মার্চে বেসিস আউটসোর্সিং অ্যাওয়ার্ড : প্রতিযোগী আহবান

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : দেশে চতুর্থবারের মতো আয়োজিত হতে যাচ্ছে ‘বেসিস আউটসোর্সিং অ্যাওয়ার্ড’। আগামী ৮ মার্চ বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) এই পুরস্কার অনুষ্ঠানের আয়োজন করছে। গত বছরের মতো এবারও সর্বমোট ১০০টি পুরস্কার দেওয়া হবে।

বেসিস আউটসোর্সিং অ্যাওয়ার্ড ২০১৪ উপলক্ষে শনিবার বেসিস সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা জানানো হয়।

BASIS_outsourcing award-TechShohor

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বেসিস সভাপতি শামীম আহসান, বেসিস আউটসোর্সিং অ্যাওয়ার্ড ২০১৪ এর আহবায়ক ও বেসিসের কোষাধ্যক্ষ শাহ ইমরাউল কায়ীশ, জুরী বোর্ডের চেয়ারম্যান এবং বেসিসের সাবেক সভাপতি ও বর্তমান কার্যকরী বোর্ডের পরিচালক এ কে এম ফাহিম মাশরুর, সহ-সভাপতি উত্তম কুমার পল ও যুগ্ন সাধারন সম্পাদক এম রাশেদুল হাসান।

গত তিন বছর ধরে বেসিস ফ্রিল্যান্সারদের উৎসাহিত করার জন্য এবং তরুণদের এই পেশায় আগ্রহী করার জন্য এই অ্যাওয়ার্ড প্রদান করে আসছে বলে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়।

এছাড়া গত বছরের মত এবারও সর্বমোট ১০০টি অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হবে। আউটসোর্সিংকে সারাদেশে ছড়িয়ে দেবার জন্য ৬৪টি জেলা থেকে সেরা ৬৪জন ফ্রিল্যান্সার তথা আইটি উদ্যোক্তাদের এই অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হবে। এছাড়াও ৬টি ভিন্ন ভিন্ন ক্যাটাগরিতে (ওয়েব অ্যাপ্লিকেশন ডেভেলপমেন্ট, এসইও ও অনলাইন মার্কেটিং, ওয়েব ডিজাইন, গ্রাফিক্স ডিজাইন, অনলাইন ব্লগিং, মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন) ৩জন করে সর্বমোট ১৮জনকে ব্যক্তিগত ক্যাটাগরিতে এবং ৩জনকে নারী ক্যাটাগরীতে অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হবে। প্রাতিষ্ঠানিক ক্যাটাগরীতে ১৫টি কোম্পানীকে আউটসোর্সিং খাতে বিশেষ অবদানের জন্য বেসিস আউটসোর্সিং অ্যাওয়ার্ড দেওয়া হবে।

বেসিস সভাপতি শামীম আহসান বলেন, বাংলাদেশে আউটসোর্সিং পেশাটা এখন আর ব্যাতিক্রম কিছু নয়। প্রতি বছর দেশে যে বিশাল পরিমাণ শিক্ষিত যুবশক্তি শ্রমবাজারে আসছে, তার পুরোপুরি কর্মসংস্থান করা সরকারের পক্ষে একা সম্ভব নয়। আমরা মনেকরি, বেসিস আউটসোর্সিং অ্যাওয়ার্ড প্রদানের মধ্যদিয়ে সচেতনতা সৃষ্টি হবে। বিপুলসংখ্যক অব্যবহৃত মেধাকে আউটসোর্সিং পেশায় আগ্রহী করে তোলা সম্ভব হবে এবং তাদের আয় দেশের অর্থনীতিতে ভিন্নমাত্রা যোগ করবে।

বেসিস আউটসোর্সিং অ্যাওয়ার্ড এর আহবায়ক শাহ ইমরাউল কায়ীশ আউটসোর্সিং অ্যাওয়ার্ড এর বিগত বছরগুলোর অর্জন ও বেসিস আউটসোর্সিং অ্যাওয়ার্ড ২০১৪ এর পরিকল্পনা তুলে ধরেন।

জুরী বোর্ডের চেয়ারম্যান এ কে এম ফাহিম মাশরুর বলেন, অ্যাওয়ার্ড প্রদানের ক্ষেত্রে রপ্তানীর পরিমাণ, কর্মসংস্থান ও উদ্যোক্তাদের সামাজিক ভূমিকাকে প্রাধান্য দেয়া হবে।

যেকোনো আগ্রহী ব্যক্তি বেসিস ওয়েবসাইট (www.outsourcingaward.basis.org.bd) থেকে নিবন্ধন করার মাধ্যমে এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহন করতে পারবেন। আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারির মধ্যে প্রতিযোগীদের নিবন্ধন করতে হবে।

Related posts

*

*

Top