ব্লগারদের জন্য বিনামূল্যের ১০ ওয়ার্ডপ্রেস থিম

তুহিন মাহমুদ, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ব্লগ তৈরির জন্য সময়ের জনপ্রিয় কনটেন্ট ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম (সিএমএস) হলো ওয়ার্ডপ্রেস। এটি ব্যবহার সহজ হওয়ায় ব্লগাররা বিশেষ করে অধিকাংশ ওয়েব ডিজাইনার ও ডেভেলপারদের পছন্দ এটি। এর থিম স্ট্র্যাকচার সহজে বোঝা যায়। তাই ভালোমানের কোডিং জ্ঞান ছাড়াও ওয়ার্ডপ্রেস সাইট ডেভেলপ ও ব্যবহার করা যায়।

বিভিন্ন থিম মার্কেটপ্লেসে ওয়ার্ডপ্রেসের প্রিমিয়াম ও ফ্রি থিম পাওয়া যায়। তবে ব্লগারদের ওয়েবসাইটের বিষয়বস্তুর উপযোগী থিম পাওয়া কিছুটা সময় সাপেক্ষ ও ভোগান্তির ব্যাপারও।

free_wordpress_theme-TechShohor

যারা এ বিষয়ে নতুন তারা বিনামূল্যের থিম দিয়ে ব্লগ তৈরি করতে পারেন। তবে এক্ষেত্রে আপনাকে একটু কৌশলী হতে হবে। অনেক ক্ষেত্রে বিনামূল্যের ওয়ার্ডপ্রেস থিমে স্প্যাম কোড থাকতে পারে। এগুলো সাইটের গুরুত্বপূর্ণ তথ্য হাতিয়ে নিতে পারে। তাই বিনামূল্যের থিম ব্যবহারের ক্ষেত্রে আগে ভাগেই এটি ভালোভাবে দেখে নিতে হবে।

যারা বিনামূল্যের ওয়ার্ডপ্রেস থিম খুঁজছেন কিংবা পুরনো ওয়েবসাইটকে নতুনরুপে সাঁজাতে চাচ্ছেন তাদের জন্য এ প্রতিবেদন। এতে বিনামূল্যের ১০টি ওয়ার্ডপ্রেস থিম সম্পর্কে জানানো হলো। প্রয়োজন অনুযায়ী থিম বেছে নিয়ে ডাউনলোড ও ব্যবহার করতে পারবেন।

১. বেস্ট থিম
রেসপনসিভ ডিজাইনের এই থিমটিতে তিনটি পেইজ টেমপ্লেট রয়েছে। এছাড়া রয়েছে একাধিক মেনু, একাধিক পেইজ লেআইট অপশন, শর্টকোড ও প্রয়োজনীয় নানা ফিচার।

২. রেসপো থিম
এটি রেসপনসিভ গ্রিড লেআইটের থিম। স্লাইডার ব্যবহারের জন্য রয়েছে ফ্লেক্সস্লাইডার, সাইডবার ট্যাব, একাধিক ফন্ট স্টাইল, পূর্ণ সাইজের টেমপ্লেট, কাস্টম উইজেট, ডায়নামিক বিজ্ঞাপন বসানোর কাস্টম উইজেট, সার্চ ফর্ম, সহজে লোগো ও ফেভিকন ব্যবহারের সুবিধাসহ নানা ফিচার।

৩. অ্যালডিহাইড
দুই কলাম লেআউটের এই থিমটি রেসপনসিভ ডিজাইনের। সঙ্গে রয়েছে টুইটারস বুটস্ট্রাপ ৩.০ ফ্রেমওয়ার্ক। দুই শতাধিক ফন্ট, কাস্টম লোগো, উইজেট থাম্বনেইল, রেসপনসিভ স্লাইডার, প্যারালাক্স হেডার, কাস্টম ব্যাকগ্রাউন্ড, রেটিনা রেডিসহ নানা সুবিধা রয়েছে বিনামূল্যের এই থিমটিতে।

৪. ফ্লোজো
এই থিমটিতে রয়েছে ফুল ওয়াডথ স্লাইডার, দুই কলাম লেআউট, ফটো ও ভিডিও ইন্ট্রিগেশনসহ নানা ফিচার।

৫. সুয়েভা
এক কলাম লেআউট ও রেসপনসিভ ডিজাইনের এই থিমটি নিউজপেপার সাইটের জন্য উপযোগি।

৬. রেসপো-২
রেসপনসিভ এই থিমটিতে কাস্টম উইজেট, কাস্টম ফন্ট টাইপ, শর্টকোড জেনারেটর, আনলিমিটেড কালার, একাধিক পেইজ টেমপ্লেটসহ প্রয়োজনীয় নানা সুবিধা রয়েছে।

৭. এসপ্রেশনিস্টা
ফ্লেক্সিবল ও মাল্টিকলাম গ্রিডের রেসপনসিভ এই থিমটিতে পোস্ট থাম্বনেইল, পোস্ট ফরম্যাট, স্ট্যাটিক হেডার, ওভারফ্লো গ্রুপিং মেনু আইটেম, কাস্টোমাইজেবল কালার স্ক্রিম, কাস্টোমাইজ ফন্ট, অ্যাডভান্সড টাইপোগ্রাফি অপশনসহ নানা সুবিধা রয়েছে।

৮. ট্রেফিকো
এটাও রেসপনসিভ ডিজাইনের থিম। রয়েছে অ্যাডভান্সড অ্যাডমিন প্যানেল, সুপার ইজি ইন্সটলেশন ও সেটআপ সুবিধা, কাস্টম লোগো, ফেভিকন, ব্যাকগ্রাউন্ড সুবিধা, ব্লগ পোস্ট ফরম্যাট, ই-কমার্স, গুগল ফন্ট ব্যবহার ও ট্রান্সলেশন সুবিধাসহ নানা ফিচার রয়েছে।

৯. প্লেবুক
রেসপনসিভ এই থিমটিতে ট্রান্সলেশন ও এসইও অপটিমাইজড সুবিধা রয়েছে। এছাড়া রয়েছে কাস্টম উইজেডম আনলিমিটেড ব্যাকগ্রাউন্ড ও কালার স্কিম ব্যবহারের সুবিধা।

১০. এলিগ্যান্ট বেস্ট বিজনেস পোর্টফোলিও থিম
থিমটিতে অসাধারণ হোম স্লাইডার রয়েছে। এছাড়া ফিচার পোস্ট সেকশন রয়েছে, যেখানে বিশেষ পোস্টগুলো দেখানো যাবে। রয়েছে অ্যাডভান্সড থিম কন্ট্রোল প্যানেল, কাস্টম মেনু, মাল্টি লেভেল ড্রপ-ড্রাইন মেনু, দুটি কালার স্কিম, হোমপেইজ, ব্লগ পেইজ ও পোর্টফোলিও পেইজের জন্য দুটি লেআউট, লাইটবক্স, কাস্টম লোগো ইমেজ, ব্যাকগ্রাউন্ড ইমেজসহ নানা সুবিধা রয়েছে।

Related posts

*

*

Top