গুগল ওয়েব ফন্ট ব্যবহারের ৪ প্লাগইন

তুহিন মাহমুদ টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ওয়েবসাইটের লেখাকে নান্দনিক করতে ডেভেলপারদের জন্য গুগল ওয়েব ফন্ট একটি বিনামূল্যের রিসোর্স। শীর্ষস্থানীয় অনেক ওয়েবসাইট যেমন নিউ ইয়র্ক টাইমস, ম্যাশেবল, টেক ক্রাঞ্চ গুগল ওয়েব ফন্ট ব্যবহার করে। সাইটের ডিজাইনের পাশাপাশি ওয়েব ফন্ট সাইটের কনভার্সেশন রেট বাড়ায়। এ কারণে অনেকেই থিমের ডিফল্ট ফন্টের পরিবর্তে কাস্টম ফন্ট ব্যবহার করেন।

আপনি যদি আপনার ওয়েব সাইটের টাইপোগ্রাফি আরও ভালো করতে চান তাহলে গুগল ওয়েব ওয়েব ফন্ট ব্যবহার করতে পারেন। গুগল ওয়েব ফন্টের ব্যবহার সহজ করতে বেশ কিছু ওয়ার্ডপ্রেস প্লাগইন রয়েছে। এর মাধ্যমে সহজেই ওয়ার্ডপ্রেস সাইটে গুগল ফন্ট ডিরেক্টরিতে থাকা কয়েক হাজার ফন্টের মধ্য থেকে পছন্দের ফন্ট যুক্ত করা যায়।

Google web fonts-TechShohor

ওয়ার্ডপ্রেস নির্ভর ওয়েবসাইটের গুগল ফন্ট ব্যবহারের তেমনই ৪ প্লাগইন সম্পর্কে এখানে জানানো হলো।

ডব্লিউপি গুগল ফন্টস
ডব্লিউপি গুগল ফন্ট একটি আনঅফিসিয়াল গুগল ফন্টস প্লাগইন। এটি গুগল লাইব্রেরি থেকে সরাসরি ফন্ট সিনক্রোনাইজ করে। এতে বিশেষ কোনো ফিচার নেই এবং ছয়টি ফন্ট ব্যবহারের সুযোগ দেয়। তবে হেডলাইন, প্যারাগ্রাফ, ব্লক কোট অথবা লিস্টের ক্ষেত্রে এই ফন্টগুলোর এলিমেন্ট নির্বাচন করে দেওয়া যায়। এছাড়া ফন্ট নরমাল, বোল্ড, ইটালিক, সেমি-বোল্ড কিংবা রেগুলার স্টাইলও ব্যবহার করা যায় এই প্লাগইনের মাধ্যমে।

ইজি গুগল ফন্টস
টাইটানিয়াম থিমসের তৈরি ‘ইজি গুগল ফন্টস’ একটি ইউনিক প্লাগইন। এটি কোডিং ছাড়াই যেকেনো ওয়ার্ডপ্রেস থিমে কাস্টম ফন্ট ব্যবহারের সুযোগ দেয়। এটি ওয়ার্ডপ্রেস কাস্টোমাইজারের সঙ্গে ইন্ট্রিগেট করা। ফলে যেকোনো ফন্টের প্রিভিউ দেখা যায়। প্লাগইন সেটিংস থেকেই সহজেই কাস্টম থিম ফন্ট নির্বাচন করে দেওয়া যাবে।

ফন্টমেইস্টার
এটি অন্যান্য প্লাগইনের থেকে কিছুটা ভিন্ন। এটি টাইপকিট, ফন্টস্কুয়ারেল এবং ফন্টডেস্ক থেকে ফন্ট ব্যবহারের সুযোগ দেয়। এর মাধ্যমে বিনামূল্যের ও প্রিমিয়াম ফন্ট ব্যবহার করা যায়। আর ফন্ট ব্যবহার করতে এপিআই কী ব্যবহার করতে হবে।

গুগল ওয়েব ফন্টস প্রিমিয়াম প্লাগইন
এটি আরেকটি অসাধারণ প্লাগইন। এতে ছয় শতাধিক গুগল ওয়েব ফন্ট ব্যবহার করা যায়। ওয়ার্ডপ্রেসের ড্যাশবোর্ড থেকে ফন্ট এবং টাইপোগ্রাফি পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণ করা যায়। এছাড়া সর্বশেষ ফন্টগুলোর আপডেট পেতে এটি গুগলের এপিআই ব্যবহার করে। এর সেটিং প্যানেল থেকে সহজেই কাস্টোমাইজ ফন্ট ব্যবহার করা যায়। এছাড়া ফন্ট প্রিভিউ, লাইট, বোল্ড, ইটালিক, সেমি-বোল্ট ইত্যাদি নানা অপশন রয়েছে।

Related posts

*

*

Top