট্রাবুক আনছে বাজারে। মানের বিচারে বেশিরভাগ আলট্রাবুক অত্যন্ত শক্তিশালী, আবার একই সাথে দামী। এদিক থেকে ডেল ভস্ট্রো ৫৪৬০ পছন্দসই একটি আলট্রাবুক হতে পারে, কেননা বেশ ভালো কনফিগারেশন হলেও এর দাম নাগালের মধ্যে।

ডিজাইন

ভস্ট্রো সিরিজের ল্যাপটপগুলো স্টাইলিশ ও পরিচ্ছন্ন আকারের হয়ে থাকে। এটিও তাই। পলিকার্বনেটে তৈরি বডিতে অ্যালুমিনিয়ামের ফিনিশিং রয়েছে, তাই এটি দেখতে খুবই সুন্দর ও মজবুত। ১৯ মিলিমিটার পুরুত্বে এটি ভস্ট্রো সিরিজের সবচেয়ে স্লিম ল্যাপটপ। ওজন ১.৫৪ কেজি।

dell vostro_techshohor

ডিসপ্লে

এতে রয়েছে ১৪ ইঞ্চি এইচডি এলইডি ব্যাকলিট ডিসপ্লে, যা ডেলের ট্রু-লাইফ প্রযুক্তি সাপোর্ট করে। স্ক্রিনের ওপর গ্লসি প্রলেপ আলোর প্রতিফলন রোধ করবে। রেজুল্যুশন ১৩৬৬*৭৬৮ পিক্সেল, যা অন্যান্য আলট্রাবুকের চেয়ে কমই বলতে হবে। তবে ভিউয়িং অ্যাঙ্গেল চমৎকার।

কানেক্টিভিটি

ল্যাপটপটির কানেক্টিভিটির মধ্যে রয়েছে একটি এসডি কার্ড স্লট, তিনটি ইউএসবি ৩.০ পোর্ট, মাইক্রোফোন/হেডফোন জ্যাক, ইথারনেট পোর্ট, ও এইচডিএমআই পোর্ট। স্ক্রিনের ঠিক ওপরে ১ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা রয়েছে।

এ ছাড়া বিল্ট-ইন সাবউফারসহ একজোড়া স্পিকার রয়েছে, যা ঝকঝকে সাউন্ড দেবে। চিকলেট স্টাইলের কিবোর্ডে স্বাচ্ছন্দ্যে টাইপ করা যাবে। ট্র্যাক প্যাডটি চমৎকার রেসপন্সিভ, তবে আকারে কিছুটা বড়, তাই যাদের হাত বড় তাদের সমস্যা হতে পারে। উইন্ডোজ এইট ইন্টারফেসে ব্যবহারের জন্য ট্র্যাকপ্যাডে মাল্টি-টাচ গেশ্চার রয়েছে।

কনফিগারেশন

ভস্ট্রো ৫৪৬০-এর ভেতর রয়েছে ইন্টেল কোর আইফাইভ ৩৩৩৭ইউ ১.৮০ গিগাহার্জ প্রসেসর, ৪ গিগাবাইট র‍্যাম। একটি ৫০০ গিগাবাইট হার্ডডিস্ক ও ৩২ গিগাবাইট এসএসডি রয়েছে। বিল্ট-ইন গ্রাফিক্স চিপের পাশাপাশি এতে এনভিডিয়া জিফোর্স জিটি৬৩০এম গ্রাফিক্স কার্ড রয়েছে, যার মেমোরি ২ গিগাবাইট। অল্প দামের মধ্যে এ গ্রাফিক্স প্রসেসর নিঃসন্দেহে ব্যতিক্রম সংযোজন।

পারফর্ম্যান্স

দাম ও কনফিগারেশনের তুলনা করে এর পারফর্ম্যান্সকে দশে দশ দেওয়া যেতে পারে। ব্রাউজিং, মাল্টিটাস্কিং, ফুল এইচডি মুভি ইত্যাদি দারুণ স্মুথভাবে করা যাবে। কল অফ ডিউটি, ক্রাইসিস সিরিজের মত গেইমগুলো মাঝারি গ্রাফিক্সে খেলা যাবে। ফটো ও ভিডিও এডিটিং-এর প্রাথমিক অনেক কাজ করা যাবে।

ব্যাটারি

আলট্রাবুকটির ব্যাটারি লাইফ সাধারণ। টানা ব্রাউজিং, গান শোনা ও টাইপ করার ক্ষেত্রে এটি চার ঘণ্টা পর্যন্ত ব্যাকআপ দেবে।

এটি দেশের বাজারে পাওয়া যাচ্ছে ৫০ হাজার টাকায়।

এক নজরে ভালো

 

–       কম দামে শক্তিশালী কনফিগারেশন

–       গড়ন উন্নত, সাউন্ড কোয়ালিটি চমৎকার

এক নজরে খারাপ

–       ব্যাটারি লাইফ প্রত্যাশিত নয়

–       একই দামে পরবর্তী প্রজন্মের প্রসেসরের আলট্রাবুক রয়েছে

ট্যাগ ,

Related posts

*

*

Top