ফুজিৎসুর এলএইচ৫৩২ ল্যাপটপ : বাজেট ফ্রেন্ডলি হলেও ধীর গতির

শাহরিয়ার হৃদয়, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : বাজেট ফ্রেন্ডলি ল্যাপটপ তৈরিতে স্যামসাং, এসারের মতো কোম্পানি এগিয়ে আছে। জাপানের প্রতিষ্ঠান ফুজিৎসুও এবার অল্প দামের ল্যাপটপ বাজারজাত শুরু করেছে। এর মধ্যে অন্যতম লাইফবুক এলএইচ৫৩২, যা বেসিক লেভেলের ল্যাপটপ হলেও বেশ কিছু অ্যাডভান্সড ফিচার রয়েছে।

ডিজাইন

চকচকে কালো প্লাস্টিক দিয়ে এটি তৈরি করা হয়েছে। তবে এর মধ্যে থাকা নীল রংয়ের ইন্ডিকেটর লাইট চমৎকার মানিয়েছে। লিডের চারপাশে সফট রাবার ফিনিশিং রয়েছে। এর ওজন মাত্র সাড়ে চার কেজি। স্যামসাং, গিগাবাইট বা এসারের কম বাজেটের ল্যাপটপগুলোর চেয়ে এটি দেখতে বেশি আকর্ষণীয় ও মজবুত।

fujitsu_techshohor

ডিসপ্লে ও সাউন্ড

এতে রয়েছে ১৪ ইঞ্চি ডিসপ্লে, যা ১৩৬৬*৭৬৮ পিক্সেল রেজুল্যুশন সাপোর্ট করে। ফলে এইচডি কোয়ালিটির মুভি উপভোগ করা যাবে, যা সাধারণত এ দামের নোটবুকে অনুপস্থিত থাকে। সাউন্ড কোয়ালিটি সন্তোষজনক, তবে তেমন লাউড নয়।

কানেক্টিভিটি

লাইফবুকটিতে প্রায় সব কানেক্টিভিটি সুবিধা রয়েছে। কমদামে এত বিস্তৃত কানেক্টিভিটি অন্য কোনো ল্যাপটপে আমরা দেখিনি। এসডি কার্ড, রিডার, গিগাবিট ইথারনেট পোর্ট, ওয়াই-ফাই, হেডফোন/মাইক্রোফোন জ্যাক, ভিজিএ ও এইচডিএমআই পোর্টের সঙ্গে রয়েছে তিনটি ইউএসবি ৩.০ পোর্ট। ডিভিডি রাইটারও রয়েছে।

কনফিগারেশন

এর ভেতর রয়েছে ইন্টেল পেন্টিয়াম ডুয়াল কোর ২.৪ গিগাহার্জ প্রসেসর, ২ গিগাবাইট ডিডিআরথ্রি র‍্যাম, ৫০০ গিগাবাইট হার্ডডিস্ক। দাম অনুযায়ী একে ভালো কনফিগারেশন বলা যায়।

পারফর্ম্যান্স

চমৎকার আউটলুক ও কনফিগারেশন সত্ত্বেও পারফর্ম্যান্সের কারণে ল্যাপটপটিকে সেরার স্থান দেওয়া যাচ্ছে না। এইচপি, স্যামসাং, এসারের একই দামের ল্যাপটপের চেয়ে এটি বেশ ধীরগতির। টাইপ করা, গান শোনা, মুভি দেখার চেয়ে ভারি কাজ করতে গেলে অসুবিধার মুখে পড়তে হবে। ফাইল কনভার্ট, ফাইল কপি বেশ ধীরে হবে। লো গ্রাফিক্সের গেইম ছাড়া তেমন কোনো গেইম চালানো যাবে না।

ব্যাটারি

ব্যাটারি লাইফের দিক দিয়ে লাইফবুক পিছিয়ে রয়েছে। টেস্টিং সফটওয়্যার দিয়ে দেখা গেছে, এতে সর্বোচ্চ পাঁচ ঘণ্টা চার্জ থাকবে। কাছাকাছি দামের ডেল ইন্সপিরন ১৪জেতে চার্জ থাকে আট ঘণ্টারও বেশি।

কম দামের মধ্যে যদি সাধারণ ব্যবহারের জন্য কেউ ল্যাপটপ কিনতে চান, এটি কিনতে পারেন। দেশের বাজারে দাম ২৯ হাজার টাকা।

এক নজরে ভালো

–     কম দামে ভালো স্ক্রিন, উন্নত ডিজাইন

–     সবরকম কানেক্টিভিটি সুবিধা

এক নজরে খারাপ

–     দুর্বল পারফর্ম্যান্স

–     ব্যাটারি লাইফ সন্তোষজনক নয়

Related posts

*

*

Top