গ্যালাক্সি ট্যাব ৩ ৭.০ : বিশেষ ফিচার ছাড়াও বেশ জনপ্রিয়

শাহরিয়ার হৃদয়, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্মিলর : সহজে বহনযোগ্য হওয়ায় ১০ ইঞ্চি ট্যাবের চেয়ে বর্তমানে ৭ ইঞ্চি ডিসপ্লের ট্যাবের চাহিদা বেশি। ৭ ইঞ্চি ট্যাবের বাজারেও রয়েছে বেশ প্রতিদ্বন্দ্বিতা।

আইপ্যাড মিনি, গুগল নেক্সাস ৭, স্যামসাং গ্যালাক্সি ট্যাব ৩ এর ৭ ইঞ্চি- সবাই জনপ্রিয়তা ধরে রেখেছে। এর মধ্যে বাংলাদেশের বাজারে সবচেয়ে জনপ্রিয় গ্যালাক্সি ট্যাব ৩ এর ৭ ইঞ্চি আকারের ট্যাবটি।

ডিজাইন
গ্যালাক্সি সিরিজের সিগনেচার ডিজাইন ও আউটলুক রয়েছে এতে। বডি প্লাস্টিকে তৈরি এবং স্যামসাং এর অন্যান্য ডিভাইসের চেয়ে আলাদা দিক হলো এতে ব্যাটারি রিমুভ করা যায় না।

Samsung-Galaxy-Tab-3-7-0_techshohor

ডিভাইসটি খুব সহজে বহন করা যাবে। তবে এর গড়ন গ্যালাক্সি এস বা নোট সিরিজের মতো প্রিমিয়াম মানের নয়।

ডিসপ্লে
ট্যাবটির ডিসপ্লে রেজুল্যুশন ৬০০*১০২৪ পিক্সেল, পিক্সেল ডেনসিটি ১৭০। এত কম রেজুল্যুশনের ডিসপ্লে ট্যাব ৩-এর অন্যতম দুর্বল দিক।

প্রতিদ্বন্দ্বী ট্যাব ও আরও কমদামের ট্যাবেও এর চেয়ে অনেক উন্নত ডিসপ্লে রয়েছে।

কানেক্টিভিটি
কানেক্টিভিটি ফিচারের দিক দিয়ে স্যামসাং বরাবরই সেরা। থ্রিজিও এলটিই ছাড়াও এতে আছে ওয়াই-ফাই, ওয়াই-ফাই ডিরেক্ট, ওয়াই-ফাই হটস্পট, ব্লুটুথ ৩.০, ইনফ্রারেড ও ইউএসবি ২.০।

সেন্সরের মধ্যে আছে অ্যাক্সেলেরোমিটার, প্রক্সিমিটি ও কম্পাস।

ক্যামেরা
এর মূল ক্যামেরা ৩.২ মেগাপিক্সেল, যা ২০৪৮*১৫৩৬ পিক্সেলের ছবি তুলতে পারে। ক্যামেরায় অটোফোকাস ও জিও ট্যাগিং ফিচার রয়েছে। ফ্রন্ট ক্যামেরা ১.৩ মেগাপিক্সেল।

কনফিগারেশন
ডুয়াল কোর ১.২ গিগাহার্জ প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে এতে। র‍্যাম ১ জিবি। ৮ জিবি বা ১৬ জিবির বিল্ট-ইন স্টোরেজে এটি পাওয়া যাচ্ছে, মেমরি কার্ড দিয়ে যা ৬৪ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে।

পারফরম্যান্স
অ্যান্ড্রয়েড জেলি বিন ৪.১ রয়েছে ট্যাব ৩ তে। একে অ্যান্ড্রয়েড ৪.৪ কিটক্যাটে আপগ্রেড করা যাবে। সাধারণ ব্যবহারকারীদের জন্য পারফরম্যান্স সন্তোষজনক। তবে মাঝে মাঝেই প্রচুর ল্যাগ করে।

র‍্যাম কম হওয়ায় মাল্টিটাস্কিংয়ে সমস্যা হতে পারে। তবে ব্রাউজ করা, ভিডিও চ্যাট, গান শোনা, মুভি দেখা ইত্যাদি নির্বিঘ্নে করা যাবে।

সাধারণ বেশিরভাগ গেইম খেলা যাবে। তবে স্যামসাং নিজস্ব কিছু প্রয়োজনীয় ফিচার, যেমনও- এস ট্রান্সলেটর, এস হেলথ, গেশ্চার কনট্রোলের মতো কোনো ফিচারই এতে নেই।

ব্যাটারি
৪০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের ব্যাটারি ব্যবহার করা হয়েছে এতে। যার টকটাইম প্রায় আটঘণ্টা।

দেশের বাজারে ট্যাব ৩ এর ৭ ইঞ্চিআকারের দাম ২৭ হাজার টাকা।

এক নজরে ভালো
– সহজে বহনযোগ্য, ডুয়াল ক্যামেরা
– ব্যাটারি ব্যাকআপ ভালো

এক নজরে খারাপ
– দুর্বল ডিসপ্লে ও পারফরম্যান্স
– স্যামসাংয়ের বিশেষ কোনো ফিচার নেই

Related posts

*

*

Top