এসইও সহায়ক থিমের প্রয়োজনীয়তা

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : এসইও ফ্রেন্ডলি, এসইও বান্ধব বা এসইও সহায়ক যাই বলি না কেনো, একটি ওয়েবসাইটের ক্ষেত্রে এটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। এটি কোনো প্রতারণা করার বা ঠকানোর বিষয় নয়। সহজ কথায়, সহজভাবে সাজানো এইচটিএমএল কোডগুলো সার্চ ইঞ্জিন খুব সহজে ক্রল করতে পারে বা দ্রুত ইনডেস্ক হয় সেটিই এসইও বান্ধব। যার ফলে ওয়েবসাইটটি খুব সহজে র‍্যাংক করবে।

সবচেয়ে বড় কথা হলো, নির্ভুল ও গোছানো কোড বিভিন্ন সার্চ বটের কাছে দেখতে পরিস্কার মনে হয়। এটি ওয়েবসাইট র‍্যাংক করানোর জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

SEO_TechShohor

এসইও তে ভালো করার জন্য একটি ওয়েবসাইটের বেশ কিছু বিষয় রয়েছে। এরমধ্যে অন্যতম হলো ওয়েবসাইটটির থিম। এসইও সহায়ক থিম বলতে সাধারণত থিমটি এমনভাবে ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করা বোঝায় যাতে ওয়েবসাইটে এসইও করতে সুবিধা হয় ও সার্চ ইঞ্জিন সহজেই ইনডেস্ক করতে পারে।

থিম তৈরির ক্ষেত্রে অবশ্যই খেয়াল করতে হবে যাতে ওয়েবসাইটটি নেগেটিভ এসইও থেকে রক্ষা পায়। কনটেন্টগুলো ফ্ল্যাশ প্লেয়ার বা আইফ্রেমের মাধ্যমে না দেখিয়ে স্বাভাবিকভাবেই উপস্থাপনের ব্যবস্থা রাখতে হবে। আবার অধিক ছবি ব্যবহার না করে টেক্সটের মাধ্যমে প্রকাশ করলে ভালো হয়। কারণ ছবি কিংবা ফ্ল্যাশের মাধ্যমে কনটেন্ট উপস্থাপন করলে সেটি বেশি এসইও সহায়ক হয় না।

থিম ডেভেলপমেন্টের ক্ষেত্রে অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে, সার্চ ক্রাউলার বটগুলো সাধারণত টেক্সট ও কিছু এইচটিএমএল ট্যাগ ছাড়া আর কিছুই দেখতে পায় না। পাশাপাশি এসইও এর জন্য থিমে কিছু অপশন যুক্ত রাখতে হবে সার্চ ইঞ্জিন সহজে ইনডেস্ক করতে পারে।

থিমটি অবশ্যই রেসপনসিভ হওয়া উচিত। এতে পিসির পাশাপাশি মোবাইল, ট্যাবলেটসহ অন্যান্য ডিভাইসের জন্য এসইও সহায়ক হবে থিমটি।

এর বাইরেও আরেকটি কথা না বললেই নয়, কোনো ওয়েবসাইটকে সার্চ র্যাংককিয়ে ভালো অবস্থানে আনতে হলে সাইটটিতে অবশ্যই ভালোমানের কনটেন্ট থাকতে হবে।

Related posts

*

*

Top