Maintance

গুগল আইও : প্রযুক্তি বিশ্বের চোখে এবারের বিস্ময়

প্রকাশঃ ১:২৭ অপরাহ্ন, মে ১৮, ২০১৭ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ২:৩৮ অপরাহ্ন, মে ১৮, ২০১৭

ক্যালিফোর্নিয়ার গুগল আইও সম্মেলন থেকে আরিফ নিজামী : ক্যালিফোর্নিয়ার স্যান হোসেতে বসেছে সার্চ জায়ান্ট গুগলের ডেভেলপারদের বার্ষিক সম্মেলন গুগল আইও ২০১৭। ১১তম এই আয়োজনে যখন গুগল প্রধান নির্বাহী সুন্দর পিচাই হাজির হোন তখন মাউন্টেইন ভিউয়ের শোরলাইন এম্পিথিয়েটারে হাত তালির শব্দ জোরালো হয়ে ওঠে।

অনেকেই দাঁড়িয়ে তাকে স্বাগত জানান। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ৭ হাজারের বেশি ডেভেলপারদের হাততালিতে মুখরিত তখন হলরুম। অনেকেই আবার ছবি তোলায় ব্যস্ত হয়ে পড়েন।

ঠিক তখনই সবাইকে শুভ সকাল জানিয়ে সবাইকে গুগলের আইও কনফারেন্সে স্বাগত জানান। সুন্দর পিচাই বিশ্বে তার বক্তব্যের শুরুতেই জানিয়ে দেন, এখন বিশ্বে ২০০ কোটির বেশি সক্রিয় অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারী রয়েছে বলে জানান।

Google-IO-2017-Techshohor

আর তখনই হল ঘরটি ডেভেলপারদের চিৎকার আর আনন্দ-উল্লাসে পরিপূর্ণ হয়ে ওঠে।

তিন দিনের আয়োজনের শুরুর দিন ছিল বুধবার। সেদিন যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় সময় সকাল ১০টায় শুরু হয় বার্ষিক এই সম্মেলন।

সম্মেলনের শুরুর মূল উপস্থাপনায় গুগল সিইও সুন্দর পিচাই বলেন, নতুন প্রজন্মের হার্ডওয়ার টেনসর প্রসেসর ইউনিট যা সিপিইউ এর বিকল্প এবং মেশিন লার্নিং প্রযুক্তির জন্য ব্যবহার হবে।

এর পরেই তিনি গুগলের নতুন একটি উদ্যোগ গুগল লেন্সের ঘোষণা দেন। পরে তিনি ঘোষণা দেন নতুন প্রজন্মের জন্য ক্লাউড টিপিইউ বা গুগল কম্পিউটিং ইঞ্জিন।

পরে একে একে গুগলের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এবছরের নতুন নতুন সব প্রযুক্তি এবং পণ্যের ঘোষণা দিতে থাকেন।

যেসব প্রযুক্তি এবং পণ্যের ঘোষণা আসে সেগুলো হলো, নতুন অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেম ‘অ্যান্ড্রয়েড গো’, গুগল লাইট অ্যাপস গুগল ডট আই, ইউটিউব ৩৬০ টিভি অ্যাপ, ভিজুয়াল এ আই গুগল লেন্স, গুগল ফটোসের নতুন ফিচার আরও অনেক ফিচারের ঘোষণা দেয় কর্মকর্তারা।

Google-IO-2017-2-Techshohor

এবরই প্রথম কিনোট ছাড়াও ডেভলপার কিনোট সেশন রাখা হয় এই সম্মেলনে। যেখানে অ্যান্ড্রয়েড ইনস্ট্যান্ট অ্যাপস, টুইটার থেকে কিনে নেয়া ফ্যাব্রিক প্লাটফর্ম ছাড়াও প্রোগ্রামিং ভাষা কটলিন নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। কিনোটগুলো ছাড়াও প্রায় ১০০ সেশন, কমিউনিটি জোন এবং ট্রাই আউট জোন রয়েছে এবারের আইও-তে।

আইও কনফারেন্সে সবচেয়ে চমকপ্রদ ঘোষণা অন্যতম হচ্ছে, জাভার পাশাপাশি কটলিন দিয়ে নেটিভ অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ লেখার সুবিধা। ধারণা করা হচ্ছে, জাভার যুগ শেষ হবার ঘোষণাও এটি।

এছাড়া প্রতিটি পণ্যে কৃত্তিম বুদ্ধিমত্তা বা এআই আর মেশিন লার্নিং এর ব্যবহার এখানে চোখে পড়ার মতো।

Google-IO-Arif-Techshohor

আর অ্যান্ড্রয়েড থেকেও মুখ্য হয়ে ওঠা গুগল অ্যাসিস্টেন্ট প্রযুক্তি যা আইফোন থেকে শুরু করে টিভি সব জায়গাতেই যুক্ত করার চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

বাংলাদেশ থেকে গুগল ডেভলপার গ্রুপের আমিসহ তিনজন, উইমেন টেকমেকারস গ্রুপের লিড রাখশান্দা রুখাম এবং ব্র্যাক ও বুয়েটের দুজনসহ মোট ছয়জন গুগলের আমন্ত্রণে ডেভেলপার সম্মেলনে অংশ নিচ্ছি।

অনুলিখন – ইমরান হোসেন মিলন

*

*

Related posts/