ব্যতিক্রমী হলেও দাম বেশি আসুসের এমএক্স২৩৯এইচ মনিটরের

শাহরিয়ার হৃদয়, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : স্লিম, বেজেলবিহীন এলইডি মনিটরের চাহিদা দিন দিন বাড়ছে। এ ধরনের মনিটরের সবচেয়ে বড় সুবিধা- জায়গা তেমন নেয় না। তবে দেখতে যেমন সুন্দর ও ছবির মানও ভালো, তেমনি দামও বেশি। আসুসের ডিজাইনো সিরিজের এমএক্স২৩৯এইচ এমনই একটি স্টাইলিশ এলইডি মনিটর।

গড়ন

মনিটরটি প্রথম দেখাতেই ভালো লাগতে বাধ্য। এর উপরে এবং দুই পাশে কোনো বেজেল নেই, যা খুবই আকর্ষণীয় লুক দিয়েছে। নিচের রূপালী রঙের পাতলা, ধাতব বিজেল মানিয়ে গেছে আকারের সঙ্গে। নিচের বিজেলে আসুসের লোগো রয়েছে। স্ট্যান্ডটি যথেষ্ট মজবুত, ফলে টেবিলে শক্ত হয়ে বসতে পারবে মনিটরটি।

কানেক্টিভিটি

পাওয়ার বাটনসহ মোট সাতটি বাটন রয়েছে এতে। ইন/অন পোর্টের মধ্যে আছে দুটি এইচডিএমআই পোর্ট, একটি ভিজিএ পোর্ট, একটি অডিও ইনপুট ও একটি হেডফোন জ্যাক। কোনো ওয়েবক্যাম নেই।

asus monitor_techshohor

ফিচার

বেশিরভাগ আসুস মনিটরের মতো এতেও উচ্চ কোয়ালিটির জন্য স্প্লেনডিড ভিডিও ইন্টেলিজেন্স প্রযুক্তি রয়েছে। ছয়টি পিকচার মোড রয়েছে- স্ট্যান্ডার্ড, নাইট ভিউ, সিনারি, গেইম, থিয়েটার ও এসআরজিবি। কুইক ফিট নামে একটি বিশেষ ফিচার রয়েছে, যা প্রিন্ট করার সময় কাজে আসবে। মেনু অপশন থেকে ব্রাইটনেস, কনট্রাস্ট, স্যাটারেশন, কালার টেম্পারেচার, স্কিন টোন, শার্পনেস ইত্যাদি নিয়ন্ত্রণ করা যাবে। এছাড়া বিদ্যুৎ সাশ্রয় করার জন্য ইকো মোড রয়েছে।

পারফর্ম্যান্স

২৩ ইঞ্চি আইপিএস প্যানেলের রেজুল্যুশন ১৯২০*১০৮০ পিক্সেল। কনট্রাস্ট রেশিও ৮০০০০০০:১। রেসপন্স টাইম ৫ মিলিসেকেন্ড। কালারের সামঞ্জস্য বেশও নিখুঁত বলা যায়। তবে লাল ও নীল রঙের তুলনায় সবুজ কিছুটা স্যটারেটেড দেখাতে পারে। সাদাকালো পারফর্ম্যান্সও সন্তোষজনক, কালো রঙে গভীরতা কিছুটা কম। ভিউইং অ্যাঙ্গেল খুবই চমৎকার, স্ক্রিনে আলোর প্রতিফলনও তেমন বোঝা যাবে না। টেক্সট বেশও স্পষ্ট ও পরিষ্কার দেখা আবে। ব্রাইটনেস ২৫০ ক্যান্ডেলা/মিটার স্কয়ার, যা মুভি দেখা বা গেইম খেলার সময় সঠিক উজ্জ্বলতা নিশ্চিত করবে। অর্থাৎ এর পারফর্ম্যান্স সব মিলিয়ে একটি সাধারণ হাই রেজুল্যশন আইপিএস মনিটরের মতোই।

যে বিষয়টি একে আলাদা করেছে, সেটি হলো ডিজাইন। মনিটরের এক্সটেরিয়রে যে এক্সক্লুসিভ কিছু যোগ করা হয়েছে তা নয়-কিন্তু সব মিলিয়ে এর ডিজাইন বাজারের বেশিরভাগ মনিটরের চেয়ে অনেক রুচিশীল ও আধুনিক মনে হবে। আর এর কৃতিত্ব আসুসকেই দিতে হবে।

এর বর্তমান মূল্য ২৬ হাজার টাকা।

এক নজরে ভালো

–      ব্যতিক্রম ও আকর্ষণীয় ডিজাইন

–      মজবুত গড়ন, নানারকম কানেক্টিভিটি সুবিধা

এক নজরে খারাপ

–      পারফর্ম্যান্স মাঝারি মানের

–      বিল্ট-ইন স্পিকার নেই

ট্যাগ ,

Related posts

*

*

Top